"ফেলে আসা ছেলেবেলা " :সচলায়তন ঈদ সংখ্যা হিসেবে প্রকাশিত হলো একটি পূর্ণাঙ্গ ই-বুক

আরিফ জেবতিক এর ছবি
লিখেছেন আরিফ জেবতিক (তারিখ: শনি, ১৩/১০/২০০৭ - ১১:১৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ফেলে আসা ছেলেবেলাঅন্তর্জালকে মাধ্যম করে যারা বাংলায় লিখছেন ,তাদেরই একটি সংঘবদ্ধ উদ্যোগ -সচলায়তন।
অনলাইন রাইটার্স কম্যিউনিটি "সচলায়তন" ইতিমধ্যেই ভার্চুয়ালপাঠক লেখকদের মিলনক্ষেত্র
হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

"সচলায়তন" যে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ শুরু করেছে,ই-বুক প্রকাশ করা হচ্ছে তারই একটি অংশ।এ মুহুর্তে সচলায়তন-এ অনেকগুলো ই-বুকের কাজ এগিয়ে যাচ্ছে।সেই যাত্রায় প্রথম থেকে জড়িত হতে না পারলেও ঘটনাচক্রে একসময় একটি ই-বুক তৈরীর সাথে আমিও জড়িয়ে পড়েছি।এই ই-বুকটি সেই হঠাৎ জড়িয়ে পড়ারই ফসল।
"ফেলে আসা ছেলেবেলা" বইটির সম্পাদক হিসেবে নিজেকে দাবী করতে বাধো বাধো ঠেকছে।আমার মূল ভুমিকাটি ছিল সমন্বয়কের ।ই-বুকে নিজ নিজ ছেলেবেলার গল্পগুলো লিখার জন্য আমি ভার্চুয়াল জগতের লেখকদের না না ভাবে তাগাদা দিয়েছি।তারা আমার সেই যন্ত্রনা ভালোবাসার সাথে সহ্য করেছেন,বিরক্তি প্রকাশ করেন নি।

নিজেদের বিভিন্ন ব্যস্ততার মাঝেও শেষ পর্যন্ত বেশিরভাগ লেখকই বেধে দেয়া সময়ের মধ্যে তাদের লেখা পাঠিয়েছেন,আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।আরো কিছু লেখা লেখকরা সমায়াভাবে শেষ করতে পারেন নি,কিন্তু ঈদের বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করার তাড়ায় ,তাদের জন্য অপেক্ষা করা গেল না।এই বইয়ের একটি দ্বিতীয় খন্ড বের হবে,আর সেই দ্বিতীয় খন্ডে আরো অনেক নতুন লেখার সাথে এই বাকী থাকা লেখাগুলোও যুক্ত করা হবে।

এক সময় একটি জাতীয় দৈনিকে সম্পাদনার সাথে দীর্ঘকাল যুক্ত ছিলাম । সেই অভিজ্ঞতা এখানে খুব একটা কাজে আসে নি। বিশেষ করে প্রযুক্তিগত জ্ঞান স্বল্পতার কারনে যেভাবে সাজাঁনোর ইচ্ছে ছিল,তার কণামাত্র করতে পারিনি। এই অতৃপ্তিটা নিয়েই বইটি প্রকাশ করতে হচ্ছে। আর অনলাইন বইয়ের ব্যবহারিক সুবিধা চিন্তা করে বইতে কোন আকিঁবুকিঁতেও গেলাম না।

লেখা প্রকাশের ক্ষেত্রে খুবই অনিবার্য দুয়েকটা পরিবর্তন করা ছাড়া,আমি প্রত্যেক লেখকের নিজস্ব বানানরীতি,বাক্য গঠন ও এ জাতীয় ব্যাকরনগত বিষয়ে কোন হস্তক্ষেপ করি নি।লেখক যে ভালোবাসায় তার ছেলেবেলাকে চোখের সামনে দেখেছেন,পাঠককেও সেই একই ছবি দেখানোর প্রত্যাশা থেকেই প্রায় প্রতিটি লেখাই কোন পরিবর্তন ছাড়া প্রকাশ করা হলো।

বিভিন্ন ফরমেট ও মাধ্যমে লেখা পাওয়ার কারনে তার সবগুলোকে কনভার্ট করতে হয়েছে। এতে করে কিছু লেখায় মুদ্রন প্রমাদ ঘটেছে,যেগুলো ঠিক করে দিয়েছি। তবু আশংকা রয়ে যায় যে পিডিএফ ফরমেটে হয়তো কিছু হরফ কখনো কখনো ভেঙ্গে যেতে পারে।এখানে আমার প্রযুক্তিগত জ্ঞান স্বল্পতাকে বিবেচনায় নিলে কৃতার্থ হবো।

পুরো বইটি একেবারেই পিডিএফ করে দেয়া হলো।এতে করে সংরক্ষনে আগ্রহী পাঠকদের সুবিধা হবে।
এর পাশাপাশি প্রতিদিন একটি করে লেখা মূল ই-বুক ফোল্ডারে যুক্ত করা হবে,যাতে করে পাঠকরা তাদের কমেন্টের মাধ্যমে লেখকের সাথে যুক্ত হতে পারেন।

উল্লেখ করা মাত্রই গুরুত্বপূর্ণ নামগুলো বাদ পড়ে যায়।তবু এই বইটি প্রকাশে সর্বাত্মক সহযোগিতার জন্য এস.এম মাহবুব মুর্শেদ আর অমিত আহমেদের নাম আলাদা করে উল্লেখ না করলে তাদের প্রতি বড্ড অবিচার করা হয়।

প্রিয় পাঠক,"ফেলে আসা ছেলেবেলা"বইটির সাফল্য বা ব্যর্থতার কোন দায়ভার একক ভাবে নিতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছি।সাফল্য ব্যর্থতার সবটুকুই ভাগাভাগি হবে সচলায়তন পরিবারের সকল সদস্যের মাঝে।

এই বইটির অভিজ্ঞতা আমাদেরকে ভবিষ্যতে চমৎকার কিছু বই প্রকাশে সাহায্য করবে,এই আশা রেখে বইটি আপনারা উপভোগ করবেন,সেটাই আশা করি। ধন্যবাদ।

আরিফ জেবতিক
সমন্বয়ক

সচলায়তন পরিবারের মিলিত সৃষ্ঠি "ফেলে আসা ছেলেবেলা "ডাউনলোড করুন এখান থেকে


মন্তব্য

আরিফ জেবতিক এর ছবি

দ্বিতীয় খন্ডের জন্য লেখা জমা নেয়া চলছে । হাসি

বিপ্লব রহমান এর ছবি

অভিনন্দন!
দ্বিতীয় খণ্ডে হিমু, এসএমসি, জালাল, পিয়াল, সুবিনয়, দিগন্ত, শ্যাজা, বন্যা --প্রমুখর লেখা পড়তে চাই। ধন্যবাদ।


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

স্যালুট এবং অভিবাদন, সফল সম্পাদক!

কিংকর্তব্যবিমূঢ় এর ছবি

দেঁতো হাসি

সৌরভ এর ছবি

সফল সম্পাদককে অভিনন্দন!


আমি ও আমার স্বপ্নেরা লুকোচুরি খেলি


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

মুহম্মদ জুবায়ের এর ছবি

সম্পাদক মহাশয়কে অভিনন্দন। কিন্তু অরূপ কোথায়? বই কোথায়?

-----------------------------------------------
ছি ছি এত্তা জঞ্জাল!

মুহম্মদ জুবায়ের এর ছবি

টেক্সাসেও ওই ধান্দা চলতে পারে চোখ টিপি

-----------------------------------------------
ছি ছি এত্তা জঞ্জাল!

দ্রোহী এর ছবি

কামাল কিয়া ভাই!!!!


কি মাঝি? ডরাইলা?

আরিফ জেবতিক এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ ও ঈদ মোবারক।

শ্যাজা এর ছবি

অভিনন্দন।


---------
অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা। (সুইস প্রবাদ)

আরিফ জেবতিক এর ছবি

তোমারটা কিন্তু হাতে আসেনি এখনও । হাসি

মাহবুবুল হক এর ছবি

দারুন। ছেলেবেলার স্মৃতি নিয়ে লিখতে চাই। কতদিনের মধ্যে জমা দিতে হবে জানাবেন।

--------------------------------------------------------
দেয়ালে দেয়ালে মনের খেয়ালে
লিখি কথা ।
আমি যে বেকার, পেয়েছি লেখার
স্বাধীনতা ।।

বিপ্রতীপ এর ছবি

বইয়ের প্রচ্ছদ দেখে লিখতে ইচ্ছে করছে...

আরিফ জেবতিক এর ছবি

তিনজন নতুন লেখক ইতিমধ্যেই পেয়ে গেলাম । হাসি

সুশান্ত
মাহবুবুল হক
বিপ্রতীপ

আরো যারা লিখবেন,তারা লেখা জমা দিন আগামী ১০ নভেম্বরের মাঝে।

রেজওয়ান এর ছবি

হুম! এক নিশ্বাসে অর্ধেকটা পড়েছি। খাসা হয়েছে। এ ঈদে প্রথম ঈদ সংখ্যা পড়ার সুযোগ হওয়ায় সত্যিই ঈদ ঈদ লাগছে।
×××××××××××××××××××××××××××××××××××××××
পৃথিবী কথা বলছে আপনি কি শুনছেন?

হাসিব এর ছবি

আর সকল সম্পাদকদের আরেকটু উজ্জীবিত হবার অনুরোধ করছি ।

আরিফ জেবতিক এর ছবি

সেটাই। এই উদ্দেশ্যেই বইটি করা।
বিগ সি বলেছিলেন যে গুতিয়ে কিভাবে বই বের হয়,সেটা উনাকে প্র্যাকটিকাল দেখালেই,....(বুঝতেই পারছেন।এখন বিগ
গুতার জন্য রেডি হন ।)

হাসান মোরশেদ এর ছবি

দুর্দান্ত কাজ হয়েছে । দৈনন্দিন তাড়াহুড়ো ছাপিয়ে সচলায়তন ক্রমশঃ সময় নিয়ে পড়ার মতো কন্টেন্টে ভরে উঠছে ।
প্রথম পাতার কবিতাটা কার?
আরেকটা ছোট খুনসুঁটি । ইন্টারনেটের বাংলা অন্তর্জাল নাকি আন্তর্জাল হবে?( ইন্টারন্যাশনাল->আন্তর্জাতিক,ইন্টারকন্টিনেন্টাল->আন্তঃ মহাদেশীয়) । অবশ্য শব্দ হিসেবে অন্তর্জাল অধিক দ্যোতনাময় ।

সমন্বয়ক মহোদয়,কারিগরস এবং প্রচ্ছদশিল্পী সকলের জন্য আস্ত বিপ্লব ও অতি জাঝা
-----------------------------------
মানুষ এখনো বালক,এখনো কেবলি সম্ভাবনা
ফুরোয়নি তার আয়ু

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

আরিফ জেবতিক এর ছবি

সুযুক্তি :]
ইন্টার শব্দটির বাংলা "আন্ত :",তাই শব্দটি আন্তর্জাল হবে ।কিন্তু অন্তর্জাল হিসেবে কেন লিখেছি বুঝতে পারছি না,হয়তো খতিয়ে দেখিনি ব্যাপারটা ।

কুযুক্তি :
যেহেতু এই শব্দটি নতুন হিসেবে যুক্ত হচ্ছে বাংলায় তাই তার প্রচলনের সময় একটু উনিশবিশ হবেই।

বাংলা ব্লগিংয়ের প্রথম বই "অপর বাস্তব " এ রাসেল ( ........) ইন্টারনেটের বাংলা করেছেন "অন্তর্জাল ।"(প্রচ্ছদ দ্রষ্টব্য) কবি নির্মলেন্দু গুণ মোবাইলের নাম মুঠোফোন যেভাবে করেছেন,তেমনি তার আরেকটি বইয়ের নাম "অন্তর্জাল " ।(প্রকাশক :অন্যপ্রকাশ ।২০০৬) রাসেল আর গুণের মতো দুই গুনী লেখক/কবি যখন
অন্তর্জাল করেছেন,তখন এই শব্দটির প্রতিও একটা শক্তি চলে এসেছে।

কারন ,এই শব্দটিতেই দ্যোতনা পাওয়া যায়।

তবে ভুল,সেটা ভুলই ।আমি কবি নই,আমার বেলা এটা ভুলই । হাসি

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

টেক বিষয়ে পত্রিকায় লেখা লেখির সময় থেকেই এবিষয়ে একটা দ্বিধার কথা জানতাম। তবু অর্ন্তজালটাই বেশী প্রচলিত মনে হয়।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

অভিজিৎ এর ছবি

ভাল লাগল পড়ে। পড়তে পড়তে যেন ছেলেবালায় হারিয়ে গিয়েছিলাম...

ধন্যবাদ সম্পাদক সাহেবকে এই গুরু দায়িত্ব সূচারুভাবে সম্পন্ন করার জন্য।
===============================
পান্ডুলিপি পোড়ে না। -- বুলগাকভ (মাস্টার এন্ড মার্গেরিটা)


পান্ডুলিপি পোড়ে না। -- বুলগাকভ (মাস্টার এন্ড মার্গেরিটা)

হাসান মোরশেদ এর ছবি

দু একদিনের জন্য ষ্টিকি করে রাখা হোক ।
-----------------------------------
মানুষ এখনো বালক,এখনো কেবলি সম্ভাবনা
ফুরোয়নি তার আয়ু

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

ঈদ উপলক্ষ্যে ভালো একটি প্রকাশনা হল। আপনাকে জাঝা।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আমি হালায় বিমান পর্যন্ত মিস করি, তাইলে ইবুক কেন মিস করুম না?
মিস না করলে এইটা হৈলো? (বেড়াল)
_________________________________
<সযতনে বেখেয়াল>

আরিফ জেবতিক এর ছবি

বাংলায় একটা কথা আছে ,"লেট লতিফ।"

মুহম্মদ জুবায়ের এর ছবি

প্রচ্ছদ অতি উত্তম। ধন্যবাদ অরূপকে। বই ডাউনলোড করেছি, এখন পড়া শুরু করতে হবে।

-----------------------------------------------
ছি ছি এত্তা জঞ্জাল!

অছ্যুৎ বলাই এর ছবি

দুর্দান্ত!!!!!!!!!!!

---------
চাবি থাকনই শেষ কথা নয়; তালার হদিস রাখতে হইবো

আরিফ জেবতিক এর ছবি

ব্যবসায়িক দিক থেকে উদ্যোগটি ভালো হবে না হাসি
তারপরও একটা হিসাব করে দেখব।

সৌরভ এর ছবি

আছি, চান্দার ব্যাপারে অবশ্যই আছি।


আমি ও আমার স্বপ্নেরা লুকোচুরি খেলি


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

সৌরভ এর ছবি

প্রচ্ছদ সেরকম হয়েছে। খুব মায়া মায়া লাগছে বই টার জন্যে, প্রচ্ছদ দেখার পর। হাসি
অরূপ দাকে আরিগাতো।



আমি ও আমার স্বপ্নেরা লুকোচুরি খেলি


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

অমিত এর ছবি

তোফা।
__________________________
suspended animation...

অছ্যুৎ বলাই এর ছবি

ছাপালে আরেকটু এডিট করতে হবে মনে হয়। আমার লিখাটায়ই অসংখ্য ভুল। ভেবেছিলাম আরেকটা কপি পাঠাবো। অলসতা এবং সময় মিলিয়ে হয়ে ওঠেনি।

---------
চাবি থাকনই শেষ কথা নয়; তালার হদিস রাখতে হইবো

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

আমারো একই দাবী।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

হাসিব এর ছবি

প্রচ্ছদের জন্য অরূপরে স্পেশাল জাঝা ।

অয়ন এর ছবি

৬৩ পৃষ্ঠা পর্যন্ত পড়ছি। অমিত আহমেদের টা পইড়া পুরা পাগল হইলাম। ঈদের দিনে সবার সাথেকোলাকুলিআর জেবতিক ভাইরে এইরম জিনিস বাইর করার জন্য জাঝা

আরিফ জেবতিক এর ছবি

হ,অমিত বরাবরই কব্জির জোরটা দেখায়া দেয় । হাসি

বিপ্লব রহমান এর ছবি

অভিনন্দন! হাসি


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

ফারুক হাসান এর ছবি

খাইছে, আমার লেখা বইয়ের পাতায়!
ক্যামনে কি!
অভিন্দন জড়িত সবাইকে!
----------------------------------------------
আমাকে নিঃশব্দে অনুসরণ করে একটা নদী-
সাথে নিয়ে একটা পাহাড় আর একটা নিঃসঙ্গ মেঘ।

নিঘাত তিথি এর ছবি

হাততালি

--তিথি

----------------------------------------------------
আমার এই পথ চাওয়াতেই আনন্দ

দুর্বাশা তাপস এর ছবি

অভিনন্দন।

==============================
আমিও যদি মরে যেতে পারতাম
তাহলে আমাকে প্রতি মুহূর্তে মরে যেতে হত না।

এম. এম. আর. জালাল এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ ও ঈদ মোবারক।

ভাল লাগল পড়ে। পড়তে পড়তে যেন ছেলেবালায় হারিয়ে গিয়েছিলাম...

আমি পড়ার দলে
====
এম. এম. আর. জালাল
"ফিরে দেখুন একাত্তর ঘুরে দাঁড়াক বাংলাদেশ।"


এম. এম. আর. জালাল
"ফিরে দেখুন একাত্তর ঘুরে দাঁড়াক বাংলাদেশ।"

এস্কিমো এর ছবি

হায়, হায় এখনতো নিজেকে একজন লেখকই মনে হচ্ছে!

ধন্যবাদ , সম্পাদক/ সমন্বয়ক।

লেখতে চাই ..কিন্তু কি লিখবো?

আরশাদ রহমান এর ছবি

অভিনন্দন।

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

ইন্টারেস্টিং প্র্রকাশনা।
ধন্যবাদ আরিফ।
চোখ কাড়া প্রচ্ছদ। "ফেলে" শিরোনামে সাইডের একার
দাও খতিব অরূপ!

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

কনফুসিয়াস এর ছবি

সম্পাদকেরে লাল সেলাম। লম্বা সময় হাতে নিয়ে পড়া শুরু করতে হবে।

-----------------------------------
যা দেখি তা-ই বলি...

মাশীদ এর ছবি

সম্পাদককে আমার পক্ষ থেকেও লাল-সবুজ-নীল-বেগুনি-হলুদ-কমলা-মাল্টিকালারের সালাম!
এক্কেবারে লা-জওয়াব একটা উদ্যোগের সফল সম্পাদনা!
হাতে সময় নিয়ে একেকটা করে পড়তে হবে।
আহা! সেটা ভাবতেই ভাল লাগছে।
জেবতিক ভাইকে আর সাথের সবাইকে অনেক অনেক অভিনন্দন!


ভাল আছি, ভাল থেকো।


ভাল আছি, ভাল থেকো।

কিংকর্তব্যবিমূঢ় এর ছবি

আমার পড়া শেষ দেঁতো হাসি

যেহেতু আর কেউ দাবী করে নাই এখনো সো "ফেলে আসা ছেলেবেলা"র প্রথম পাঠক হিসেবে আমি নিজেকে ঘোষণা করলাম (বেগতিক ভাইরে গোণায় ধরলাম না, উনি সম্পাদক, উনি তো পড়বেনই) ...

মনকাড়া প্রচ্ছদের জন্যঅরূপ ভাইরে স্পেশাল থ্যাংকস ...

আর বেগতিক ভাইয়ের জন্য লাল সালাম নীল সালাম বেগুনী সালাম সব ...

কিংকর্তব্যবিমূঢ় এর ছবি

আয় হায়, মাশীদাপু দেখি আমার মাল্টিকালার সালামের কপিরাইট আগেই নিয়া নিছে ... এখন আমি কই যাই?

মাশীদ এর ছবি

মুহাহাহাহা!
(কমেন্টে রঙের অপশান থাকলে মাল্টিকালারের হাসি দিতাম!)


ভাল আছি, ভাল থেকো।


ভাল আছি, ভাল থেকো।

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

যে ছবি ঝুলিয়ে রেখেছেন, এরপর 'মাল্টিকালার' ব্যাপারটা নিয়ে কারও দাবি তুলার কথা না!! চোখ টিপি

দ্রোহী এর ছবি

৬ টা পড়ে ফেলেছি ইতিমধ্যেই। আরিফ ভাই, বানানগুলোর এই দুরবস্থা হল কি করে?


কি মাঝি? ডরাইলা?

আরিফ জেবতিক এর ছবি

বানানগুলো যে লেখক যেভাবে লিখেছেন ,সেভাবেই এসেছে ।কিছু শব্দ গায়ে গায়ে লেগে গেছে,তার কারন হলো বিভিন্ন মাধ্যমে লেখা সংগ্রহ করার কারনে ফরমেট ঠিকমতো হয় নি।
আমার টেকী জ্ঞানের অভাবের কথা ভার্চুয়াল জগতের সবারই জানা । হাসি

সুজন চৌধুরী এর ছবি

আরে তাফা হইছে !!!
____________________________
লাল গানে নীল সুর হাসি হাসি গন্ধ......

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

খুব বেশি রকম ব্যস্ত যাচ্ছে কিছুদিন। চোখ বুলিয়ে বেশ ভাল লাগলো। অনেকের আসল নাম জেনে ভাল লাগলো।

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

সম্পাদকরে অভিনন্দন ... আর ধন্যবাদ অনেক আমার নামও দেখা যাচ্ছে বইয়ে হাসি
অভিনন্দন মুর্শেদ, অমিত আর অরূপকেও
অরূপের প্রচ্ছদের ডিজাইন আবারও মুগ্ধ করেছে
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

??? এর ছবি

নিদারুণ সময়সংকট। তবে প্রথম দর্শনে প্রেমে পড়ে যাওয়ার মতই ব্যাপার মনে হৈল এই ই-বুকটাকে। ধন্যবাদ "ফেলে আসা ছেলেবেলা"র লেখক, সম্পাদক, প্রকাশক ও প্রচ্ছদশিল্পী সবাইকে।
খুব দ্রুত উল্টালাম, এর মধ্যে "ছেলেবেলার জ্বিনগুলি" লেখাটা মনে ধরল খুব। আরো কিছু লেখা, এ মুহূর্তে নাম মনে আসছে না। পরে কখনো জানানো যাবে।
..............................................................
শুশুকের ভয়ে কাঁপতে কাঁপতে সাঁতরে এসেছি কুমীরে-ভরা নদী!

আরিফ জেবতিক এর ছবি

পাঠককূল অপেক্ষায় থাকবে । হাসি

শ্যাজা এর ছবি

আমার লেখা পেয়ে যাবে আরিফদা। একটু ঠিকঠাক করে না লিখলে তোমার বইয়ের বদনাম হবে না? লোকে কইবে, অ্যাহ।। কি লেখাডা ছাপসে দ্যাহো মন খারাপ

অসাধারণ একটা কজ হইসে এইটা। যতই বলা যাউক কম ই বলা হবে। সবার লেখা পড়ে আলাদা করে মতামত দিব। পড়ি সবটা...


---------
অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা। (সুইস প্রবাদ)

শ্যাজা এর ছবি

কাজ**


---------
অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা। (সুইস প্রবাদ)

মাহবুব লীলেন এর ছবি

বুদ্ধিজীবী সিনিয়ররা আমাকে গালাগালি করতেন জীবনী বই পড়ার জন্য
দুর্বল চিত্তের লোকজন নাকি জীবনী বই পড়ে...
কিন্তু এখনও আমি কোনো লেখকের শ্রেষ্ঠ রচনা থেকেও বেশি আগ্রহী তার জীবনীর ক্ষেত্রে
(যদিও বাংলা সাহিত্যের এক গ্রহণযোগ্য লেখক যিনি সারাজীবনে একটাও সত্য কথা বলেননি; সাম্প্রতিককালে প্রকাশিত তার জীবনীটাও আমাকে সমানভাবে আগ্রহী করে)

সিনিয়রদের জীবনের ঘটনা আমরা কোনো না কোনোভাবে জানি কিংবা জেনে যাই। জানা হয় না সমসাময়িকদের বিষয়। এই জানাশোনা বাড়ানোর জন্য গত বছর আমরা শুদ্ধস্বর এর সামনে প্রতি বিষুদবার বসতাম সমসাময়িকদেরকে জানার জন্য। অনেক তরুণই এসে এলোমেলো করে বলে যেত নিজের বেড়ে উঠার কাহিনী।

কিন্তু সন্ধ্যাবেলা সবকিছু বন্ধ হয়ে যাবার সরকারি সিদ্ধান্তের পরে আমাদের আড্ডাটা আর এগোয়নি...

আমি বহুদিন থেকে লিখছি 'চিত্রল প্যাপিরাস'
আমার আশেপাশের মানুষ আর সময়গুলোকে নিয়ে গল্প...
ওটা আমার জীবনী হবে না। ওটা আমার জীবনে আসা মানুষদের গল্প...

ডাউনলোড করে নিলাম পুরোটা...
আজ রাতেই পড়বো তরুণদের উঠে আসার গল্প...

মাহবুব লীলেন এর ছবি

একটা বিষয় সবাইকে ভাবতে বলবো
বিশেষ করে এই ধরনের সংকলনের সম্পাদককে
বিষয়টা হলো আমার মতে যে লেখাগুলোর আর্কাইভাল ভ্যালু আছে সেসব লেখার ক্ষেত্রে লেখকদের 'লেখক নাম'টা থাকা উচিত। এতে করে অন্য কোথাও এই লেখকের কোনো লেখা পেলে মিলিয়ে পড়া সম্ভব

আরিফ জেবতিক এর ছবি

লেখকদেরকে এ বিষয়ে দৃষ্ঠি আকর্ষন করা হয়েছিল,এবং উনারা নিজেরা নিজেদের নাম বইতে যেভাবে তালিকাভুক্ত করতে চেয়েছেন,সেভাবেই করা হয়েছে ।

আড্ডাবাজ এর ছবি

অতি চমৎকার একটি উদ্যোগ। অভিবাদন জানাই আয়োজকদের। সচলের চাকা আরো গতিশীল হোক!!!

আরিফ জেবতিক এর ছবি

ধন্যবাদ@আড্ডাবাজ ।

অতিথি লেখক এর ছবি

অনেক অনেক অভিনন্দন তাদেরকে যারা এই বইয়ের সাথে যুক্ত আছেন।এখুনি ডাউনলোড করছি!শুভাশীষ সবাইকে।
এখনো তো আমি অতিথি লেখক।তাই পড়া দিয়ে শুরু করছি সচলযাত্রা।কিন্তু অচিরেই লেখালেখির ভূতটাকেও প্ল্যানচেট করে জাগাচছি!
ওহহ!আর ই-বই তে সবার আগে মাশীদ আপু র লেখা টা পড়ব..ইশ!ডাউনলোড হয়না কেন তাড়াতাড়ি??

আরিফ জেবতিক এর ছবি

পোস্ট ও কমেন্টের শেষে আপনার নাম উল্লেখ করুন ।নয়তো আপনি অতিথি লেখকই থেকে যাবেন,কেউ তো চিনবে না ।

অতিথি লেখক এর ছবি

ওহহ!ধন্যবাদ আরিফ।এখন থেকে আর ভুল হবে না।

-বিবাগিনী

ইরতেজা এর ছবি

দারুন খবর
_________________________________
ত্রসরেণু অরণ্যে

_____________________________
টুইটার

নজমুল আলবাব এর ছবি

খুব ইচ্ছা ছিল লিখব। পারলামনা। সম্পাদক সাহেবতো জানেন সবি। নতুন করে কি আর বলব।

অসাধারণ প্রচ্ছদ। ভেতরের মসলাগুলোরতো জবাব নেই।

ভুল সময়ের মর্মাহত বাউল

নিলয় নন্দী এর ছবি

ডাউনলোড হয় না কেন?
Page not found
The requested page could not be found.

অতিথি লেখক এর ছবি

অসাধারণ, ধন‌্যবাদ।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA

  • এই ই-বুক কি আর নেই এখন? ডাউনলোড করতে পারলাম না !! - by Parveen Rahman on বিষ্যুদ, 28/02/2013 - 11:37অপরাহ্ন