দ্্বিধা কেনো? বকা পেলে শাপ দেবে? --বয়ে গেলো!

হাসান মোরশেদ এর ছবি
লিখেছেন হাসান মোরশেদ (তারিখ: বুধ, ০২/০৮/২০০৬ - ১০:২৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


Love n Hate, best mate
ভালোবাসার উলটো পিঠে নাকি ঘৃনা । ভালো বলতে পারবেন কবি গন ।
কিন্তু যখন এসে দাড়াই মাটির পৃথিবীতে , ভালোবাসা ভালোবাসাই আর ঘৃনাটুকু ঘৃনাই । চরম বাস্তবতায় ভালোবাসা আর ঘৃনার মাঝে কি সত্যি কিছু থাকে?

একটা ভূ-খন্ডের প্রায় সকল মানুষ মিলে প্রত্যাখান করলো ধর্মভিত্তিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা । যুদ্ধ করে নতুন রাষ্ট্র গঠন করলো সেকু্যলারিজমের সুনির্দিষ্ট এজেন্ডায় । ধর্মভিত্তিক রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে ঘৃনা করেছিলো বলে ই তো মানুষ সেদিন সেকু্যলারিজমকে ভালোবেসেছিল । আজ যারা আবার ধর্মভিত্তিক রাষ্ট্র ব্যবস্থাকে ভালোবাসছেন, তারা ঘৃনা করবেন সেকু্যলারিজমের অর্জন স্বাধীন বাংলাদেশকে ।

এটাতো সরল সমীকরন । ফাঁক কোথায়? মাঝামাঝি দাড়ানোর সুযোগ কোথায়?

যারা ধর্মভিত্তিক রাষ্ট্র ব্যাবস্থার স্বপ্ন দেখেন আবার বাংলাদেশ রাষ্ট্র কে ও ভালোবাসার দাবী করেন, হয় তারা বিভ্রান্ত নয় খুব সেয়ানা ।

এই সব পয়েন্টে এসে স হ মর্মিতা, স হাবস্থান মুলত: বাস্তবতা থেকে সরে যাওয়া ।

তাই ওয়ালীর ব্যাট হাতে আক্রমনের হুমকি যেমন সত্য অরুপের মেজাজ খারাপ করে চড় মারার ইচ্ছে টা ও সত্য ।
অরুপ ক্ষমা চান সেটা তার শোভন মানসিকতা কিন্তু আগুন কি সত্যি নিভে গেছে তার ? আমি বিশ্বাস করিনা ।
আর ব্যক্তি ওয়ালী বা ব্যক্তি অরুপ তো মুখ্য নয় । একদিন হয়তো ওয়ালী চলে আসতে পারে চড়মারার দলে , অরুপ যাবে ব্যাট হাতে ঠান্ডা মাথায় আক্রমনের দলে ।
কিন্তু পক্ষ টা থেকেই যাবে । '71 এ ও জেহাদিরা মুক্তিযোদ্ধাদের বেজন্মা , কাফের, ভারতের দালাল বলেছেন-- মুক্তিযোদ্ধারা ও সুযোগ পেলে তাদের বেহেশতে(!) পাঠিয়েছেন ।

মাঝে মাঝে পাশার দান উলটে যাবে । কিন্তু খেলাটা থামবেনা ।
কে এই খেলার জয়ী, কে বিজিত--সময়ই তা বলে দেবে ।


মন্তব্য

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি

এই লেখাটা ঠিক এক যুগ আগের। এই এক যুগে পাশার দান বার বার উল্টেছে পাল্টেছে কিন্তু জয়-পরাজয় এখনো নির্ধারিত হয়নি। কে জানে হয়তো আরও দশ বা বিশ যুগ লেগে যাবে।


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA