রিসার্চ নিয়ে প্যাচাল

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি
লিখেছেন এস এম মাহবুব মুর্শেদ (তারিখ: রবি, ২৩/০৯/২০০৭ - ৬:১০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের একটা খুব প্রিয় সংজ্ঞা আছে আমার - ইঞ্জিনিয়ারিং হচ্ছে মানব জাতির সমস্যা সমাধানের জন্য পদার্থ বিজ্ঞান ব্যবহারের শিল্প [১]।

সমস্যা সমাধানের জন্য একজন ইঞ্জিনিয়ার সমস্যাকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে ফেলে। আসলে, যে কোন বুদ্ধিমান মানুষই সেটা করে। এরপর ছোট ছোট ভাগ গুলো সমাধান করে জোড়া লাগালেই কেল্লা ফতে।

কোন কোন প্রতিষ্ঠান আছে যারা এখনও আদ্যিকালের বিরাট বিরাট যন্ত্রপাতি ব্যবহার করছে। বিশেষ কারনে প্রতিষ্ঠানটির নাম বলতে পারছিনা, কিন্তু বিশ্বাস করুন এরকম প্রতিষ্ঠান খোদ আমেরিকাতেই আছে যারা ৩০/৪০ বছরের পুরোনো যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে। পুরোনো যন্ত্রপাতি মেইনটেনেনসের ঝক্কিও অনেক। আর যেসমস্ত কোম্পানী যন্ত্রগুলো বানিয়ে ছিল হয় তারাই বিলুপ্ত হয়ে গেছে, নতুবা তারা আর স্পেয়ার পার্টস বানায় না। প্রয়োজনের তাগিদে এই স্পেয়ার পার্টস তখন ব্যবহারকারী প্রতিষ্ঠানকেই বানিয়ে নিতে হয়।


পুরোনো পার্টস থেকে নতুন পার্টস বানাবার সময় প্রাথমিক ভাবে যে পদ্ধতি অনুসরন করা হয়েছিল দেখা যায় সে পদ্ধতি অনুসরন করা সম্ভব নয়। উদাহরন স্বরুপ, কম্পিউটারের কেসিং ঢালাই করে তৈরী করা হয়ে থাকে। কিন্তু নতুন করে এই কেসিং বানাবার সময় ঢালাই করার উপযুক্ত প্রযুক্তি নাও থাকতে পারে। সেক্ষেত্রে হাতের কাছে যে পদ্ধতি আছে সেটা দিয়ে জিনিসটা তৈরী করতে হবে। তাই সে সমস্ত ফিচার ঢালাই করে তৈরী করা সোজা সেটা আর সোজা নাও থাকতে পারে।

প্রাথমিক ভাবে যে পদার্থ দিয়ে পার্টটি তৈরী ছিল এখন হয়ত সেই ম্যাটেরিয়াল পাওয়াই যায় না বা পাওয়া গেলেও হাতের কাছে নেই। সুতরাং আগের চেয়ে কিছু পরিবর্তন দরকার যাতে করে নতুন ম্যাটেরিয়ালে এটা খাপ খায়। যেমন, প্লাস্টিকে তৈরী কম্পিউটার কেসিং যদি স্টিল শীট দিয়ে তৈরী করতে হয় তাহলে তার থিকনেস কম হলেও চলে।

আর অন্যান্য ফ্যাক্টর যেমন খরচ, সময় এগুলোও যত কম লাগে তত ভাল।

আমার কাজটা হল এইরকম একটা সিনারিওতে, পুরো প্রসেসটাকে অটোমেট করা। প্রথমে আমাকে একটা পার্ট দেয়া হবে, ক্যাড মডেল হিসেবে। এবং বলে দেয়া হবে কি ভাবে ম্যানুফ্যাকচার করা হয়েছিল, প্রাথমিক ম্যাটেরিয়াল কি ছিল, কি রকম লোড ছিল এর ওপর, অন্যান্য লিমিটেশন কি ইত্যাদি। আমার কাজ হবে এই সমস্ত তথ্য এনালাইজ করে আমাকে দেয়া ক্যাড মডেলের উপর ভিত্তি করে আরেকটি নতুন ক্যাড মডেলের জন্ম দেয়া যেটা এই নতুন পদ্ধতির সাথে খাপ খেতে পারে।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন পুরো কাজটা আসলে কম্পিউটারে। মূলত প্রোগামিং আর জিওমেট্রিক কারনেল নিয়ে ঘাটাঘাটি।

আমার রিসাচের্র সমস্যাটা সমাধানের জন্য মূল সমস্যাকে তিন ভাগে ভাগ করে ফেলা যায়। প্রথম ভাগ হলো তথ্য সংগ্রহ, দ্বিতীয় ভাগ হল নতুন ক্যাড মডেল তৈরী এবং তৃতীয় ভাগ হল এই নতুন মডেল কতটুকু গ্রহনযোগ্য হল, সেটা আদৌ তৈরী করা সম্ভব হবে কিনা তা যাচাই করা।

রিসাচের্র বর্তমান পর্যায়ে আমি প্রথম ভাগ নিয়ে কাজ করছি, আর আরেকটা ছেলে শেষ ভাগটায় কাজ করছে। মাঝের ভাগটা এখনও শুরু করা হয়নি।

প্রথম ভাগটার কাজটা একটু করে বলি। ধরে নেই পুরোনো যন্ত্রাংশটির ক্যাড মডেল আছে। তখন আমার প্রোগ্রামটি নিচের তথ্য গুলো সংগ্রহ করবে:
১। এর ওপর কি কি ধরনের লোড পড়বে
২। এটির আকার আকৃতির পরিবর্তন এর সাথে লাগোয়া যন্ত্র পাতির ওপর কি রকম প্রভাব ফেলবে
৩। যে ম্যাটিরিয়াল দিয়ে এটি প্রাথমিক ভাবে তৈরী ছিল তার কোন কোন গুন গুলো জরুরী
৪। এটি কি কাজে ব্যবহৃত হত

এই সমস্ত তথ্য সংগ্রহ শেষে এটি যাবে দ্বিতীয় ধাপে এবং সবশেষে তৃতীয় ধাপে। অবশেষে আমরা একটি উত্তর পাবো নতুন যন্ত্রাংশ কিরকম হবে সে ব্যাপারে। আর এভাবেই সম্পন্ন হবে পুরো প্রক্রিয়াটি।

কেউ কি ক্যাড ক্যাম নিয়ে কাজ করেছেন? বা রিলেটেড ফিলডে আছেন?

[১] "Engineering is the art of applying the physical sciences to the problems of mankind" (Design of Machine Elements, V. M. Faires)


মন্তব্য

অভিজিৎ এর ছবি

কেউ কি ক্যাড ক্যাম নিয়ে কাজ করেছেন? বা রিলেটেড ফিলডে আছেন?

আমি মাস্টার্সের সময় একটা জাভা-ভিত্তিক ক্যাড মডেলইং সফটয়্যার বানিয়েছিলাম সাইবারক্যাড নামে। সে সময় ইউনি গ্রাফিক্স আর আইডিয়াস নিয়ে ঘাটাঘাটি করতে হয়েছিল। পিএইচ ডি তে আমি হিউম্যান ব্রেনের মডেলিং-এর উপর হাল্কা একটু কাজ করেছিলাম। মুলতঃ সলিড ওয়ার্ক্স ব্যবহার করেছিলাম ক্যাড মডেলইং-এ। আর কসমস-ওয়ার্ক্স এবং এনসিস ব্যবহার করেছিলাম ফাঈনাইট এলিমেন্ট এনালাইসিস করতে ।

আপনি কি আপনার কাজের জন্য কোন এফইএম সফটওয়ার ব্যবহার করছেন?

অনেক আগের কথা। আমার বর্তমান পেশার সাথে সে সময়ের কাজের কোন সম্পর্ক নেই যদিও। হাসি

=============================
পান্ডুলিপি পোড়ে না। -- বুলগাকভ (মাস্টার এন্ড মার্গেরিটা)


পান্ডুলিপি পোড়ে না। -- বুলগাকভ (মাস্টার এন্ড মার্গেরিটা)

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

আপনি তো তাহলে আমার দলেরই লোক!

আমি যে "তথ্য সংগ্রহ" সমস্যাটার সমাধান করেছি সেটা আসলে একটা নতুন এসেম্বলী মডেল। অনেক ব্লোস এন্ড হুইসেল দিয়ে এএসএমই (ASME) কনফারেনসে প্রেজেন্টও করে এসেছি। একটা ক্যাড টেস্ট বেড করেছি প্রুফ অফ কনসেপ্ট হিসেবে।

এমনিতে আইডিয়াস হচ্ছে আমার প্রথম ক্যাড প্রোগ্রাম। অনেকগুলো কাজ করেছি সেটা দিয়ে। কিন্তু প্রতিবার গালি দিয়েছি। পছন্দ হয়েছে সলিড ওয়ার্কস, সলিড এজ আর সম্প্রতি ইউজি এন এক্স ৫.০। এফইএম এর জন্য আইডিয়াস ব্যবহার করতাম। তবে এ সেমিস্টারে এনসিস পড়াচ্ছি (নিজে না জেনেই খাইছে)।

(কেন যেন মনে হচ্ছে এ লেখাটা আগেও সচলায়তনে দিয়েছিলাম। কিন্তু খুঁজে পাচ্ছি না। ডেজাভ্যু!!!)

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

আরিফ জেবতিক এর ছবি

ও,টেকী পোস্ট।
খামোখাই খুললাম তাইলে।হে:হে:হে:।

মুহম্মদ জুবায়ের এর ছবি

শুরুতে ইঞ্জিনিয়ারিং-এর সংজ্ঞাটা দেখে আগ্রহ হলো। পড়তে গিয়ে দেখি সব মাথার অনেক ওপর দিয়ে যাচ্ছে! সুতরাং বোকার হাসি হাসি

-----------------------------------------------
ছি ছি এত্তা জঞ্জাল!

অতিথি লেখক এর ছবি

হুম। পরে কথা হবে। আগে অভিজিৎ চালিয়ে নিক..

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA