| তিল-গপ্পো | প্রেমিকার অন্তর্ধান

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
লিখেছেন আশরাফ মাহমুদ (তারিখ: বুধ, ১৯/০৫/২০১০ - ৯:২০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


সুপ্তার বিয়ে হয়ে যাওয়া মানে জীবনকে জীবনের হাতে সঁপে দেয়া! বিসিএস পরীক্ষার খাতায় রাগ করে শিক্ষা ব্যবস্থার সনাতনী মুখ এঁকে গোল্লায় যাওয়া, মাঝরাস্তায় দাঁড়িয়ে ডাবলু বাসটাকে বৃদ্ধাঙুল দেখিয়ে দিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোকে হরতাল কীভাবে করে তা শিখিয়ে দেয়া; যে ছিলো সম্ভবনার খনি, অপসৃত রোদকে ডেকে নিয়ে গিয়ে সে পেটে মারলো, বুকে জাগিয়ে দিলো দামাল নদী আর অসংখ্য কুমির।

তবু-ও জুতোর ফিতে ঠিকই বাঁধা থাকে, চুলে তেল পড়ে আঙুল চলে চিরুনি উঁকুন-রঅ্যাব খেলে যায়।

দুষ্টু রিকশাটা গাবতলীতে বোকা সিএনজিটাকে সাম্প্রদায়িক শিস দিয়ে ত্যক্ত করে দেয়, আমি প্রায় গায়ের সাথে লেগে আসা গাড়িটাকে একটা জন্মসন্দিহান গালি দিয়ে আশপাশের লোকজনকে জানিয়ে দিই গাড়িটা আসলেই বিদেশি মাল।

সুপ্তার স্বামীটা কি চুলে শ্যাম্পু মাখে? কোন কোম্পানীর? তেল দেয় না জেলি মারে? হাসান নামের পৃথিবীর সমস্ত যুবককে আমি চিরদিন মীর জাফর জ্ঞান করে যাবো, পত্রিকায় বুদ্ধিজীবিরা যতোই দেশ উদ্ধার করুক না কেনো। শালা এতো টাকা পেলো কোথায়? সে কি অফিসের ড্রয়ারে, ফাইলের স্তুপে অমানুষের জন্ম দেয়? টেবিলের নিচে অন্যরকম হাত মারে? কিংবা যমুনা সেতুর আয়ুষ্কাল দৃপ্ত পা-নাচানিতে বাড়িয়ে দেয়? অথবা বড়কর্তার কামরার দেয়ালের টাইলস আরো চকচকে তেলোজ্জ্বল হয়ে উঠে? ঢের বিকেলে কবিতা পড়ে মেয়েলি অসুখাক্রান্ত সুপ্তার বিষাদগ্রস্ত মুখের মানচিত্র আমি-ও পাল্টিয়ে দিয়েছিলিম। বাতি নিভালেই সব্বাই নিমকহারাম, হাজার দেখেছি, উদাহরণ পেলাম। সুপ্তার বাবা আমজাদ হোসেনকে কেবল ইশকুল শিক্ষক বলেই নয়, আরো অধিক আত্মীয়তার সংকেত জেনে, সেপ্টেম্বরে যেদিন কার্ফু জারী হলো সেদিন হাওয়াই-শার্ট পরে নগ্ন স্যান্ডেল সম্বল করে বাসায় পৌঁছে দিয়েছিলিম।
দোষ কিছুটা আমারো ছিলো, সম্পর্ক কী তাই তো নির্ধারণ করতে পারলাম না আজো। ভালোবাসা মানেই তো বিয়ে করা নয়, গতশীতে দেয়া শালটা পরশুকাল-ও আলমারি থেকে বের করে দেখেছি। সম্পর্ক হলো যাপনের প্রতিবন্ধীত্ব। সুপ্তা বুঝলো না, বোকা মেয়ে, বোকারা সুখী হয়।

প্যান্টের পকেটে হাত দিয়ে বুঝলাম ম্যানিব্যাগ খোয়া গেছে, আমি কিছু গাছের পাতা ছিঁড়ে নিলাম। শিমুল। শহরে বেশি মানায় কৃষ্ণচূড়া। চোখ বন্ধ করে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে রইলাম,
আকাশে ড্রাগন উড়ছে, এক ফালি বৃষ্টি তবু-ও চোখ ফাঁকি দিয়ে নেমে আসবে, আমার বুকপকেটে চেইন নেই; আমি আবারো হাঁটতে রইলাম, শ্বাশত, আমার ছায়াগুলো কেবল পরিবর্তিত হচ্ছে, আর সময়ের রঙ।
১০/৫/২০১০


মন্তব্য

তিথীডোর এর ছবি

হুমমম...

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

হুমানোর জন্য খোমাখাতা কি যথেষ্ট না? খাইছে

==============================
হা-তে এ-ক প্র-স্থ জো-ছ-না পা-ড়ে-র ঘ্রা-ণ
আলোকবাজি

দুষ্ট বালিকা এর ছবি

অন্যরকম লাগ্লো আশরাফ!

-----------------------------------------------------------------------------------
...সময়ের ধাওয়া করা ফেরারীর হাত থিকা যেহেতু রক্ষা পামুনা, তাইলে চলো ধাওয়া কইরা উল্টা তারেই দৌড়ের উপরে রাখি...

**************************************************
“মসজিদ ভাঙলে আল্লার কিছু যায় আসে না, মন্দির ভাঙলে ভগবানের কিছু যায়-আসে না; যায়-আসে শুধু ধর্মান্ধদের। ওরাই মসজিদ ভাঙে, মন্দির ভাঙে।

মসজিদ তোলা আর ভাঙার নাম রাজনীতি, মন্দির ভাঙা আর তোলার নাম রাজনীতি।

সাবিহ ওমর (অফলাইন) এর ছবি

হুঁ, খোপাটোপা ছাড়া সুস্থ-স্বাভাবিক লেখা... হাসান ব্যাটার নিকুচি করি...

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

সাবিহ ভাইয়ের মাঝে কিসের যেনো ছায়া দেখছি!

==============================
হা-তে এ-ক প্র-স্থ জো-ছ-না পা-ড়ে-র ঘ্রা-ণ
আলোকবাজি

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
মামুন হক এর ছবি

বাহ্‌ দারুণ গতিময় গল্প। আরেকটু বাড়তে দিতে পারতে ভাইডি

লীন এর ছবি

একমত। ভালো লেগেছে।
______________________________________
ভাষা উন্মুক্ত হবেই | লিনলিপি

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

ধন্যবাদ, মামুন ভাই। তিল-গপ্পোগুলো এরকমই হয়। একটু ডাসা ডাসা, বড়জোর কয়েক পাতা।

==============================
হা-তে এ-ক প্র-স্থ জো-ছ-না পা-ড়ে-র ঘ্রা-ণ
আলোকবাজি

মেহবুবা জুবায়ের এর ছবি

ভালোবাসা মানেই তো বিয়ে করা নয়, কথাটা ঠিক! তবে মনে হলো সুপ্তার বিয়ে হয়ে যাওয়াতেই ডাবলুর চিন্তা ভাবনা বদলে গে্যছে!

--------------------------------------------------------------------------------

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

আপা, এই কথাটা যে বালিকারা সব সময় মানে না! মন খারাপ ডাবলু কিন্তু নায়কের নাম নয়, ডাবলডেকার বাসকে ছোট করে ডাবলু বলেছি। তবে ঠিক সে বড়ো ধাক্কা খেয়ে প্রেমিকার বিয়ে হয়ে যাওয়াতে।
সবাইকে নিয়ে ভালো থাকুন।

==============================
হা-তে এ-ক প্র-স্থ জো-ছ-না পা-ড়ে-র ঘ্রা-ণ
আলোকবাজি

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

বোকারা সুখী হয়...খুবই সত্যি কথা।

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
জুয়েইরিযাহ মউ এর ছবি

ভালো লাগলো গীতিকবি হাসি

--------------------------------
জানতে হলে পথেই এসো,
গৃহী হয়ে কে কবে কী পেয়েছে বলো....


-----------------------------------------------------------------------------------------------------

" ছেলেবেলা থেকেই আমি নিজেকে শুধু নষ্ট হতে দিয়েছি, ভেসে যেতে দিয়েছি, উড়িয়ে-পুড়িয়ে দিতে চেয়েছি নিজেকে। দ্বিধা আর শঙ্কা, এই নিয়েই আমি এক বিতিকিচ্ছিরি

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

বেশ ভালো...

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
অনিন্দ্য রহমান এর ছবি

শেষ লাইনটা ভালো লাগল।
_________________________________________
Any day now, any day now,
I shall be released.


রাষ্ট্রায়াত্ত শিল্পের পূর্ণ বিকাশ ঘটুক

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
অতিথি লেখক এর ছবি

" বোকারা সুখী হয়। " - সহমত হাসি

তিল-গপ্পো ভাল লাগলো।

- মুক্ত বিহঙ্গ

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি
অপছন্দনীয় এর ছবি

বোকারা সুখী হয়

ভুল। বাস্তববাদী বুদ্ধিমানেরা সুখী হয়, নতুনকে খুঁজে নিয়ে তার সাথে 'মানিয়ে' নিয়ে।

বোকারা খালি অতীতকে নিয়েই পড়ে থাকে, গত শীতের শাল বার করে দেখে, নতুন কিছু খোঁজে না।

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

ভবিষ্যত আর বর্তমানের সংগ্রাম থেকে দূরে থেকেই বোকারা সুখী।
বাস্তববাদি বুদ্ধিমানেরা সুখী নয়, সুখে থাকার ভান করে, "মানিয়ে" নেয়। দেইখেন।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA