গল্পহীন সময়ের ভেতর দিয়ে আমরা যে গল্পটি দেখি...

পান্থ রহমান রেজা এর ছবি
লিখেছেন পান্থ রহমান রেজা (তারিখ: বুধ, ০৪/০৩/২০০৯ - ১২:৪৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আমার সচলায়তন পাঠ খুব বেশিদিনের না। দিন তারিখের হিসেবে এক বছরও হয়নি। এই অল্পদিনে আমি যে কয়জনের গল্প পাঠের জন্য তীর্থের কাকের মতো বসে থাকি, তিনি আনোয়ার সাদাত শিমুল। তার গল্পের গুনমুগ্ধ পাঠক আমি। তাই আনোয়ার সাদাত শিমুল যেদিন মলাটবন্দী হয়ে বইমেলায় এলেন, সেদিনই তার বইটি বগলদাবা করে বাসায় ফিরি। শুরুতে বলে রাখতে চাই, এটা কোনো বইয়ের সমালোচনা নয়। আমার শিমুল পাঠের একান্ত অনুভূতিমালার প্রকাশ মাত্র। বলতে পারেন, উচ্ছ্বসিত প্রকাশ।

শিমুল কী ভাষায় গল্প বলেন, সেটার চেয়ে আমাকে বেশি টানে তার গল্পের সমকালীন ঘটনাচিত্রের জীবন ছবি। মনে হয়, আমি যেন গল্পের মধ্যে আছি। ব্যক্তি আমিকে তখন আলাদা করা মুশকিল হয়ে পড়ে। আনোয়ার সাদাত শিমুল অবশ্য নিজেই স্বীকার করেছেন, সমকালীন ঘটনা প্রেক্ষিত, জীবন দেখার চেষ্টা করেছেন ব্যক্তি ও সম্মিলিত যাপনে-বর্ণনে। আর এ বর্ণনায় পাঠক হিসেবে আমি এতটাই বুঁদ থেকেছি যে তার রেশ মাথার ভেতর অনেকক্ষণ বুঁদবুঁদ হয়ে থেকেছে। ‘আমরা সস্তায় ফ্ল্যাট কিনবো ভাবছিলাম’ গল্পটির মধ্যে আমরা আমাদের মধ্যবিত্ত বাস্তবতা, নোংরা রাজনৈতিক আবহ মিলিয়ে এক ধরনের অনিশ্চয়তার যে চিত্র ফুটে উঠতে দেখি, তা সত্যি ভাববার মতো। পড়তে পড়তে যেনো মনে হয়, এ বুঝি আমাদের মহল্লায় ঘটে যাওয়া ঘটনার বিবরণ, যা আমরা পাড়ার মোড়ে চায়ের দোকানে চা খেতে খেতে আলাপ করছি।

শিমুলের গল্পে সামাজিক, রাষ্ট্রিক আর রাজনৈতিক বাস্তবতার মাঝেও উঠে এসেছে ব্যক্তিগত টানাপোড়েনের জটিল অধ্যায়। ঢাকা - ১২১৬, স্বপ্নপুরণ, ভালোবাসা একটি মোহ বৃক্ষ গল্পে আমরা ব্যক্তি মানসের নানামুখী টানাপোড়েন দেখি। ঢাকা-১২১৬ গল্পে কথককে একটি অজানা সত্য উন্মোচনের প্রেক্ষিতে নিজেকে ভেঙ্গে-চুরে যেতে দেখি। আর এর মাধ্যমে লেখক আমাদের একটি দার্শনিক সত্যের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছেন- জীবনে যত কম জানা যায়, ততই ভালো থাকা যায়। বেশি কিংবা অজানা কোনো কিছু জেনে ফেলা মানে জীবনের ভার জটিল করে তোলা। অন্যদিকে স্বপ্নপুরণ গল্পের আরমান স্ত্রী’র অসুখের মধ্যে দিয়ে স্ত্রীকে পূর্ণ পান। আসলে এই পাওয়ার মধ্য দিয়ে আমরা আমাদের পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতার প্রকাশ ঘটতে দেখি আরমানের চরিত্রে। আসলে প্রত্যেকটা পুরুষের যে চাওয়া থাকে একটা ঘরোয়া নারীর, যার কাছে এসে সারাদিনের ক্লান্তিটুকু রাখা যাবে, এই সত্যটাই লেখক সুনিপুণ কলমে ফুটিয়ে তুলেছেন।

কর্পোরেট সংস্কৃতির কাছে আমরা কত যে অসহায়, তার বাস্তবতাটুকু এসেছে বইয়ের নাম গল্প অথবা গল্পহীন সময়-এ। গল্পের একটি চরিত্র আলতাফ-এর মুখে আমরা শুটি, ‘আসলে আমি যেটা বলছিলাম, সবকিছু মানুষের চেষ্টার মধ্যে থাকে না। না চাইলেও অনেক কিছু মেনে নিতে হয়, কিন্তু সমস্যাটা আবার সবাইকে বলা যায় না, ব্যক্তিগত-অর্থনেতিক-সামাজিক এ ব্যাপারগুলো বহুমাত্রিক- আর দ্বন্দ্বের। এসবের মাঝে কিছু সময় আসে যখন আপনি অসহায় হয়ে যাবেন।’ এই অসহায়বোধ যে কত, তা আমরা গল্পের পুরো আখ্যান জুড়েই দেখি।

এসব কিছুর পরেও শিমুল আমাদের বর্তমান সময়ের রাজনৈতিক বাস্তবতার গল্প কথক। নতুন খাতার পাতায়, পাকমন পেয়ার, পাক পতাকার ছায়ায়, পরবাসে পাকমন শীর্ষক গল্পে লেখক স্বাধীনতাবিরোধীদের কীর্তিকলাপের যথাযথ বয়ান হাজির করেছেন। কীভাবে জামাত-রাজাকাররা তথ্যবিকৃতির মাধ্যমে আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধকে বিকৃত করার চেষ্টা করছে, তা নতুন খাতার পাতায় গল্পে আমরা দেখতে পাই। জামাতি’রা কীভাবে নতুন প্রজন্মের মগজ ধোলাই-এ নেমেছে তার চমৎকার চিত্র লেখক এই গল্পটিতে চমৎকারভাবে তুলে এনেছেন। একই সঙ্গে তাদের ভন্ডামির চিত্রও উন্মোচিত হয়েছে। তবে পাকমন পেয়ার, পাক পতাকার ছায়ায়, পরবাসে পাকমন গল্পগুলো যত না গল্প হয়ে উঠেছে, তার চেয়ে বেশি হয়েছে রাজাকারদের বিরুদ্ধে আন্তর্জালিক যুদ্ধের হাতিয়ার। আমরা অন্তর্জালের পাঠকরা এই গল্পগুলোর জন্মপ্রেক্ষিত আদ্যপ্রান্তই জানি।

আলবেয়ার কামু তার আউটসাইডার উপন্যাসের এক জায়গায় বলেছেন, ‘আশা ও আলোহীন বিশ্বে মানুষ যেন একাকী আগন্তুক। তার নির্বাসন চুড়ান্ত। কারণ, সে ভুলেছে তা অতীত উৎস। আর, হারিয়েছে ভবিষ্যতের ঠিকানাও।’ স্বাধীনতাবিরোধীরা যেভাবে ফ্যাক্টস অর পলিটিক্স-এ জল ঘোলায় নেমেছে, মুক্তিযুদ্ধকে একটি গণ্ডগোল বলে প্রতিষ্ঠা করার প্রয়াসে নেমেছে, আমাদের হাজার বছরের বাঙালির সংস্কৃতির ভিত্তিমুল ধ্বংস করে দিয়ে ভবিষ্যতকে অন্ধকার করে তোলার চেষ্টা চালাচ্ছে, সেখানে শিমুলের এই গল্পগুলো আমাদের কাছে বাতিঘর হয়ে থাকবে। জয়তু শিমুল।


মন্তব্য

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

আপনারা এইসব লেখা বন্ধ করেন তো! না পাইলাম বইমেলা, না পাইলাম বই... এদিকে সবাই পড়ে সেরে রিভিউ লিখতেসে! মন খারাপ(

কীর্তিনাশা এর ছবি

রিভিউ পড়লাম। চলুক

কিন্তু বইটা এখনো পড়া হলো না মন খারাপ

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

নজরুল ইসলাম এর ছবি

হুম... বইটা পড়ছি। তৃতীয় গল্পের ভেতর আছি এখন। যতটুকু পড়েছি ততটুকুতেই ভালোলাগাটা আছে। দারুণ।
পুরোটা পড়ে নেই... আমিও লিখবো হয়তো শিমুল বয়ান।
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

নজরুল ইসলাম এর ছবি

পান্থ... রিভিউটা ভালো লাগছে...
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

অমিত আহমেদ এর ছবি

চমৎকার রিভিউ!
চলুক পান্থ!


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- শিমুলের গল্প নিয়ে আসলে আমার কিছু বলার নেই। পান্থ'র অনুভূতিটা আমারও। শিমুল লেখে সময়কে ধারণ করে। পাঠককে ধরে নিয়ে যায় সময়ের ভেতর। সেইজন্যই বুঝি তাঁর বইটির নাম সময়কে ঘিরেই।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

বইটা হাতে নিয়ে শুধু উল্টেপাল্টে ছুঁয়ে দেখলাম।
কিউট, না? হাসি
বেশি ঝামেলাগুলো শেষ হলে শুরু করবো।

...........................

সংশোধনহীন স্বপ্ন দেখার স্বপ্ন দেখি একদিন

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

শিমুল ভাইয়ের গল্পের আমিও বিরাট ফ্যান। মুগ্ধ হয়ে পড়েছি তাঁর "অথবা গল্পহীন সময়"। রিভিউ লিখতে চেয়েছিলাম, কিন্তু পান্থ'দা দারুনভাবে সব বলে দিয়েছেন। তাই পান্থ'দার অনুভূতির সাথে একাত্মতা জানিয়ে গেলাম।

রণদীপম বসু এর ছবি

আমাদের পান্থ কেবল একজন দক্ষ গল্পকারই নন, একজন কুশলী পাঠ-সন্ধানীও, শিমুল পাঠের অদ্ভুত জবানীর মধ্য দিয়ে চমৎকার রিভিউটাতে তাই ফুটে ওঠেছে।
আসলেই তাই, একজন কুশলী গল্পকারই তো আরেকজন উত্তীর্ণ গল্পকারকে সবচেয়ে বেশি আবিষ্কার করতে জানেন। খুব অল্প কথার মধ্যে পান্থ তাই করেছে।
শিমুল এবং পান্থ দুজনকেই আমার ভালোলাগাটা জানিয়ে রাখলাম। অভিনন্দন।

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

ফারুক হাসান এর ছবি

প্রিয় গল্পকার শিমুলের বইটা এখনো হাতে পাইনাই মন খারাপ
তবে সময়কে ধারণ করা শিমুল যে বাজিমাত করবে তা আমি নিশ্চিত।
*********************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

অম্লান অভি এর ছবি

পান্থ মিষ্টি ছেলেটা কি হিংসুটি আমার সঞ্চয়ের বইটা নিয়ে ও লিখে ফেলল।
(এটা আমার লেখা না পড়ার আগের মন্তব্য)

আমি এখনও মূল গল্পটা পড়িনি তবে যে ব্যবচ্ছেদ পড়লাম তাতে মনে হলো-লা লুই বেঙ্গলী না ন হন্যতে কোনটা যেন আগে লেখা।!।
শিমুল ভাইয়ের বইটা নিয়ে একটা মজার কাহীনি আছে। সাতাশের সন্ধ্যায় আকতারের 'ছড়ারাজনৈতিক' কেনার উদ্দেশ্যে বই মেলায় গিয়ে না কেনা মননের অনেক বইয়ের টান অনুভব করলাম। কিনলামও সাধ্যের মধ্যে আর সেই সুবাদে মজার ঘটনা আহমেদুর রশিদ টুটুল ভাইয়ের দিকে কি ভুলে যে এই বইটা তুলে দিয়েছিলাম। আমি স্বলজ্জিত হয়েছিলাম কারণ ইচ্ছে ছিল সচলায়তন ২য় খণ্ডটায় টুটুল ভায়ের ছোঁয়া নিব (আর নেয়া হয়নি) । আমি নিজেকে অনেক বার প্রশ্ন করেছি কেন এমন হলো, জানি না। হয়তো মূল প্রাঙ্গনের বাহিরে অপেক্ষমান বইমেলায় ভিড়প্রেমী সঙ্গীদলের চিন্তায়।

ধন্যবাদ পান্থ, একটা গাইড লাইনের সাথে নিয়ে পড়া হবে অথবা গল্পহীন সময়।

মরণ রে তুহু মম শ্যাম সমান.....

নিবিড় এর ছবি

পান্থ ভাই ভাল লাগল আপনার এই লেখাটা
*********************************************************
মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড় ।

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

পান্থ,
আপনি তো আমার ব্যক্তিগত খেরোখাতায় ইতিহাসসম হয়ে গেলেন। আমার প্রথম বইয়ের প্রথম পাঠ প্রতিক্রিয়া লিখলেন আপনি। কী বলে কৃতজ্ঞতা জানাই! নাকি কিছু বলাটাই বাড়তি হবে...। ভেবে পাচ্ছি না।

'ছাদের কার্ণিশে কাক' নিয়ে বিক্ষিপ্ত মন্তব্য পেলেও পূর্ণাঙ্গ আলোচনাটি আপনিই লিখেছিলেন, সচলায়তনে। এবার আরো একবার ঋণী করলেন আমাকে। স্যালুট কমরেড!!!

পরিবর্তনশীল এর ছবি

পান্হ ভাই। এটা ঠিক না। আমি শিমুল ভাইয়ের বই নিয়ে লিখব ভাবছিলাম। মন খারাপ
---------------------------------
ছেঁড়া স্যান্ডেল

---------------------------------
ছেঁড়া স্যান্ডেল

লীনা ফেরদৌস এর ছবি

Lina Fardows

বইটা কিনেছি, এখন দেখছি যত তড়াতাড়ী সম্ভব পড়তে হবে

Lina Fardows

অমিত আহমেদ এর ছবি

পান্থর রিভিউ পড়ে আরাম পেলাম। পান্থর কাছ থেকে আরো রিভিউ আসুক।

লেখকের জন্য এক একটা রিভিউ একেকটা রত্ন। তাই এক বই নিয়ে একাধিক রিভিউ তো আসতে পারে।


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

সাইফুল আকবর খান এর ছবি

'অথবা গল্পহীন সময়'ও কেনা হয়েছে, কিন্তু পড়া হয়নি এখনও।
পান্থ লিখেছে ব'লে গল্প-রিভিউয়ে গল্পও মেলে। মানে, মিললো।
বেশ ভালো। চলুক
প'ড়ে শিমুলকে জানাবো কেমন লেগেছে। আর, তোমাকেও তো জানানো হবেই। হাসি

০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০
"আমার চতুর্পাশে সবকিছু যায় আসে-
আমি শুধু তুষারিত গতিহীন ধারা!"

___________
সবকিছু নিয়ে এখন সত্যিই বেশ ত্রিধা'য় আছি

নুপুর এর ছবি

এত ভালো রিভিউ লেখে কেমনে পোলাটা?

রানা মেহের এর ছবি

রিভিউ পড়ে
বই হাতে না পাবার দুঃখটা নতুন করে বাজলো
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

বোহেমিয়ান এর ছবি

বইটা আজ শেষ করলাম ।
রিভিউ ভালু পাইলাম ।
তবে আরো ইন ডিটেইলস বলা যাইত মনে হয় । আমি রিভিউ তে আরেকটু হাত পাকায়া নেই , এই বই এর উপর ও দিতে পারি!
__________________________
হৃদয় আমার সুকান্তময়
আচরণে নাজরুলিক !
নাম বলি বোহেমিয়ান
অদ্ভুতুড়ে ভাবগতিক !

_________________________________________
ওরে! কত কথা বলে রে!

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA