পানশালার কবিতা

উজানগাঁ এর ছবি
লিখেছেন উজানগাঁ (তারিখ: রবি, ২০/১১/২০১১ - ১:৩৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

দেখলাম সঙ্গীত মানুষকে কেমন মোহনীয় করে তুলতে পারে, দেখলাম একটি পাখি উড়ে গেল ডানা ঝাপটিয়ে-- আর ছড়িয়ে যেতে যেতে শুনিয়ে গেল কোনো এক অচিন দেশের গান-- ভুলভুলাইয়া।

এসব মোহগ্রস্ত দিনলিপি অন্যকেউ লিখে গেছে আগে, লিখে দূরে চলে গেছে একাকী--হাস্যলিপিকার। শুধু তার হর্ষধ্বনি ইতি-উতি লেগে আছে। দূরে সরে যাওয়া ভালো, রমণীর গভীর নাভীর মতো নির্জনে পড়ে থাকার চেয়ে দূরে সরে যাওয়া ঢের ভালো।

তবু এ কোন সুর তাকে উন্মাদ করে... এ কোন মৃত্যুভয় তাকে বার বার সঙ্গীতের মুখোমুখি বসিয়ে দেয়! সকল সুরের ভেতর তাই লুকিয়ে থাকে শব্দহীন শূন্যতা-- শুদ্ধ সুরের কাছে তাই সমস্ত শূন্যতা ঝরে যায়।


মন্তব্য

ফকির লালন এর ছবি

শুদ্ধ সুরের কাছে তাই সমস্ত শূণ্যতা ঝরে যায় - ভালো লাগলো।

উজানগাঁ এর ছবি

আসলেই কি যায়?

অশেষ ধন্যবাদ আপনাকে।

নিটোল এর ছবি

তবু এ কোন সুর তাকে উন্মাদ করে... এ কোন মৃত্যুভয় তাকে বার বার সঙ্গীতের মুখোমুখি বসিয়ে দেয়! সকল সুরের ভেতর তাই লুকিয়ে থাকে শব্দহীন শূণ্যতা-- শুদ্ধ সুরের কাছে তাই সমস্ত শূণ্যতা ঝরে যায়।

গুরু গুরু

_________________
[খোমাখাতা]

উজানগাঁ এর ছবি

ধন্যবাদ আপনাকে।

তারেক অণু এর ছবি

ভালো লাগল

উজানগাঁ এর ছবি

আপনারে অসংখ্য -ধইন্যাপাতা-

নির্জন  এর ছবি

"সকল সুরের ভেতর তাই লুকিয়ে থাকে শব্দহীন শূণ্যতা-- শুদ্ধ সুরের কাছে তাই সমস্ত শূণ্যতা ঝরে যায়।"...ভাল লাগলো খুব...

উজানগাঁ এর ছবি

শুন্যতা ব্যাপারটাই এরকম। ঝরে যাওয়ার মতোই।

ধন্যবাদ আপনাকে।

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি

সচলে আজ শীতনিদ্রায় যাওয়া কবিদের ফিরে আসা দেখা যাচ্ছে!

পানশালার কবিতা শিরোনাম দেখেই সন্ন্যাসীদাকে বড্ড মনে পড়ে গেলো।


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

উজানগাঁ এর ছবি

হাসি

সন্ন্যাসীদাকে নিয়ে চলেন একবার বসি। চোখ টিপি

কবিতাটা কলকাতার একটা পানশালায় বসে লেখা। এক রমণীর সুরের ইন্দ্রজালে আমি তখন আক্ষরিক অর্থেই আচ্ছন্ন ছিলাম।

তাপস শর্মা এর ছবি

চমৎকার। খুভ ভালো লাগালো...

উজানগাঁ এর ছবি

আপনি অফলাইনে কেন?

ভালোলাগা জানানোর জন্যে ধন্যবাদ।

তাপস শর্মা এর ছবি

আমার অফলাইনের দিনই চলছে, ইয়ে, মানে...

তানিম এহসান এর ছবি

ভালো লাগলো।

উজানগাঁ এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ।

যাক ঝঞ্জাবিক্ষুব্ধ দিন-রাত্রি পেরিয়ে আপনি অবশেষে অনলাইন হলেন। চোখ টিপি

উজানগাঁ এর ছবি

ধন্যবাদ আপনাকে।

মৃত্যুময় ঈষৎ এর ছবি

সচলে আজ শীতনিদ্রায় যাওয়া কবিদের ফিরে আসা দেখা যাচ্ছে! চলুক

খুব সুন্দর উজানদা!!! চলুক


_____________________
Give Her Freedom!

উজানগাঁ এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ।

যাক ঝঞ্জাবিক্ষুব্ধ দিন-রাত্রি পেরিয়ে আপনি অবশেষে অনলাইন হলেন। চোখ টিপি

মৃত্যুময় ঈষৎ এর ছবি

শুভেচ্ছা দাদা।

হুমম হলামই তো!!! না হয়ে উপায় আছে!!! সচলের নেশায় আমিও যে বুঁদ!!!! দেঁতো হাসি


_____________________
Give Her Freedom!

হাসান মোরশেদ এর ছবি

পানপর্ব নামে একটা কবিতা সিরিজ লিখেছিলাম অনেক আগে, যখন মাঝে মাঝে কবিতা টবিতা হতো আর কি। মনে পড়লো।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

উজানগাঁ এর ছবি

ঐগুলা আবার সচলে পোস্ট দেন। পড়ে আলোকিত হই। খাইছে

অনিন্দ্য রহমান এর ছবি

চমৎকার


রাষ্ট্রায়াত্ত শিল্পের পূর্ণ বিকাশ ঘটুক

উজানগাঁ এর ছবি

হাসি

সবজান্তা এর ছবি

আমি শিরোনাম দেখে প্রথমে ভেবেছিলাম হাসান মোরশেদ ভাই বোধহয় আবার পানপর্ব শুরু করলেন- সেই সিরিজের নিরব কিন্তু একনিষ্ঠ ভক্ত ছিলাম।

আপনার নাম দেখে চমকালেও কিন্তু ঠকি নাই। দুর্দান্ত লাগলো কবিতাটা ! কবিতার মধ্যে দৃশ্যকল্পের এই ব্যাপারটা আমাকে মুগ্ধ করে...

আফসোস, এই দেশে তো পান করার জায়গাই নাই- অন্ধকারে, ভীড়, হট্টগোল আর ধোয়ার মধ্যে নাকে মুখে গিলে বের হয়ে আসা... গান শোনার সুযোগ কই !

উজানগাঁ এর ছবি

মোরশেদ ভাইয়ের কবিতাগুলো পড়া হয় নাই। পড়তে হবে সময় করে।

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

আরেহ্, এইটা কীভাবে মিস হয়ে গেছিলো!
দারুণ দারুণ...

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

উজানগাঁ এর ছবি

আপনারতো ভালো লাগারই কথা। চোখ টিপি খাইছে

আনন্দী কল্যাণ এর ছবি

এসব মোহগ্রস্ত দিনলিপি অন্যকেউ লিখে গেছে আগে, লিখে দূরে চলে গেছে একাকী--হাস্যলিপিকার।

দারুণ!!

তাসনীম এর ছবি

চমৎকার।

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA