সময় এসেছে টুইটারে #Shahbag নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ার

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি
লিখেছেন ইশতিয়াক রউফ (তারিখ: রবি, ১০/০২/২০১৩ - ৩:৫৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সময় এসেছে গণআন্দোলনকে Twitter-এ নিয়ে যাওয়ার। আগ্রহীদের জন্য কিছু প্রাথমিক তথ্য লিপিবদ্ধ করছি এখানে। এটি খুব, খুব সহজ একটি মাধ্যম। কয়েক মিনিটের বেশি লাগবে না বুঝে নিতে।

ফেসবুক তো আছেই, টুইটার কেন? ...

* ফেসবুকের সাথে টুইটারের একটি মৌলিক পাথর্ক্য হলো, টুইটার একটি সম্পূর্ণ উন্মুক্ত মাধ্যম। আপনার ফেসবুক পেজ আপনার ব্যক্তিগত সম্পত্তি, এবং আপনার অনুমতি ছাড়া কেউ এতে প্রবেশ করতে পারবে না। টুইটার ঠিক উলটা, এখানে সবাই উঠান পেতে বসে থাকে কোনো কুটুম্ব আসার অপেক্ষায়।

কিন্তু লোকে কীভাবে জানবে আপনার বাড়ির ঠিকানা? ...

* পৃথিবীজুড়ে অনেক খোলা ময়দান থাকলেও আমরা শুধু আমাদের চেনা কিছু স্থানে যাই, সেখানে ঝুলিয়ে রাখা ব্যানার-ফেস্টূন সচরাচর দেখি। "Follow" করার ধারণাটি এভাবেই কাজ করে। আপনি টুইটারে যাকে "Follow" করবেন, শুধু তার নিজের বা তার সাথে জড়িত 'tweet' ক্রমাগত আপডেট হতে দেখতে পাবেন আপনার নীড়পাতায়। অন্য কেউও আপনার আপডেটগুলো তার নীড়পাতায় দেখতে পাবেন যদি তিনি আপনাকে "Follow" করেন।

কিন্তু এমনিতেই দেখতে পেলে ফলো করা কেন?

* টুইটারে একটি শক্তিশালী কমিউনিটি গড়ে উঠে পারষ্পরিক সহায়তার মাধ্যমে। অ্যাকাউন্ট খুলবার পর আপনি একলা পড়ে থাকবেন কোনো এক কোণে। আরও অনেকেই আপনার মতোই অবস্থায় থাকবে। সমমনা মানুষদের ফলো করুন, আশা রাখুন যে তারাও আপনাকে ফলো-ব্যাক করবে। এই ইকো-সিস্টেমটি গড়ে না তুললে আপনি তাতক্ষণিক সংবাদ জানতে পারবেন না। একদম মাঠ পর্যায়ে তরতাজা খবর সরাসরি পৌঁছে দিতে পারা টুইটারের বড় শক্তি।

কিন্তু এই কমিউনিটির বাইরেও যে-কারও মনোযোগ আকর্ষণ করে কীভাবে বক্তব্য দেওয়া যায়? ...

* আর সব জায়গার মতো টুইটারেও আপনার একটি ঠিকানা আছে। সেটি ব্যবহার করে কেউ আপনার প্রতি বার্তা পাঠাতে পারবে। যেমন, কেউ "@ishtiaqrouf কী খবর?" লেখা মানে আমার দৃষ্টি আকর্ষণ করে আমাকে সরাসরি কিছু বলা। আপনি @BBCNews লিখে শুরু করার অর্থ হলো বিবিসি তার নীড়পাতায় আপনার এই টুইট দেখতে পাবে, অর্থাৎ তাদের মনোযোগ আকৃষ্ট হবে। এই "@" চিহ্নটি ব্যবহার না করলে আপনার টুইট নিজের পাতাতেই পড়ে থাকবে, আপনার ফলোয়ার ছাড়া কেউ খেয়ালও করবে না।

কিন্তু এই ভাবে ছোটো ছোটো বালুকণা মিলে মহাদেশ গড়ে উঠে কীভাবে? ...

* আমরা শাহবাগে যেমন অগণিত ক্ষুদ্র মানুষ একত্র হয়ে এক বিশাল আন্দোলনের জন্ম দিয়েছি, টুইটারেও মাত্র ১৪০ ক্যারেক্টারের ক্ষুদে বার্তাগুলো একত্র হয়ে অনেক বড় মুভমেন্টের জন্ম দেয়। তবে আন্দোলনের জন্য কোথাও তো জড়ো হলেই হয় না, সব রকম কাজকে একই সুতায় গাঁথতে হয়। এই সুতা হলো হ্যাশট্যাগ ("#")। এই ট্যাগটি নির্দেশ করে আপনি কী নিয়ে কথা বলছেন। সবাইকে অনুরোধ করা হচ্ছে নিজেদের টুইটে "#Shahbag" ব্যবহার করতে। এর দুইটি সুফল আছে -- প্রথমত, কেউ Shahbag লিখে সার্চ করলেই আপনার টুইট দেখতে পাবে। দ্বিতীয়ত, অনেক অনেক মানুষ Shahbag নিয়ে কথা বলতে থাকলে আমজনতা টুইটারে ঢুকলেই দেখতে পাবে যে এই মুহূর্তে শাহবাগ নামে একটা বিষয় টুইটারে "trend" করছে।

ব্যাস, এই তো শিখে গেলেন টুইটিং। এবারে কিছু কৌশলগত কথা বলি।

- শুরুতেই #Shahbag লিখে সার্চ করুন। ফলাফল হিসাবে অনেকের টুইট দেখতে পাবেন। এদের মধ্যে সমমনাদের ফলো করুন। তাহলে যেকোনো বার্তা এদের মাধ্যমে ভূত-থেকে-ভূতে পদ্ধতিতে আপনার কাছে পৌঁছে যাবে।

- যে বা যারা প্রতিনিয়ত নতুন নতুন খবর টুইট করছেন তাদের ফলো করুন, একটিমাত্র ক্লিকে "Re-Tweet" করে সেই বার্তা পৌঁছে দিন আপনার নিজের নেটওয়ার্কে।

- @ ব্যবহার করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বরাবর পৌঁছে দিন আপনার বার্তা।

- শাহবাগ চত্বরে ঘুরে ঘুরে ছবি তুলুন, সেই ছবি টূইটারের অ্যাপ ব্যবহার করে মাঠ থেকেই সরাসরি ওয়েবে প্রচার করে দিন। মুহূর্তে এটি পৌঁছে যাবে বিশ্ববাসীর কাছে। আপনার এই ক্ষুদ্র টুইট হয়ে যাবে আগামীর ইতিহাস।

- অন্য যেকোনো মাধ্যমের মতো এখানেও অনেক জামাতি ওত পেতে বসে আছে। তারা আপনাকে উত্তক্ত করলে তা উপেক্ষা করুন। কোথাও এদের কু-মতলব চলতে দেখলে জবাব দিন।

- এখানে উল্লেখকৃত কিছু অ্যাকাউন্টকে ফলো করুন যাতে তাদের শেয়ার করা যেকোনো কিছু দ্রুত ছড়িয়ে দিতে পারেন, কিংবা উল্লেখযোগ্য কোনো ঘটনা সম্পর্কে তৎক্ষণাৎ জানতে পারেন। এভাবে আপনি নিজে কিছু না লিখেও আমাদের বার্তা বহুদূর পৌঁছে দিতে পারবেন।

- @ShahbagLiveCam, @ShahbagInfo, @ProjonmoSquare, @ICSForum, @GlobalVoices, ইত্যাদি অ্যাকাউন্ট ফলো করে শুরু করুন। শাহবাগে উপস্থিত সবাইকে বলুন টুইটার ব্যবহার করতে, নিজ নিজ অভিজ্ঞতা সরাসরি জানাতে। এই অ্যাকাউন্টগুলো বরাবর টুইট করলে শুরুতে @ ব্যবহার করতে ভুলবেন না।

দ্রুত টুইটারে যোগ দিন। #Shahbag হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করুন বেশি বেশি করে। খুবই গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়ে আপনাদের সবার সহযোগিতা প্রয়োজন সামনের কিছু দিনে।


মন্তব্য

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি

হ্যা, সময় এসেছে। এবার টুইটারে প্রতিটা তথ্য এবং ঘটনা তুলে ধরতে হবে। #Shahbag ছড়িয়ে পড়ুক পৃথিবীর প্রতিটা প্রান্তে, প্রতিটা টুইটার এ্যাকাউন্টের হোমে।

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

ফটোগফুরদের অনুরোধ জানাচ্ছি Flickr-এ ছবি আপলোড করতে। সেই ছবিগুলো সহজেই #Shahtag সহ যে-কেউ টুইট করতে পারবেন। সবার সুবিধার্থে এখানে কিছু ফটোস্ট্রিম সংকলিত করছিঃ

শাহবাগ আন্দোলনের ছবিঃ

প্রবাসী বাঙালিদের সংহতি প্রকাশঃ

সারা বাংলাদেশ থেকে সংহতি প্রকাশঃ

বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন-পোস্টারঃ

এই ছবিগুলো নিয়ে ক্রমাগত টুইট করে চলুন। আপনি যত লিখবেন, ততই সবাই জানবে শাহবাগের কথা।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি
বাউলিয়ানা এর ছবি

দুদিন ধরে অনেকে টুইটে আন্দোলনের ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করছেন। এদের জন্য কিছু প্রশ্নের উত্তর তৈরী করতে পারলে ভাল হতো। যেমনঃ কদিন চলবে? নেতৃত্বে ভাঙ্গনের কথা শুনি, এটা কি ঠিক? মহা সমাবেশের পর এখন আমাদের কাজ কী? ইত্যাদি।

ইশতিয়াক আপনার লেখার হাত অনেক গুছানো। আপনি এগুলো নিয়ে একটা লেখা দেন। আমরা শেয়ার করব।

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

আমি ব্যাক্তিগত ভাবে মনে করি, এখন এসব প্রশ্ন করার সময় না। যেকোনো গণআন্দোলন পথভ্রষ্ট করার প্রথম অস্ত্র হলো এর সমাপ্তি কবে জানতে চাওয়া এবং এর নেতৃত্ব চিহ্নিত করার চেষ্টা করা। এই ধরনের প্রশ্নে কান দেবেন না। কোনো রকম ভাঙন থাকলে এত শান্তিপূর্ণ, সাবলীল, ও শক্তিশালী আন্দোলন চলতে পারতো না।

আয়োজকরা তাঁদের ৭ দফা দাবি পেশ করেছেন। ফেসবুকে নিম্নোক্ত দাবিনামা পেলাম। সত্যাসত্য জানি না, তাই ফেসবুক শেয়ারের বাইরে প্রকাশ করি নাই এখনও।

----------------

জাতীয় স্বার্থে ব্লগার অনলাইন এক্টিভিস্টের পক্ষ থেকে শাহবাগের ঘোষনা এবং সাত দফা দাবি উত্থাপন:

১।
দ্রুততম সময়ের মধ্যে মিরপুরের জল্লাদ খ্যাত কশাই কাদেরের ফাঁসির লক্ষ্যে সরকারকে প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা নিতে হবে।
২।
যে আইনের ভিত্তিতে ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠিত প্রয়োজনে সেই আইনকে ন্যুনতম সময়ের মধ্যে সংশোধন করে সুষ্ঠু বিচার নিশ্চিত করতে হবে। তার জন্য এই মুহুর্তেই সংশোধনী এনে কাদের মোল্লার রায় পুনপর্যালোচনা করতে হবে। এই বিচারকার্যের সাথে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষিত, বিশেষজ্ঞ আইনজ্ঞ এবং শহীদ পরিবারদের অঙশগ্রহণে উপদেষ্টা পরিষদ গঠন করতে হবে।
৩।
ট্রাইবুনালকে একটি স্থায়ী রুপ দিতে হবে এবং সারাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ এবং বিচারের আওতায় আনতে হবে। একাত্তরে বাংলাদেশে মানবতাবিরোধী অপরাধের সকল ঘটনা নথিবদ্ধকরণের লক্ষ্যে সত্যানুসন্ধান কমিটি হঠন করতে হবে।
৪।
অবিলম্বে সংবিধান সংশোধন করে অনুচ্ছেদ ৪৯ এ একটি নতুন উপধারা যুক্ত করতে হবে, যেন যুদ্ধাপরাধ এবং মানবতাবিরোধী অপরাধে দন্ডিত ব্যক্তির ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতির ক্ষমা ঘোষনার ক্ষমতা বাতিল করতে হবে।
৫।
মুক্তিযুদ্ধে বিরোধীতাকারী দল এবং ব্যক্তিদের বাংলাদেশে রাজনৈতিক অধিকার নিষিদ্ধ করতে হবে।
৬।
জামাত নিয়ন্ত্রিত সকল আর্থিক এবং বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান থেকে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে অর্থায়নের অভিযোগ তদন্তের জন্যে সেই প্রতিষ্ঠানগুলোতে সরকারী প্রশাসক নিয়োগ দিতে হবে। এবং অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রতিষ্ঠানগুলোকে জাতীয়করণ করতে হবে।
৭।
যুদ্ধাপরাধের বিচারে পাকিস্তানকে অর্ন্তভুক্ত করার জন্যে আন্তর্জাতিক আদালতের মাধ্যমে ট্রাইবুনালের অধীনে আনতে হবে।

সৌজন্যে--- জাতীয় স্বার্থে ব্লগার অনলাইন এক্টিভিস্ট

বাউলিয়ানা এর ছবি

ধন্যবাদ

ব্যাঙের ছাতা এর ছবি

আমি এইমাত্র টুইটারে একটা হিসাব খুললাম। হাসি
ধন্যবাদ

Shahbag Square LIVE এর ছবি

অশেষ ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকবার জন্যে। সীমিত সাধ্য নিয়েও আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি প্রজন্ম চত্বর থেকে প্রতিনিয়ত ভেরিফাইড আপডেইট দেবার। বিশ্বজুড়ে যাঁরা যেখানে প্রতিবাদ করছেন, তাঁরা তাঁদের প্রতিবাদের সংবাদ ও ছবি আমাদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। আমরা সেটি বাঙলার আপামর জনসাধারণের সাথে শেয়ারের ব্যবস্থা করবো।

আমাদের ই-মেইল: shahbaglive অ্যাট gmail ডট com

সবার সাথে শেয়ার করুন এ তথ্য। আবারো ধন্যবাদ বাঙালির এ গণজাগরণে সঙ্গী হবার জন্যে।

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

দারুণ!! আপনাদের সাইট খুবই পছন্দ হয়েছে। যেকোনো রকম সাহায্য করতে পারলেই জানাবো। দরকার পড়লেই টুইটারে আওয়াজ দিয়েন। ব্লগ/ফেসবুক তো আছেই।

অতিথি লেখক এর ছবি

ফেসবুকের আকর্ষণীয় ছবিগুলো টুইটারে #Shahbag লিখে পোস্ট করে দিতে পারেন, ফটোগ্রাফারের নাম উল্লেখ পূর্বক। আন্তর্জাতিক মিডিয়ার দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য এটা খুবই উপযুক্ত মাধ্যম, বিবিসিতে সঠিক সংবাদ প্রকাশ করা এবং পরে আবার সেই সংবাদের শিরোনামের "islamist" বদলে "war crimes" লেখার মাধ্যমে এটা প্রমাণিত হয়েছে। তাছাড়া টুইটারের ইউজার ইন্টারফেসটাও সমাবেশস্থলে দাঁড়িয়ে লাইভ আপডেটের জন্য উপযোগী।

অলটারনেটিভলি, শিবিরের ভাঙচুরের ছবিগুলো ও বিগত বছরের হত্যাকান্ডের ছবিগুলো #Shibir লিখে পোস্ট করে পাবলিকের কাছে অপকর্মের চিত্রগুলো সহজেই তুলে ধরতে পারেন। টুইটারে ছবি পোস্ট করার সুবিধা হল এটা আলাদা আলাদাভাবে কারও এলবামে সংরক্ষিত থাকে না। আপনি #Shibir লিখে পুলিশ পেটানোর ছবি পোস্ট করলে পৃ্থিবীর অন্য প্রান্তে বসেও মানুষ #Shibir লিখে খোঁজ করলেই সেই ছবি দেখতে পাবে, এর জন্য তার সাথে আপনার কোন প্রকার ইন্টারেকশনের প্রয়োজন হবে না। আর আন্তর্জাতিক মিডিয়াগুলো যেহেতু তাদের টুইটার একাউন্ট নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করে, জামায়াত-শিবিরের আসল চেহারা তুলে ধরার জন্য এর চেয়ে উপযুক্ত মাধ্যম আমার অন্তত জানা নেই।

পৃথিবী

আহমেদ বাওয়ানী এর ছবি

২০১০ সালে খোলা অব্যবহত টুইটার একাউন্টে আবার লগিন করলাম দুই দিন আগে শুধুমাত্র 'শাহবাগ' আন্দোলনে ব্যবহার করার জন্য।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA