ছাগুরামকাব্য - ০৮ - শাকাহারী জমায়েৎ

মুখফোড় এর ছবি
লিখেছেন মুখফোড় (তারিখ: শুক্র, ০১/১২/২০০৬ - ৬:২৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ছাগুরাম কহে, "ভাই!
সবার উপরে কাঁটাল সত্য তাহার উপরে নাই!"
উটুরাম কহে, "ভ্রাতা!
কেন মিছে বকি তর্ক বাড়াও খেয়ে কাঁটালের পাতা?
মরুর দেশেতে আসা ইস্তক খাই খেজুরের মূল
পাতা নয়, আছে শেকড়ে শক্তি, নেই তাতে কোন ভুল!"
ছানারাম কহে, "কাগু!
ফিরিঙ্গিদের দেশে আসে নাই, তাই বাজে বকে ছাগু।
আঙ্গুরের লতা আঙ্গুরেরর ডালে কী যে মরমিয়া মধু,
খাইলে বুঝিবে কাঁটাল-খেজুর যে-ই লাউ সে-ই কদু।"

ছাগুরাম কহে, "ছানা!
ঘুরিয়াছি আমি কত জঙ্গল, কত ময়দান নানা
চিবায়া চিবায়া করিয়া দেখেছি পরখ হাজারো পাতা
কাঁটালের কাছে নস্যি সকলই, সব একেবারে যা তা।"

উটুরাম কহে, "বাল!
খেজুর শিকড় খাইলে বুঝিতে উহা কী দারুণ মাল!
মানুষেরা খায় খেজুর পাড়িয়া, আমি খুঁড়ি খাই মূল
মৌলবাদী কি সাধে হইয়াছি রাখিয়া থোতায় চুল?"

ছানারাম কহে, "দাদা!
আঙ্গুরের রস না খাও যদি তো জীবন বৃথাই আধা।
কাঁটালের পাতা খেজুরশিকড় শক্তি যোগাক যত
আবঝাব লেখা কেউ যোগাবে না আঙ্গুররসের মত।"

এইরূপে যত শাকাহারী প্রাণী ব্লগের আসর মাঝে,
নেপথ্যে করে কুপথ্য যত বিষম বিরূপ বাজে,
তাহারই প্রভাবে ব্লগে আসি তারা ত্যাজে ঘনঘন লাদি।
বাখানিয়া তাই আমিও নানান গল্পকবিতা ফাঁদি।


মন্তব্য

সুমন চৌধুরী এর ছবি

এইটা ভচকাইয়া গেছে গা...

.......................................
ঋণম্ কৃত্বাহ ঘৃতম্ পীবেৎ যাবৎ জীবেৎ সুখম্ জীবেৎ

গৌতম এর ছবি

সুপার্ব।

.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

::: http://www.bdeduarticle.com
::: http://www.facebook.com/profile.php?id=614262553/

.............................................
আজকে ভোরের আলোয় উজ্জ্বল
এই জীবনের পদ্মপাতার জল - জীবনানন্দ দাশ

জি.এম.তানিম এর ছবি

ভাষা পাই না কিছু বলার...

গুরু গুরু
-----------------------------------------------------------------
কাচের জগে, বালতি-মগে, চায়ের কাপে ছাই,
অন্ধকারে ভূতের কোরাস, “মুন্ডু কেটে খাই” ।

-----------------------------------------------------------------
কাচের জগে, বালতি-মগে, চায়ের কাপে ছাই,
অন্ধকারে ভূতের কোরাস, “মুন্ডু কেটে খাই” ।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

ছানারাম চিনলাম না। কবিতা মুখা হয়েছে।

সাজ্জাদ সাজিদ এর ছবি

চলুক

সুমন চৌধুরী এর ছবি

এইটা এতকাল পরে ঠ‌্যালা দিলো কে?

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

মনে হয় মাঝির কর্ম।

ব্যাঙের ছাতা এর ছবি

মন খারাপ লাগছিল তাই সচলের একদম শেষ থেকে পড়ছিলাম। এই লেখাটা পড়ে হেসে ফেলেছি। এখন দেখছি মন খারাপের মেঘও উড়তে শুরু করেছে। (হাসির ইমো হবে)

স্যাম এর ছবি

চলুক দেঁতো হাসি

মেঘা এর ছবি

উত্তম জাঝা!

--------------------------------------------------------
আমি আকাশ থেকে টুপটাপ ঝরে পরা
আলোর আধুলি কুড়াচ্ছি,
নুড়ি-পাথরের স্বপ্নে বিভোর নদীতে
পা-ডোবানো কিশোরের বিকেলকে সাক্ষী রেখে
একগুচ্ছ লাল কলাবতী ফুল নিয়ে দৌড়ে যাচ্ছি

কড়িকাঠুরে এর ছবি

গুল্লি

তানিম এহসান এর ছবি

আহা! মন ভালো হয়ে গেলো।

কল্যাণ এর ছবি

গুরু গুরু

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

অতিথি লেখক এর ছবি

হো হো হো

-------------------
সুবোধ অবোধ

আজরফ এর ছবি

গড়াগড়ি দিয়া হাসি
কালোতীর্ণ লেখা। মুখা ইজ বেষ্ট।

অতিথি লেখক এর ছবি

খাইছে এতো দেখি বিতর্ক প্রতিযোগিতা চলছে। গড়াগড়ি দিয়া হাসি
২০০৬ এর সেই ছাগুরাম রা তো এখন রামছাগু তে উত্তীর্ণ হয়েছে।

-ছায়াবৃত্ত

হাসিব এর ছবি

পুরান দিনের কথা।

খেকশিয়াল এর ছবি

বারে বারে ফিরে আসতে হয় হো হো হো

-----------------------------------------------
'..দ্রিমুই য্রখ্রন ত্রখ্রন স্রবট্রাত্রেই দ্রিমু!'

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।