ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ব্লগ

শর্ত প্রযোজ্য

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: বিষ্যুদ, ১৯/০১/২০১২ - ১০:৪৫অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

দি কুইক ব্রাউন ফক্স জাম্পস্ ওভার দা লেজি ডগ...

শর্ত প্রযোজ্য। ফক্স ব্রাউন হতে হবে, ব্লাক হলে হবে না। আবার কুইক হতে হবে, উইক হলে হবে না। তারপর লাফ একখানা দিতে হবে। ক্রেজি লাফ লেজি ডগের উপর দিয়ে । তবেই কেল্লাফতে। তার আগে না।


কাঁটা হেরি

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: সোম, ১২/০৯/২০১১ - ৯:৪৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আয় ছেলেরা, আয় মেয়েরা, ফুল তুলিতে যাই,
ফুলের মালা গলায় দিয়ে...

ফুলের মালা যেমনি দখল করেছে গলা, তেমনি ফুল দখল করেছে চুল, নাক(নাকফুল), কান(কানের দুল)। ফুল আর কাঁটা, যদিও অবস্থান তাদের কাছাকাছি, তবুও ফুলের জায়গায় কাঁটা হলেই বিপত্তি। গলায় ফুল না উঠে কাঁটা ফুটলে পরিস্থিতির বিস্তৃতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সে কথাই বলবো আপনাদের।


অধরা

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: বুধ, ০৩/০৮/২০১১ - ৯:১৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

- একটা গান গাওনা।
- গান!!!
- হুঁ, গান। মনে হয় আকাশ’তে পড়লা। ‘গান’ নামক কোন বস্তু জীবনে শুনো নাই। সারাক্ষণইতো গুনগুন করতে থাক।
গান কোন বস্তুর মধ্যে পড়ার কথা না। আমি গাইলে বোধহয় পড়ে।
- জো হুকুম মহারাণী।
আমি গান ধরলাম-

ময়ুরকন্ঠী রাতেরও নীলে, আকাশে তারাদের ঐ মিছিলে
তুমি আমি আজ, চলো চলে যাই
শুধু দুজনে মিলে...


আমার কলম

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: মঙ্গল, ২৬/০৭/২০১১ - ৯:৪৯অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

হাতের লেখা সুন্দর হইলে পরীক্ষায় অধিক নম্বর পাওয়া যায়...

কথা সত্য। আমার আবার হাতের লেখা আর পায়ের লেখা প্রায় কাছাকাছি। ফলে অনধিক নাম্বার বা ধিক নাম্বার নিয়েই ছাত্রজীবন কেটেছে। লেখা সে যাই হোক, পরীক্ষার খাতায় কিংবা সচলের পাতায়, কোথাও সুন্দর করতে পারিনি নিজেকে। সাফল্য নেই মোটে। মোটামুটিই ছিল সবসময়।


বেশি মালে বেসামাল...

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: সোম, ২৫/০৭/২০১১ - ১২:০৪পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

মালখানগরের মলয় মাল মালবাহী গাড়ি থেকে মাল্টিকালারের ব্যাগে মালামাল পুরে, গোলমাল সামাল দিয়ে, রাস্তায় কামালের রিকশায় করে জামালের যমালয়ে পৌঁছে, খামালে জমা দিয়ে সে মাল, রুমালে কপাল মুছলেন। (মুরুব্বি দম লন...)


রোবট

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: বুধ, ২০/০৭/২০১১ - ২:২৯পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আরেকটি দিনের শুরু। সূর্যের প্রথম মিষ্টি আলো। হিমহিম ঊষ্ণতা। পাখিদের কিচিরমিচির। এক চিলতে উঠোনে মোড়া পেতে বসে আছি। ঝিরিঝিরি বাতাস। বাতাসে অচেনা ফুলের গন্ধ। আহ, কি প্রশান্তি! সামনের ছোট্ট পুকুরটাতে মাছেদের খুনসুঁটি। জামরুল গাছটিতে একটি শ্যামা ঠুকরে ঠুকরে ফল খাচ্ছে। কি অপার সৌন্দর্য!


লাগামহীন পাগলা ঘোড়া

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: সোম, ১১/০৭/২০১১ - ৯:০০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আমার পাগলা ঘোড়ারে, কই থেইকা কই লইয়া যাও...


অনন্তকাল ধরে...

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: সোম, ০৪/০৭/২০১১ - ৮:২৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ঘুমিয়ে থাকো গো সজনী...

এই একটাই চাওয়া। আর কোন চাওয়া নেই। জেগে থাকলেই রেগে থাকেন। আবেগে, সবেগে, স্ববেগে কটুবাক্য ভাঁজতে থাকেন। কাঁহাতক সহ্য করা যায়। তবে তাকেও পুরোপুরি দোষ দেই না। দোষ আমার ভাগ্যের। দুর্ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস! সম্প্রতি দম্পতি হয়েই বুঝেছি। দুজনেই।


মামাতো দুঃখ

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: সোম, ২৭/০৬/২০১১ - ৯:০৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

‘মা’ ডাকটা সুন্দর। কিন্তু দু’বার ডাকলে? মানে ‘মামা’ ডাকটা? বোধহয় আপেক্ষিক। যখন নিজে ডাকি, তখন সুন্দর। যখন অন্যে আমাকে ডাকে, তখন মনে হয়- এর চেয়ে খারাপ সম্বোধন বুঝি আর নেই। আগে বুঝতে পারিনি। এখন বুঝি। মামার দুঃখ এখন আমার দুঃখ। ছোটবেলায় মামাকে পেলেই খালি আবদার করতাম। মামাবাড়ির আবদার। মামা বেচারা ভাগ্নের আবদার রক্ষা করতো চোখ বুঁজে। এখন মামার সেই কষ্টটা বুঝি। দায়ে পড়েই বুঝি।


একটুখানি ভালোবাসা

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি
লিখেছেন ইস্কান্দর বরকন্দাজ [অতিথি] (তারিখ: সোম, ২০/০৬/২০১১ - ১০:০২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ভালোবেসে সখী, নিভৃতে যতনে আমার নামটি লিখ তোমার মনেরও মন্দিরে...

লিখতেই হবে। উপায় নাই। না লিখলেই যত অনাসৃষ্টি। লিখে রাখতেই তো চাই। তবে পারছিনা কেন? ইদানিং প্রেমগুলো কেমন যেন। টিকছে না। বোধহয় সত্যিকারের ভালোবাসতে পারছি না। আমার ধারনা ছিল ভালোবাসা মানসিক বিষয়। এখন দেখছি শারীরিক। পার্ক কিংবা রেস্টুরেন্ট নয়, বাসাতেই ভেন্যু। ভালোবাসা বলে কথা।