নতুন বছরে আমার উপলব্ধি ও আকাঙ্খা

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি
লিখেছেন প্রৌঢ় ভাবনা [অতিথি] (তারিখ: সোম, ১৬/০১/২০১২ - ৫:৩৩পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আমার শৈশব ও কৈশোর কেটেছে কয়েকটি ছোট্ট ছোট্ট মফস্বল শহরে। তখন 'নববর্ষ' বা ইংরেজী 'NEW YEAR' এর কোন ধারনা আমাদের ছিলনা। এ ধরনের কথা শুনেছি বলেও মনে পড়েনা। যেটা মনে পড়ে তা হল 'চৈত-সক্রান্তির মেলা' ও 'বৈশাখী' মেলার কথা।

নদীর পাড়ে বা স্কুল-মাঠে মেলা বসত। বিরাট মেলা। কয়েকদিন ধরেই চলত সেই মেলা। আমরা সকাল, বিকাল, সন্ধ্যা বা রাত্রি, যে কোন সময়ই মেলায় হাজির হতাম।

আমার শৈশব ও কৈশোর কেটেছে কয়েকটি ছোট্ট ছোট্ট মফস্বল শহরে। তখন 'নববর্ষ' বা ইংরেজী 'NEW YEAR' এর কোন ধারনা আমাদের ছিলনা। এ ধরনের কথা শুনেছি বলেও মনে পড়েনা। যেটা মনে পড়ে তা হল 'চৈত-সক্রান্তির মেলা' ও 'বৈশাখী' মেলার কথা।

নদীর পাড়ে বা স্কুল-মাঠে মেলা বসত। বিরাট মেলা। কয়েকদিন ধরেই চলত সেই মেলা। আমরা সকাল, বিকাল, সন্ধ্যা বা রাত্রি, যে কোন সময়ই মেলায় হাজির হতাম।

মেলায় আমাদের আকর্ষণ ছিল, মাটির তৈরি নানা ধরনের পুতুল, হাতি, ঘোড়া, বাঘ, সিংহ, হরিণ, বাঁদর, ইলিশ মাছ ইত্যাদি। আর ছিল, গুড়, চিনি বা মিসরি দিয়ে তৈরি নানা ধরনের খাবার। ঝুরিভাজা, পাঁপড়ভাজা, ভাঁপা পিঠা আরও কত কী!

আরেকটা বড় আকর্ষণ ছিল, নাগরদোলা। নাগরদোলায় চেপে উপর থেকে নিচের দিকে নামার সময় সে কী উত্তেজনা!

মা-খালাদের জন্য ছিল, কাঠ, বেত, বাঁশের তৈরি নানা ধরনের সাংসারিক ব্যবহারের জিনিস। ফুল তোলা টেবিলক্লথ, বালিসের কভার। কাপড়ের উপর হাতে ফুল তোলা নানা ধরনের হাতপাখা। তামা, লোহা ও অ্যালুমিনিয়ামের তৈরি তৈজসপত্র।

ও হ্যাঁ, আর ছিল বায়স্কোপ। দু-পয়সা বা এক আনা পয়সা দিলে বায়স্কোপওয়ালা বড় একটি টিনের বাক্সের মুখটি খুলে দিত, আমরা দুচোখের দুধারে হাত দিয়ে আলো আটকিয়ে ওর ভিতর তাকিয়ে ছবি দেখতাম, আর বায়স্কোপওয়ালা সুর করে বলত, 'ঐ দেখ ঢাকা শহর দেখা যায়, কী সোন্দর দেখা যায়...'।

তারপর আমার যুবক বয়সে বাংলা 'নববর্য' বা ইংরেজী 'NEW YEAR' পালনের একটা ধারা শুরু হল বটে তবে সেটা আহামরি এমন কিছুনা। কোন ষ্টেশনারী দোকান থেকে কেনা বা হাতে আঁকা কার্ডে শুভেচ্ছাবানী লিখে বিলি করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল। কোন কোন পরিবারে স্বজনেরা মিলিত হয়ে উন্নত খাবার খেয়ে দিনটি উৎযাপন করতেন এই ধারনায় যে, সারা বছরই ভাল খাবার জুটবে।

তারপর মধ্য যৌবনে দেখলাম, ঢাকা শহরে, বাংলা নতুন বছরের প্রথম ভোরে রমনার বটমূলে 'বর্ষবরণ' অনুষ্ঠান। কিছুকাল পরে এর সাথে যোগ হল, মাটির সানকিতে দুশো বা তিনশো টাকায় পান্তা-ইলিশ খাওয়ার ধুম। ইদানিং বিভিন্ন প্রকার মুখোশ পরে, বিভিন্ন সাজে অনেক মানুষের অংশগ্রহনে বছরের প্রথম দিনটিতে আনন্দ মিছিলেরও আয়োজন শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এটা আপামর বাঙালীর প্রাণের অনুষ্ঠানে পরিণত হয়েছে।

আর এই সামান্য কিছুকাল আগে দেখলাম, গুলশান এলাকায় ইংরেজী 'NEW YEAR' উৎসব পালনের নামে একদল ধনীকতনয়ের মদ্যপ অবস্থায় রাস্তার মাঝে হুল্লোড়, বেলেল্লাপনা, এদের আচরনে মনে হয়েছিল, এরা সম্ভবত যা-ইচ্ছা-তাই করবার অনুমোদন পেয়েছিল। সম্ভবত সে কারনেই অদ্যাবধি ৩১শে ডিসেম্বর রাতে (31st night) গুলশান, বনানী এলাকায় প্রবেশে পুলিশের জেরার সম্মুখীন হতে হয়।

আমরা ভাই-বোন, নিকট আত্মীয় ও বন্ধু-বান্ধবেরা মিলে দুবার থার্টিফার্ষ্ট নাইট উৎযাপন করেছি বটে তবে শালীনতা বজায় রেখে।

আর হ্যাঁ, রমনার বটমূলে বাংলা নতুন বছরের 'বর্ষবরণ' অনুষ্ঠানে বেশ কয়েক বছর নিয়মিত উপস্থিত থেকেছি। ইদানিং স্বাস্থ্যগত কারনে আর যাওয়া হয়না। বাংলা 'নববর্ষে' ভাই-বোনসহ বৃহত্তর পরিবার একত্রিত হয়ে পান্তা-ইলিশ খেয়ে দিনটি উৎযাপন করি। আর টেলিভিসনের পর্দায় বিভিন্ন চ্যানেলের অনুষ্ঠান দেখে নতুন বছরের প্রথম দিনটিকে স্বাগত জানাই।

ইদানিং ঢাকার বিভিন্ন অভিজাত হোটেলে '31st night' ও 'NEW YEAR' অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অর্থের বিনিময়ে সেখানে অনুষ্ঠান উপভোগ করার সুযোগ থাকে।

ঢাকায় কোন কোন প্রতিষ্ঠান বা টেলিভিসন চ্যানেল '31st night' এ সারারাত ব্যাপী ওপেন কনসার্টের আয়োজন করে।

কোথাও কোথাও বন্ধু-বান্ধবেরা মিলে পারিবারিকভাবে উন্নত মানের খাওয়া-দাওয়া, গান-বাজনার মাধ্যমে '31st night' ও 'NEW YEAR' উৎযাপন করে থাকে।

ইংরেজী 'NEW YEAR' এ টেলিভিসনে ভারতীয় চ্যানেলগুলোর দাপাদাপিতে বাংলাদেশী চ্যানেলগুলো যেন একটু ম্রিয়মান।

যাহোক, ইংরেজী 'NEW YEAR' এ টেলিভিসনের 'বর্ষবরণ' অনুষ্ঠানগুলো শরীরে আলোড়ন তোলে বটে তবে অন্তরে নির্মল আনন্দের আবেশ ছড়ায়না।

আকাঙ্খার কথা বলতে হলে বলবো, যেমনটা আছি তেমনটি থেকে সম্মানের সাথে বাকি দিনগুলো কাটিয়ে দিতে পারলেই খুশি।

আর প্রাপ্তি ? বেঁচে থেকে নতুন বছরটিতে এই যে কীবোর্ড চালাতে পারছি, আপনাদের সাথে মত বিনিময় করতে পারছি এটাইবা কম কী!

এই সুযোগে 'সচলায়তন' এর সবাইকে আগামী দিনের শুভেচ্ছা।


মন্তব্য

উচ্ছলা এর ছবি

আপ্নাকেও শুভেচ্ছা । সুস্থ্য থাকুন, হাসিমুখে থাকুন, অনাবিল আনন্দে থাকুন হাসি

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ।

তদানিন্তন পাঁঠা এর ছবি

ভালো লাগল। মনে পড়ে গেল ছোটবেলার কথা। কত দ্রুতই না আমরা বড় হয়ে যাই। অমরত্ব আমি চাইনা কখনই, চাইনা দীর্ঘ জীবন। শুধু এই জীবন কালের পুরোটাই যদি ছোটবেলা হতো। আহা।

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ।

শুধু এই জীবন কালের পুরোটাই যদি ছোটবেলা হতো। আহা।

কিন্তু, তাতো হবার নয়।

তাপস শর্মা এর ছবি

বায়স্কোপ

.........
কি যে একটা ইচ্ছে ছিল জীবনে এটা দেখার। কিন্তু... পারিনি...

আপনাকে অনেক শুভেচ্ছা কবির দাদা। অনেক অনেক ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন, সবসময়...

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

অনেক অনেক ধন্যবাদ।

মর্ত্যমানবী এর ছবি

নুতন বছরের শুভেচ্ছা। ভালো থাকুন।

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

শুভেচ্ছা, আপনাকেও।

দ্যা রিডার এর ছবি

আপনার পোস্টের অপেক্ষায় ছিলাম হাসি ভাল লেগেছে স্মৃতিচারণ ও তুলনা । নতুন বছরের শুভেচ্ছা নিন । ভাল থাকুন , ভাল রাখুন সবাইকে ।

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ, উৎসাহব্যঞ্জক মন্তব্যের জন্য।
ভাল থাকুন, আপনিও।

অতিথি লেখক  এর ছবি

ভালো লেগেছে .....আপানকেও নতুন বছরের শুভেচ্ছা .....ভালো থাকুন হাসি হাসি হাসি

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

থার্টিফার্স্টে আসলে পাট্টি করার কিছু নাই। ঘরে শুয়ে কাঁথা মুড়ি দিয়ে গান শোনাই এক ও একমাত্র দায়িত্ব... চলেন, আমরাও গান শুনি-

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

আপনার পাঠানো গানের সুরের মূর্ছনায় ধুসর গোধূলি পেরিয়ে রাত্রি জমজমাট।
অনেক অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ, নআপনার পাঠানো গানের সুরের মূর্ছনায় ধূসর গোধুলী পেরিয়ে রঙিন রাত্রি জমজমাট।

চরম উদাস এর ছবি

ভালো লাগলো চলুক

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ, ভালো লাগা জানাবার জন্য।

তাসনীম এর ছবি

ভালো লাগলো। আপনাকেও নববর্ষের শুভেচ্ছা। নতুন বছর আনন্দে কাটুক।

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ, আমারও ভাল লাগলো। শুভেচ্ছা, আপনার ও আপনার পরিবারের প্রতি।

কল্যাণ এর ছবি

চলুক

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ। হাচলত্বের অভিনন্দন।
সেই কল্যাণ f তো! তা অনেক অনেক দিন পরে! কেমন ছিলেন?
ভাল থাকুন। পরিবারের সবাইকে আগামীর শুভেচ্ছা।

আশালতা এর ছবি

নতুন বছর আনন্দে কাটুক। হাসি

----------------
স্বপ্ন হোক শক্তি

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ। আপনার ও আপনার পরিবারের প্রতি শুভেচ্ছা ।

তানিম এহসান এর ছবি

আপনার জন্য শুভেচ্ছা হাসি

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

শুভেচ্ছা, আপনার প্রতিও।

তিথীডোর এর ছবি

নতুন বছর ভাল কাটুক আপনার। হাসি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ, সারা জীবন ভাল কাটুক আপনার।

ত্রিমাত্রিক কবি এর ছবি

আপনাকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা ... আগেও দিয়েছি ... আরেকবার দিলাম

_ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _
একজীবনের অপূর্ণ সাধ মেটাতে চাই
আরেক জীবন, চতুর্দিকের সর্বব্যাপী জীবন্ত সুখ
সবকিছুতে আমার একটা হিস্যা তো চাই

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ, আপনাকেও আগামীর শুভেচ্ছা।
আরেকবার দেওয়াতে জোরদার হলো। ঐযে, কথা আছেনা, ইংরেজী 'PILLAR' বানানে একটা 'L' দিলেও চলে তবে দু'টো দিলে শক্তিশালী হয়।

রাতঃস্মরণীয় এর ছবি

ভালো লেগেছে। চলুক

------------------------------------------------
প্রেমিক তুমি হবা?
(আগে) চিনতে শেখো কোনটা গাঁদা, কোনটা রক্তজবা।
(আর) ঠিক করে নাও চুম্বন না দ্রোহের কথা কবা।
তুমি প্রেমিক তবেই হবা।

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ। অনেকদি পর! কেমন ছিলেন ?
নতুন বছরের শুভেচ্ছা।

স্বপ্নাদিষ্ট এর ছবি

শুভ হোক নতুন বছর। লেখায় চলুক

-স্বপ্নাদিষ্ট
=======================
যে জাতি নিজের ভাগ্য নিজে পরিবর্তন করে না, আল্লাহ তার ভাগ্য পরিবর্তন করেন না।

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

আপনার ও আপনার পরিবারের প্রতিও রইল শুভেচ্ছা।

অরিত্র অরিত্র এর ছবি

ছোটবেলার কথা মনে করিয়ে দিলেন। মেলায় যাওয়ার জন্য বড়দের কাছ থেকে যখন ১০-২০ টাকা পেতাম তখন নিজেকে রাজার মনে হত। সে কী আনন্দ!
নতুন বছর ভাল কাটুক। শুভ কামনা রইল। হাসি

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

ধন্যবাদ। শুভকামনা আপনার জন্যও।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।