দেশচিন্তা

দেশপ্রেমের কারনিভ্যাল

পৃথ্বী এর ছবি
লিখেছেন পৃথ্বী [অতিথি] (তারিখ: মঙ্গল, ১৬/১২/২০১৪ - ২:৫৩পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


বিজয়ের প্রথম বার্ষিকীর প্রিয় বিজ্ঞাপনমালা

শেহাব এর ছবি
লিখেছেন শেহাব (তারিখ: মঙ্গল, ১৬/১২/২০১৪ - ২:৫১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

১৯৭২ সালের ১৬ই ডিসেম্বর আমাদের প্রথম বিজয় দিবসে পত্রিকায় যেসব বিজ্ঞাপন এসেছিল সেগুলোতে এক নজর চোখ বুলালেই সেই সময় দেশের মানুষের আবেগ, আশা, স্বপ্নের ব্যাপারটি কিছুটা অনুভব করা যায়। আমি এরকম একশোর একটু বেশি বিজ্ঞাপন একত্র করেছি। তার মধ্যে যে আঠারোটি সবচেয়ে ভাল লেগেছি সেগুলো এখানে দিলাম। আপনার যদি অন্যগুলো আরো ভাল লাগে আপনিও আমার সংগ্রহ থেকে সেগুল


হিস্টোরি

আনু-আল হক এর ছবি
লিখেছেন আনু-আল হক [অতিথি] (তারিখ: সোম, ১৫/১২/২০১৪ - ৬:১৬অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

(ডিসক্লেইমার: এটা প্রচলঅর্থে ঠিক এই লেখকের মৌলিক কোনো গল্প নয়; এটা আমি শুনেছিলাম বন্ধুদের মুখে। সেটার অনেক সংস্করণ ছিলো। এটা সেগুলোর কোনো একটা কিংবা কয়েকটার যৌথরূপ।)

(১)


ইতিহাস সচেতনতা এবং আমরা

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: বিষ্যুদ, ১১/১২/২০১৪ - ৬:৫১অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ইতিহাসবিমুখ জাতি হিসেবে কোথায়ও আমাদের পরিচয় আছে কিনা জানিনা, তবে আমাদের ইতিহাসবিমুখ বললে কিছুটাও ভুল হবে না বলেই আমার মনে হয়। আমাদের ইতিহাসের দৌড় মাধ্যমিক পর্যন্ত পাঠ্য বইগুলোতে; এর বাইরে আমরা যে ইতিহাস জানি বা শুনি, সেগুলো রাজনীতিবিদদের মুখ থেকে অনেক সময়ই যা মিথ্যা, আংশিক সত্য বা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। যেমন উদাহরণ হিসেবে ধরা যাক, বিএনপি’র কোন নেতা বললেন ‘জিয়া স্বাধীনতার ঘোষক ছিলেন এবং তিনি ১৯


মডারেটনামা

আনু-আল হক এর ছবি
লিখেছেন আনু-আল হক [অতিথি] (তারিখ: বিষ্যুদ, ১১/১২/২০১৪ - ৬:৫৩পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এক বেরাদরে কাটে মুণ্ডু
পায় যদি সাহা-দাস-কুণ্ডু
আর বেরাদরে মোছে রক্ত
জোটে যদি মডারেট-তখত
মডারেট কাজ করে মলমের
খুনের পরের কাজ কলমের
আইসিস মুণ্ডুটা কাটবে
মডারেট তার হয়ে খাটবে
লাশ শুধু শুধু লাশ পড়ছে
মডারেট তার হয়ে লড়ছে
বলে ধর্মের এই শ্যাষ না
এইটাতো প্রকৃত [ড্যাশ] না

হত্যাকারীর নয় নিহতের
দায় বুঝি গুণে রাখা সে-ক্ষতের
হত্যার পরে হেসে বলে খান,
“দেখাও তো সেই পরিসংখ্যান”


এটি খন্দকার মোশতাকের কোন পদত্যাগ?

শেহাব এর ছবি
লিখেছেন শেহাব (তারিখ: বুধ, ১০/১২/২০১৪ - ৩:০৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আমাদের দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় বিশ্বাসঘাতক রাজনীতিবিদদের একজন থন্দকার মোশতাক আহমদ বেশ কয়েকবার পদত্যাগ করেছিলেন। জন্মযুদ্ধ '৭১ এ একটি প্রবন্ধে বলা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে প্রবাসী সরকারের প্রধানমন্ত্রী না হতে পেরে তিনি পদত্যাগ করতে চেয়েছিলেন। এর বাইরে বঙ্গবন্ধু আর জাতীয় চার নেতার লাশের উপর দিয়ে হেঁটে গিয়ে তিনি একবার অল্প সময়ের জন্য প্রেস


বিজয়ের রঙে রাঙানো ইংরেজী নববর্ষের বিজ্ঞাপনমালা

শেহাব এর ছবি
লিখেছেন শেহাব (তারিখ: শুক্র, ০৫/১২/২০১৪ - ৩:১৪পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

কাছাকাছি সময়ে আমাদের জাতীয় জীবনে এমন কোন সময় এসেছে যেদিন সবদিক থেকে শুধু আনন্দের খবর? কিছুদিনের মধ্যে এরকম দুটি ব্যাপার আমার মনে পড়ছে। একটি হল এবার খুব কাছাকাছি সময়ে ঈদ আর পূজা আর আরেকটি হল আরো ২০১৩ আগে এক সপ্তাহের ও কম ব্যবধানে বিজয় দিবস কিংবা কাদের মোল্লার ফাঁসি।


সবার পছন্দের মানুষ আমাদের এই “জগলুল ভাই” - জগলুল আহমেদ চৌধুরী

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: মঙ্গল, ০২/১২/২০১৪ - ৩:২২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সবার পছন্দের মানুষ আমাদের এই “জগলুল ভাই” - জগলুল আহমেদ চৌধুরী

জগলুল আহমেদ চৌধুরী মারা গেলেন। একটি বাস তাঁকে মেরে ফেলে রেখে চলে গেল। তিনি ছিলেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার (বাসস) সাবেক প্রধান সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক। প্রায় সবার পছন্দের মানুষ আমাদের এই “জগলুল ভাই।”


বঙ্গবন্ধুর ফেরার আগেই তিরিশ লক্ষের সংবাদগুলি

শেহাব এর ছবি
লিখেছেন শেহাব (তারিখ: সোম, ০১/১২/২০১৪ - ১১:০৬অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ডিসক্লেইমার:
এই নিউজক্লিপগুলি ত্রিশ লক্ষের পরিসংখ্যান নিয়ে একাডেমিক রিসার্চের বিকল্প নয়। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের শহীদের পরিসংখ্যান নিয়ে এখন পর্যন্ত কোন পূর্ণাঙ্গ একাডেমিক গবেষণা হয় নি। যতদিন হবে না এটি কি ত্রিশ লক্ষ, নাকি আরো কম, নাকি আরো বেশি এ নিয়ে কখনও জোর গলায় কথা বলা যাবে না।


আনো সাকি সিরাজী আনো আঁখি-পেয়ালা

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শনি, ২৯/১১/২০১৪ - ৯:০০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

'বাংলাদেশের বুকে পুঁজিবাদ-সাম্রাজ্যবাদ বিরোধী সর্বহারা শ্রেণীর রাজনৈতিক দল গনসংহতি আন্দোলন'র এক যুগ পুর্তি উপলক্ষে গনসংহতি আন্দোলনের প্রধান কমরেড জোনায়েদ সাকির বক্তব্য থেকে নিচের পর্যবেক্ষণগুলো টুকে রাখলাম। বক্তব্যটির ভিডিও ইউটিউবে পাওয়া যাচ্ছে নিচের লিঙ্কে-

বক্তার সার বক্তব্য- দেশ পরিচালনায় আওয়ামী লীগ = বিএনপি জোট। তিনি বলছেন, দেশের মানুষ আজ আওয়ামী লীগ জোট ও বিএনপি জোটের ক্ষমতা দখলের জ্বালানী। এরা বিপরীতে জোট-মহাজোটের রাজনৈতিক সহিংসতার বিরুদ্ধে গণ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানিয়েছেন তিনি। ২০১৩ সালে দেশব্যাপী বিএনপি-জামাত-হেফাজতের তাণ্ডব, বিএনপি কর্মীদের হাতে জীবন্ত মানুষ পুড়ে দগ্ধ হওয়া এবং শিবির কর্মীদের বাসে পেট্রোল বোমা মারার সাথে ওই সময়কার আওয়ামী লীগকে এক সমীকরণে বেঁধে ফেলা ন্যায্য কী? এই সহজ সমীকরণকে আমরা কি বলতে পারি না, ধর্ষক আর ধর্ষিতা উভয়ে সমান দোষে দোষী?