ভ্রমণের ভিতর ভ্রমণের ভ্রমণকাহিনি

মন মাঝি এর ছবি
লিখেছেন মন মাঝি [অতিথি] (তারিখ: সোম, ০৫/০৩/২০১২ - ১০:১১অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

মূলঃ ইটালো কালভিনো

মার্কো পোলো কল্পনা করলেন তিনি উত্তর দিচ্ছেন (অথবা কুবলাই খান তার উত্তর কল্পনা করে নিলেন) - যতই কেউ সুদূর নগরীগুলির অচেনা-অপরিচিত এলাকায় হারিয়ে যেতে থাকে, ততই সে ঐ শহরে পৌঁছুনোর আগে সে যত শহর অতিক্রম করে এসেছে সেগুলিকে আরও বেশি করে বুঝতে পারে; এবং সে তার ভ্রমণের পর্যায়গুলি ধরে পিছু ফিরে যায়, যেতে যেতে এক সময় চিনে উঠে সেই বন্দরটিকে যেখান থেকে একদিন সে রওনা দিয়েছিল, তার যৌবনের সেই পরিচিত জায়গাগুলি, বাড়ির আশেপাশে সেই পাড়া-মহল্লা, এবং ভেনিসের সেই ছোট চত্বর যেখানে শিশু বয়সে একদিন সে হাহা-হিহি করে খেলে বেড়িয়েছে।

এই পর্যায়ে কুবলাই খান তাকে বাধা দিয়ে বা বাধা দিচ্ছেন বলে নিজে কল্পনা করতে করতে, অথবা মার্কো পোলোর মনে বাধা পড়ছে বলে মার্কোর মনে হওয়ায়, এমন কোন একটা প্রশ্ন তিনি করে উঠলেন : "আপনি কি সব সময় পিছনে মুখ ফিরিয়ে সামনে এগোন ?" বা "আপনি যা দেখেন, তা কি সব সময় আপনার পেছন দিকে ?" কিম্বা হয়তো, "আপনি কি কেবল অতীতেই ভ্রমণ করেন ?"

এ সমস্ত কিছুই, যাতে মার্কো পোলো ব্যাখ্যা করতে পারেন বা ব্যাখ্যা দিচ্ছেন বলে কল্পনা করতে পারেন বা ব্যাখ্যাদাতা হিসেবে কল্পিত হতে পারেন বা নিজের কাছেই শেষ পর্যন্ত ব্যাখ্যা করতে সফলকাম হন যে - তিনি যা খুঁজছেন তা সব সময়েই সামনে পড়ে আছে, আর এমনকি এটা যদি অতীতের কোন বিষয় হয়ও তা এমন এক অতীত যা তার পথপরিক্রমায় সামনে এগুনোর সাথে সাথে ক্রমশ বদলে যেতে থাকে, কেননা মুসাফিরের অতীত তার অনুসৃত যাত্রাপথ অনুযায়ী বদলে যায় : অব্যবহিত অতীত নয়, অর্থাৎ যাতে প্রতিটি পেরিয়ে যাওয়া দিন আরেকটি দিন যোগ করে, বরং আরও দূরবর্তী অতীতটি। প্রতিটি নতুন শহরে হাজির হওয়ার পর মুসাফির আবারও নিজের এমন এক অতীত খুঁজে পায় যা তার ধারণারও বাইরে ছিলঃ সে এখন আর যা নয় বা যা আর তার মাঝে নেই তার বিস্মৃতপ্রায়-অচেনাসুদূরতা তার জন্য এক সুদূর,অচেনা দেশে অপেক্ষা করে থাকে।

মার্কো একটি নতুন শহরে ঢুকেন; চোখে পড়ে শহরের মাঝে কোন চত্বরে কারও একটি জীবন বা মুহূর্ত যাপন যা তারও হতে পারত; ঐ লোকটির জায়গায় তিনি নিজেও থাকতে পারতেন আজ, কালের স্রোতে তিনি যদি থেমে যেতেন অনেকদিন আগে; অথবা, অনেকদিন আগে, যদি সময়ের চৌমাথায় তিনি একটি রাস্তায় যাওয়ার বদলে উল্টোটি দিয়ে যেতেন আর তারপর দীর্ঘকাল ঘোরাঘুরি শেষে চত্বরের ঐ লোকটির জায়গায় পৌঁছে যেতেন। কিন্তু এতদিনে, নিজের ঐ বাস্তব অথবা অনুমিত অতীত থেকে, তিনি বহিষ্কৃত; তাঁর থামার উপায় নেই; তাঁকে পরবর্তী শহরে যেতেই হবে, যেখানে তাঁর আরেকটি অতীত তাঁর জন্যে অপেক্ষা করে আছে, অথবা এমন কিছু যা হয়তো তাঁর একটা সম্ভাব্য ভবিষ্যৎ ছিল কিন্তু এখন অন্য কারও বর্তমান হয়ে গেছে। অনর্জিত ভবিষ্যৎ কেবলই অতীতের প্রশাখামাত্র : মৃত প্রশাখা।

"অতীতকে পূণর্যাপন করার জন্যেই কি ভ্রমন?" এই পর্যায়ে (কুবলাই) খানের প্রশ্ন ছিল, যে প্রশ্নটা কিনা এভাবেও করা যেতঃ "ভবিষ্যতকে পুনরুদ্ধারের জন্যে তাহলে ভ্রমন?"


ইটালো কালভিনোর "ইনভিজিব্‌ল সিটিজ" (, , , ) -এর উইলিয়াম উইভারকৃত ইংরেজি অনুবাদ থেকে বাংলা অনুবাদঃ মন মাঝি


মার্জিনে অপ্রাসঙ্গিক মন্তব্যঃ কালভিনোর লেখার এই অংশটুকু অনুবাদ করতে করতে আমার মিশর ভ্রমণের কিছু উপলব্ধির পাশাপাশি কেন যেন সচল তাসনীম হোসেনের "স্মৃতির শহর" -এর কথা বারবার মনে পড়ে যাচ্ছিল। মার্কোর মত দুনিয়া না ঘুরেও আমার কেন জানি মনে হচ্ছিল, আমিও যেন অচেনা শহরের চত্বরে মার্কোর দেখা ঐ লোকটিকে দেখতে পাই, আর কোথাও নয়, তাসনীমের - "স্মৃতির শহর" -এ। অথচ মার্কোর মত আমি তো 'বিদেশি' না এখানে (?!?), আর কালভিনোর মত কোন অচিনশহরের কথাও বলা হয়নি স্মৃতির শহরে বা এটা তার উদ্দিষ্ট অর্থও নয় হয়তো। তারপরও। স্বদেশ-বিদেশ গুলিয়ে যায় কেন যেন। পুরাই উলটা ব্যাপার। আজব! চোখ টিপি




মন্তব্য

মন মাঝি এর ছবি

ছবিসূত্রঃ উইকিমিডিয়া।

****************************************

সাইফ তাহসিন এর ছবি

কাহিনি নাকি কাহিনী? কোনটা ঠিক? ইয়ে, মানে...

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

মন মাঝি এর ছবি

দু'টাই।

****************************************

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

খেলায় ক্যাঠা হারছে, ক্যাঠা জিতছে হেইডা বুঝি নাই, তয় হালায় যেই মুরগীডায় ডিমডা পাড়ছে হ্যারে ছাবাছি দ্যেই।

ছবিটা দারুণ লেগেছে।

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি

ছোটগল্পে আমার সবচে' প্রিয় না হলেও ইতালো কালভিনো 'প্রিয় দশজন'-এর মধ্যে অবশ্যই পড়বেন। এক হাত বা দুই হাত ফেরতা অনুবাদ পড়েই তাঁর ভাষায় আমি মুগ্ধ হই, বর্ণনায় অবাক হই, ঘটনাপ্রবাহ বা সম্পর্কপ্রবাহে বিস্মিত হই।

আপনার কালভিনো অনুবাদ চলতে থাকুক।


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

মন মাঝি এর ছবি

তালিকা করলে কোথায় ফেলব জানিনা, কিন্তু আমার খুবই প্রিয় নির্ঘাৎ!
নাহ্‌, আমার কালভিনো অনুবাদ একদম ফ্লপ! মন খারাপ
খেলায় ক্যাঠা হারে, ক্যাঠা জিতে হেইডা যুদি বুজাই না যায়, তয় হালায় যেই মুরগীডায় ডিমডা পাড়ছে বা যেয় হেইডা ভাজি করছে হ্যেয় কোন দুঃখে আর ঐ একই মুরগীডার ডিম ভাজি করবো ? হাসি

****************************************

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

আরে না, না, ফ্লপ কেন ভাবছেন ? আমি হয়ত এর রসাস্বাদন করতে পারিনি। সেটা আমার দূর্বলতা। সব ক্ষেত্রে আক্ষরিক অনুবাদ, পাঠকপ্রিয় না ও হতে পারে। একটু নিজস্ব ঢং এ রাঙিয়ে দিলে জবরদস্ত হতে পারে।
ভাল থাকবেন।

আজব প্রাণী এর ছবি

ধন্যবাদ ক্যালভিনো সম্পর্কে লিখার জন্য। উনি জিনিয়াস এবং মানুষের মাথা আউলানর জন্য যথেষ্ট
। মাত্র ইফ অন আ উইন্টার নাইট আ ট্রাভেলার শেষ করলাম। যদিও এখনও ইনভিসিভল সিটি পড়িনি, আপনার লিখা পড়ে এখনি শুরু করে দিব চিন্তা করছি। হাসি

মন মাঝি এর ছবি

শুরু করে দেন। ফাটাফাটি জিনিষ! উপ্রে পোস্টের ফুটনোটে ইনভিজিব্‌লের উপর কয়েকটা রিভিউর (পুরো মূল টেক্সট ওয়েবে পাই নাই) লিঙ্ক দিয়েছি - ১,২,৩,৪ - এভাবে। পড়ে দেখতে পারেন, বিশেষ করে ১-নম্বরটা। বইটা সম্পর্কে একটা ধারনা হবে তাহলে। তবে সবগুলি রিভিউ আগে পইড়েন না আবার - এই বইয়ে পাঠকও একটা গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র। নিজের রোলটা রিভিউয়ারের কাছে না হারানোই ভাল। বুঝতে অসুবিধা হলে পরে পড়তে পারেন।

****************************************

অতিথি লেখক এর ছবি

কালভিন কে নিয়ে অনেক গুলো ওয়েবসাইট ই আছে। সাধারনত ওনার কোন বই পড়তে শুরু কারার আগে কালভিনোর লেখার ধরণটা সম্পর্কে জেনে নিলে ভাল হতে পারে। কিন্তু spoiler টা এরিয়ে যাওয়াই ভাল। না হলে কালভিনো মজাটা মাঠে মারা যাবে।
ইমা

অতিথি লেখক এর ছবি

যেহেতু আপনি এবং মন মাঝি এবং সচলায়তনের অনেকই হয়তো ইফ অন আ উইন্টার নাইট আ ট্রাভেলার এই বইটার একটা ডিসকাশন গ্রুপ টাইপ কিছু একটা করলে কেমন হয়? আমার খুব খুবই ইচ্ছা এই বইটা এবং কালভিনোর লেখা নিয়ে ওনার পাঠকদের কি বলার আছে। সবাই কি আমার মত একই সাথে "ভালবাসা ও ঘৃণা" অনুভব করে নাকি শুধু আমিই ওনাকে নিয়ে একটু বাড়াবাড়ি করি! মন মাঝিদা কি বলেন? কালভিনো পাঠকচক্র টাইপ কিছুতে আপনার কি মন্তব্য?

ইমা

মন মাঝি এর ছবি

পাঠচক্রের চেয়ে আমি অনুবাদে বেশি আগ্রহী। তবে অনুবাদ করলে (আমি বা অন্য কেউ) সেই অনুবাদের ভিত্তিতে আলোচনা হতে পারে। শুধু অনুবাদের বিষয়েই না, মূল বইয়ের বিষয়েও। আমি লক্ষ্য করেছি, অনেক সময় কঠিন কিছু অনুবাদ করতে গেলেই বরং আমি সেটা আরও ভাল ভাবে বুঝতে পারি। তুলনামূলক ভাবে অনেক গভীরে যেতে পারি। মূল লেখাটা অনেক বেশি জীবন্ত হয়ে উঠে। আরও বেশি মজা পাই। এটা সব সময় হয়তো প্রযোজ্য না, তবে কোন কোন ক্ষেত্রে তো বটেই। যেমন এক্ষেত্রে।

ইনভিজিবল নিয়ে একটা ট্রাই মারি, তারপর আলোচনা করা যাবে। তবে সময় লাগবে, আপাতত আরও অনেক কিছুতে ব্যস্ত।

****************************************

সবুজ পাহাড়ের রাজা এর ছবি

কালভিনো অনুবাদ চলতে থাকুক।

মন মাঝি এর ছবি

আপনারে অসংখ্য -ধইন্যাপাতা-

****************************************

অতিথি লেখক এর ছবি

মন মাঝিদা
আমার মনে হয় আপনার অবশ্যই এই অনুবাদ চালিয়ে যাওয়া দরকার! আমি অভিভূত যে কালভিনো কে এত সুন্দর অনুবাদ করেছেন। আমার কাছে শেষের দুই প্যারা বেশি ভাল লেগেছে তার মানে হচ্ছে আপনি চালিয়ে গেলে অনুবাদটা আরও ভাল হতে থাকবে। প্লিজ আবার শুরু করেন। কালভিনোর প্রতি ভালবাসার জন্যই আরো বেশি করে চাইছি অনুবাদটা চলুক। হাসি আর আমরা তো আছিই। নো টেনশন আবার শুরু করেন। এবং আমি এক্সপার্ট না হলেও ২য়/৩য় একটা অভিমতের জন্য সবসময় আছি।

ইমা।

মন মাঝি এর ছবি

আপনার উৎসাহের জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ! আপনারে অসংখ্য -ধইন্যাপাতা-

চেষ্টা করব অবশ্যই। তবে একটু সময় দিতে হবে ভাই! এটাতো আর মিল্‌স এণ্ড বুনের বই না, তাই না? হাসি
যাজ্ঞে, আপনাকে আরেকটা রিকোয়েস্ট করি? কালভিনোর এই লেখা থেকে দুয়েকটা আইডিয়া বা ফ্রেইজ আমার একটা বস্তাপচা ছোট্ট লেখায় খাটিয়েছিলাম। প্রয়োগটা যথার্থ হয়েছিল কিনা সে ব্যাপারে একটু সন্দেহ রয়ে গেছে। ঐ লেখাটা পড়ে সে ব্যাপারে আপনার মতামত দিবেন? এভাবে নিজের লেখা পুশ করার জন্য দুঃখিত!

****************************************

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA