একখান কুইজ কইতাম চাই - ১

দুর্দান্ত এর ছবি
লিখেছেন দুর্দান্ত (তারিখ: শনি, ০৫/০১/২০০৮ - ৫:২১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

autoজাতিসঙ্ঘের কৃষি আরে খাদ্য সংস্থার উপাত্য অনু্যায়ি গড়পরতার বাংলাদেশি আধা কিলোগ্রাম রান্না করা খাবার খায়, যার বারো আনাই, মানে প্রায় ৪০০গ্রামই হল ভাত। মোটা চাল সিদ্ধ করে ভাত রাঁধলে দ্বিগুন হয়, এই হিসাবে ৪০০ গ্রাম ভাত রাঁধতে লাগে ২০০গ্রাম চাল। দেশের অবস্থা খারাপ, কিন্তু মংগা, সাইক্লোন না হলে গড়পরতার বাংলাদেশের মানুষ আর কিছু না জুটুক, পোড়ামরিচ আর নুন মেখে হলেও, দৈনিক দুবেলাই ভাত খায়। বছর ঘুরলে পর তার নিজের জন্য ১৪৫ কিলোগ্রাম চাল লাগেই। সরকারি আর জাতিসঙ্ঘের- এই দুই হিসাব মোতাবেকই এই ১৪৫ কিলোগ্রামের চোদ্দ আনাই দেশের মাটিতে গজায়, বাকি দুই আনা হয় টেন্ডার নয় সাহায্য হিসাবে দেশের বাইরে থেকে আসে। তারমানে বিশ্ববাজারে চালের উর্ধগতির প্রভাব পড়লেও তা দুই আনার, বাকি চোদ্দ আনা আমাদের ঘর কা মামলা। এই বছর সিডর এর কারনে দেশে চালের উতপাদনলক্ষমাত্রা অর্জিত হবে না, কিন্ত এই বছর, অনান্য বছরের চাইতে বেশি চাল আমদানি করা হবে, যদিও বেশী দামে – কিন্ত তা কিন্তু ঐ দুই আনাই, বাকি চৌদ্দ আনায় কিন্তু কোন হেরফের নাই।

আমাদের দেশে এক কিলোগ্রাম ধান চাষ করতে গড়ে ৪৫ গ্রাম সার লাগে। এই সারের সিংহভাগ হল ইউরিয়া, আর বাদ বাকির মধ্যে ফস্ফেটভিত্তিক সারটাই বেশী চলে। দেশে ব্যাবহৃত সারে দশ আনা দেশে তৈরি আর বাকিটা আমদানিকৃত। তা যে সার ই হোক – আর তা যেখান থেকেই আসুক, তার কম করে হলেও বারো আনা হয় প্রাকৃতিক গ্যস নয় তেল থেকে আসে। কিভাবে? ইউরিয়ার কথাই ধরা যাক। প্রতি টন ইউরিয়া উতপাদনে লাগে ৩৩ MMbtu প্রাকৃতিক গ্যস, যা কিনা প্রায় ৫.৫ ব্যারেল তেলের সমাতুল্য (barrel of oil equivalent বা boe)। কিন্তু এই হিসাবে এক কিলোগ্রাম ধানের সাকুল্যে একজন দেশী চাষি ০.০০০০২৫ ব্যারেল তেলের এক ফোঁটাও বেশী পরিমান সার ব্যাবহার করেন না। আচ্ছা, নাহলে ধরেই নিলাম খাজনার চেয়ে বাজনা বেশী। সেই ধানের জন্য সেচ, চাল কল চালাতে, আর সেই চাল বাজারে এসে পৌছাতে আরো ০.০০০০৭৫ ব্যারেল তেল/গ্যাস লাগে; এক কথায় বাংলাদেশে এক কিলোগ্রাম চালের জন্য ০.০০০১ ব্যারেল তেল সাবাড় হয়।

ধরে নিলাম যে নিউ ইয়োর্কের মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জের সামনে ছোট ছোট সিসি বোতলে করে ০.০০০১ ব্যারেল তেল দেদারসে বিক্রি হচ্ছে, বাইতুল মোকাররামের সামনে যেভাবে মেশক-এ-আম্বর বিক্রি হয়, সেভাবে। তো এইরকম এক বোতল তেলের দাম কত হবে? ১০০ ডলার ব্যারেল আর ৭০ টাকা ডলার ধরলে তা দাঁড়ায় ৭০ পয়সার কাছাকাছি, ধরলাম কমিশান বাবদ আর বোতলজাত করার হ্যাপা বাবদ আরো ৩০ পয়সা যাবে। সে যাই হোক ৩৫ টাকা কিলোগ্রাম চালের দামে এক টাকার ওঠানামা, এই রকম পিচকি হেরফের তো দেশের বাজারে হর হামেশাই হয়।

আইচ্ছা তাহইলে কইন ছাইন দেহি -

দেশব্যাপি সরবরাহ ব্যবস্থা ষোল আনা ঠিক থাকলেও, মজুদদারি না হলেও, তেলের দাম ১০০ ডলারের আশেপাশে থাকলেও, আগামি কয়েকমাস বাংলাদেশে চালের দামের হেরফের কি এক দুই টাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে?


মন্তব্য

হিমু এর ছবি
সংসারে এক সন্ন্যাসী এর ছবি

... নিউ ইয়োর্কের মার্কেন্টাইল এক্সচেঞ্জের সামনে ছোট ছোট সিসি বোতলে করে ০.০০০১ ব্যারেল তেল দেদারসে বিক্রি হচ্ছে, বাইতুল মোকাররামের সামনে যেভাবে মেশক-এ-আম্বর বিক্রি হয়...

গড়াগড়ি দিয়া হাসি

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
টাকা দিয়ে যা কেনা যায় না, তার পেছনেই সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হয় কেনু, কেনু, কেনু? চিন্তিত

দিগন্ত এর ছবি

[দীর্ঘশ্বাস]... দামের পরিবর্তন না হলেই ভাল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

লুৎফুল আরেফীন এর ছবি

হুমম...। একটা প্রশ্ন,

এই বছর সিডর এর কারনে দেশে চালের উতপাদনলক্ষমাত্রা অর্জিত হবে না, কিন্ত এই বছর, অনান্য বছরের চাইতে বেশি চাল আমদানি করা হবে, যদিও বেশী দামে – কিন্ত তা কিন্তু ঐ দুই আনাই, বাকি চৌদ্দ আনায় কিন্তু কোন হেরফের নাই।

বাকি ১৪ আনায় হেরফের হয়েছে বলেই তো বাইরে থেকে আনা। সুতরাং মোট চাহিদা অপরিবর্তিত থাকলে এবারে বাইরে থেকে বেশী আনতে হবে - এটাই তো স্বাভাবিক মনে হয় আমার কাছে। নয় কি?
তাহলে "ঐ ২ আনাই" কথাটি কি ঠিক?

শুধু জানতে চাই। ধন্যবাদ।

মুহম্মদ জুবায়ের এর ছবি

আপনার প্রশ্নের উত্তর কেউ জানে না। এই উত্তরটাই সঠিক, তাই না?

-----------------------------------------------
ছি ছি এত্তা জঞ্জাল!

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।