সচলায়তনে ঝরে যাওয়া বিষয়াদির লগ

সন্দেশ এর ছবি
লিখেছেন সন্দেশ (তারিখ: বুধ, ০৬/০৫/২০০৯ - ৫:৪৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সুস্থ পরিবেশ ও কিছু মূলনীতি বজায় রাখার স্বার্থে সচলায়তন ব্লগে মডারেশনের চর্চা করা হয়। মডারেশন-সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তসমূহ এই পোস্টে নথিবদ্ধ করা হবে।

মডারেশনের আওতাধীন পোস্টের শিরোনাম, কোন মডারেটর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, এবং সেই সিদ্ধান্তের পেছনে তাঁর ব্যক্তিগত বিবেচনা কী ছিলো, তা লিপিবদ্ধ থাকবে।

বিভিন্ন সময় ঝরে যাওয়া ও মডারেশনের আওতায় আনা সদস্যদের তালিকা এই পোস্টে যুক্ত থাকবে। সদস্যদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত মডারেটরদের মধ্যে আলোচনার পর গৃহিত হয়। মডারেটরদের সিদ্ধান্তের পেছনের সংক্ষিপ্ত কারণ এই পোস্টে ব্যাখ্যা করা হবে।

মডারেটেড মন্তব্যের কোনো লগ রাখা হবে না।

এই পোস্টের লিংক নীড়পাতার নিচে সংযোজিত হবে।


ঝরে যাওয়া অতিথির লগ

১) রূপক কর্মকার
২) নাজনীন সুপ্তি
সিদ্ধান্তঃ সক পাপেটিং-এর কারণে আতিথ্য বাতিল করা হলো।

উল্লেখকৃত দু'জনেই প্রকৃতপক্ষে এক ব্যক্তির ব্যবহৃত দু'টি ছদ্মপরিচয়। দু'জনেই কবি আবু হাসান শাহরিয়ারের ভক্ত পরিচয়ে সচলে পোস্ট করা শুরু করেন, একে অপরের ও কবি আবু হাসান শাহরিয়ারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠেন, এবং সচল সদস্যদের সাথে বিবাদে লিপ্ত হন। সক পাপেটিং-এর অভিযোগ উত্থাপিত হবার পর তদন্তে এর সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় দু'টি নিকই ব্লক করা হয়।

৩) জুলফিকার কবিরাজ
তারিখ: রবি, ২০০৯-০৫-২৪
সিদ্ধান্তঃ উগ্র আচরণের কারণে আতিথ্য বাতিল করা হলো।

প্রেক্ষিতঃ সচলায়তনে অতিথিদের নিজের পোস্ট সম্পাদনার অধিকারটি দীর্ঘদিন ধরে রহিত আছে। বিস্তারিত কারণ এখানে জানা যাবে। জুলফিকার কবিরাজ অতিথি সচলদের এই সীমিত অধিকার নিয়ে একটি উগ্র লেখা সচলায়তনে পোস্ট করেন, যা অপ্রকাশিত রয়ে যায়। তিনি যে মনোভাব ব্যক্ত করেছেন, তা সচলায়তনের পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। যে অতিথি কোনো বিষয়ে সংশয় দেখা দিলে সংশ্লিষ্টদের জিজ্ঞাসা না করেই একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছান, এবং তদনুযায়ী ধমকানো শুরু করেন, সচলায়তনে তাঁর আতিথ্য দীর্ঘায়িত করা সম্ভব নয়। মডারেটরগণ নিজেদের মধ্যে আলোচনার ভিত্তিতে তাঁর অতিথি অ্যাকাউন্টটি নিষ্ক্রিয় করার সিদ্ধান্ত নেন। এ প্রসঙ্গে স্মর্তব্য যে রেটিং, জরিপ, ও সম্পাদনা – এই তিনটি অধিকার অতিথি লেখকদের অ্যাকাউন্টে নেই।

৪) শাহ আসাদুজ্জামান
সিদ্ধান্তঃ নীতিমালা সংক্রান্ত বিরোধের জন্য আতিথ্য বাতিল করা হলো।

নীতিমালা সম্পর্কে অযাচিত উপদেশঘটিত বিবাদের কারণে তাকে ব্লক করা হয়। সময়ের সাথে নীতিমালা বিবর্তনের দরজা খোলা থাকলেও কিছু মৌলিক অবস্থানের সাথে আপোষ সম্ভব নয়। আতিথ্য গ্রহণকারী সচলদের এই নীতিমালা পূর্ণাঙ্গভাবে মেনে চলার বিকল্প নেই। এটি অতিথিদের সচলায়তনের পরিবেশ ও সদস্যদের সাথে পরিচিত হতে সাহায্য করে। এ-কারণে অতিথিদের জন্য মেটা-ব্লগিং কঠোরভাবে নিরুৎসাহিত করা হয়।

৫) রিয়াজ উদদীন
তারিখ: বুধ, ২০১০-০৩-২৪
সিদ্ধান্তঃ যুদ্ধাপরাধী ও জঙ্গি গোষ্ঠীর পক্ষে বক্তব্য রাখার কারণে আতিথ্য বাতিল করা হলো।

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বক্তব্যের ফাঁকে সুকৌশলে যুদ্ধাপরাধী ও জঙ্গি গোষ্ঠীর পক্ষে বক্তব্য রাখার কারণে সদস্যদের পুনরাবৃত্ত অনুযোগের প্রেক্ষিতে রিয়াজউদদীনের অ্যাকাউন্ট নিষ্ক্রিয় করা হলো।

৬) শাফক্বাত
সিদ্ধান্তঃ সক পাপেটিং-এর কারণে আতিথ্য বাতিল করা হলো।

অতিথি শাফক্বাত "রিখি" নিক ব্যবহার করে সচলে সক-পাপেটিং শুরু করেন। অভিযোগ উত্থাপিত হবার পর এর সত্যতা পাওয়া গেলে তাঁর অতিথি অ্যাকাউন্ট ব্লক করা হয়।

৭) পাগল মন
অক্টোবর ০৩, ২০১১
সিদ্ধান্তঃ সচলায়তনের মূল স্পিরিটের সাথে মেল বন্ধনের অভাবে আতিথ্য বাতিল করা হলো।

৮) সবুজ পাহাড়ের রাজা
অক্টোবর ২২, ২০১২
সিদ্ধান্ত: সক পাপেটিং, সহসচলকে আক্রমণ ও সচলায়তনের মূল স্পিরিটের সাথে মেলবন্ধনের অভাবে আতিথ্য বাতিল করা হল ।

hr>

বহিষ্কৃত সচলদের তালিকা

১। জামাল ভাস্কর
২। ইমরুল হাসান

জামাল ভাস্কর ও ইমরুল হাসান প্রাথমিক অবস্থায় সুমন রহমানের ব্লগে সক-পাপেটিং করেন। অনুসন্ধানের পর এ-ব্যাপারে তাঁদের সতর্ক করা হলে তাঁরা তা অস্বীকার করেন। এর কিছুদিন পর সচলায়তনে ডুয়াল-পোস্টিং বিরোধী নীতিমালা প্রণয়ন করা হলে তাঁরা দু’জনেই তা মানতে অস্বীকৃতি জানান। এর আলোকে তাঁদের সদস্য অ্যাকাউন্ট ব্লক করা হয়।

৩। সুমন রহমান

জামাল ভাস্কর ও ইমরুল হাসান সক-পাপেটিং-এর সাথে জড়িত থাকার কথা সুমন রহমান প্রকারান্তরে স্বীকার করেন। ভাস্কর ও ইমরুল বহিষ্কৃত হওয়ার পর তিনি সচলায়তনের মডারেটরদের কাছে বার্তা পাঠিয়ে মডারেটরবৃন্দে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার অভিলাষ ব্যক্ত করেন। অন্যথায় তিনি ব্লগ ছেড়ে চলে যাওয়ার প্রচ্ছন্ন ইঙ্গিত দেন। এ হুমকি বার্তা পেয়ে তাঁকে পত্রপাঠ বহিষ্কার করা হয়।

৪। রাসেল

সচল সদস্য শিক্ষানবিসকে বিনা উস্কানিতে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করার কারণে রাসেলকে বহিষ্কার করা হয়।

৫। সিরাত
সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১১
সচলায়তনের সাথে সাংর্ঘষিক বিষয় যুদ্ধপরাধ, মৌলবাদ এসব বিষয়কে সফট কর্ণার থেকে পর্যালোচনা করে একধিকবার (, , , ) সচলায়তনে লেখা দেন সিরাত। এসব বিষয়ে তার অ্যাপোলোজেটিক টোন সচলায়তনের মূল লক্ষ্যের সাথে সাংঘর্ষিক বিধায় তাকে তার অবস্থান পরিষ্কার করতে একাধিকবার সুযোগ দেয়া হয়। কিন্তু তিনি সেটা করতে নিয়মিত ব্যর্থ হন। এ অবস্থায় কনফ্লিক্ট অব ইন্টারেস্ট সমাধানের নিমিত্তে এই সচলের একাউন্ট ব্লক করা হলো।

৬। সাইফ শহীদ

সচলায়তনের মূলনীতির সঙ্গে সাংঘর্ষিক বক্তব্যের কারণে সাইফ শহীদকে সচলায়তন বিদায় জানিয়েছে। তবে এ বক্তব্য তিনি সচলায়তনে দেননি, ফেসবুক ও অন্যান্য ব্লগে দিয়েছেন। সচল সদস্য পরিচয়ের ভার থেকে তাই তাঁকে মুক্ত করা হলো।


মডারেশনের আওতায় অন্তর্ভুক্ত সচলদের তালিকা

১। জাহেদ সরওয়ার
তারিখ: রবি, ২০০৯-০৯-২৯
সিদ্ধান্তঃ উগ্র আচরণের কারণে সদস্যকে অনির্দিষ্টকালের জন্যে মডারেশনের আওতায় আনা হলো।

প্রেক্ষিতঃ জাহেদ সরওয়ার রোমান পোলানস্কির গ্রেফতারের প্রতিবাদ জানিয়ে একটি পোস্ট করলে কয়েকজন সচল গ্রেফতারের কারণটি জানিয়ে পোস্ট করেন, এবং কোনো খোঁজখবর না নিয়ে পোস্ট করার সমালোচনা করেন। এর প্রত্যুত্তরে জাহেদ মন্তব্যকারীদের আক্রমণ করেন এবং অশালীন তিরস্কার করেন। উল্লেখের অযোগ্য বিভিন্ন মন্তব্যের মাঝে রেকর্ডের স্বার্থে একটি এখানে লিপিবদ্ধ হলো।

এখানে গবেষণা করে পোষ্ট দিতে হবে কেন? বুঝলাম না। ব্লগতো বাথরুমের মতো। বাঙ্গালী ভাল বাথরুমের দেয়াল পেলে কি করে জানা আছে তো?

যিনি ব্লগ তথা সচলায়তনকে শৌচাগারের সমতুল্য মনে করেন, তাঁকে সচলায়তন আর সদস্য হিসেবে ধারণ করতে সম্মত নয়।

২। তানবীরা
তারিখ: রবি, ২০০৯-১০-১১
সিদ্ধান্তঃ সাম্প্রদায়িক বক্তব্যের জন্য সদস্যকে অনির্দিষ্টকালের জন্যে মডারেশনের আওতায় আনা হলো

প্রেক্ষিতঃ
তানবীরা একাধিকবার মন্তব্যে এবং লেখায় অন্য একটি ধর্মের প্রতি বিদ্বেষ প্রকাশ করেছেন। সর্বশেষ এই লেখায় পরিষ্কার ভাবে এই বিদ্বেষ ফুটে ওঠে। সাম্প্রদায়িক মনোভাবের বিরুদ্ধে সচলায়তনের স্পষ্ট অবস্থানের কারণে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

এ ব্যাপারে সচলায়তন কিছুটা সময় নেয় দুটি কারণে:
ক) তানবীরাকে আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য সময় দেয়া। দুঃখের বিষয়, তিনি এখন পর্যন্ত উদ্ভূত পরিস্থিতির নিরসনের জন্যে কোন পদক্ষেপ নেননি।
খ) উত্তপ্ত পরিস্থিতি ঠান্ডা হবার সময় দেয়া।

যিনি অসাম্প্রদায়িক চিন্তাধারা পোষণ করেন না, তাকে ধারণ করতে সচলায়তন সম্মত নয়।

৩। ফারুক ওয়াসিফ
সিদ্ধান্তঃ মডারেটরের সাথে বিরোধ ও পরবর্তীতে বিদ্বেষমূলক আচরণের কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য অ্যাকাউন্ট মডারেশনের অধীনে আনা হলো।

প্রেক্ষিতঃ পোস্টে সংযুক্ত ছবি পরিমার্জন নিয়ে আলাপচারিতার এক পর্যায়ে ফারুক ওয়াসিফ ও একজন মডারেটর তর্কে জড়িয়ে পড়েন। তর্কের এক পর্যায়ে ফারুক ওয়াসিফের বক্তব্য আপত্তিকর বিবেচিত হয়, এবং তাঁর অ্যাকাউন্ট সাময়িক ভাবে মডারেশনের আওতায় আনা হয়। উদ্ভূত পরিস্থিতি নিরসনে কোনো স্বাভাবিক পন্থা অবলম্বন করার পরিবর্তে ফারুক ওয়াসিফ অন্যান্য প্ল্যাটফর্মে সচলায়তন সম্পর্কে বিদ্বেষপ্রসূত ও বানোয়াট বক্তব্য প্রকাশ করেন। এর আলোকে ফারুক ওয়াসিফের অ্যাকাউন্টটি মডারেশনের আওতায় আনা হয়।

৪। কারুবাসনা
সিদ্ধান্তঃ অন্তরালের রাজনীতির প্রেক্ষিতে উস্কানীমূলক পোস্ট, দীর্ঘদিন ধরে নিয়মিত রেটিং অ্যাবিউজের কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য অ্যাকাউন্ট মডারেশনের আওতায় আনা হল।

৫। মাসকাওয়াথ আহসান
সিদ্ধান্তঃ দীর্ঘদিন যাবত মডারেশনের সতর্কবার্তা উপেক্ষা করে সচল ও অতিথিদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ ও মেটাব্লগিঙের প্রেক্ষিতে অনির্দিষ্টকালের জন্যে অ্যাকাউন্ট মডারেশনের আওতায় আনা হল।

৬। অছ্যুৎ বলাই
সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১১
এই পোস্টে সহসচলকে কুৎসিত ভাষায় গালাগালির কারনে কারন দর্শানো সহ অনির্দিষ্টকালের জন্য একাউন্ট মডারেশনের আওতায় আনা হলো হলো।


সচল থেকে স্বেচ্ছায় বিদায় নেয়া অতিথি ও সদস্যদের নাম

১। সুশান্ত
২। অলৌকিক হাসান
৩। নুশেরা
৪। মনজুরাউল
৫। নিঝুম
৬। তমিজউদদীন লোদী
৭। ওয়াইল্ড স্কোপ


শাস্তির আওতায় সদস্য
১। সাইফুল আকবর খান - উস্কানীমূলক মন্তব্য - জুন ১৬ থেকে জুন ২৩, ২০১০

২। সবুজ বাঘ - সহসচলদের ব্যক্তি আক্রমণ - জুন ১৬ থেকে জুন ৩০, ২০১০

৩। s-s - সহসচলদের ব্যক্তি আক্রমণ, মডারেশনের কর্তৃত্বকে অস্বীকারের চেষ্টা এবং ব্যক্তি ব্লগারকে মডারেটর সাব্যস্ত করে আক্রমণ - জুন ১৬ থেকে জুন ৩০, ২০১০

৪। হিমু - সহসচলদের ব্যক্তি আক্রমণ - জুন ১৬ থেকে জুন ৩০, ২০১০

৫। অনিকেত - সহসচলদের ব্যক্তি আক্রমণ - জুন ১৬ থেকে জুন ২৩, ২০১০

৬। সুবিনয় মুস্তফী - সচলায়তনের মডারেশনের বিরুদ্ধে অন্তরালের রাজনীতি ও জনসংযোগ - জুন ১৬ থেকে ডিসেম্বর ১৬, ২০১০

৭। মামুন হক - সচলায়তনের মডারেশনের বিরুদ্ধে অন্তরালের রাজনীতি ও জনসংযোগ - জুন ১৬ থেকে ডিসেম্বর ১৬, ২০১০। (আপডেট: জুন ২০, ২০১০ এ প্রাপ্ত মামুন হকের অনুরোধের প্রেক্ষিতে তার একাউন্টটি নিষ্ক্রিয় করা হল।)


মডারেশনে ঝরে যাওয়া পোস্টের লগ

  1. নিঃসঙ্গ তারা - অবসরবিহীন তারিখ: শুক্র, ২০০৯-০৫-০৮ ০৩:৪৪
    সিদ্ধান্ত: একই সাথে অন্যত্র প্রকাশিত http://www.cadetcollegeblog.com/muyeed/9263
    শুক্র, ৮/০৫/০৯ – ৪:৩৬ অপরাহ্ন
    মডু: আসমানী-মডু

  2. ঘরের মানুষ কই আমায় জ্বীনে ধরেছে-অতিথি লেখক তারিখঃ(তারিখ: শনি, ২০০৯-০৫-১৬ ০৯:৪৯)
    সিদ্ধান্তঃ মানসম্মত নয়
    মডুঃ লাল-মডু

  3. আমাদের সমন্বিত মূর্চ্ছনার আয়ুর্বেদ ইতিহাস - সুমিন শাওন তারিখঃ সোম, ২০০৯-০৫-২৫ ০৭:২৪
    সিদ্ধান্তঃ একই সাথে অন্যত্র প্রকাশিত
    http://www.somewhereinblog.net/blog/suminsawon/28955184
    ২৪ শে মে, ২০০৯ রাত ১০:০৮
    মডুঃ বেগুনী-মডু

  4. ভালবাসা - মেঘলা জীবন তারিখ: মঙ্গল, ২০০৯-০৫-২৬ ১১:২৬
    সিদ্ধান্তঃ একই সাথে অন্যত্র প্রকাশিত
    http://prothom-aloblog.com/users/base/meghlashomoy/2
    ২৭ শে মে, ২০০৯
    মডুঃ বেগুনী-মডু

  5. অপচিকিৎসা থেকে মূক্ত থাকূন!! তারিখ: শুক্র, ২০০৯-০৫-২৯ ০২:১৩
    সিদ্ধান্তঃ একই সাথে অন্যত্র প্রকাশিত
    http://www.somewhereinblog.net/blog/Onigiri/28957392
    ২৯ শে মে, ২০০৯ দুপুর ১:৫০
    মডুঃ আসমানী-মডু

  6. ‘সুলতা বনাম বনলতা’ একটি তুলনামূলক কাব্য বিশ্লেষণ তারিখ: রবি, ২০০৯-০৫-৩১
    সিদ্ধান্তঃ একই সাথে অন্যত্র প্রকাশিত
    মডুঃ সাদা-মডু

  7. ব্রম্মপুত্রে চীনের বাধ আর টিপাইমুখী। প্রতিবাদের এক ভাষা...। তারিখ: বুধ, ২০০৯-০৬-১০ ২১:০২
    সিদ্ধান্তঃ মানসম্মত নয়। (সংক্ষিপ্ত কয়েক লাইনের পোস্ট, সঙ্গে একটা বাইরের পোস্টের লিংক দেয়া)
    মডুঃ আসমানী-মডু

  8. "তবুও বৃষ্টি আসুক"গ্রন্থে ‘সুলতা’ প্রসঙ্গ তারিখ: বিষ্যুদ, ২০০৯-০৬-১৮ ০২:৪৮
    সিদ্ধান্তঃ একই সাথে অন্যত্র প্রকাশিত
    ১৮ ই জুন, ২০০৯ সকাল ১১:৫২
    http://www.somewhereinblog.net/blog/sfk505/28966232
    মডুঃ আসমানী-মডু

  9. নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। তারিখ: রবি, ২০০৯-০৭-১২ ০৮:১৭
    সিদ্ধান্ত: সচলায়তনকে তোষামোদ করে এবং খানিকটা খোঁচা দিয়ে অহেতুক ১০টি লাইন।
    মডুঃ আসমানী-মডু

  10. জিততে পারবে কি বাংলাদেশ? তারিখ: রবি, ২০০৯-০৭-১২ ১৪:৫০
    সিদ্ধান্ত: একই সাথে অন্যত্র প্রকাশিত
    ১৩ ই জুলাই, ২০০৯ ভোর ৪:৩২
    http://www.somewhereinblog.net/blog/firozchoudhury/28977529
    মডুঃ আসমানী-মডু

  11. সস্তা দেহজ বিজ্ঞাপনে.......তোমরা xxx / রুবেল শাহ্ তারিখ: সোম, ২০০৯-১১-০৯ ০২:৫৬
    সিদ্ধান্ত: একজন সেলিব্রিটিকে ব্যক্তিগত আক্রমন।
    মডুঃ আসমানী-মডু


মন্তব্য

রানা মেহের এর ছবি

এর খুব দরকার আছে কি?
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

বিপ্লব রহমান এর ছবি


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

এনকিদু এর ছবি

দরকার নাই।
"না" ভোট দিলাম।


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...

হাসান মোরশেদ এর ছবি

আমার মনে হয়, দরকার আছে । মডারেটরদের আত্নরক্ষার সুযোগ দেয়া দরকার । চাপে পড়লে যাতে বেচারারা জবাবদিহি করার সুযোগ পায় ।
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- জবাবদিহিটা আসলে কার কাছে করা উচিৎ দাদা? সচলদের কাছে নাকি যার পোস্ট প্রকাশিত হলো না তাঁর কাছে? যদি দ্বিতীয়টা উত্তর হয় তাহলে এই লগটাকে সচলায়তনের প্রথম পাতায় লটকে দিয়ে প্রথম পাতাকে ভারী করার যুক্তিটা কোথায়?

এটা না করে বরং এমনটা করা যেতে পারে (যদি নিতান্তই মডুরামরা তাঁদের দায়বদ্ধতা থেকে বাঁচাতে চান), যে সম্মানিত লেখকের লেখা মডারেশন পার হতে সক্ষম হলো না তাঁকে ছোট করে একটা চিঠি দেয়া যায়। এটা স্বয়ংক্রিয় বা হস্তচালিত- দুইভাবেই করা যায় হয়তো। কারণ কী কী কারণে পোস্ট গুলো ঠিক সচলায়তনে প্রকাশোপযোগী না সেটা বোধহয় খুব সুন্দর করে বলা আছে। তো এধরণের পোস্টের মডারেশন প্যানেলের নিচে দুইটা অপশন থাকতে পারে,

এক. প্রকাশের উপযুক্ত [আল্লার নামে ছাইড়া দাও]
দুই. প্রকাশের অনপুযুক্ত
ক) কারণ এক্স - [লেখককে চিঠি দাও]
খ) কারণ ওয়াই- [লেখককে চিঠি দাও]
গ) কারণ জেড- [লেখকে চিঠি দাও]

এই কাজটা তো ব্যাকএণ্ডেই ঘটতে পারে। এরজন্য সচলের প্রধান পাতায় ঝরে যাওয়া পোস্টের লগ দেখতে আমার অন্তঃত ভালো লাগবে না।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

হাসান মোরশেদ এর ছবি

অপ্রকাশিত পোষ্টের ক্ষেত্রে তোর যুক্তি ঠিকাছে ।

আর কিছু বিষয় মেনে চললে তো সচলায়তনে লেখা অপ্রকাশিত হবার ও কথা নয় । এখানে তো মডারেটর রা লেখার সাহিত্য মান যাচাই বাছাই করে না । ডুয়েল পোষ্টিং, সাম্প্রদায়িকতা, মুক্তিযুদ্ধবিরোধীতা এইসব কিছু খেয়াল রাখলেই তো হয় ।
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

হিমু এর ছবি

মডারেটর হিসেবে এই নিকে আবার একটা শেষ কথা বলি। সাহিত্যমান বিচার করা হয় না, কথাটা ঠিক না। ছাইপাঁশ অনেক কিছু আসে সাহিত্যের প্যান্টালুন পরে। কিছু তো ফিল্টার হয়ই। প্রচুর অখাদ্য কবিতা মোছা হয়। প্রচুর ভুল বানানে ভরা গল্প মোছা হয়। প্রচুর দুখপাঠ্য দিনলিপি মোছা হয়। কেউ যদি জিজ্ঞেস করে, যারা এগুলি মোছে তাদের যোগ্যতা কি, উত্তর একটাই, তাদের কোন যোগ্যতা নাই, তারাও প্রশ্নকারীর মতোই অযোগ্য লোক, চাচামামার জোরে মডারেশন করতেছে।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

হাসান মোরশেদ এর ছবি

হাফ প্যান্টালুন পরা এইসব হিসাবের বাইরে -বাই ডিফল্ট
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

আসমানী-মডু এর ছবি

দুঃখিত, কিন্তু আপনি সাধারন সদস্য হয়ে মডারেটর সুলভ কথা বার্তা বললে আপনাকে ব্যান করতে বাধ্য থাকব।

হিমু এর ছবি
রণদীপম বসু এর ছবি

হা হা হা ! মজা পাইলাম !

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

অবাঞ্ছিত এর ছবি

আমার মতন বেক্কল প্রজাতির ইয়ে দের জন্যে দরকার আছে মনে হয়। (লজ্জিত ইমো)

মাসে গড়ে আমার একটা লেখা/পোস্ট ঘ্যাঁচাং যায়।

যেইটা হইতো সেইটা হইলো যে কেনো পোস্টগুলা ঘ্যচাং যাইতেসে তা বুঝতারতাম না। সবসময় ইমেইল করে কারন চেয়ে বিব্রত করতে নিজেরই লজ্জা লাগতো। মডারেটরদের এত ব্যস্ততার মধ্যেও তবু আমার প্রায় সব মেইলেরই উত্তর এসেছে, যার জন্যে আমি কৃতজ্ঞ।

তবে যেহেতু এইটা একটু অপমানজনক লাগতে পারে অনেকের কাছে, ঘটনাটা গোপনে ঘটানো যায়না? একদম জনসমক্ষে না এনে একটু ব্যক্তিগত ভাবে জানায় দিলে মনে হয় সব দিকই রক্ষা হইতো। আর একান্তই সম্ভব না হইলে লেখক/লেখিকার নাম গোপন রেখে কি তা করা সম্ভব?

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

ঘরের খেয়ে বনের মোষ তাড়ানো মডুরা এবার জবাবদিহিতার খপ্পরে পড়লো... 'আমার পোস্ট পাব্লিশ হইলো না ক্যা' 'আমার কমেন্ট মুছলা ক্যা' 'আমার কবিতা জীবনানন্দ দাশের চেয়ে ভাল, এপ্রুভ করলা না ক্যা?'
জবাব দ্যাও...দ্যেতি হবে

গুড লাক মডুসমগ্র...

রানা মেহের এর ছবি

কেউ কি আমাকে এর দরকারটা বুঝিয়ে বলবেন?
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

হাসান মোরশেদ এর ছবি

উদাহরন যেমনঃ- আজকের ঘটনা
প্রথম ভুল- যে মডারেটর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি নিজের নামে তা করেছেন
দ্বিতীয় ভুল- যেসব মন্তব্য ঘিরে এই সমস্যার সৃষ্টি মডারেটর সেইসব মন্তব্য মুছে দিয়েছেন অথচ তার নিজের আক্রমনাত্নক মন্তব্য রয়ে গেছে, আলাদা করে শুধু এই মন্তব্যটি পড়লে বিষয়টি ননসেন্স মনে হবেই । এটাকে পুঁজি করে নানাদিকে ত্যানা প্যাঁচানো ।
যদি সমস্যাযুক্ত পোষ্ট সকল মন্তব্যসমেত লগবুকে থাকতো তাহলে পুরো ঘটনা স্পষ্ট বুঝা যেতো ।

এই স্বচ্ছতার দরকার আছে । একজন সাধারন সচল কিংবা মডু দুজনের নিরাপত্তার জন্যই ।
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

নুরুজ্জামান মানিক এর ছবি


এই স্বচ্ছতার দরকার আছে । একজন সাধারন সচল কিংবা মডু দুজনের নিরাপত্তার জন্যই ।

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

হিমু এর ছবি

আপনাকে বিভিন্ন জায়গায় দেখে মাঝেমাঝে খুব আমোদ পাই। কেমন আছেন মানিক ভাই?



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

যেই মডুরা এত সুন্দর সচলায়তন দিলেন, আজকে এভাবে তাঁদের ন্যাংটা করে পথে নামানোটা ভাল লাগছে না।

ধুগো দা'র সাথে একমত। অতিথি হিসেবে জমা দেওয়া লেখা ছাপা না হলে তার কারণ লেখককে স্পষ্ট ভাবে জানানোর ব্যবস্থা থাকুক।

এছাড়া যেকোন প্রকার "ঘ্যাচাং" বা "সম্পাদনা"র একটি লগ থাকুক। এই লগ থাকুক নিভৃতে। এটা সবার জানার প্রয়োজন নেই। শুধু কোন ঝামেলা হলে প্রকাশের জন্য নথি থাকুক।

অনিকেত এর ছবি

যেই মডুরা এত সুন্দর সচলায়তন দিলেন, আজকে এভাবে তাঁদের ন্যাংটা করে পথে নামানোটা ভাল লাগছে না।

সুন্দর সচলায়তন তাহলে কেবলি মডুদের অবদান???
তাই তোমার মনে হয় ইশতি???

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

কথাটা ইশতিকে জিজ্ঞেস করেছেন, মাঝে নাক গলানোর জন্য ক্ষমাপ্রার্থী।

এখানে "মডুরা এত সুন্দর সচলায়তন দিলেন" বলতে সাইট ডেভেলপমেন্টের কথা বুঝানো হয়েছে বলেই ধারণা করি।

বিগত ১৪/১৫ ঘন্টা সচলের মডু নিয়ে অনেক বাহাস গেছে। এখন ইশতির কমেন্টের 'শব্দ' ধরে টুইস্ট না করলে হয় না, অনিকেত?

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

r

নীড় সন্ধানী এর ছবি

অতিথি হিসেবে বলি। জবাবদিহিতার ব্যাপারটা ভালো। কিন্তু প্রথম পাতায় পোষ্টের আকারে জবাবদিহিতা একটু বেশী বেশীই লাগে। এত গনতন্ত্র ভালো না। কেন ঘ্যাচাং হলো যদি জানাতেই হয় সেটার জন্য একটা লিংক রাখলে জনগন লিংকে ক্লিক করে জেনে নেবেন। প্রথম পাতার জায়গা নষ্ট করার মানে হয় না।

[টীকা: মাঝে মাঝে পোষ্ট ঘ্যাচাং হওয়া একটা ভিটামিন স্বরূপ। এতে লেখনীশক্তি বৃদ্ধির তাগিদ থাকে, যা খুবই স্বাস্থ্যকর]

‍‌-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-
সেই সুদুরের সীমানাটা যদি উল্টে দেখা যেত!

‍‌-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.--.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.
সকল লোকের মাঝে বসে, আমার নিজের মুদ্রাদোষে
আমি একা হতেছি আলাদা? আমার চোখেই শুধু ধাঁধা?

আসমানী-মডু এর ছবি

সাময়িক অস্বস্থি হলেও শেষতক এর দরকার আছে।

পুরুজিত এর ছবি

আমার মনে হয় বর্তমান ব্যবস্থা পুরোপুরি না বদলে ফেলে একটা আপিল কাঠামো চালু করা যেতে পারে। যে লগ টা প্রস্তাব করা হল তা গোপনই থাকুক। কিন্তু আপিল করা হলে আপিল বোর্ড চাইলে তা দেখতে পারবে। এতে দৈনন্দিন পরিচালনা বাধাগ্রস্ত হবে না আবার চাইলে মডুদের কোন বিতর্কিত সিদ্ধান্ত ফিরে দেখারও সুযোগ থাকবে।

দ্রোহী এর ছবি

[একই মন্তব্য দুইবার পোস্ট হয়েছে। নীচের মন্তব্য দ্রষ্টব্য]

দ্রোহী এর ছবি

"না" ভুট দিলাম ও ধুগোর মন্তব্যের সাথে একমত পোষন করলাম।

পলাশ দত্ত এর ছবি

এইরকম লগ তৈরির বিপক্ষে সুযোগ থাকলে ১০০০ ভোট দেবো একাই। কার পোস্ট কেন কী করা হলো তা পোস্টারের (মানে যিনি পোস্ট করেছেন) জানা থাকাই যথেষ্ট। এই বিষয়ে সচল থেকে পোস্টারের সঙ্গে কথা আদান-প্রদান হতে পারে। কিন্তু এইভাবে লগ তৈরি নয়। মডারেশন যার ভালো লাগে না তার আসাই উচিত নয় সচলায়তনে। জেনেশুনে এসে মডারেশন-বিরোধিতার মান কী!

।।নো লগ।। থ্যাংকস এ লট।।
==========================
পৃথিবীর তাবৎ গ্রাম আজ বসন্তের মতো ক্ষীণায়ু

==========================
পৃথিবীর তাবৎ গ্রাম আজ বসন্তের মতো ক্ষীণায়ু

অছ্যুৎ বলাই এর ছবি

জিনিসটা খারাপ না। এটা থাকলে অনেক বিভ্রান্তি আর অপপ্রচারের সুযোগ কমে যাবে।

---------
চাবি থাকনই শেষ কথা নয়; তালার হদিস রাখতে হইবো

সুমন চৌধুরী এর ছবি

যেগুলি অতিথি পোস্ট মুছা হয় বা কমেন্ট ঘ্যাচাং করা হয় তার নমুনাগুলির একটা লগ থাকার আসলেই দরকার আছে। কিছুদিন পর পরই কবিতার বান ডাকে। সেই সময় যেগুলা জবাই করা হয় তার নমুনা সচলদের দেখার দরকার আছে।



অজ্ঞাতবাস

নুরুজ্জামান মানিক এর ছবি


নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

তীরন্দাজ এর ছবি

মডু হওয়াটা খুব একটা সহজ কম্মো নয়। ব্লগদুনিয়ায় নিজের স্বত্তাকে দুইভাগ করতে হয়। মডু সত্তার ভাগে প্রশাসনিক ক্ষমতা বেশী থাকলেও নিজেকে মেলে ধরার ক্ষমতা একেবারেই সীমিত হয়ে যায়। তবে যে এটাকে একেবারে শুন্যের কোঠায় নিয়ে আসতে পারে, সেই হবে স্বার্থক মডু।

তারচেয়ে সাধারণ ব্লগার স্বত্তার ভাগটি বেশ আরামদায়ক। প্রশাসনিক ক্ষমতা না থাকলেও নিজের কথা ইচ্ছেমতো বলা যায়। ভুল হলেও সেটা শোধরানোর উপায় থাকে। এক পোষ্টে কাউকে কড়া কোন কথা বললেও পরের বার ভাই বলে জড়িয়ে ধরা যায়।

একজন মডু ও সাধারণ ব্লগার? দুই নামেই হোক না কেনো। তার অবস্থা একটু শোচনীয়ই বলে মনে হয় আমার। তার মডু আর সাধারন ব্লগার পরিচয়টি বাকীদের জানা থাকলে সমস্যাটি বেড়ে যায় আরো বেশী। তার সাধারন-ব্লগার-স্বত্তা কঠিন কিছু বললেই –মডু বলেই বলেছেন- কথাটি উঠতে পারে। যেহেতু সেটা জেনেই তিনি মডু তাই এ দুটো স্বত্তাকে ব্যালেন্স করার দ্বায়িত্ব তার একান্তভাবেই নিজের।

আমার মনে হয় মডুদের প্রাশাসনিক কর্মগুলোকে তাদের সেই কর্মের স্পর্শকাতরতার বিচারে ভাগ ভাগ করে দেয়া দরকার। একভাগ যেকোন একজন মডুই করার অধিকার রাখেন। আরেক ভাগ প্রতিটি দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত মডুর সন্মিলিত সিদ্ধান্তের ফসল। তাতে একজনের উপর চাপ পড়ে না বা জবাবদিহির চাপ কয়েকজন মিলে ভাগ করতে পারেন।

ভাগদুটো কিরকম হতে পারে?

১) যা একজন মডারেটর করতে পারেন:
ক) অতিথি লেখকের লেখা ছাপানো বা না ছাপানো সিদ্ধান্ত
খ) অতিথি লেখকের কমেন্ট ছাপানো বা না ছাপানো সিদ্ধান্ত
গ) কোন সচলের আপত্তিকর কমেন্ট মুছে ফেলা।
ঘ) কোন পোষ্টকে সবার উপরে লটকে রাখা
ইত্যাদি ইত্যাদি আরো অনেক কিছুই আসতে পারে।

২) যা করতে সব মডারেটরের সম্মতি দরকার:
ক) কাউকে ব্যন করতে বাধ্য হলে।
খ) কারো সচলাধিকার নিয়ন্ত্রিত করতে চাইলে।
ইত্যাদি ইত্যাদি… ……। একটু কঠিন ধরণের সিদ্ধান্ত আসবে এখানে।

তবে দ্বিতীয় সারির প্রতিটি পদক্ষেপের পেছনে সঠিক কারণ দর্শানো জরুরী। এরকম দুটোই নয়, তিনটে বা চারটে সারিও করা যেতে পারে।

আরেকটা কথা বলতে চাইছি। মডু দ্বায়িত্ব পরিবর্তনশীল করে দিলে কেমন হয়? অনেকটা জাতিসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের মতো।কয়েকজনের ঐতিহাসিক কারণেই স্থায়ী আসন থাকবে। বাকী দুইজন বা তিনজন তাদের সম্মতিসাপেক্ষে একটি নির্ধারিত সময় পরপর একটি প্যানেল থেকে আসবেন। তাদের নাম জানবেন না কেউ (এটা হয়তো সম্ভব হবে না)।

**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

আপনার মতামত গুলো চমৎকার লাগল। মডারেটরদের ভেবে দেখবার অনুরোধ জানাই।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির
এই একাউন্টটি কোন মডারেটরের নয়। এই একাউন্ট থেকে মডারেশন করা হয়না, কিংবা এই একাউন্টের কর্মকান্ডের দায়ভার সচলায়তন নেবে না।

আরিফ জেবতিক এর ছবি

উদ্যোগে সমর্থন আছে , তবে প্রস্তাব ভিন্নরূপ :

১. অতিথিদের বিষয়ে লগ রাখার দরকার নেই । তাদের লেখা পোস্ট করা মাত্র একটা অটো ঘোষনা দেখবেন -
" আপনার লেখা জমা পড়েছে । যাচাই বাছাইয়ের পরে প্রকাশিত হবে । তবে যদি ২৪ ( অথবা ৪৮ ) ঘন্টার মাঝে সেটা প্রকাশিত না হয় , তাহলে দয়াকরে ধরে নেবেন যে এই লেখা প্রকাশের জন্য সচলায়তন উপযুক্ত জায়গা নয় । আপনার পরবর্তী লেখা পড়ার অপেক্ষায় থাকব আমরা । "

--- কাহিনী শেষ ।

২. সচল এবং হাচল ( হাফ সচল - যারা নিজ নামে একাউন্ট পান কিন্তু অতিথি ) তাদের বেলায় লগ রাখার দরকার আছে ।
তবে এই লগ প্রথম পাতায় ঝুলিয়ে রাখার দরকার নেই । সেটা সন্দেশ একাউন্টের পাতায় থাকবে , যখন যার দরকার তিনি দেখে নেবেন ।

সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কারো আপত্তি / দ্বিমত থাকলে তিনি সেটি মেসেজের মাধ্যমে সন্দেশকে জানাবেন , সন্দেশ সিদ্ধান্তের পক্ষের যুক্তিগুলোকে প্রয়োজনে আরো স্পষ্ট করবেন ।

অনিকেত এর ছবি

আরিফ ভাইয়ের বক্তব্যের সাথে সহমত।

রণদীপম বসু এর ছবি

আরিফ জেবতিক ও তীরন্দাজ-এর মতামতগুলো বিবেচনা করে দেখার মতো।

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

পলাশ দত্ত এর ছবি

তীরন্দাজ এবং আরিফ জেবতিকের যৌথ মতামতের সঙ্গে একমত।
==========================
পৃথিবীর তাবৎ গ্রাম আজ বসন্তের মতো ক্ষীণায়ু

==========================
পৃথিবীর তাবৎ গ্রাম আজ বসন্তের মতো ক্ষীণায়ু

অতিথি লেখক এর ছবি

হুম্।

অবাঞ্ছিত এর ছবি

গুরু, ছবিওয়ালা একটা ব্লগ দিসিলাম... পোস্ট হইলোনা.. যদি একটু দয়া করে বলতেন প্লীজ..

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

আমার ছড়ারা মারা পড়েছে! মডুদের প্রতি কোন অভিযোগ থেকে নয়, কেবল ভুলটুকু শুধরে নেয়ার জন্য সেটি জানানোর অনুরোধ করে দুটি মেইল করেছিলাম। জবাব পাইনি।
আমার মনে হয়, আমার যেরকম লেখা কাটা পড়েছে। আমার মান ও সেরকমই। আমি নিজেই কাটা পড়ার আগে মানোন্নয়নের লক্ষেই কেবল জানতে চেয়েছিলাম আমার ভুলগুলি।
যে ছড়াটি প্রকাশিত হবে না বলে আমি নিজে ভেবেছিলাম সেটি কিন্তু প্রকাশিত হয়েছিল।
ভাল থাকবেন।
____________________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ !

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

নুরুজ্জামান মানিক এর ছবি

এই মাত্র মাশা তার যে ব্লগটি সচলদের আপত্তিতে (আমি নিজেও আপত্তি জানাইছি ) মুছে দিলো তার লগ এখানে যো্গ করা হো্ক । শিশু ধর্ষকদের নিয়ে আর সাফাই দেখতে চাই না ।

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

সীমা [অতিথি] এর ছবি

সহমত

হিমু এর ছবি
নজরুল ইসলাম এর ছবি

মডারেটরদেরকে ধন্যবাদ জানাই
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

টেমপারমেন্ট ধরে রাখতে না পারার ফল ভোগ করে ব্লগার নিজে, এবং তার পাঠক। মেজাজ ধরে রাখার সবচেয়ে সহজ উপায় হল ব্লগ থেকে কয়েক ঘন্টা বা দিন দূরে থাকা। তারপর সবই ঠিক হয়ে যায়।

মূলত পাঠক এর ছবি

এইটা আগে দেখিনি, আজ দেখলাম, এমন প্রচেষ্টার জন্য সাধুবাদ জানাই।

কালনী [অতিথি] এর ছবি

পছন্দ হয়েছে.........
কতগুলি মন্তব্য করলে আমি আমার একাউন্ট ঘষামাজা করতে পারবো আমকে কেউ জানাতে পারবেন কি?
ধন্যবাদ

অতিথি লেখক এর ছবি

ভাই আমি খুবই দুঃখিত কারন আমি এখাঙ্কার কিছুই বুযতে পারতেসিনা,
আমি একেবারেই নুতন এই মাত্র নিবন্ধন করেছি, আমায় একটু হেল্প করবেন কটা ইনফরমাশ্ন দিয়ে,
আমি কিছুক্ষন আগে ্যে লেখাটা সংরক্ষন করলাম, সেইটা কোথায়?
প্রফাইল তথ্যও তো ঠিক করতে পারলাম না। অনুগ্রহ পূর্বক জানালে কৃতজ্ঞ থাকব।
আসিফ সূধা।

শাফক্বাত এর ছবি

আমিও এই পোস্টটা মাত্র পড়লাম। সবগুলা কমেন্টের মধ্যে আপনার কমেন্ট-টাই আমার বেশি জোস্‌ লাগসে চোখ টিপি

সে'দেশে যবে বাদল ঝরে
কাঁদে নাকি প্রাণ একেলা ঘরে?
বিরহব্যাথা নাহি কি সেথা?
বাজে না বাঁশি সে নদীর তীরে?

সাইফ তাহসিন এর ছবি

user: guest_writer
password: guest

দিয়ে লগিন করে একাউন্ট ট্যাবে ক্লিক করেন, তারপর "আমার কার্যকলাপ" এ ক্লিক করেন, অতিথি একাউন্ট থেকে যতগুলো লেখা আছে, সব দেখাবে, কোন পরিবর্তন করতে পারবেন না, কিন্তু দেখতে পারবেন লেখাটা জমা হয়েছে কিনা? আর অন্য কোন সমস্যা থাকলে তড়িৎবার্তা পাঠান contactএটsachalayatan.com এ।

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

অতিথি লেখক এর ছবি

আমি মনে হয় সারা জীবন ধরে এখানে পোষ্ট দিয়ে যাবো
এই ব্লগের ব্লগার আর হতে পারবো না
ব্লগিঙ করতে গেলে যে এতো কানুন মানতে হয় সেটে জানা ছিলো না।

ধন্যবাদ
সচলাতয়নের সবাইকে

  • ৩১/১/২০১৪ তে লেখা আমার একটি গল্প 'যে তোমায় বাঁচিয়ে দিল' অতিথি লেখকের ব্লগে ছিল। কয়েক ঘন্টা আগেও দেখেছি যে অপ্রকাশিত অবস্থায় আছে কিন্তু এখন লেখাটা কোথাও দেখতে পাচ্ছি না। ওটা কি মুছে দেওয়া হল? যদি মুছে দেওয়া হয় তবে তার কারণ কি? - by Mano Bar on রবি, 02/02/2014 - 4:29পূর্বাহ্ন