যুবা (১৮ বছর বা তদুর্দ্ধ)

গাজার শিশুরা মরিয়া প্রমাণ করিল...

আনু-আল হক এর ছবি
লিখেছেন আনু-আল হক [অতিথি] (তারিখ: শনি, ২৬/০৭/২০১৪ - ১:৫১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সম্প্রতি ইজরাইল-পরিচালিত বিধ্বংসী হামলায় গাজায় নারী-শিশুসহ অসংখ্য মানুষের প্রাণহানীর প্রেক্ষিতেই এই লেখা। এই নিয়ে ইতিমধ্যেই অজস্র লেখা প্রকাশিত হয়েছে। নতুন করে লেখবার কী আছে! নতুন কিছু লেখার আছে কি না এই নিয়ে আমিও দ্বিধান্বিত বলে পুরনো কিছু নিয়ে খানিকটা পেছন ফিরে দেখা...


ফিলিস্তিন, হিটলার - এবং অপরবাস্তবতা

টিউলিপ এর ছবি
লিখেছেন টিউলিপ [অতিথি] (তারিখ: শুক্র, ২৫/০৭/২০১৪ - ২:৫০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গাজাতে এই মূহুর্তে যে নারকীয় যজ্ঞ চলছে সেটা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। কোন মানুষের পক্ষেই ইজরায়েল গাজাতে যা করছে সেটা সমর্থন করা সম্ভব না। এটা নিয়ে কিন্তু বলে ত্যানা প্যাঁচানোতেও আগ্রহ নেই। তবে এই লেখার বিষয় সেটা না। বরং ফিলিস্তিন সাপোর্ট দিতে গিয়ে কেউ কেউ হিটলারকে নায়ক বানাচ্ছেন কেন সেটা নিয়ে একটু জানার ইচ্ছা থেকেই এই পোস্ট।


কড়ই বৃক্ষে থাকেন যিনি

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: বিষ্যুদ, ২৪/০৭/২০১৪ - ৯:৩২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

হাটখোলা বাজার থেকে উত্তর দিকের মাটির সড়ক ধরে আধা ক্রোশ দূরে মন্ডল বাড়ি। সড়ক এখানে অনেকটা ইংরেজী বর্ণ 'এস' এর মতন এঁকে বেঁকে ছিলিমপুরের দিকে চলে গেছে। সড়কের বাঁকে বাঁশ ঝাড়। তার পাশেই বিশাল এক কড়ই গাছ। কড়ই গাছের পাতায় বাতাসের বাড়ি লেগে যখন ছর ছর শব্দ উঠে তখন মনে হয় এক জায়গায় দাঁড়িয়ে উদ্দাম নৃত্য করছে অজানা কোন দানব। দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকে জোড়ে বাতাস বইছে। মেঘে ঢাকা অন্ধকার আকাশে এক ফোঁটা চাঁদও নেই। কড়ই গাছের মাথা থেকে কিছু একটা ঝুলে ছিল। দূরে মন্ডল বাড়ির লাইটের আলোয় আবছা দেখা গেল এক জোড়া অস্বাভাবিক লম্বা পা ফেলে বসে আছে কেউ।


আইসিএসএফ থেকে নিঝুম মজুমদার এর বহিষ্কার প্রসঙ্গে

ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস স্ট্র্যাটেজি ফোরাম এর ছবি
লিখেছেন ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস স্ট্র্যাটেজি ফোরাম [অতিথি] (তারিখ: বুধ, ২৩/০৭/২০১৪ - ১২:৫২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারীতে প্রতিষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইমস স্ট্র্যাটেজি ফোরাম (আইসিএসএফ) মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের ১২টি সংগঠন, এবং সংগঠন বহির্ভুত একক ব্যক্তিদের নিয়ে একটি জোট। জোটভুক্ত সংগঠনগুলোর মধ্যে রয়েছে – ইংরেজী এবং বাংলা মিলিয়ে বাংলাদেশের ৮ (আট)টি কমিউনিটি ব্লগ, গণহত্যার ওপর একটি প্রধান আর্কাইভ, গণহত্যার ওপর বিশেষায়িত একটি গবেষণানির্ভর সংগঠন, এবং একটি বিশেষায়িত উদ্যোগভিত্তিক অলাভজনক প্রতিষ্ঠ


মৌসুমী মানবাধিকারবারী (মৌমা)

আনু-আল হক এর ছবি
লিখেছেন আনু-আল হক [অতিথি] (তারিখ: মঙ্গল, ২২/০৭/২০১৪ - ১২:৪২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সাম্প্রতিককালে সুশীল সমাজের পাশাপাশি মানবাধিকার বস্তুটি যথেষ্ট জনপ্রিয় ওঠার উপ্রক্রম হলে বঙ্গদেশের আনাচে কানাচে মানবাধিকার সংগঠন এবং মানবাধিকারবারী গজিয়ে উঠছিল বেশ। মানবাধিকারবারীকে অনলাইন প্লাটফর্মে বাংলায় আক্তিভিস্ত বলা হয়। ইহা ছাড়াও ভলান্তিয়ার, কিংবা সোস্যাল ওয়ার্কার ইত্যাদি অধুনা খুব সেক্সি। ষাট-সত্তরের দশকে যেমন ছিল বাম রাজনীতি। তখন নাকি প্রেমের দুনিয়ায় বামদের ব্যাপক দৌরাত্ম!


ব্র্যাড অ্যাডামস, এইবার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীকে একটা চিঠি লিখুন

হিমু এর ছবি
লিখেছেন হিমু (তারিখ: সোম, ২১/০৭/২০১৪ - ২:২১অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্যে গঠিত 'এলিট ফোর্স' র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন ওরফে র‍্যাব ভেঙে দেওয়ার জন্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি লিখেছেন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ নামের একটি মৌসুমী মানবাধিকারবারি সংগঠনের এশিয়া অঞ্চলের প্রধান, ব্র্যাড অ্যাডামস [সূত্র]।


তোমাকে নয়-

কনফুসিয়াস এর ছবি
লিখেছেন কনফুসিয়াস (তারিখ: সোম, ১৪/০৭/২০১৪ - ১০:১৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

তোমাকে নয়-
-----------------

আমার কেবলই কেড়ে নেবার স্বভাব-
যা কিছু ভাল লাগে কিংবা লাগার,
তার সব, সব কিছুই চাই আমার।

ঐ দোকানীর রাংতা মোড়ানো স্বপ্ন ভরা বয়াম,
ও পাড়ার ঐ দুরন্ত ব্যাটসম্যানটির সুনাম,
অদ্ভুত সব চকমকি মার্বেল, আর-
অগোছালো চুলে মায়ের অনিচ্ছুক বিলি কাটার আরাম।


নরকের দারোয়ান

হিমু এর ছবি
লিখেছেন হিমু (তারিখ: শনি, ১২/০৭/২০১৪ - ১:৪৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

খালিদ টেবিলের ওপরে হাসিমুখ ধরে রেখে টেবিলের নিচে আমার পায়ে একটা লাথি মারলো। বিশ্বকাপের সিজনের কারণেই হয়তো লাথিটাতে প্রয়োজনের চেয়ে বাড়তি বিষ ছিলো।

ভদ্রলোক ভুরু ওপরে তুলে আমার দিকে তাকিয়ে বললেন, "কী হইলো?"

আমি শার্টের হাতায় চোখের কোণ মুছলাম, খালিদ স্কুলে শেখা প্রত্যুৎপন্নমতিত্ব শব্দটাকে আবার মনে করিয়ে দিয়ে বললো, "উফফ, মশা!"


ধর্ষণ শব্দের ব্যবহার, বিশ্বকাপ, আমরা

সজীব ওসমান এর ছবি
লিখেছেন সজীব ওসমান [অতিথি] (তারিখ: বুধ, ০৯/০৭/২০১৪ - ৮:৫৬অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বিশ্বকাপ উপলক্ষ্যে বিভিন্ন মানুষের প্রতিক্রিয়া দেখছি। বিভিন্নরকমভাবে আমরা আমাদের প্রিয় দলের বা বিপক্ষ দলের খেলাকে বর্ণনা করি। আবেগাপ্লুত হয়ে অনেকভাবে বোঝানোর চেষ্টা করি খেলাটা কী দারুণ বা কী বাজে হয়েছে, কোন দল কত ভাল খেলেছে ইত্যাদি।

কিন্তু ইদানিং, খেলার ধরন বোঝাতে একটা শব্দের ব্যবহার প্রায়ই দেখছি- 'রেইপ' বা 'ধর্ষণ'।

যেমন, মানুষ অবলীলায় বলে যাচ্ছে-


| ঘড়ায়-ভরা উৎবচন…| ২৯১-৩০০ |

রণদীপম বসু এর ছবি
লিখেছেন রণদীপম বসু (তারিখ: মঙ্গল, ০১/০৭/২০১৪ - ৯:২৭অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বহুদিন কোন ব্লগ লিখা হয় না। এমনকি ছাইপাশ যে কাজগুলি নিয়মিত করে যাই সেগুলিও আপলোড করা হচ্ছে না ব্যক্তিগত ব্লগেও। আলসেমি একটা নাতি-ক্ষুদ্র কারণ হলেও অবশ্যই তা প্রধান নয়। গত পাঁচ বছর ধরে যে শখের বোঝাটা কাঁধে নিয়েছিলাম 'এ আর কী' ভেবে, সেটা যে নিজের ওজনের চাইতে এভাবে শতগুণ ভারী হয়ে ওঠবে সেটা কি আর মূর্খ মাথায় বুঝেছিলো ! কাঁধে চাপতেই দিনে দিনে ভারী থেকে ভারী হয়ে ওঠা বোঝাটা বুঝিয়ে দিলো ঠিকই, গরু কি সাধে গাছে চড়ে ! কথা ছিলো এই জুনেই কাজটার মুখ বাঁধবো, কিন্তু তা আর হলো কই ! এখন তা প্রলম্বিত করে জুলাইকে টার্গেট করলাম। কোনভাবে ওটা ঘাড় থেকে নামলে আর পায় কে, চুটিয়ে ব্লগিং চলবে আবার ! এ-আশাতেই বুক বাঁধি। কিন্তু এদিকে সচলের আবির্ভাব তিথি যে পেরিয়ে যায় ! কী আর করা ! তাই এই উৎসব-মুখর (?) সংযমের মাসে সকল সহ-সচলের জ্ঞান-গম্যি-ক্ষেমার প্রতি অবিচল আস্থা রেখে আরেকটি ফাঁকিবাজি পোস্ট ! এবং

সচলায়তনের এই আবির্ভাব-তিথিতে সবার জন্য অনেক অনেক শুভকামনা। সচল থাকুন, সচল রাখুন। প্রিয় সচলায়ন অনেক অনেক দীর্ঘায়ু হোক।