হাসতে নাকি জানেনা কেউ -০১

সচল জাহিদ এর ছবি
লিখেছেন সচল জাহিদ (তারিখ: শনি, ২৮/০৩/২০০৯ - ১২:৩২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

২৭ মার্চ ২০০৯ এর প্রথম আলোতে পড়লাম জামায়াত নেতা মতিউর রহমান নিজামী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বিষয়ে সাংবাদিকেরা জিজ্ঞেস করাতে বলেছেন,

“এটা আলোচনা সভা, সংবাদ সম্মেলন নয়৷ আপনারা শত চেষ্টা করেল আমার মুখ থেকে একটা কথাও বের করতে পারবেননা”

আসলেইত আমি যদি সত্য না স্বীকার করি কেউ আমাকে দিয়ে আসল কথা বের করতে পারবে ? খবরটা দেখেই তিন ঢাকাইয়া কুকুরের বিয়ে খাওয়ার কৌতুকটা মনে পড়ে গেলঃ

তিন ঢাকাইয়া কুকুরের বিয়ে খাওয়া

প্রায় একই রকম দেখতে তিন ঢাকাইয়া কুকুর গিয়েছে ঢাকার বাইরে এক গ্রামে বিয়ে খেতে। বাড়ির উঠানে সামিয়ানা টাঙিয়ে বাবুর্চি রান্না বান্না করছে। দলের নেতা কুকুর সিদ্ধান্ত নিল যে একসাথে না যেয়ে একজন একজন করে যাবে। নেতাজীর সিদ্ধান্ত মতে প্রথম কুকুর সামিয়ানার নিচ দিয়ে একটা ফাঁকা জায়গা পেয়ে ভিতরে প্রবেশ করল। বাবুর্চি রান্না করছিলেন এবং তার নজরে পড়ায় যথারীতি লাঠির প্রহার দিয়ে বিদেয় করলেন। বেচারা কেও কেও করতে করতে ফিরে আসল। বাকী দুই কুকুর জিজ্ঞেস করে,

‘কিরে কেমন খাইলি?’

প্রহারের কথাত আর জনসম্মুখে বলা যায়না, তাই সে ভাব নিয়ে মিথ্যে বলে,

‘উস্তাদ গেচি আর খাওয়াইচে’

এটা শুনেত বাকী দুই কুকুরের মুখ দিয়ে লোল পড়ে যাচ্ছে।লোভ সামলাতে না পেরে দ্বিতীয় কুত্তা থুক্কু কুকুর বেশ আয়েশ করে একই জায়গা দিয়ে ভিতরে প্রবেশ করল। বাবুর্চি তখন পোলাওয়ের চালে গরম পানি ঢালছিলেন। তিনি ভাবলেন মার খাবার পরেও আবার আসছে ! রাগের মাথায় হাতের গরম পানি ঢেলে দিলেন দ্বিতীয় কুত্তার গায়ে এবং যথারীতি কেও কেও করতে করতে সে ফিরে আসল। বাকী দুই কুকুর জিজ্ঞেস করে।

‘কিরে কেমন খাইলি?’

‘কেলা গরম গরম খাইচি’, ঝটপট জবাব দেয়।

এইভাবে দুই কুকুরের সাফল্যে দলের নেতার আর লোভ সামলানের উপায় থাকেনা। সে যথারীতি তার দুই শাগরেদের পথা অনুসরণ করে ভেতরে ঢুকে। বাবুর্চি এইবারে তার রাগ আর সামলাতে পারেনা। লোকজন দিয়ে সেটাকে ধরে বেঁধে ফেলে এবং অনেক সময় ধরে মনের ইচ্ছা মত উত্তম মধ্যম দিয়ে পরে ছেড়ে দেয়। এরকম যুষ্ঠিমধু খাওয়ার পরে তার হাঁটার শক্তিটুকুও থাকেনা তাই বেশ হেলে ঢুলে সে ফিরে আসে দুই শাগরেদের কাছে।শাগরেদরা জিজ্ঞেস করে,

‘উস্তাদ কেমন খাইলেন?’

দলনেতার গর্বিত উত্তর,

‘আবার জিগায়, ছাড়বারই চায়না!’

বিঃদ্রঃ কৌতুকটি সংগৃহীত


মন্তব্য

লুৎফুল আরেফীন এর ছবি

জোস হো হো হো

শেষটা ফাটাফাটি।

____________________
বাংলাদেশ আমার বাংলাদেশ

সচল জাহিদ এর ছবি

এই কৌতুকটা আমাদের ফারহানের মুখে শোনা। যেকোন আড্ডা জমাতে ওর সিগনেচার আইটেম।জামাত নেতাদের আপনি যাই করেননা কেন ওরা আসল কথা কখনো স্বীকার করবেনা।
-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

ফারুক হাসান এর ছবি

গড়াগড়ি দিয়া হাসি

সচল জাহিদ এর ছবি

এই কৌতুকটা যতবার শুনি ততবারই হেসে গড়াগড়ি খাবার দশা হয়।

-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

নাজনীন খলিল এর ছবি

চমৎকার! হাসতে হাসতে শেষ।

শুভেচ্ছা।

সচল জাহিদ এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ।
-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

আহমেদুর রশীদ এর ছবি

প্রয়োজনে বুদবুদ স্বাক্ষী দেয়।

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে
________________________________________
http://ahmedurrashid.

সচল জাহিদ এর ছবি

স্বাধীনতার ৩৮ বছর পরেও এদের দাম্ভিকতা দেখে আমাদের বিস্ময় লাগে।

-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

মর্তুজা আশীষ আহমেদ [অতিথি] এর ছবি

সেই দিনের অপেক্ষায় আছি যেদিন বাংলার মাটিতে এদের বিচার করা হবে।

সচল জাহিদ এর ছবি

সহমত

-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

হা হা হা

...........................

সংশোধনহীন স্বপ্ন দেখার স্বপ্ন দেখি একদিন

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

শামসুল ইসলাম এর ছবি

চমতকার!

আলমগীর সোহেল এর ছবি

আমি মাটিকে বলি তুমি প্রান বাচাও মরুর,
তোমার পরশে বেচে আছে বৃক্ষ আর তরু ।।
বৃক্ষের মাঝে লুকিয়ে আছে আমার ছোট প্রান
হে মাটি তুমি শক্ত হও, হও আগুয়ান ।।
নইলে যে মারা যাব থাকবে না আর প্রান
তোমার কাছে আকুতি আমার মরুতে থাকিও আম্লান ।।

আলমগীর সোহেল এর ছবি

[img=auto]C:\Documents and Settings\Alamgir\Desktop[/img]
চাদকে বলি থাক তুমি আকাশের গায়ে
রাতের তারারা লুটিয়ে পড়ে তোমার পায়ে ।।
যদি তুমি না থাক কেমনে হবে রাত
সারাদিনের ক্লান্তি শেষে লাগবে আবষাদ ।।
ক্লান্তিকে দূরে ঠেলে জাগবে তুমি আকাশে
শান্তিতে বিশ্রাম নেব, তোমার আলোর পরশে ।।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।