কাঠগড়ায় গল্প: সচলায়তন বিষয়ভিত্তিক সংকলন - না বলা কথা

দিয়াশলাই দল এর ছবি
লিখেছেন দিয়াশলাই দল (তারিখ: রবি, ১৫/০২/২০০৯ - ৮:৩০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

autoকাঠগড়ায় গল্প
সচলায়তন বিষয়ভিত্তিক সংকলন: না বলা কথা
ফাল্গুন ১৪১৫
প্রকাশায়তন, ঢাকা-১২১৩
প্রচ্ছদশিল্পী: অমিত আহমেদ
ISBN: 984-300-003082-7
৬৫ পৃষ্ঠা

শুরুর কথা
সচলায়তন অণুগল্প সংকলন "দিয়াশলাই" প্রকাশের পর থেকে যে প্রশ্নটি আমরা অবিরত পেয়েছি তা হলো, "নতুন ই-বই কবে হবে?" ই-বই করতে গিয়ে বুঝেছি ই-বই আর ছাপা-বইয়ে মধ্যে পার্থক্য কেবল ছাপা আর বাঁধাইয়ে। আমরা বই না প্রেসে না পাঠিয়ে পিডিএফ-এ প্রিন্ট নেই, বাঁধাই না করে আপলোড করে দেই; এছাড়া বাকি সব কিন্তু গতানুগতিক বই প্রকাশের কার্যধারা মেনেই চলে। তাই চাইলেই খুব দ্রুত একটা ই-বই তৈরি করে ফেলা যায় না।

দেরির কথা
দিয়াশলাই দলের সবার ব্যক্তিগত ব্যস্ততার কারণে "কাঠগড়ায় গল্প" প্রকাশে আমাদের ছয়দিন দেরি হয়ে গেলো... আমরা এজন্য আন্তরিক ভাবে ক্ষমাপ্রার্থী।

লেখার কথা
"কাঠগড়ায় গল্প" সচলায়তনের দ্বিতীয় বিষয়ভিত্তিক ই-বই (এর আগে প্রকাশিত হয়েছিলো "ফেলে আসা ছেলেবেলা")।

আমাদের এবারের বিষয় ছিলো "না বলা কথা।" যেসব কথা আমরা বলতে না পেরে নিজের মধ্যে চেপে রেখেছি। যেসব কথা কাউকে বলতে গিয়েও আর বলা হয়নি। "না বলা কথা" মানেই "গোপন কথা", তা কিন্তু নয়। কতো কথাই তো আমাদের বলা হয় না। লজ্জায়, সংকোচে... হয়তো সুযোগের অভাবে। আবেগের কথা, রাগের কথা, ভালোবাসার কথা, কৃতজ্ঞতার কথা নিজের মধ্যেই চাপা পড়ে থাকে। এমন কথার প্রকাশ নিয়েই আমাদের এবারের ই-বই।

এবারের বইয়ের বিষয় যে একটু সংবেদনশীল ছিলো তা বোঝা গেছে লেখক/ব্লগারদের প্রতিক্রিয়ায়। অনেকেই ব্যক্তিগত যোগাযোগের মাধ্যমে জানিয়েছেন লেখার মতো কোনো বিষয় তারা খুঁজে পাচ্ছেন না। কয়েকজন আমাকে ব্যক্তিগত ইমেইলে লেখা পাঠিয়ে জানতে চেয়েছেন "বিষয়টা কি প্রকাশ করা ঠিক হবে?" অনেকে ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও ব্যক্তিগত ব্যস্ততার জন্য লেখা পাঠাতে পারেননি।

এরপরেও আমরা প্রকাশ করার মতো অনেক লেখা পেয়েছি। দম বন্ধ করে পড়ে যেতে হয় এমন সব লেখা!

কৃতজ্ঞতার কথা
বইটির ISBN কষ্ট করে জোগাড় করে দিয়েছেন শুদ্ধস্বরের টুটুল (আহমেদুর রশীদ) ভাই। তাঁকে অসংখ্য ধন্যবাদ। সেই সাথে ধন্যবাদ দেবো সকল সচল, অতিথি সচল আর অতিথি লেখকদেরকে। আপনাদের সম্পূর্ণ সমর্থন না পেলে এই বইটা আলোর মুখ দেখতে পেতো না।

পরের কথা
লেখকদেরকে অনুরোধ করবো "কাঠগড়ায় গল্প" বইয়ে প্রকাশিত লেখা অন্য কোথাও প্রকাশ না করতে। যদি করতেই হয় তবে শেষে লেখাটা যে "কাঠগড়ায় গল্প" বইয়ে প্রকাশিত, আর এই পোস্টের লিংক উল্লেখ করে দিলে ভালো হয়।

আপনাদের "কাঠগড়ায় গল্প" পাঠ শুভ হোক।

দিয়াশলাই দলের পক্ষ থেকে,

অমিত আহমেদ

ডাউনলোড করুন

ফায়ারফক্স: রাইট ক্লিক করে "Save link as" টিপুন;
ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার: রাইট ক্লিক করে "Save target as" টিপুন।

সূচিপত্র


মন্তব্য

রাগিব এর ছবি

চমৎকার হয়েছে, এক নজরে শুরুর কয়েকটা পড়ে খুব ভালো লাগলো।

কয়েকটি প্রশ্ন

১) পেইজমেকিং করেছেন কী সফটওয়ারে?

২) এটা কি ইউনিকোড নাকি বিজয় সিস্টেমে করা?

৩) পেইজ মেকিং/সেটিং করতে কয়জনের কী রকম সময় লেগেছে।

--

----------------
গণক মিস্তিরি
ভুট্টা ক্ষেত, আম্রিকা
http://www.ragibhasan.com

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

অমিত আহমেদ এর ছবি

১) মাইক্রোসফট অফিস ২০০৭;
২) ইউনিকোড;
৩) সময়ের ব্যাপারটা ওভাবে হিসাব রাখতে পারিনি। মেকিং-সেটিং এ তেমন বেশি সময় লাগে নাই। একরাতে টুকটুক করে টেম্পলেট করে ফেললাম। পরের রাতে সব লেখা বসালাম। এরপরে লেখা এডিট করতে করলে আরো কিছু যোগ-বিয়োগ। বেশি সময় লাগে লেখা সম্পাদনা (বানান, সামঞ্জস্য, ইত্যাদি) আর পরে পিডিএফ এর নেভিগেশনে।


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

বিপ্লব রহমান এর ছবি

অসাধারণ উদ্যোগ! শাবাশ দেশলাই দল!! চলুক


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

সজারু এর ছবি

ফাটাফাটি!!!!!!!!!!
বাকিটাপৈড়াজানাই।
_________________________

সর্বাঙ্গ কন্টকিত-বিধায় চলন বিচিত্র

_________________________

সর্বাঙ্গ কন্টকিত-বিধায় চলন বিচিত্র

আহমেদুর রশীদ এর ছবি

[বইটির ISBN কষ্ট করে জোগাড় করে দিয়েছেন শুদ্ধস্বরের টুটুল (আহমেদুর রশীদ) ভাই।]--------আহা,কত করলাম!!!

---------------------------------------------------------

আমরা যারা শিখিনি চাষবাস,ফসলের গীত
গুলালিতে পাখি হত্যা

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে
________________________________________
http://ahmedurrashid.

কীর্তিনাশা এর ছবি

আবারো স্যালুট !! চলুক

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

পড়া শুরু করেছি। বইয়ের সাজ-সজ্জা খুব ভাল লেগেছে। দারুণ কাজ।

নুরুজ্জামান মানিক এর ছবি

গুল্লি

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

নুরুজ্জামান মানিক
*******************************************
বলে এক আর করে আর এক যারা
তারাই প্রচণ্ড বাঁচা বেঁচে আছে দাপটে হরষে
এই প্রতারক কালে (মুজিব মেহদী)

কীর্তিনাশা এর ছবি

SOS ! SOS ! SOS !

দিয়াশলাই দল সাহায্য করুন !!

আমি ডাউনলোড করলাম, কিন্তু ফাইল ওপেন করতে গেলেই error মেসেজ আসছে - There was an error opening this document. Bad encrypt dictionary

এইটা কি ধরনের সমস্যা বুঝতে পারছি না। আমি অ্যাক্রব্যাট রিডার ৬.০ ব্যবহার করি।

সমস্যা কি করে সমাধান করা যাবে দয়া করে বলুন। বইটা পড়তে আমার আর তর সইছে না.................

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

অমিত আহমেদ এর ছবি

অ্যাক্রোব্যাট নতুনটা ডাউনলোড করে নেন। তাহলে সমস্যা হবে না।


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

কীর্তিনাশা এর ছবি

এবার পারলাম। ধন্যবাদ অমিত ভাই হাসি
-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

সংসারে এক সন্ন্যাসী এর ছবি

অ্যাক্রব্যাট রিডারকে তালাক দিয়েছি কয়েক বছর হলো। এখন ব্যবহার করি অ্যাক্রব্যাট রিডার-এর চেয়ে বহুগুণ ছোট এবং বহুগুণ দ্রুত Foxit Reader
পরীক্ষা প্রার্থনীয় হাসি

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
যৌনদুর্বলতায় ভুগছি দীর্ঘকাল। দুর্বল হয়ে পড়ি রূপময়ী নারী দেখলেই...

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
টাকা দিয়ে যা কেনা যায় না, তার পেছনেই সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হয় কেনু, কেনু, কেনু? চিন্তিত

কীর্তিনাশা এর ছবি

পরীক্ষায় ১০০ তে ১১০ !!

ধন্যবাদ সন্ন্যাসী দা দারুন একটা সফটওয়ারের সন্ধান দেবার জন্য!

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

রেনেট এর ছবি

বই খুবই চমতকার হয়েছে। লেখাও এপর্যন্ত যেগুলো পড়েছি, সবই ভালো লেগেছে, খুব ভালো চলুক
বইয়ের সাথে জড়িত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ।
---------------------------------------------------------------------------
If your father is a poor man, it's not your fault ; but If your father-in-Law is a poor man, it's definitely your fault.

---------------------------------------------------------------------------
একা একা লাগে

দময়ন্তী এর ছবি

দিয়াশলাই দলকে অভিনন্দন.

অমিত,
একটা বোকা প্রশ্ন আছে৷ ই-বুক-এ ISBN নাম্বার কি কাজে লাগবে? মানে এটা তো বিনামূল্যে বিতরিত ৷ কাজেই যে কেউ ডাউনলোড করে পড়তে পারবে৷ তারপর চাইলে লেখাপত্র চুরি করতেই পারে৷ তো, ISBN নাম্বার দিয়ে সেটা ঠ্যাকানোর কোন উপায় আছে কি?
-----------------------------------------------------
"নিভন্ত এই চুল্লিতে মা
একটু আগুন দে
আরেকটু কাল বেঁচেই থাকি
বাঁচার আনন্দে৷'

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

অমিত আহমেদ এর ছবি

ISBN আসলে আর্কাইভের জন্য। রেজিস্ট্রেশন করে রাখলে বই এর তথ্য নানান আর্কাইভে থাকবে। জাতীয় আর্কাইভেও রেকর্ড থাকবে, এক কপি জমা দেয়া হবে। যে কোনো ই-লাইব্রেরিতে (যদিও বাংলা ই-লাইব্রেরি নাই এখনো) সংযুক্তিতে সুবিধা হবে। যে কেউ এই বই বন্টন করতে পারে। তাতে সমস্যা নেই।


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

জুস হইছে!!! চলুক

অমিতের লিখা পড়লাম। বাকিগুলা পড়তেছি।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

দৃশা এর ছবি

বহত খুউব!! (তালিয়া)
--------------------------------------------------------
দুঃখ তোমায় দিলেম ছুটি...
বুক পাঁজর আজ ফাঁকা।
দুঃখ বিদায় নিলেও সেথায়...
দুঃখের ছবি আঁকা।

দৃশা

মাহবুব লীলেন এর ছবি

অমিতের ধৈর্য দেখে অবাক হতে হয়
পাঠাব পাঠাব করে পাঠাতে না পেরে এখন মনে হচ্ছে ভালোই হলো

অনেকের গোপন কথা জেনে গেলাম
(দরকার মতো সাপ্লাই দিতে পারবো বিভিন্ন জায়গায়)

দময়ন্তী এর ছবি

ল্লেহ্ !!
----------------------------------------------------
"নিভন্ত এই চুল্লিতে মা
একটু আগুন দে
আরেকটু কাল বেঁচেই থাকি
বাঁচার আনন্দে৷'

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

অচল আনি লগাইলাম না এর ছবি

দিয়াশলাই দলকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন, চমৎকার একটি সংকলন উপহার দেবার জন্য... আসলেই সাজ-সজ্জা দারুন সুন্দর...!!! dwonload করলাম, এইবার পড়তে হবে সময় করে...

পরিবর্তনশীল এর ছবি

অসাধারণ! অসাধারণ!!

থ্রি বিস্কুটিয়ার্সকে সালাম।
---------------------------------
ছেঁড়া স্যান্ডেলা

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

আপনেরা এতো কিছু পারেন ইন্টারনেট থেকে সময় কেম্নে ডাউনলোড করা যায় সেই তরিকা জানেন না?
সময়াভাবে এই ইবুকেও লেখা দিতারিনাই। ঐ সময় ছিলাম বই মেলা নিয়া ভ্যাজালে। এখন এটা দেখেই মেজাজ খারাপ হচ্ছে। সচলায়তনের একটা ইবুকেও আমার নাম গন্ধ নাই... মন খারাপ সামনে সচলের একটা ইবুক আমি নিজে সম্পাদনা করবো। তখন নিশ্চয়ই আমার একটা লেখা থাকবে।

আজকে পড়া হবে না। এক বসায় বসে সবগুলো পড়ে ফেলবো।

সবাইকে অভিনন্দন।
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- এই দেলগির ভাইরে ধুগো তার আবঝাব লেখাটা দিয়া দিতে চায়। (ভালো লেখা হইলে অবশ্য দিতো না) চোখ টিপি
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

রাফি এর ছবি

পড়ছি আর মুগ্ধ হচ্ছি।

---------------------------------------
আমি সব দেবতারে ছেড়ে
আমার প্রাণের কাছে চলে আসি,
বলি আমি এই হৃদয়েরে;
সে কেন জলের মতন ঘুরে ঘুরে একা কথা কয়!

---------------------------------------
আমি সব দেবতারে ছেড়ে
আমার প্রাণের কাছে চলে আসি,
বলি আমি এই হৃদয়েরে;
সে কেন জলের মতন ঘুরে ঘুরে একা কথা কয়!

খেকশিয়াল এর ছবি

দিমু দিমু কইরাও কি গল্প দিমু ওইটাই বুঝতে টাইম গেসিলো গা। ডাউনলোড করতাছি, পড়ুম। অমিত আহমেদ, আনোয়ার সাদাত শিমুল দিয়াশলাইদলকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ।

------------------------------
'এই ঘুম চেয়েছিলে বুঝি ?'

-----------------------------------------------
'..দ্রিমুই য্রখ্রন ত্রখ্রন স্রবট্রাত্রেই দ্রিমু!'

সুমন সুপান্থ এর ছবি

ধন্যবাদ ও অভিনন্দন দিয়াশলাইদল ।
দারুন একটা কাজ হয়েছে ।

---------------------------------------------------------
তুমি এসো অন্যদিন,অন্য লোক লিখবে সব
আমি তো সংসারবদ্ধ, আমি তো জীবিকাবদ্ধ শব !

---------------------------------------------------------
তুমি এসো অন্যদিন,অন্য লোক লিখবে সব
আমি তো সংসারবদ্ধ, আমি তো জীবিকাবদ্ধ শব !

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- বিষয় যে না বলা কথা, সেটা টের পাইছি কালকে। তখন মনে হইলো ধুশশালা, কী লেখার কথা আর কী লেইখা দিলাম! মন খারাপ

ছাপানোর জন্য অশেষ কৃতজ্ঞতা দিয়াশলাই দল।

একটা খুবই ছোট্ট জিনিষ মনেহয় অমিত খেয়াল করতে পারে নাই। বইয়ের প্রচ্ছদে "কাঠগড়ায় গল্প" হলেও ভূমিকা আর ভেতরের (মোটামুটি) সব জায়গায় সেটা "কাঠগড়ায় মানুষ" হয়ে গেছে। এইটা ফালতু সমালোচনা। বইটা অসাধারণ হইছে, মেকাপ-গেটাপ সব দিক দিয়ে।

আবারো দিয়াশলাই দলকে চলুক
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

অমিত আহমেদ এর ছবি

ঠিক করে দিলাম। থ্যাংকস ওস্তাদ।
তবে ভূমিকা ছাড়া আমি আর কোথাও এই ভুল পেলাম না।


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

অমিত আহমেদ এর ছবি

ওটা কিন্তু ঠিক করা হয়েছে।


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

পান্থ রহমান রেজা এর ছবি

হুম! লিখবো লিখবো করেও লিখা হয়ে উঠনো না।
ডাউনলোড মারলাম। পরে কেমন লাগলো জানামুনে। আপাতত দিয়াশলাই দলকে অভিনন্দন।

সুমন চৌধুরী এর ছবি

পড়ছি। গেট আপ যথারীতি ফাটাফাটি। বাকিটা পড়ে জানাবো।

লেখা হলো না। আঙ্গুলগুলি হিট্কী ধইরা পইড়া আছে। হিট্কী ছাড়লেই আবার শুরু করুম।



অজ্ঞাতবাস

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

দিয়াশলাই দলকে ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন। চমৎকার একটা কাজ হয়েছে।

অমিত ভাই যে সত্যিই "কাক-প্রেমী", তার স্বাক্ষর প্রচ্ছদে আরেকবার রেখে দিয়েছেন দেখি চোখ টিপি

রণদীপম বসু এর ছবি

সবকিছুই দারুণ ! কিন্তু সম্পাদকত্রয়ীর একজনকে দেখছি, বাকি দু'জন কোথায় ? রীতিমতো ব্ল্যাকমেলিং ! আমাদের গোপন-কথা জেনে নিয়ে নিজেরা আড়ালে থেকে গেলো ! আমি কি এখন প্রতিবাদ জানাবো ?

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

রায়হান আবীর এর ছবি

মারাত্মক ধন্যবাদ। চ্রম একটা কাজ হইছে।

=============================

মুজিব মেহদী এর ছবি

কাজটা ফাটাফাটি রকমের ভালো হয়েছে। অভিনন্দন দিয়াশলাই দলকে।

যে কুক্ষণে আমি 'অকথ্য ব্যক্তিগত' লেখাটা এখানে পাঠাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, সে ক্ষণটিকে হাজারবার শাপ-শাপান্ত করি। এতসব ভালো লেখার মধ্যে এটা এখন একটা কাঁটা হয়েই বিঁধছে আমার চোখে। হায়, এতদিন ধরে লিটলম্যাগ আন্দোলন করেও কেন যে লোভ সংবরণ করতে পারলাম না!
..................................................................................
দেশ সমস্যা অনুসারে
ভিন্ন বিধান হতে পারে
লালন বলে তাই জানিলে
পাপ পুণ্যের নাই বালাই।

... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ... ...
কচুরিপানার নিচে জেগে থাকে ক্রন্দনশীলা সব নদী

বিপ্রতীপ এর ছবি

অমিত ভাইয়ের করা প্রচ্ছদটা ভালো লেগেছে। ডাউনলোড করে রাখলাম...ধীরে ধীরে পড়বো।

ম্যাচবাক্সের সাথে জড়িত সকলকে অভিনন্দন চলুক
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
খুঁজে যাই শেকড়ের সন্ধান...

সংসারে এক সন্ন্যাসী এর ছবি

ডাউনলোড করলাম মাত্র। এক নজরে ভালো লাগলো খুব।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
যৌনদুর্বলতায় ভুগছি দীর্ঘকাল। দুর্বল হয়ে পড়ি রূপময়ী নারী দেখলেই...

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
টাকা দিয়ে যা কেনা যায় না, তার পেছনেই সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হয় কেনু, কেনু, কেনু? চিন্তিত

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

শিমুল, কনফুসিয়াস, সুমন চৌ, শোহেইল মতাহির চৌ, অরূপ, হাসান এরকম আরও অনেকের লেখা পাইলাম না দেখে দুষ্কু লাগল!

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

আমারও একই মত। সার্ভিস প্যাক হিসেবে তাঁদের লেখা সংযুক্ত করা যায়? চোখ টিপি

অমিত আহমেদ এর ছবি

অবশ্যই যায়।
এই দায়িত্ব দিয়াশলাই দলের পক্ষ থেকে ইশতিকে দেয়া হলো।


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

অনিশ্চিত এর ছবি

ডাউনলোড করলাম। গতবার সম্ভবত জুবায়ের ভাই একটা রিভিউ দিয়েছিলেন। এইবারও তেমন একটা রিভিউ চাই কারো কাছ থেকে।
‌‌-------------------------------------
হাত বাঁধা, কিন্তু দড়ি মুক্ত - হায় পৃথিবী!

‌‌-------------------------------------
হাত বাঁধা, কিন্তু দড়ি মুক্ত - হায় পৃথিবী!

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

একদম মনে কথা। আমি গতকালই মনে করছিলাম জুবায়ের ভাইয়ের কথা। আদর-শাসন মিলিয়ে নিজস্ব একটা ধরণে লিখতেন। সে-পরিমাণ ধৈর্য আর আন্তরিকতা নিয়ে লেখা আশা করাও হয়তো বাড়াবাড়ি হয়ে যায়। হায় রে জুবায়ের ভাই...

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- একবার ভেবেছিলাম দেই একটা এ্যাটেম্পট। পরে ভাবলাম কুলাতে পারবো না সময়ের সাথে। আর তাছাড়া রিভিউ লেখার মতো কঠিন কাজটা শিমুল, কনফুসিয়াস এঁদের ঘাড়ে চাপিয়ে দেয়া যেতে পারে লেখা না দেয়ার শাস্তি স্বরুপ। বলাই বাহুল্য, সচলায়তনে আমার দেখামতে এই দুজনই খুব গভীর ভাবে কোনো বইয়ের রিভিউ লেখার মতো এক অনন্য ক্ষমতার অধিকারী।

শাস্তি গ্রহন করতে এই দুজনের সম্মিলিত বা একক (পত্রপাঠ) পদক্ষেপ আহবান করছি।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

মৃদুল আহমেদ এর ছবি

ভিন্ন প্রসঙ্গ : কাঠগড়ায় দাঁড়ানো লোকটি সত্য কথা না বললে কি শাস্তিস্বরূপ কাকটি তার মাথায় ইয়ে করে দেবে?
মাথায় বোধহয় ঠিক লাগবে না, তবে শার্টটার দফারফা হবে... চোখ টিপি
---------------------------------------------
আমাকে ছুঁয়ো না শিশু... এই ফুল-পাখি-গান সবই মিথ্যা!

--------------------------------------------------------------------------------------------
বললুম, 'আমার মনের সব কপাট খোলা ভোজরাজজী। আমি হাঁচি-টিকটিকি-ভূত-প্রেত-দত্যি-দানো-বেদবেদান্ত-আইনস্টাইন-ফাইনস্টাইন সব মানি!'

স্নিগ্ধা এর ছবি

নাহ্‌, - দিয়াশলাই না কি দল যেন, বেশ কাজের আছে! কাজটাও কিন্তু বেএএএএশ হয়েছে!

তানবীরা এর ছবি

নিজের নামটা স্বনামধন্য লোকদের পাশে দেখতে খুবই অন্যরকম লাগছে। বইটা পড়তে ইচ্ছে করছে না। যদি শেষ হয়ে যায় তাই শুধু উলটে পালটে দেখছি।
প্রিয় কবিতার লাইন মনে পড়ছেঃ
সদ্য ফোটা কাব্য ফুলের
ছন্দ খুজে ফিরতে নেই
তানবীরা
---------------------------------------------------------
চাই না কিছুই কিন্তু পেলে ভালো লাগে

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

তীরন্দাজ এর ছবি

আপনাদেরকে অভিনন্দন!
**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

অতিথি লেখক এর ছবি

দারুন উদ্যোগ... আপনার বই এর কভার পেইজ, আপনার ছবি, বই এর প্রকাশক, দাম, প্রকাশের তারিখ ইত্যাদি পাঠান... আমাদের সাইটে আপলোড করবো.......
........................................................................................................

২০০৯ এখন অনলাইনে। মেলার সংবাদ, ছবি, প্রতিদিনের বই এর তালিকাসহ নানা রকম বিষয় নিয়ে 'নিউজনেট' উন্নয়ন ও অর্থনীতি বিষয়ক সংবাদ পোর্টাল, এর এই আয়োজন৷ ঘুরে আসুন......... http://boimela.newsnetbd.com/

আপনাদের মন্তব্য, পরামর্শ ও মেলা সম্র্পকিত যেকোন খবর, তরুন লেখকদের প্রকাশিত বই ও বিশেষ বিশেষ বই এর তথ্য আমাদের জানান/পাঠান.. আমরা তা প্রকাশ করতে চেষ্টা করবো।

বিশেষ প্রয়োজনে যোগাযোগ ....... ০১৯১১-৬৬১৫৪৪, ০১৭১৭-২৪৪৩৪৪ অথবা

বুনো জারুল এর ছবি

প্রিয় দিয়াশলাই দল,

অনেক ধন্যবাদ "কাঠগড়ায় গল্প" উপহার দেবার জন্য। ডাউনলোড করেই পড়তে শুরু করেছি। বেশ কয়েকটা, ঠিক করে বললে আটটা গল্প পড়েও ফেলেছি। রণদীপম দা আর অবাঞ্ছিতর লেখা পড়ে বেশ মজা পেলাম। রণদীপম দা'র লেখা পড়ে তো আমার নিজের ক্যাডেট কলেজে ভর্তির মেডিকেল টেস্টের কথা মনে পড়ে গ্যালো।

দময়ন্তীর "ছাঁটা ফুলের আসন" আরেকবার মনে করে দিলো, এই উপমহাদেশীয় সংস্কৃতিতে মেয়েরা কত অবহেলিত। কখনো কখনো মনে হয় এই অবহেলা কিছুটা হলেও Self-imposed। দিদা নিজেই কিন্তু কখনো নিজের তৈরী আসনে বসেননি।

তুলিরেখার "ঘরে যাইতে পথ মোর হইলো অফুরান" ভালো লেগেছে।

ইশতিয়াক রউফের "ডাম্বো হাতি" দেড়বার পড়লাম... মানে একবার পড়ে আবার চোখ বুলালাম। প্রথম প্রার্থনাটা কী *-পাখির জন্য ছিলো নাকি *-পাখির যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবার জন্য - বুঝতে পারিনি।

মাহবুব আজাদ আর রায়হান আবীরের লেখা পড়ে নিজেরও কিছু ফিকে হয়ে যাওয়া স্মৃতি মনে পড়ে গ্যালো।

আরেব্বাপ.... আতলামো হয়ে যাচ্ছে। একান্তই নিজের অনুভূতিগুলো লিখলাম। কেউ কিছু মনে করবেন না যেন!

দিয়াশলাই দলকে আবারো অ....নে....ক ধন্যবাদ একটি সুন্দর স্মৃতি (বুড়ো বয়সের জন্য) উপহার দেবার জন্য।

******************************************
Everyone thinks of changing the world,
but no one thinks of changing himself.
******************************************

*****************************************************
Everyone thinks of changing the world,
but no one thinks of changing thyself.
*****************************************************

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

প্রথম প্রার্থনাটা কী *-পাখির জন্য ছিলো নাকি *-পাখির যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবার জন্য - বুঝতে পারিনি।

ছড়াটিতে "*" এর জায়গায় একটা নাম ছিল। কারও নাম প্রকাশ করে বিব্রত করতে চাইনি বলেই নামের জায়গায় তারা ব্যবহার।

বুনো জারুল এর ছবি

ইশতিয়াক ভাই,

সে যে আমি বুঝিনি, তা নয়। আমার কৌতূহলটা ছিলো আপনার প্রথম প্রার্থনাকে নিয়ে, সেটা কি *-পাখির জন্য ছিলো নাকি *-পাখির যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাবার জন্য - যে কারণে আপনি পরবর্তীতে বুঝে-শুনে প্রার্থনা করার পণ করলেন।

******************************************
Everyone thinks of changing the world,
but no one thinks of changing himself.
******************************************

*****************************************************
Everyone thinks of changing the world,
but no one thinks of changing thyself.
*****************************************************

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

ওহ, আমার বোঝার ভুল ছিল। না রে ভাই, ঐ পাখি থেকে নিস্তার পাওয়ার জন্যই ছিল। প্রার্থনা তো করতাম "পার্টস ঠিক থাকলেই হল" টাইপ কিছু একটা। পরে বুঝলাম যে পার্টস ঠিক থাকাটাই সব না। মোরাল অফ দ্য হ্যারাসমেন্ট ওখানেই। খাইছে

তারেক এর ছবি

ডাউনলোড করলাম। পড়ব হাসি
_________________________________
ভরসা থাকুক টেলিগ্রাফের তারে বসা ফিঙের ল্যাজে

_________________________________
ভরসা থাকুক টেলিগ্রাফের তারে বসা ফিঙের ল্যাজে

বুনো জারুল এর ছবি

হুম্..... বুঝলাম।

ধন্যবাদ।

******************************************
Everyone thinks of changing the world,
but no one thinks of changing himself.
******************************************

*****************************************************
Everyone thinks of changing the world,
but no one thinks of changing thyself.
*****************************************************

তুলিরেখা এর ছবি

রক্তিম অভিনন্দন। অভিবাদন ও।খুব চমত্‌কার কাজ হয়েছে। এই ধরনের সফল উদ্যোগ মিস করতাম আমার পুরানো জায়গাগুলোতে, সেখানে কথাবার্তা চলতো অনেক, পরিকল্পনার ফাণুস ফুলতো বিরাট, কিন্তু কাজে কিছু ফলতে দেখতাম না। নানা দলাদলিতে বা আঁতলামিতে পর্যবসিত হতো সব।

এখানে এমন সুন্দর পরিকল্পনা থেকে শুরু করে সংগ্রহ গ্রন্থনা হয়ে একেবারে প্রকাশ পর্যন্ত
পুরোটা দেখে মন একদম ভরে গেলো। পূর্ণ মানবজন্মের মতন এই সম্পূর্ণতা।

এমন আরো দেখতে চাই। পরবর্তীকালের কাজগুলোর জন্য আগাম অভিনন্দন জানানো রইলো।
-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

অম্লান অভি এর ছবি

সুন্দর তার সাক্ষি নিজেই বহন করে.........
দুইটা গল্প পরলাম..............রণদীপম বসু আর তারপর কি যেন নাম তার গল্প 'সময়ের পরিবর্তন'। কমেন্টস লিখতে গিয়ে মনে হলো এমন মর্ম স্পর্শী হৃদয় বিদারক লেখার লেখকের নাম (সেই হতভাগা ভাইয়ের) মনে রাখতে পারলাম না! তাই পুন পাঠে ফিরে গেলাম আর তখন চোখ পড়ল আমার এক প্রিয় ব্লগারের লেখার দিকে তিনি তানবীরা...লেখা পড়লাম। স্ক্র্যাল করতে গিয়ে সৈয়দ আহামেদ আদনান নাম উদ্ঘাটনের আগে জানলাম এই অভাগারে কি বিশাল বদানতায় স্থান দিয়েছে কাঠগড়ায় গল্প .......ধন্যবাদ।

মাত্র তিন গল্প পড়া হলো রণদীপম বসু'দার পাইলট না হওয়ার গল্পে যে দাগ কাটল মনে, তার রেশ উবে গেল পরের লেখা পড়ে। সত্যি 'কোনো লেখা আপনার দু'চোখ ভরে জল আনবে, কোনো লেখা পড়ে কিছুতেই হাসি চাপতে পারবেন না.......................কারণ আমাদের হয়েছে এমন!'

সুখে নয় স্বস্তিতে থেকো ভালো থেকো আগামীর প্রণোদনায় তারা যারা জীবনকে জীবনে আনে।

মরণ রে তুহু মম শ্যাম সমান.....

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।