নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ব্লগ

অশরণ (ছোটগল্প)

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: বিষ্যুদ, ২২/০৯/২০১১ - ৫:৪০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

কামরুল হাসান নিতান্তই এক সাধারণ দর্শন মানুষ। গুলশানের এক স্টুডিওতে কাজ করেন, ফটো ডেভলোপারের কাজ। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সারা দিন কাজ করে রাতে বাসায় ফেরেন। খেতে খেতেই স্ত্রী মিতার সাথে দু'চারটা যা কথা হয়। একমাত্র মেয়ে কণা। গতমাসে বয়স চোদ্দ হলো। কামরুল হাসান বুঝতে পারেন মেয়েকে সময় দেয়া উচিত, কিন্তু সে সময়টা তার হয়ে ওঠে না। সারাদিনের ক্লান্তির পর রাতটা ঘুমিয়ে আবার সকালে থেকে কাজ। জীবনটা তার কাছে নিতান্তই যান্ত্রিক এক অবকাঠামো।


বিশ্বকাপ রাগবি আড্ডা

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: শনি, ১৭/০৯/২০১১ - ১০:২০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গত ৯ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে রাগবি বিশ্বকাপ। মোট ২০টি দল চারটি পুলে বিভক্ত হয়ে লড়াই করছে একে অপরের সাথে। যদিও মাত্র কয়েকটা দল বাদে বাকি দলগুলো মাত্র একটা করে ম্যাচ খেলেছে, কিন্তু তাতেই উত্তেজনার পারদ উঠে পড়েছে অনেক উপরে।


ডাবলিনের ডায়েরী - ২১ (শেষ পর্ব) [প্রথম খণ্ড]

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: শুক্র, ০২/০৯/২০১১ - ৩:০৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

“When I die, Dublin will be written in my heart.”

James Joyce

কিছু কিছু শহর রয়েছে যেগুলো আমাদের হৃদয়ে গেঁথে যায়। তখন আমরা যেখানেই থাকি, যাই করি, সে শহরকে মনে পড়ে। সে শহরের মানুষগুলো, তাদের সাথে কাটানো আনন্দের মুহূর্তগুলো, ব্যস্ত-ফাঁকা রাস্তাগুলো, হঠাৎ ওঠা দমকা হাওয়া যা এক সময় খুব বিচ্ছিরি লাগতো, পাড়মাতালের গায়ে পড়ে মাতলামী করা, এমন কি তিক্ত মুহূর্তগুলোকেও মিস করতে শুরু করি আমরা। এই মিস করার যে অনুভূতি, সেটার জন্ম একটা বোধ থেকে। এমন একটা বোধ যা কৃত্রিম নয়, যা মানুষের গড়ে তোলা নয়। এটা স্বতস্ফূর্ত ভাবে তৈরি হয় হৃদয়ে। এই বোধ একেকটা শহরের সাথে আমাদের আত্মার সম্পর্ক জুড়ে দেয়। আমরা তখন যেখানেই থাকি না কেন, মন সেই শহরকে খুঁজে ফেরে প্রতিনিয়ত।


তারেক মাসুদ – যে মানুষটার সাথে দেখা করার স্বপ্ন কোন দিন পূরণ হবে না

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: রবি, ১৪/০৮/২০১১ - ৫:২৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

তারেক মাসুদ। চলচিত্র নির্মাতা। অথচ তাঁর কোন কমার্শিয়াল ফিল্ম নেই। চাইলেই তিনি বানাতে পারতেন। সুখ্যাতি ছিল আন্তর্জাতিক পর্যায়ে। তাঁর অধিকাংশ ছবির প্রযোজক ছিলেন তাঁরই স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ। সুযোগ, যশ এবং খ্যাতিকে ব্যবহার করে কড়ি কড়ি টাকা আয় করতে পারতেন। কিন্তু তিনি তা করেন নি। এক অন্য রকম মানুষ ছিলেন এই তারেক মাসুদ। আজীবন তাঁর কর্মক্ষেত্র ছিল বিকল্প ধারার স্বল্প ও পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচিত্র বানানো। পূর্ব বাংলায় যদি আজ পর্যন্ত কারো মাঝে সত্যজিৎ-এর ছায়া দেখা গিয়ে থাকে, সেটা অবশ্যই তারেক মাসুদ। অত্যন্ত বেদনার্ত হৃদয়ে সেই মানুষটাকে নিয়ে লিখতে বসে সবগুলো “কাল” অতীতে ব্যবহার করতে হচ্ছে। কারণ আজ মানুষটাই অতীত।


ডাবলিনের ডায়েরী - ২০

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: রবি, ০৭/০৮/২০১১ - ৫:০৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আজ সকালটা কেমন যেন এলোমেলো। রোববার। তেমন কোন কাজ নেই। শুয়ে-বসে-স্কাইপে কথা বলেই কাটানো। একটু আগে শাওয়ার নিয়ে এসে ল্যাপটপের সামনে বসতেই বন্ধু দিবসের পোস্টগুলো চোখে পড়লো ফেইসবুকে। সাথে সাথে সা. ইন ব্লগ থেকে ২০০৮ সনের এই লেখাটা বের করে পড়লাম। তারপর কিছু সময় চুপচাপ বসে রইলাম। কেমন যেন স্মৃতিকাতর হয়ে উঠলাম।


একজন রুমানা মঞ্জুর শুধুই একজন রুমানা মঞ্জুর নয়

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: শুক্র, ১৭/০৬/২০১১ - ২:০২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

অনুরোধ করবো লেখাটা পড়ার আগে আপনার পক্ষে বা বিপক্ষের মতামতগুলোকে ১৫ মিনেটের জন্যে তুলে রাখুন। আসুন আমরা একটা নিরপেক্ষ দৃষ্টিকোন থেকে বিষয়টিকে দেখার চেষ্টা করি।

গত কিছুদিন কাজের চাপ একটু বেশী ছিল। অনলাইন থেকে খবরের কাগজ পড়ার সময় হয়ে ওঠে নি।তবু দেশে কী হচ্ছে, না হচ্ছে সেটা ফেইসবুকের হোমপেইজ থেকে দেখে নিচ্ছিলাম মাঝে মাঝে। খবরটা চোখে পড়েছিল দিনের বেলাতেই। তবে বিস্তারিত পড়া হয় নি। সন্ধ্যায় বাসায় ফিরে ল্যাপটপ ওপেন করে স্কাইপ থেকে বাংলাদেশে গার্লফ্রেন্ডকে কল দিলাম। কথা বলতে বলতে হঠাৎ সে বলল,
“পিংকী আপুর (আমার ছোটবোন) ফেইসবুক স্ট্যাটাস দেখেছো?”
আমি অন্যমনস্ক ভাবে বললাম, “না। কেন? কী লিখেছে?”
“আপু লিখেছে, জীবনে এই প্রথম বিয়ে নামক ব্যাপারটাকে ভয় পেলাম।”


অবরুদ্ধ আর্তনাদ

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: রবি, ২৭/০৩/২০১১ - ৩:২৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

একটা বিষয় আমাকে খুব খোঁচাচ্ছিল। শেষ পর্যন্ত আর থাকতে না পেরে এ গল্পটা লিখলাম। এটা একটা বিষয় ভিত্তিক লেখা। একটা সুস্পষ্ট ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এই গল্পের অবতারণা। - লেখক।

[justify]১

নাজনিন দ্রুত টাকাগুলো গুনে টিনের কৌটায় ভরে রাখে। পাশে তখনও পড়ে ছিল ভাঙ্গা মাটির ব্যাঙ্কটা। চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে ভাঙ্গা টুকরাগুলো। সব কেমন যেন এলোমেলো।


বাংলাদেশি মিডিয়ার বিশ্বকাপ রিপোর্টিং এবং কিছু তিক্ত অনুভূতি

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: শনি, ১২/০৩/২০১১ - ৪:৪৩অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গত কিছু দিন মিডিয়ার একটা বিশেষ আচরণ লক্ষ্য করলাম। তারা যে কোন উপায়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সমালোচনা করতে পারলেই বিগলিত হচ্ছে। অনেকটা যেন “বাংলাদেশ দলের সমালোচনা” এখন হটকেক। যে কোন ভাবে ক্রিকেটারদের খেলা, আয় বা তাদের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে কাদা ছোড়াছুঁড়ি করতে পারলেই তারা একটা সীমাহীন অসুস্থ আনন্দ অনুভব করছে।


দ্বীপান্তরী নাবিকের আর্তনাদ

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: বুধ, ০১/১২/২০১০ - ৮:২৩পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আটলান্টিকের পাড়ে শীতের রাতগুলো
ঝুপ করে নেমে আসে; কালো কুয়াশার চাদরে
আপাদমস্তক ঢেকে যেন কোন ফেরারী আসামী।
তারপর একটু একটু করে গভীর থেকে গভীরতর হতে হতে
গ্রাস করে নিতে থাকে মহাকালের বুক থেকে
ঝরে যাওয়া একেকটি দিন।

ক্ষয়িষ্ণু সেই রাতগুলোয় উষ্ণ চিমনির পাশে
নীরবে, একাকী বসে এক দ্বীপান্তরী নাবিক ভাবে
ভীরু চোখে তাকিয়ে থাকা “সেই” বালিকার কথা।
হায় মহাকাল, এখানেই তোমার ব্যর্থতা;
তু ...


ব্রোকেন হার্ট তরুণ, ফরাসী তরুণীদ্বয় এবং হার্টব্রেকার

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী (তারিখ: রবি, ২১/১১/২০১০ - ৭:২৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

একদিনের ঘটনা, হঠাৎ মুভি দেখার ইচ্ছে জাগলো। ব্যাপারটা এমন না যে কালে-ভাদ্রে মুভি দেখি। আগে মাসে কম করে হলেও ২০টা মুভি সিনেমায় গিয়ে দেখা হতো। এখনও সংখ্যাটা দশের মধ্যে আছে। তবে মাঝে কিছুদিন দশ-বছরের-প্রেমিকা-কর্তৃক-ছ্যাক-প্রাপ্ত হইয়া মুভি দেখাই বন্ধ করে দিয়েছিলাম। তারপর মনে হলো আবার মুভি দেখা শুরু করবো। কী আছে জীবনে? ভগ্ন হৃদয় নিয়ে মুখ থুবড়ে ঘরে পড়ে থাকার কোন মানে হয় না। অতঃপর আবার ...