দেব-ডি

শুভাশীষ দাশ এর ছবি
লিখেছেন শুভাশীষ দাশ (তারিখ: বিষ্যুদ, ২৫/১১/২০১০ - ১:৫১অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

দিবাকরের সিনেমাটা দেখছিলাম। অর্ধেক দেখার পরেই কারেন্ট চলে যায়। ইউপিএস দেরি না করে তখনি শব্দ করা ধরে। কম্প্যুটার সাট ডাউন ক্লিক করে বারান্দায় একটা সিগারেট ধরাই। এখন প্রায় বিকেল। বাইরে একটা আকাশ দেখা যাচ্ছে। পাশের বাড়ির বারান্দায় শুকানোর জন্য কাপড় ঝুলে আছে। এছাড়া দেখতে পাই টবের গাছ, আরো নানা কিছু। আর একটু একটু দেখতে পাই কিছুটা দূরে একটা বাড়ির তিনতলার অপ্রয়োজনীয় গ্রিল আর বিকেল হয়ে যাওয়া আলোয় আবছা আবছা কেউ একজন। ভালো করে সেদিকে তাকাতে গেলে মাথা টনটন করে। তার বদলে একটা সিগারেটের রিং বানানোর চেষ্টা করি। বাতাস এসে রিং ভচকে দেয়। আবার রিং বানাই। এবারো বাতাস। সিগারেটটা তাড়াতাড়ি শেষ করি।

আশেপাশে অন্যান্য বাড়িঘরগুলো বসতি গাড়ার পর আমার ঘরে বিকেল হবার আগেই বেশ অন্ধকার অন্ধকার। মোমবাতি জাতীয় কিছু একটা জ্বালাতে হবে। রান্নাঘর অনেক দূর মনে হওয়ায় ঐসব খোঁজাখুঁজি বাদ দিয়ে বিছানায় শুয়ে পড়ি। বালিশ টানতেই ডিভিডির খাপটা মাটিতে পড়ে। মুখের সাথে বেমানান অদ্ভুত ঠোঁটের এই পোস্টার দেখে এই সিনেমা দেখার আগ্রহ জাগে নাই। দিবাকরের বলে দেখা শুরু করেছিলাম। ঠোঁট কাটিয়ে নিচে নেমে দেখি পরিচালকের নামের জায়গায় দেখি অনুরাগ কশ্যপ। আচ্ছা বোকা হই। দিবাকর ব্যানার্জীর ছবি ভেবে এতোক্ষণ দেখেছি। আবারো বোকা হই যখন মাথার কাছে আরো একটা ডিভিডির খাপ টের পাই। লাভ সেক্স অর ধোকা। যা শ্‌শালা, দিবাকরই দেখছিলাম তাহলে। কেন যে সিনেমাটার নাম দেব-ডি ভেবে নিয়েছি কে জানে।

অন্ধকার অন্ধকারে একটা সূত্র দেখি। ফ্রয়েড মিয়ার। ভুলচুক। সূত্রটা সহজ। সেক্স স্ক্যান্ডাল এমএমএস। এতোসব ইমোশনাল অত্যাচার আর দার্শনিক হিসাব বাদ দিয়ে আবার বারান্দায় যাই। এখন প্রায় সন্ধ্যা। আরো একটা সিগারেট ধরাই। রিং পাকাই। ভাঙে। আবার পাকাই। আবছা কিছু ভালো করে দেখতে গেলে মাথা টনটন করে। এদিকে রুমে গেলে একা একা বোকা হতে থাকি।


মন্তব্য

তারানা_শব্দ এর ছবি

আমার কাছে কেন যেন ডেভ-ডি সিনেমাটা অনেক ভালো লাগলো।

গানের কন্সেপ্টটাও। নাচানাচি গান না দিয়ে ব্যাক গ্রাউন্ডে গান ব্যাপারটা ভাল্লাগসে! দেঁতো হাসি

"মান্ধাতারই আমল থেকে চলে আসছে এমনি রকম-
তোমারি কি এমন ভাগ্য বাঁচিয়ে যাবে সকল জখম!
মনেরে আজ কহ যে,
ভালো মন্দ যাহাই আসুক-
সত্যেরে লও সহজে।"

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

সিনেমাটা ভালো। কশ্যপের সিনেমায় কুস্তুরিকা কুস্তুরিকা ভাব আছে।

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

অনিন্দ্য রহমান এর ছবি

দেভডি পুরাটা দেখি নাই। সেকেন্ড হাফে ঝুলায়া দিসে।
অট: সিরকট বেশি টাইনোনা বদ্দা, হার্টের মধ্যে রিং হয়া যাইব মন খারাপ


রাষ্ট্রায়াত্ত শিল্পের পূর্ণ বিকাশ ঘটুক


রাষ্ট্রায়াত্ত শিল্পের পূর্ণ বিকাশ ঘটুক

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

পুরাটা দেখে ফেলেন। খ্রাপ লাগবে না।

অট:
সিরকট নিজের টাকায় খাওয়া বাদ দিসি ম্যালাদিন। তয় কেউ অফার কর্লে না করি না।

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

দুর্দান্ত এর ছবি

হ। সবকিছুই 'ইমোসোনাল আতিয়াচার!'

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

হ।

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

দময়ন্তী এর ছবি

সে যাই বলেন, 'দেভ ডি' বেশ ভালো সিন্মা| হাসি
-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

আরে দমুদি। কেমন আছেন?

হ্যাঁ, সিনেমাটা ভালো। কশ্যপের সব সিনেমাই দেখেছি। আর দিবাকরের LSD দেখার পর বুঝলাম বলিউড কুস্তুরিকার লাইনের দুইজন পরিচালক পেয়ে গেছে।

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি

আমি গল্পে উল্লেখিত দুইটা মুভির একটাও দেখি নাই, দেখার সম্ভাবনাও কম। তবে গল্প ভালো হয়েছে।

সম্ভবতঃ বোর্হেসের লেখায় এক ধরণের জলচক্রের কথা পড়েছিলাম (ছবিও দেখেছিলাম), যেখানে পানি অভিকর্ষকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে উপরে উঠে, নিচে নেমে চক্র পূর্ণ করে। মানুষ মাঝে মধ্যে এমন এক একটা অবাস্তব অসম্ভব কালচক্রে পড়ে ক্রীড়ানকের মতো কেবল ঘোরে, কেবলই ঘোরে। সে অবস্থাকে সূত্রবদ্ধ করার দরকার নেই। কালই এক সময় না এক সময় আবার তাকে দৈনন্দিন চক্রে ফিরিয়ে দেবে। মাঝখানের সময়ের কথা ঠিকভাবে মনে রেখে লিখে ফেলতে পারলে অসাধারণ সাহিত্য হয়ে যায়।



তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

বোর্হেসের লেখা ভালো লাগে। তবে উনার অনেক কিছু ধরতে পারি না। গল্পে সূত্র একটা উল্লেখ ছাড়া কিছু না। সূত্রের নিকুচি করে বারান্দায় যাওয়া। তারপর সেই চক্র।

----------------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

অতিথি লেখক এর ছবি

দেখি নাই... তবে আপনার লেখাটা ভাল লাগলো...

অট: আমি সিগ্রেঠ এক্করে দেখতারিনা, তাছ্রা অসুস্থবোধো করি... তার্পোরো ল্যাদামার্কা আইনের কারণে প্রায়ি এই বদজিনিস্টারে সইজ্ঝ করা লাগে... ভদ্রভাবে বা চিল্লাচিল্লি কুনোটাতেই অনেক সুমায় কাম হয়না... মাইনষে নিজের ট্যাকায় খাইবো ঠিকাছে, তয় খাওনের সুমায় ধুঁয়াডা আমরা যারা চাইনা তাদেরো জুর কইরে ফ্রিতে দেওন্টা আমি চ্রম হেটাই...

"চৈত্রী"

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

ধন্যবাদ।

অট: সিগ্রেট খ্রাপ। গত দেড় বছরে চার/পাঁচটার বেশি টানি নাই। সিগ্রেট্রে হেটানো জারি রাখেন। হাসি

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

অতিথি লেখক এর ছবি

পরিচালক অনুরাগ কশ্যপের সিনেমাগুলি আসলেই একটু ব্যতিক্রধর্মি হয় তার আরেকটা মুভি গুলাল দেখা না হলে তাড়াতাড়ি নামিয়ে দেখে ফেলুন।

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

রিটার্ন অব হনুমান ছাড়া উনার পরিচালনায় করা বাকি সব দেখেছি।

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

পান্থ রহমান রেজা এর ছবি

দেব-ডি সিনেমাটা আমার কাছেও ভালো লেগেছে। বলতে গেলে বেশ ভালোই লেগেছে।

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

হ।

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

সিনেমা দেখি নাই, গপ তাই বুঝি নাই মন খারাপ
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

দেব-ডি আর LSD দুইটাই দেখে ফেলেন। খ্রাপ লাগবে না।

---------------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

দ্রোহী এর ছবি

সিনেমা/পরিচালক কারো নামই আগে শুনি নাই। গল্প তাই মাথার উপর দিয়া গেল।

মন খারাপ


কাকস্য পরিবেদনা

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

মেম্বর না বুঝলে ক্যামনে কী?

-----------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

কনফুসিয়াস এর ছবি

সিনেমাটা আমার খুব পছন্দের। গল্প, মেকিং সবই। হাসি
আপনার গল্পটাও ভাল লাগলো।

-----------------------------------
আমার জানলা দিয়ে একটু খানি আকাশ দেখা যায়-

-----------------------------------
বইদ্বীপ ডট কম

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

হ্যাঁ দেব-ডি ভালো।

নিচের গানটাতে প্রথমবার ইমোশন্যাল অত্যাচার গাওয়ার সময় হাতের টার্গেট কোন জায়গায় পয়েন্ট করেছে দেখলেই বোঝা যায় ইমোশন কোথায় গিয়ে দানা বেঁধেছে। সিনেমাটাতে এইরকম আরো অনেক ছোটো ছোটো খোঁচা আছে। কুস্তুরিকার সিনেমা দেখার পর আবার দেখলে আরো মজা পাবেন।

---------------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA