কাবেরী একটি নদীর নাম

সুমাদ্রী এর ছবি
লিখেছেন সুমাদ্রী (তারিখ: রবি, ১২/০৭/২০১৫ - ১:২০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এক চোট বৃষ্টির পর বালিপথে ফুটে উঠল হঠাৎ তোমার নাম
তারপর মাধবী ফুলের গন্ধ সারাটা সন্ধ্যা,
আহা, সুঘ্রাণ!
তখন পড়ি পল ভের্লেন,
কোথাও বাজে একটা বাগেশ্রীর আলাপ......
তখন মনে পড়ে মথুরার দিনগুলি,
=অ=লি=গ=লি=
আর মুরলী মোহন
কে যেন অলখে
সমগ্র আকাশে
এক সাথে জ্বালিয়ে দেয় নিযুত বাতি
বাতাসে ফুলের গন্ধ, রাত্রির আকাশে জ্বলে তোমার নাম।
একটা চাদর জড়িয়ে ছাদে চলে আসি, এখান থেকে নদী যায় দেখা
দূর জাহাজের আলো জলে জ্বলে, আর ঢেউয়ে ভেসে আসে একটি নাম।
কাবেরী।।


মন্তব্য

সবজান্তা এর ছবি

কবিতার দৃশ্যকল্পটা ভালো লাগলো। মথুরার পথে হেঁটে বেড়ানোর একটা অনুভূতি হলো।

"অলিগলি" শব্দটা লেখার জন্য = চিহ্নের ব্যবহার ভালো লাগেনি। পাঠক হিসাবে ওই অংশটায় এসে হোঁচট খেয়েছি। কোনো শব্দ কিংবা অর্থের কথা না ভেবে, যখন শুধু মাত্র কবিতাটির দিকে তাকিয়ে ছিলাম, ওই সমতা চিহ্নটা চোখের জন্য পীড়াদায়ক ছিলো। লেখক হিসেবে নিশ্চয়ই আপনার কোনো যুক্তি আছে- তবে পাঠক হিসেবে আমি রিলেট করতে পারিনি।

তবে কবিতা এমনিতে ভালো লেগেছে। আরো পড়ার অপেক্ষায় থাকলাম।

সুমাদ্রী এর ছবি

মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ।শব্দগুলোর পিছনে ছবি থাকে, সবগুলো শব্দ মিলিয়ে কবিতা আসলে একটা বড় ছবিই। 'অলিগলি' শব্দটার যে ছবি আমার মাথায় ঘুরছিল তা একটি নয়, বেশ ক'টি। ছোট ছোট রাস্তা, দেখতে = এর মত। আপনি গীয়োম আপোলিনের এর কবিতা পড়লে দেখবেন শব্দগুলো মিলে একটা ঘোড়া হয়ে গেছে। আমি অনেকটা সেরকম একটা দ্যোতনা আনতে চেয়েছিলাম। ধন্যবাদ আপনার পাঠ আর মতামতের জন্য।

অন্ধকার এসে বিশ্বচরাচর ঢেকে দেওয়ার পরেই
আমি দেখতে পাই একটি দুটি তিনটি তারা জ্বলছে আকাশে।।

অতিথি লেখক এর ছবি

চলুক

দেবদ্যুতি

কল্যাণ এর ছবি

ঘোরাঘুরির মধ্যে লেখালেখির সময় বের করে ফেলেছেন? বাহহ হাততালি ; তবে বাগেশ্রী শুনে হুট করে বাঘেশ্রী মনে পড়ে গেল মন খারাপ , টেনিদা পড়ার পর থেকে আমার এই দুর্গতি! সিরিয়াস লেখায় হালকা মন্তব্য হয়ে গেল সেজন্যে দুঃখিত সুমাদ্রীদা।

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

অতিথি লেখক এর ছবি

বাহ!

----------------------------
ইচ্ছে মত লিখি
http://icchemotolikhi.blogspot.in/

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।