মহাকাগু, তোমারে সেলাম

হিমু এর ছবি
লিখেছেন হিমু (তারিখ: শনি, ০৬/১১/২০১০ - ৭:২৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

খুব বেশিদিন আগের কথা নয়, অভ্র আর অভ্রের ডেভেলপারদের যাচ্ছেতাই ভাষায় গালাগালি করে পত্রিকায় আর্টিকেল ফেঁদেছিলেন বিজয় কীবোর্ডের প্রণেতা মোস্তফা জব্বার। তার মূল রাগ ছিলো, কেন নির্বাচন কমিশন তার বহুমূল্য সফটওয়্যারটির লাইসেন্স না কিনে কোথাকার কোন এক বিটকেল ছোকরা মেহদী হাসান খান আর তার ইয়ারদোস্তোদের ঘরের চিবিয়ে বনের মোষ পেঁদিয়ে বানানো বিনামূল্য অভ্র সফটওয়্যার ব্যবহার করেছিলো, তা নিয়ে। নির্বাচন কমিশন সচিব হুমায়ূন কবিরও বাদ পড়েননি জব্বারের রোষানল থেকে। ইউএনডিপিকেও চোর ডেকে বসেছিলেন জব্বার।

চোরে চোরে চোরাক্কার পৃথিবীতে এরপর অনেক জল গড়িয়েছে, আমরা টুকটাক জানি। কপিরাইট অফিসে ধর্ণা দিয়ে মেহদীর বাড়িতে চিঠি পাঠানো হয়েছে। অনেক তর্ক বিতর্ক আর উকিলি প্যাঁচঘোঁচ শেষে জব্বার আর মেহদী এক মঞ্চে বসে ঠিক করেছিলেন, যে কীবোর্ড লেআউটটিকে জব্বার তার সবেধন নীলমণি বিজয় এর কপি হিসেবে অভিযুক্ত করেছিলেন, সেটিকে মেহদী তার অভ্রের পরবর্তী সংস্করণ থেকে সরিয়ে দেবে।

মেহদী ছেলেটা কথা দিলে কথা রাখে। নতুন অভ্রে বিজয়-বিজয় গন্ধ বার হতে পারে, এমন কোনো লেআউট নেই।

তবে নতুন ৫.০.৮ সংস্করণ নামিয়ে দেখলাম, অভ্রের এই বিটা সংস্করণে যুক্ত হয়েছে ANSI সাপোর্ট।

সেইসাথে, অভ্রে একটি ফিচার অনেক আগে থেকেই ছিলো। যে কেউ চাইলেই নিজের পছন্দসই একটি লেআউট ডিজাইন করে নিতে পারেন। আপনি যে লেআউটটি ব্যবহার করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন, সেটি সামান্য কষ্ট করে আপনি নিজেই সেট করে নিতে পারবেন। কিংবা কে জানে, আপনার কাছে যে লেআউটটি প্রিয়, সেটি হয়তো আপনার কোনো বন্ধু আগেই তৈরি করে রেখেছে অভ্রে ব্যবহারের জন্যে। মাত্র কয়েকশো কিলোবাইটের একটি প্যাচ ফাইল ইনস্টল করে আপনি একদম নিজের মনের মতো একটা লেআউট বানিয়ে ফেলতে পারবেন।

ব্যাপারটা তাহলে কী দাঁড়াচ্ছে?

ব্যাপারটা দাঁড়াচ্ছে এমন, আপনি অভ্র ব্যবহার করে ফোনেটিক লেআউট কিংবা নিজের তৈরি আমার্লেআউটেআমিলিখিভালোনালাগ্লেভাগ লেআউটেও ANSI মোডে লিখে যেতে পারবেন। অর্থাৎ, প্রকাশনার জগতে যে ANSI ফন্টগুলো বহুল ব্যবহৃত, তা নিয়ে ইলাসট্রেটর, পেইজমেকার বা ফোটোশপের মতো সফটওয়্যারে কাজ করতে আপনাকে আর কষ্ট করে পয়সা দিয়ে কোনো বদ বেনিয়ার বানানো বদখদ সফটওয়্যার খরিদ করতে হবে না। বিনামূল্যে ওমাইক্রনল্যাব থেকে নামিয়ে নিন অভ্র। ইউনিকোড আর এএনএসআই, দু'টোতেই এখন এটি স্বয়ংসম্পূর্ণ।

সেইসাথে যোগ হয়েছে ইউনিকোড থেকে একটি জনপ্রিয় ANSI লেআউটে রূপান্তরের অত্যন্ত মসৃণ একটি রূপান্তরক। ইউনিকোডে লেখা ডকুমেন্ট নিয়ে পেইজমেকার বা ইলাসট্রেটরে কাজ করতে চাইলে ওখানে পেস্ট করে কনভার্ট করে নিন। তারপর কাজ করতে থাকুন।

সামনে আসছে গোয়েন্দা ঝাকানাকা কমিক। এর টেক্সটের কাজটা পুরোটাই হবে অভ্রে, ANSI মোডে। ওমাইক্রনল্যাবের কাছে আরেক দফা কৃতজ্ঞতা স্বীকার করে যাই আগেভাগে।


মন্তব্য

স্পর্শ এর ছবি

অভ্র টিমের সবাইকে অভিনন্দন। চলুক

কাগুর তো ঘন্টা বেজে গেলো।

নতুন ভার্সনটা নামালাম। অসাধারণ!!


ইচ্ছার আগুনে জ্বলছি...


ইচ্ছার আগুনে জ্বলছি...

সুমন চৌধুরী এর ছবি

নতুন অভ্র আসলেই দারুণ!



অজ্ঞাতবাস

তারাপ কোয়াস এর ছবি

ইউনিজয় একটি সম্পূর্ণ ভিন্ন লেআউট হওয়া স্বত্তেও কাগু কিভাবে আইনী প্যাঁচে ফেলে এটাকে অভ্র থেকে বিয়োগ করতে বাধ্য করলেন এটা ঠিক বুঝতে পারলাম না মন খারাপ এখন তাহলে যেকোন ফিক্সড কীবোর্ড লেআউটে একটা দুইটা 'কী' ও যদি বিজয়ের সাথে মেলে মহাকাগু ফের ঝামেলা তৈরি করবেন তার বিজয়ের কপি বলে!


love the life you live. live the life you love.

ধ্রুব বর্ণন এর ছবি

দারুণ সংবাদ! অভ্র টিমকে অভিনন্দন! আপনার গোয়েন্দা ঝাকানাকা কমিকও জলদি চাই।

নৈষাদ এর ছবি

অভ্র টিমকে অভিনন্দন।

গোয়েন্দা ঝাকানাকা কমিক এর টেক্সটের কাজটা অভ্রে করায় আপনাকে অভিনন্দন। য্তটুকু জানি সচলের প্রথ্ম কিংবা দ্বিতীয় সংকলন অভ্রে হয়েছিল।

হিমু এর ছবি

প্রকাশনা সেক্টরে আসলে এখন আর অভ্র ব্যবহার করতে কোনো বাধাই রইলো না। সুতন্বীর মতো জনপ্রিয় ফন্টে লেখা যাবে অভ্রে বসেই। তবে কালপুরুষ নামে একটা বেশ সুশ্রী ফন্ট রিলিজ করেছে ওমাইক্রনল্যাব। হয়তো ভবিষ্যতে এই ফন্টেও ছাপা বই দেখতে পাবো আমরা।



বুকে BOOK রেখে বন্ধু চলো আজ যাবো বরাহশিকারে মোরা ধার ধার ধার দিও বল্লমে ♪♫

দ্রোহী এর ছবি

"মানি কান্ট বাই এভরিথিং"

কাগুর বিপরীতে মেহদীকে দাঁড় করিয়ে তুলনা করলেই বিষয়টা আরেকবার প্রমাণিত হয়।


কাকস্য পরিবেদনা

ধ্রুব বর্ণন এর ছবি

আবার সেই মানি যদি হয় মহাকাগুর মানি। উনি উকিলের পিছনে টাকা ঢালেন, অথচ পাপ্পানা ভাইকে পয়সা দিতে পারেন না। মহাকাগু একটি অশুভশক্তি।

মেহদী হাসান খান এর ছবি

দ্রোহী এর ছবি
মনমাঝি [অতিথি] এর ছবি

জব্বর সিং অত সহজে পিছিয়ে পড়ার বান্দা নয়। সফটওয়্যারের জোর তার থাকুক বা নাই থাকুক - 'ওয়্যার'-এর জোরটা তার ঠিকই আছে ! যদ্দুর মনে হচ্ছে, নির্বাচন কমিশনে কোটি টাকার ধান্দাটা করতে না পারলেও - বর্তমান সরকারের 'ডিজিটাল বাংলাদেশ' মহাপরিকল্পনার অধীনে দেশব্যাপী ভূমি-রেকর্ডের সমস্তকিছু ডিজিটাইজেশনের এক বিশাল প্রকল্প বাগানোর ধান্দায় আছেন উনি। সেদিন অর্থমন্ত্রী এক বক্তৃতায় বললেন - এই ব্যাপারে উনি জব্বর সিংয়ের সাথে পরামর্শ করছেন। তো জব্বর সিং্যের পরামর্শ শেষমেশ কোনদিকে যাবে তা কি আর বলার অপেক্ষা রাখে ? চোখ টিপি

হিমু এর ছবি

বেশি দূর যেতে হবে না, উনার যন্তরমন্তর দিয়ে ১০ খানা ভূমি রেকর্ড লিখে সেটা অ্যালফাবেটিক্যালি সর্ট করে দেখাতে বললেই তো হয়।



বুকে BOOK রেখে বন্ধু চলো আজ যাবো বরাহশিকারে মোরা ধার ধার ধার দিও বল্লমে ♪♫

কৌস্তুভ এর ছবি

ক্যান, তখন উনি আবার অ্যানসি থেকে সর্টিং-এর জন্য আরেকটা জটিল প্রোগ্রাম লিখবেন, সেটা আবার সরকারকে ব্যবহার করতে দেবার জন্য লাখ টাকা মূল্য নিয়ে ওদিকে প্রোগ্রামারের প্রাপ্য মাইরা দিবেন...

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

হাসি

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

সুজন চৌধুরী এর ছবি

ওমাইক্রনল্যাবের কাছে অশেষ কৃতজ্ঞতা জানিয়ে গেলাম।
এখন কাগু কী করে সেটা দেখার বিষয়।


লাল গানে নীল সুর, হাসি হাসি গন্ধ

তাসনীম এর ছবি

৫.০.৮ সংস্করণ নামাবো নামাবো করেও নামানো হচ্ছে না।

মেহদী ছেলেটা কথা দিলে কথা রাখে। নতুন অভ্রে বিজয়-বিজয় গন্ধ বার হতে পারে, এমন কোনো লেআউট নেই।

বিজয় বিজয় দুর্গন্ধ বলা যায়...

অভ্রের জয় হোক...এই যে অন্তর্জালে বাংলা লিখছি জীবনে প্রথমবার এটাও অভ্রের কল্যাণে।

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

শিশির [অতিথি] এর ছবি

পুরনো ভার্শনটাই ব্যাবহার করতাম। বেটা ভার্শনটা নামানোর পর আমি তো অবাক। ওমাইক্রোনল্যাবকে কৃতজ্ঞতা। মস জেবার কে নিয়ে কিছুই বলার নাই।

সোহাগ [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ সুন্দর পোষ্টটির জন্য। হাসি
কাগু ডিজিটাল বাংলাদেশ নাম দিয়া তার ব্যবসা আকাশে উঠাইতে চায়... মন খারাপ
যারা এই পোষ্টটি পড়বেন তাদের অনুরোধ করছি তারা যেন এই পোষ্টটি তাদের ফেসবুকে বা তাদের ব্লগে শেয়ার করেন।
ধন্যবাদ

মূলত পাঠক এর ছবি

অসাধারণ! মেহদীকে আবারও ধন্যবাদ, আমাদের বাংলা ভাষায় লেখালেখির সুযোগ করে দেবার জন্য।

মেহদী হাসান খান এর ছবি

চমৎকার রিভিউ-এর জন্যে অনেক কৃতজ্ঞতা হিমু ভাই! হাসি

শাওন  [অতিথি] এর ছবি

আমিও নামিয়েছি। এককথায় অসাধারণ। অভ্রকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

আবুল হায়াত শিবলু [অতিথি] এর ছবি

ইন্টারনেটে ইউনিকোড বাংলা লেখার ক্ষেত্রে অভ্র মাইল ফলকের মত কাজ করেছে ... শুধু বাংলা না,যে সকল ভাষায় বাংলা হরফ ব্যবহার করা হয় যেমন ত্রিপুরার প্রাদেশিক ভাষা "বকবরাক",মনিপুরের "বিষ্ণুপ্রিয়া" ভাষার ওয়েবসাইট গুলোতে ঢালাও ভাবে অভ্র ব্যবহার করা হচ্ছে,আর পশ্চিমবঙ্গের আর আসামের কথা না হয় নাই বললাম ... ফেইসবুকে এক ভারতীয় বন্ধু এইতো সেইদিনই বলল যে,অভ্র ওখানেও চরম পপুলার !! জয়তু অভ্র ...

কামরুল হাসান রাঙা [অতিথি] এর ছবি

নতুন অভ্র অনেক ভালো লাগছে।
অভ্র-টীমের সবাইকে অভিনন্দন।

কুলদা রায় এর ছবি

জব্বর হৈছে এই লেখাটা। জব্বার কাগুর গা ঘামে জব জব করবেআনে।
...............................................................................................
'এই পথ হ্রস্ব মনে হয় যদিও সুদূর'

...............................................................................................
'এই পথ হ্রস্ব মনে হয় যদিও সুদূর'

তুলিরেখা এর ছবি

মেহদী হাসান খানকে অনেক শুভকামনা।
ভালোর জয় দেখে ভালো লাগলো।
মু জা ই র গল্পটা, "স্কুলের নাম পথচারী", আজকে আবার পড়লাম আর সেই বেলা এগারোটায় সব কম্পুটার সুর করে যে ছড়াটা বলে, সেটা পড়তে পড়তে হাসতে হাসতে পড়ে গেলাম। হাসি
-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

দুষ্ট বালিকা এর ছবি

হ! জব্বার ভাই, _ _ _ দিয়া জু _ বানাই! গড়াগড়ি দিয়া হাসি

-----------------------------------------------------------------------------------
...সময়ের ধাওয়া করা ফেরারীর হাত থিকা যেহেতু রক্ষা পামুনা, তাইলে চলো ধাওয়া কইরা উল্টা তারেই দৌড়ের উপরে রাখি...

**************************************************
“মসজিদ ভাঙলে আল্লার কিছু যায় আসে না, মন্দির ভাঙলে ভগবানের কিছু যায়-আসে না; যায়-আসে শুধু ধর্মান্ধদের। ওরাই মসজিদ ভাঙে, মন্দির ভাঙে।

মসজিদ তোলা আর ভাঙার নাম রাজনীতি, মন্দির ভাঙা আর তোলার নাম রাজনীতি।

শামীম আরমান [অতিথি] এর ছবি

নতুন অভ্রটা সেইরকম হয়েছে। আমার পছন্দমত লেয়াউট যদি আমি বিজয় বানাই, তো কাগু কি করবে? কাগু এসে কি সবার পিসি চেক করা শুরু করবে নাকি? কাগুর ঝামেলার দেহি শেষ নাই।।

শুভাশীষ দাশ এর ছবি

বেশ।

বই বিক্রি বাড়ুক।

--------------------------------------------------------------
অভ্র আমার ওংকার

সাঈদ আহমেদ এর ছবি

অভ্রটিমের এইসব ইচ্ছেপূরণ কাজ শুধু নতুন ইচ্ছের ডালপালা মেলায়। এই যেমন এখন মনে হচ্ছে, এমনটা হলে কেমন হয়--

১. "এসো নিজে করি" কী-বোর্ড লেয়াউট আরো অজ্ঞ-বান্ধব হবে যেখানে ব্ল্যাঙ্ক লেয়াউটের প্রতিটি বাটনে ভিজুয়াল ইন্টারফেসের মাধ্যমেই কী এ্যাসাইন করা যাবে।
২. তারপর, সেই লেয়াউটের একটা নামও দেয়া যাবে ... এই যেমন, বিজয়-ইউনিবিজয় নাম ব্যবহার না করে, চাইলে "মহাকাগু কীবোর্ড" নাম দেয়া যাবে হাসি

মেহেদী ও তার সহকর্মীদের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা।
-----------
চর্যাপদ

-----------
চর্যাপদ

অবাঞ্ছিত এর ছবি

হুমম। নতুন অভ্র নামাইলাম।

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

দ্রোহী এর ছবি

কেমন লাগছে নতুন অভ্র?


কাকস্য পরিবেদনা

দৃপ্ত এর ছবি

ANSI সাপোর্ট অনেকদিনের কাংখিত বিষয় ছিল অভ্রের কাছে। ধন্যবাদ অভ্র টিমকে।

বর্তমান সরকারের 'ডিজিটাল বাংলাদেশ' মহাপরিকল্পনার অধীনে দেশব্যাপী ভূমি-রেকর্ডের সমস্তকিছু ডিজিটাইজেশনের এক বিশাল প্রকল্প বাগানোর ধান্দায় আছেন উনি।

চিন্তার বিষয়। মন খারাপ

জোহরা ফেরদৌসী এর ছবি

মেহেদী হাসানকে অভিবাদন । তার পথ চলা চলুক…

……………………………………
বলছি এক জ্যোতির্ময়ীর কথা

__________________________________________
জয় হোক মানবতার ।। জয় হোক জাগ্রত জনতার

জোহরা ফেরদৌসী এর ছবি

মেহদী হাসানকে অভিবাদন । তার পথ চলা চলুক…

……………………………………
বলছি এক জ্যোতির্ময়ীর কথা

__________________________________________
জয় হোক মানবতার ।। জয় হোক জাগ্রত জনতার

রোমেল চৌধুরী এর ছবি

অভ্র অভ্রভেদী হোক!
-----------------------------------
যে মাঠে ফসল নাই তাহার শিয়রে
চুপে দাঁড়ায়েছে চাঁদ — কোনো সাধ নাই তার ফসলের তরে;

------------------------------------------------------------------------------------------------------------------------
আমি এক গভীরভাবে অচল মানুষ
হয়তো এই নবীন শতাব্দীতে
নক্ষত্রের নিচে।

হাজ্জাজ-বীন-ইউসুফ এর ছবি

অভ্রের নতুন ভার্সনটা অসাধারন হয়েছে। আমার কাছে সবচাইতে ভালো লেগেছে স্পেল চেকারটা (বাংলা বানানে আমি বড়ই দুর্বল)। হিমু ভাই রিভিউওতে এটার ব্যাপারেও আলোকপাত করতে পারতেন। তবে নতুন ভার্সনটায় মনে হচ্ছে কিছু বাগ রয়ে গেছে। ফন্ট ফিক্সার ব্যাবহার করার পরেও বৃন্দা ফণ্টটা বার বার ফিরে আসছে। এমনকি ANSI ফরমেটেও দেখা যাচ্ছে বৃন্দার জন্য সুতন্বিতে লেখা যাচ্ছে না। আশা করা যায় অভ্র টিম এই সব সমস্যা সমাধানের দিকে নজর দিবে।

আরেকটা ব্যাপার হলো Unicode to ANSI converter এর পারফর্মেন্স হতাশাজনক। এখনো এটি bnwebtools এর পর্যায়ে যেতে পারেনি।

হাজ্জাজ-বীন-ইউসুফ

রাগিব এর ছবি

আমি অভ্রের ম্যাক সংস্করণের জন্য হা করে বসে আছি। আপাতত অরূপ/মুর্শেদের ওয়েবটুল দিয়ে কাজ চালাচ্ছি, কিন্তু নেটিভ অ্যাপ থাকলে অনেক সুবিধা হতো।

----------------
গণক মিস্তিরি
মায়ানগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | টুইটার

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

ধ্রুব বর্ণন এর ছবি

আমিও। আমি লিখি গুগল ট্রান্সলিটারেশান আর একুশে দিয়ে। বাট অভ্ররে মিস করি।

নাউইদ কাদির এর ছবি

আমি একটা কারনেই বিজয় ব্যবহার করে আসছিলাম আর তা হল এনসাই সাপোর্টের জন্য। পাবলিকেশনে এবং প্রিন্ট মিডিয়াতে এনসাই মোড জরুরী আর এ্যানসাই সাপোর্টেড ফন্ট গুলো প্রিন্টিংয়ে সবচেয়ে ভালো কোয়ালিটি আউটপুট দেয়। অভ্র যে এখন এ্যানসাই সাপোর্ট করছে আর সেই সাথে বাংলা ষ্পেল চেকার - আমার তো মনে হয় বাংলা লেখা, প্রিন্ট এবং পাবলিকেশনে কোন সফটওয়্যারই অভ্রের ধারে কাছে আসতে পারবে না। আমি আমার সাইট এবং ব্লগে এ নিয়ে নিশ্চয়ই আলোচনা করব। অভ্রকে অভিনন্দন।

সুশান্ত কর এর ছবি

অভ্র এতো জনপ্রিয় যে অসমে অসমিয়ারাও দারুণ ভাবে এটা ব্যবহার করেন। কিন্তু যেটি সমস্যা অভ্রতে সরাসরি ৰ ৱ এই দুটো অসমিয়া বর্ণ লেখা যায় না। কোনোদিক থেকে এ নিয়ে কোনো সাহায্য পাচ্ছি না।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।