ইতিহাস

এক মলাটে একাত্তর থেকে পঁচাত্তরের উপাখ্যান নাম তার সাক্ষী ছিলো শিরস্ত্রাণ

মাসুদ সজীব এর ছবি
লিখেছেন মাসুদ সজীব [অতিথি] (তারিখ: বুধ, ২৫/০৩/২০১৫ - ৩:১৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ধরা যাক প্রাপ্ত বয়স্ক একজন মানুষ একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময়ের রাজনীতি, যুদ্ধের নেতৃত্ব, দেশী-বিদেশী ষড়যন্ত্র কিংবা একাত্তর পরবর্তী চারটি বছর যে রক্তাত্ত ইতিহাসের মাঝ দিয়ে বেড়ে উঠেছিলো বাংলাদেশ, তার কিছুই জানে না। জানে না বঙ্গবন্ধু হত্যা তথা বাংলাদেশকে পিছিয়ে দিতে কে বা কারা কাজ করেছিলো প্রকাশ্য দিবালোকে আর একান্ত সঙ্গোপনে। জানে না একাত্তরের রণাঙ্গনের দেবদূত হয়ে ওঠা আদর্শের প্রবাদ পুরুষ একজন খালেদ


ঢাকায় নির্মিত প্রথম শহীদ মিনারের গল্প

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: সোম, ২৩/০২/২০১৫ - ৪:৩২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সৃষ্টির মাহাত্ম্য কখনও কখনও কি সৃষ্টিকর্তাকেও আড়াল করে দাঁড়ায় না?
স্বীয় ঔজ্জ্বল্যে কি ঢেকে দেয় না সৃষ্টির দিনক্ষণ, বিবরণ?
টিকাটুলী থেকে রিকশা নিয়ে প্রেসক্লাব অতিক্রম করতে করতে ভাবতে থাকি আমরা। ভাবতে ভাবতে হাইকোর্ট পার হই। দোয়েল চত্বর অতিক্রম করে একসময় পৌঁছে যাই বাঙালির প্রাণের মিনার শহীদ মিনারে।


ভাষা আন্দোলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের অবদানের অজানা তথ্য

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শনি, ২১/০২/২০১৫ - ৩:১৩পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ভাষা আন্দোলনে (১৯৫২—১৯৫৬ ) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের মিলিত সংগ্রাম ছিল এ’কথা কারো অজানা নয়। কিন্তু সে সময় ছাত্রীদের গ্রেফতার ও তাদের কারাবাস বিষয়ক ঘটনাটি প্রায় নেপথ্যে রয়ে গেছে। সে বিষয়টির প্রতি আলোকপাত করে সে সময়কার ভাষা সংগ্রামীদের ও ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি। সে আন্দোলনে নেতৃত্বদানকারি ড.


প্রথম শহীদ মিনারের গল্প

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: বুধ, ১৮/০২/২০১৫ - ৩:৫৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


বই আলোচনা: সাক্ষী ছিলো শিরস্ত্রাণ

শেহাব এর ছবি
লিখেছেন শেহাব (তারিখ: মঙ্গল, ১০/০২/২০১৫ - ১২:৩৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

(এই লেখাটি পত্রিকার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছিল। কিন্তু যেহেতু বইমেলার সময় আর বেশি নেই আমি উইথড্র করে এখানে দিয়ে দিলাম।)


পাকিপ্রেমের চর্বিতচর্বণ

বুনোহাঁস এর ছবি
লিখেছেন বুনোহাঁস (তারিখ: বুধ, ০৪/০২/২০১৫ - ৪:১৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


পাপাড়ু

সত্যপীর এর ছবি
লিখেছেন সত্যপীর (তারিখ: রবি, ০১/০২/২০১৫ - ১:৫০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

একাকী পাপাড়ু গিয়ে হাসানাবাদ পৌঁছালেন, যে গ্রাম তার নিজেরই পত্তন করা। সেখানে এক তাড়ির দোকানে জুত করে বসে তিনি বললেন, “এই আমায় ভালো তাড়ি দে”। পলাতক পাপাড়ুর ছদ্মবেশ ছাপিয়ে সেই গম্ভীর কন্ঠ তাড়িওলার কানে ঠং করে গিয়ে বাজল। চোখ তুলে খুঁটিয়ে পরীক্ষা করল সে খদ্দেরের মুখ। হ্যাঁ, এই লোক অবশ্যই পাপাড়ু!

(কাফি খাঁ, ১৭৩১)


বাঙালির সার্কাস

দিগন্ত চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন দিগন্ত চৌধুরী [অতিথি] (তারিখ: শনি, ৩১/০১/২০১৫ - ১:১২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সূচনা-সংবাদ

উনিশ শতকের শেষার্ধে, ব্রিটিশ শাসনের অধীনে থাকার সময় বাঙালির প্রথম সার্কাস দেখার অভিজ্ঞতা হয়। কলকাতা-গবেষক দেবাশিস বসুর মতে, ১৮৬৭ সালের দিকে বা এর অল্পস্বল্প আগে-পরে প্রথম কলকাতায় কয়েকটি ইউরোপিয় সার্কাস দল তাদের খেলা দেখাতে এসেছিল। এমনকি স্যার আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের বাবা ডাক্তার গঙ্গাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের তখনকার হিসাব-বইতেও সার্কাস দেখার খরচের বিবরণ পাওয়া গিয়েছে। “উইলসন্স গ্রেট ওয়ার্ল্ড সার্কাস” ও “চিয়ারিনি’স ইটালিয়ান সার্কাস” নামের দুটি দল তখন কলকাতায় বারকয়েক এসেছিল। উইলসন্সের আগমণ ঘটেছিল প্রথমে, তাদের তাঁবু পড়েছিল মনুমেন্টের কাছে― তারপর চিয়ারিনি’স সার্কাস কলকাতায় প্রদর্শনী করে, তাদের তাঁবু স্থাপিত হয়েছিল গড়ের মাঠে। স্বয়ং ঠাকুর শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণও উইলসন্সের সার্কাস দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন বলে “কথামৃত”-এর পাতায় সাক্ষ্য মেলে, সার্কাসের খেলোয়াড়দের কঠোর পরিশ্রমকে তাঁর “সংসার করবার মতোন অতি কঠিন কর্ম” বলে মনে হয়েছিল।


বাঙালির চা-পান

দিগন্ত চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন দিগন্ত চৌধুরী [অতিথি] (তারিখ: রবি, ২৫/০১/২০১৫ - ৬:৩২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

চা : পুরাণ থেকে ইতিহাসে


"হত্যাযজ্ঞের পেছনে সিআইএ'র অশুভ হাত?" - দৈনিক বাংলা, জানুয়ারী ২, ১৯৭২

শেহাব এর ছবি
লিখেছেন শেহাব (তারিখ: বিষ্যুদ, ২২/০১/২০১৫ - ৭:৩৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এই খবরটি দৈনিক বাংলায় এসেছিল ১৯৭২ সালের দোসরা জানুয়ারী। বিজয়ের পরপর জেনারেল রাও ফরমান আলীর ডেস্ক ডায়রী সরকারের লোকজনের হাতে আসে। রাও ফরমান আলী হল সেই পাকিস্তানী সামরিক কর্মকর্তা যে শহীদ বুদ্ধিজীবি হত্যার পরিকল্পনা সাজিয়েছিল। বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করার পরিকল্পনা যে সাময়িকভাবে কিছুটা সফল হয়েছে তার প্রমাণ হল দেশের সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক প্রথম আলোর [url=http://www.prothom-alo.com/opinion/article/4294