উইকি স্মৃতি

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: সোম, ২৬/১১/২০০৭ - ১০:৫১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বাংলা উইকিতে আমার যাত্রা শুরু এর জন্মের প্রায় ৭/৮ মাস পর থেকে। নিয়ম কানুন পড়ে পড়ে জানা, আমার খুবই অপছন্দ। তাই নিয়ম কানুন না পড়েই লেখা শুরু করলাম। প্রথম শুরু করেছিলাম, অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে। কারন, আমি ঐ বিভাগের ছাত্র। সেই সাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিবন্ধটিও শুরু করেছিলাম।

এভাবেই যাত্রা শুরু। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে লেখা শুরু করার পর, খেয়াল করলাম জীব বিজ্ঞান উইকিতে খুবই পিছিয়ে আছে। টুকটাক শুরু করলাম। অনেকের সাথে পরিচয় হল। বিশেষ ভাবে উল্লেখ করব, রাগিব ভাই, ডা. সপ্তর্ষি ও বেলায়েত ভাইয়ের কথা। উইকিতে সম্পাদনার নিয়ম গুলো শিখেছি, ভুল করতে করতে। উল্লেখিত, সবাই আমার ভুল ধরে দিয়েছেন এবং এভাবেই আমি শিখেছি। বিশেষ, করে কপি রাইটের ব্যাপারটা। পাইরেটেড সিনেমা, সফটওয়্যার ইত্যাদি ব্যবহার করতে করতে, বিভিন্ন ছবি, তথ্য এসবেরও যে কপি রাইট থাকতে পারে তা আমার চিন্তার অতীত ছিল। সম্প্রতি, বেলায়েতের কাছ থেকে শিখলাম, উক্তির কপিরাইট। প্রথম প্রথম কপিরাইট ব্যাপ্যারটা সত্যিই বিরক্তিকর ছিল। কপিরাইট ঠিক মত উল্লেখ না করায়, কমন্স থেকে আমার নিজের তোলা ছবিও ডিলিট হয়ে গেছে। যাইহোক, আর এই ভুল করি না।

জীববিজ্ঞান বিষয়ক নিবন্ধগুলোতে কাজ করবার সময় ডা. সপ্তর্ষির সাথে পরিচয়। উনি অনেক জ্ঞানী মানুষ। উনি আমাকে কিছু গবেষণা পত্র পাঠিয়েছিলেন, যে গুলো থেকে আমি অনেক অনেক কিছু শিখেছি। আর রাগিব ভাইতো বুয়েটের টিচার। উনি, শিক্ষকের মতই আমাকে উইকির নিয়ম কানুন শিখিয়েছেন।

জীববিজ্ঞান নিয়ে আর লিখতে ইচ্ছা করল না, কেন জানি না। শুরু করলাম, আমার অন্যতম পছন্দের বিষয় ইতিহাস ও জীবনী নিয়ে লেখা। এখন পর্যন্ত কাহিল হই নি। কেন জানি না, মনে হয় কাহিল হব না। ইতিহাসের প্রতি আমার একটা গভীর আগ্রহ আছে। হয়ত, ইতিহাসে ছাত্র হলে এই আকর্ষণটা থাকত না। এক সময় প্রবেশদ্বার তৈরি করেছিলাম কয়েকটা। দর্শন প্রবেশদ্বার তৈরি করার জন্য টেম্পলেট তৈরি করেছি। কিন্তু, করা হয়ে উঠছে না। ইনশাল্লাহ্‌, শীঘ্রই করে ফেলতে পারব।


মন্তব্য

অতিথি লেখক এর ছবি

আপনার সাথে আমিও আছি। তবে মনে হয় এ ব্যাপারে আরেকটু প্রচারণা চালানো দরকার যাতে উইকিতে লিখতে আরো অনেকে আগ্রহি হন।

গৌতম

দুর্বাশা তাপস এর ছবি

নিয়ম-কানুন শেখা আমারও খুব অপছন্দের, এই কারনে লিখতে শুরু করব করব করেও করা হচ্ছেনা। যাহোক শুরু করতে হবে, আমাদের কাজতো আমাদেরই করতে হবে।

==============================
আমিও যদি মরে যেতে পারতাম
তাহলে আমাকে প্রতি মুহূর্তে মরে যেতে হত না।

অতিথি লেখক এর ছবি

মাইক্রোবায়োলজি কোন ব্যাচের আপনি?

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

আপনি কে ভাই? নাম বললেন না?

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

বিপ্রতীপ এর ছবি

বিভিন্ন কারনে লেখা হয়ে উঠে না...।
এ পর্যন্ত দুটি প্রবন্ধ অন্তর্ভুক্ত করেছি-নূর হোসেন এবং ফুয়েল সেল
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
খুঁজে যাই শেকড়ের সন্ধান…

রাগিব এর ছবি

উইকিতে গৎবাঁধা নিয়ম কানুনের বাড়াবাড়ি একেবারেই কম - শুধু বিশ্বকোষীয় ধাঁচে, রেফারেন্স টেনে, তথ্য যোগ করতে হবে - এটাই শর্ত।

আমাদের নিজেদের কথা, নিজেদেরই লিখতে হবে। বিদেশীদের লিখতে দিলে, তারা নিজেদের মতো করে সত্য-মিথ্যা বানিয়ে একটা ইতিহাস খাড়া করবে। আর বিনা পয়সায় বিদেশ থেকে এসে কেউ এই কাজটাও করবে না।

----------------
গণক মিস্তিরি
ভুট্টা ক্ষেত, আম্রিকা
http://www.ragibhasan.com

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

অমিত আহমেদ এর ছবি

খুব ইচ্ছা। সময় পাই না!
রাগিব ভাইয়ের এটা হক কথা, নিজেদের কাজ নিজেদেরই করতে হবে।


ওয়েবসাইট | ফেসবুক | ইমেইল

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।