স্বাধীন বাংলার পতাকার প্রথম নকশাবিদ

বিপ্লব রহমান এর ছবি
লিখেছেন বিপ্লব রহমান (তারিখ: বুধ, ১৩/০২/২০০৮ - ১০:০৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

..স্বাধীন বাংলার পতাকার প্রথম নকশাবিদ সম্পর্কে সহব্লগার লুৎফুল আরেফীন তাঁর সাম্প্রতিক লেখায় কিছুটা আলোকপাত করেছেন। এই লেখার সূত্র ধরে বাংলা উইকিপিডিয়ার নিরলসকর্মী রাগিব ভাইসহ বেশ কয়েকজন জানতে চেয়েছিলেন, আসলেই স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকার নকশাবিদ কে?

পতাকার প্রথম নকশাবিদ হিসেবে পাঠ্য-পুস্তকসহ সর্বত্রই পটুয়া কামরুল হাসানের নামই প্রচারিত হয়ে আসছে। ঘন্টা তিনেক অন্তর্জালে অনুসন্ধান চালিয়েও পাওয়া গেছে কামরুল হাসানেরই নাম।

এ বিষয়ে স্পষ্ট ধারণার জন্য আমি শরণাপন্ন হয়েছিলাম, মুক্তিযুদ্ধের বিশিষ্ট গবেষক এমএমআর জালাল ভাইয়ের।

জালাল ভাইয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ‌'বাঙালির জাতীয় সংগ্রাম: মুক্তিযুদ্ধে চট্টগ্রাম' গ্রন্থের লেখক ডা. মাহফুজুর রহমান জানাচ্ছেন:

গাঢ় সবুজ জমিনের ওপর কেন্দ্রে লাল বৃত্তের মাঝে হলুদ মানচিত্রসহ বাংলাদেশের পতাকার প্রথম নকশাবিদ কামরুল হাসান নন। এই পতাকাটি শিবনারায়ণ দাশের করা।

১৯৭০ সালের ৬ জুন শাজাহান শিরাজের জহুরুল হক হলের (তখনকার ইকবাল হল) ১১৮ নম্বর রুমে পতাকাটির নকশা করা হয়েছিলো। সেলাই করে পতাকা প্রস্তুত হয়েছিলো নিউ মার্কেট-বলাকা এলাকার ‌'নিউ পাক ফ্যাশান টেইলার্স' নামক দর্জির দোকানে।

ওই রুমে বসে পতাকাটির নকশা করার পরিকল্পনা করেন কাজী আরেফ আহমদ, আসম আব্দুর রব, শাজাহান শিরাজ, মনিরুল ইসলাম ওরফে মার্শাল মনি, হাসানুল হক ইনু ও শিবনারায়ন দাস।

স্বাধীনতার পরে মানচিত্র বাদ দিয়ে পটুয়া কামরুল হাসানের জাতীয় পতাকাটির চূড়ান্ত নকশা সরকারিভাবে অনুমোদন করা হয়।

দুঃখজনক হলেও সত্যি, ইতিহাসের ধূসর পাতায় এই পতাকার প্রথম নকশাবিদ শিবনারায়ন দাশের নাম খুবই অস্পষ্ট অক্ষরে লেখা।।

.

(ডা. মাহফুজুর রহমানের গ্রন্থটির প্রকাশক, প্রকাশকালসহ আরেকটু বিস্তারিত তথ্য জানতে পারলে এই লেখায় সংযোজন করা হবে। স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকার পরিকল্পনাকারীদের মধ্যে অনেকেই বেঁচে আছেন। তাদের সাক্ষাৎকার থেকেও ইতিহাসের এই অস্পষ্টতা দূর করা সম্ভব।)


মন্তব্য

থার্ড আই এর ছবি

ধন্যবাদ তথ্যসূত্র সহ পতাকা সংবাদের জন্য।
---------------------------
স্বপ্নকে ছুঁতে চাই সৃষ্টির উল্লাসে

-------------------------------
স্বপ্নকে ছুঁতে চাই সৃষ্টির উল্লাসে

লুৎফুল আরেফীন এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ!
সবার হয়ে একটা গুরুত্বপূর্ণ কাজ শেষ করার জন্য আপনাকে (বিপ্লব)

___________________________
বুড়োরা সবাই সমস্বরে বললো, "নবজন্ম", আমি চাইলাম "একটা রিওয়াইন্ড বাটন"

সুমন চৌধুরী এর ছবি

সাধু সাধু



ঋণম্ কৃত্বাহ ঘৃতম্ পীবেৎ যাবৎ জীবেৎ সুখম্ জীবেৎ

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

(বিপ্লব)

অতিথি লেখক এর ছবি

ধন্যবাদ, এই সত্য জানার উপায় বাতলে দেবার জন্য। আশা করবো শিবনারায়ণ দাশ যথার্থ সম্মান পাবেন।

------------------
মুহাম্মদ২০১৭

সংসারে এক সন্ন্যাসী এর ছবি

(বিপ্লব)

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
টাকা দিয়ে যা কেনা যায় না, তার পেছনেই সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হয় কেনু, কেনু, কেনু? চিন্তিত

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

(বিপ্লব)

নুরুজ্জামান মানিক এর ছবি

১১৮ রুম সিরাজ এর নয় , আসম রবের ।

স্বাধীন বাংলার পতাকার প্রথম নকশাবিদ বিষয়ে দলিল সুত্র সহ হাজির হব একট ফুরসত পেলেই।

বিনীত
মানিক

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

অতিথি লেখক এর ছবি

দেরিতে হলেও সত্যগুলো বের হয়ে আসছে এটাই আনন্দের
একইভাবে আমাদের স্বাধীনতা নিয়ে বিতর্কগুলো কবে শেষ হবে সেটাই দেখার বিষয়

(ক্যামেলিয়া আলম)

বিপ্লব রহমান এর ছবি

সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

১১৮ নম্বর রুমটি শাজাহান শিরাজের বলেই ওই বইএ উল্লেখ করা হয়েছে। @নুরুজ্জামান মানিক।

তবে এ সংক্রান্ত যে কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকেই সমৃদ্ধ করবে। আপনার তথ্যের অপেক্ষায়।...


আমাদের চিন্তাই আমাদের আগামী: গৌতম বুদ্ধ


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

হিমু এর ছবি

এ বিষয়ে হাসানুল হক ইনুকে কি জিজ্ঞাসা করা যায় না?


হাঁটুপানির জলদস্যু

অমি রহমান পিয়াল এর ছবি

আরো তথ্যসহ প্রামাণিক দলিলের অপেক্ষায়


তোর জন্য আকাশ থেকে পেজা
এক টুকরো মেঘ এনেছি ভেজা
বৃষ্টি করে এক্ষুনি দে তুই
বৃষ্টি দিয়ে ছাদ বানিয়ে শুই


তোর জন্য আকাশ থেকে পেজা
এক টুকরো মেঘ এনেছি ভেজা
বৃষ্টি করে এক্ষুনি দে তুই
বৃষ্টি দিয়ে ছাদ বানিয়ে শুই

নিঘাত তিথি এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ গুরুত্বপূর্ণ পোস্টের জন্য। লুৎফুল আরেফীনকেও ধন্যবাদ বিষয়টি নজরে আনার জন্য। পতাকার পরিকল্পনাকারীদের অধিকাংশই বেঁচে আছেন, তাদের কাছ থেকে কি সত্যটা আরো পরিষ্কার করা যায় না?
----------------------------------------------------
আমার এই পথ চাওয়াতেই আনন্দ

----------------------------------------------------
আমার এই পথ চাওয়াতেই আনন্দ

বিপ্লব রহমান এর ছবি

আপডেট: এইমাত্র হাসানুল হক ইনু ও ডা. মাহফুজের সঙ্গে টেলিফোনে কথা হলো। ইনু ডা. মাহফুজের ওই গ্রন্থের তথ্য পূর্ণ সমর্থন করলেন।

ডা. মাহফুজ জানালেন, তার স্ত্রী ফরিদা ইয়াসমিন ব্যক্তি উদ্যোগে ১৯৯৩ সালের মার্চে গ্রন্থটি প্রকাশ করেন। স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকার নকশাবিদ সর্ম্পকিত তথ্য উনি যোগাড় করেছেন সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে। এছাড়া তিনি নিজেও সিরাজুল আলম খান, আসম রব, শাজাহান শিরাজ, হাসানুল হক ইনু -- প্রমুখর রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

সবাইকে আবারো ধন্যবাদ।

(ডা. মাহফুজের ফোন নম্বরটি দিয়ে আমাকে সহায়তা করেছেন- সহ ব্লগার ধ্রুব হাসান।)


আমাদের চিন্তাই আমাদের আগামী: গৌতম বুদ্ধ


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA