আরেকটি গৌতুক

শেহাব এর ছবি
লিখেছেন শেহাব (তারিখ: বুধ, ১২/০২/২০১৪ - ১০:২১অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গোলাম আজমের মামলা তখন পূর্ণোদ্যমে চলছে। পিজিতো জাতীয় জাদুঘরের কাছেই। অনেকদিন কেবিনে শুয়ে বসে কাটাতে কাটাতে জাদুঘরের প্রভাবে তার মধ্যে শিল্পী সত্ত্বা সৃষ্টি হল। তো সে রংতুলি নিয়ে লেগে পড়ল। তার সৃজনশীলতার বিষয় একাত্তরের বধ্যভূমি। সেসময় তারা বিভিন্ন বধ্যভূমিতে মৃতদেহ ফেলার সময় স্তুপ হওয়ার বিভিন্ন প্যাটার্ন সৃষ্টি হত। সেটির নান্দনিক দিকটিই তার কাজের বিষয়। কিছুদিন পর ছবির হাটে গেল প্রদর্শনী করা নিয়ে কিন্তু এক টোকাই কেন যেন তাকে পাছায় লাথি দিয়ে বের করে দিল। সে ঠিক করল মগবাজার আল-ফালাহ মিলনায়তনে করবে।

প্রদর্শনী চলছে। মামলায় মৃত্যুদণ্ড হওয়ার যে ভয় সেটি সৃষ্টি সুখের উল্লাসে গোলাম আজম এক রকম ভুলেই গেছে। তো আল-ফালাহর পরিচালককে সে একদিন সত্যিকারের শিল্পীদের মত ফোন দিয়ে জানতে চাইল প্রদর্শনী কেমন চলছে? পরিচালক বলল,

- স্যার, সুখবর, কুখবর দুইটিই আছে। কোনটি বলব?

- আরে সুখবর সুখবর! কুখবর দিয়ে কি করব আমি?

- স্যার কালকে এক লোক এসে আপনার সব ছবি কিনে নিয়ে গেল!

- বাহ তাই নাকি? বাঙ্গালী তাহলে এতদিনে শিল্প কি জিনিস চিনল! দারুণ! তো, আপনার কুখবরটি কি শুনি? ট্রাইব্যুনাল কি আমাকে ছবি আকার জন্যও শাস্তি দিবে নাকি?

- না স্যার ঠিক তা না। গতকালের ওই লোকটি কেনার আগে আমাকে একটি প্রশ্ন করেছিল।

- কি প্রশ্ন?

- প্রশ্ন করেছিল যে, মৃত্যুর পর এই শিল্পীর ছবির দাম হঠাৎ বেড়ে যাবে কিনা?

- তুমি কি বললে? বাড়বে?

- স্যার, হয়তো জয়নুল আবেদিনের মত হবে না। কিন্তু বাঁশের কেল্লার লাইকের ১০% ও যদি সত্যি একাউন্ট হয় তাহলেও তো আপনার মৃত্যুর পর ছবিগুলো নিয়ে কাড়াকাড়ি পড়ে যাবে। তখন দামও নিশ্চয় অনেক বেড়ে যাবে।

(গোলাম আজম বলতে চেয়েছিল, ঠিকই তো? যুক্তির কথা বলেছো। কিন্তু সে আবেগে কাইন্দালছে।)

- তো এখানে কুখবরটি কোথায়?

- স্যার যে কিনে নিসে উনি আর কেউ না, আপনার আইনজীবি!

অণুপ্রেরণা: প্লেটো এন্ড এ প্লাটিপাস ওয়াক ইন্টু এ বার


মন্তব্য

সাফিনাজ আরজু এর ছবি

এই গৌতুকটাও গজারু হয়েছে। হাসি
গু আজম কে নিয়ে গৌতুক চলুক। চলুক

__________________________________
----আমার মুক্তি আলোয় আলোয় এই আকাশে---

ওডিন এর ছবি

হাহাহাহাহহাহাহাহাহাহা! দুর্দান্ত হইছে! দেঁতো হাসি

গুপন সূত্রে পাওয়া একটা খবর ছিলো যে হাসপাতালে গোয়াযম এর হাতে নাকি একটা ট্যাবলেট/আইপ্যাড সদৃশ বস্ত দেখে গেছে বেশ কয়েকবার। বেটা ছবি আঁকলেও আঁকতে পারে। হাসি

অতিথি লেখক এর ছবি

[মেঘলা মানুষ]

অতিথি লেখক এর ছবি

গোয়া কে নিয়ে গৌতুক খাসা হইসে। হাসি

ভালো মেয়ে

কল্যাণ এর ছবি

ইয়েস বাঘ মামা, ইয়েস!!!

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

সাক্ষী সত্যানন্দ এর ছবি

চলুক

____________________________________
যাহারা তোমার বিষাইছে বায়ু, নিভাইছে তব আলো,
তুমি কি তাদের ক্ষমা করিয়াছ, তুমি কি বেসেছ ভালো?

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।