মায়াবৃত্ত

তুলিরেখা এর ছবি
লিখেছেন তুলিরেখা (তারিখ: বিষ্যুদ, ২৪/১২/২০০৯ - ৩:০৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এক বন্ধু বলে, " কী রে, কী হলো তোর? নতুন জিনিস কই? এ যা দিস, এসব তো চেনা, ঘোরানোফেরানো একই জিনিস। আসল রসিক কিন্তু ফ্রীজ থেকে বার করে গরম করা পুরানো খাবার আর নতুন রান্না করা জিনিসের তফাৎ ঠিক বোঝে।" সে মুচকি একটু হাসে, বেশ গা-জ্বালানো হাসি।

চুপ করে থেকে আমিও ঘাড় নেড়ে সায় দিই, নিজেও জানি আসলেই নতুন কিছু হচ্ছে না। পোড়ো বাগানটার দিকে চেয়ে থাকি, কতকাল যত্ন করা হয় না, ফুলগাছ সব মরে গেছে, সব্জিগাছও আর নেই। ঝাঁঝরি নিয়ে জল দেবার সেইসব পুরানো বিকেলগুলো মনে পড়ে কুয়াশার মতন, আগাছা নিড়ানোর ছুটির সকালগুলো, খুরপি দিয়ে সাবধানে মাটিখোঁড়া- মাটির একটা কেমন গন্ধ-- হঠাৎ মনে পড়ে গেল। একটা সবুজ দরজা ছিলো, একটা সবুজ দরজা.... সেই দরজাটার গা ছুঁয়ে ছুঁয়ে উঠে গেছিলো মাধবীলতা....ভোমরা আসতো, চকচকে কালো গা সোনালী পিঠ ভোমরা.... ছুটির সকালে একটা সোনালী রোদের বাঁকা রেখা পড়েছিলো দরজার উপরে, মাধবীলতার উপরে..... সে কবে?

আস্তে আস্তে ওকে বলি, " হয়তো আমার দীর্ঘ বিশ্রামে চলে যাবার সময় হয়েছে, অনেক অনেক দিনের বিশ্রাম- যেখান থেকে আর ফিরতে ইচ্ছে করে না। ঠান্ডা, স্নিগ্ধ অন্ধকারে গিয়ে ঘুমিয়ে থাকা। কোলাহল নেই, ঝগড়াঝাঁটি নেই, তর্কবিতর্ক নেই। সংসারের কোনো দাবীই নেই। বেশ ভালো না? ঘানিতে ঘুরছি অনেককাল তো হয়ে গেল, আর কত?"

ওর মুখ থেকে হাসিটা মুছে গেছে। হঠাৎ ওর চোখ কোমল হয়ে এলো, কী যেন একটা বলবে বলবে করে আর বললো না। আমরা বারান্দা থেকে নেমে এলাম বাগানে। আর হঠাৎ করেই আমি দেখতে পেলাম সেই মাধবীলতার দরজাটা। অনেক দূরে, যেন আয়নার ভিতর দিয়ে দেখা মায়াদেশের দরজার মতন, কোথা থেকে মায়াহাওয়া এসে ওর মায়াপাতাগুলো কাঁপিয়ে দিয়ে যায়। আমিও কেঁপে উঠি, আমূল।

হাওয়ায় শব্দ, সুরেলা। ও কিসের শব্দ? গান? কোন্‌ গান‌? কোথা থেকে আসে? কে গায় ঐ গান?

পালিয়ে যাচ্ছে, সব বৃষ্টি লুকিয়ে নিয়ে মেঘেরা পালিয়ে যাচ্ছে-
পালিয়ে যাচ্ছে শ্রাবণ-আকাশ,
সজল প্রেম ও শিশিরগন্ধী অমরতা-
চিত্রনীলা ঘাসের বুক থেকে
স্নিগ্ধ মৌরীগন্ধ পালিয়ে যাচ্ছে-
পড়ে থাকছে শুকনো খড়, কুটোকাটা, পোড়ো জমিন আর ঊষর অপ্রেম।

তবু জানি হে রহস্যময় অগ্নিপুরুষ-
ঝড়ের সঙ্গে ছুটে যেতে যেতে,
আকাশের দরজা ভাঙতে ভাঙতে,
অমৃতের নদী লুঠ করে আনতে আনতে,
মৃত্যুর সঙ্গে মুষ্ঠিযুদ্ধ করতে করতে-
তুমি প্রেমে ও অপ্রেমে কেবল আমাকেই চাও।

গভীর বিশ্রামে যেতে যেতে তাই বারে বারে ফিরে আসা
ফসলবিলাসী হাওয়ায় নুয়ে পড়ে বারে বারে অশেষ চুম্বন।
শরণার্থীর মতন দাঁড়িয়ে থাকে নিমেষগুলি
পথের দু'ধারে উদ্বেল সবুজের গন্ধ-
আমাকে ঘিরে রাখে মায়াবী সুরের বৃত্ত, বিশ্রামে যাওয়া হয় না।


মন্তব্য

অতিথি লেখক এর ছবি

যা লিখেন এমন ছবির মত হয়ে ওঠে কি করে? ভালো লাগা জানবেন।

মধুবন্তী মেঘ

তুলিরেখা এর ছবি

আপনার মন্তব্য পেয়ে খুব ভালো লাগলো মধুবন্তী মেঘ।
ভালো থাকবেন।
-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

রানা মেহের এর ছবি

কীগো তুলিরেখা বেগম?
মন খারাপ?
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

তুলিরেখা এর ছবি

আহা স্বপ্নেই যখন পোলাও রাঁধলেন, ঘী কেন কম ঢাললেন? শুধু বেগম কেন, সুলতানা রিজিয়াই নাহয় বলতেন! হাসি

আমার আবার মনখারাপ কি মনভালো!! ও আসে যায় আসে যায়, মেঘরোদবৃষ্টির মত। আপনি আছেন কেমন?

----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

মূলত পাঠক এর ছবি

এটা ভয়ানক রকমের ভালো, আপনাকে বললে তো শুনবেন না, এটা আবৃত্তির জন্যও বিশেষ উপযোগী। তবে ও সবের বাইরেও, চমৎকার লেখা!

তুলিরেখা এর ছবি

আরে, আপনি দেখি আবৃত্তি নিয়ে উঠেপড়ে লেগেছেন! এদিকে এক হিতৈষী সেদিন কইলেন পৃথিবীর আর কোনো দেশে আর কোনো ভাষায় নাকি এরকম কবিতা আবৃত্তি নামে বকচ্ছপ জিনিস আর নেই। কবিরা সভায় নিজেদের কবিতা পড়েন, এই যা। বাঙালীরাই নাকি গলা কাঁপিয়ে কবিতা আবৃত্তি করে! হাসি
কিজানি আমি তো বিশেষ খোঁজখবর রাখি না, জানিও না। তিনি জানকারিওলা লোক, হতেও পারে। অথবা এও হতে পারে তিনি আবৃত্তি জিনিসটাকেই পছন্দ করেন না। চোখ টিপি
-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

বইখাতা এর ছবি

চমৎকার সব শব্দ একের পর একের এক সাজিয়ে আপনার এই প্রায় চোখের সামনে চলে আসা দারুণ সব দৃশ্যনির্মাণ আমার ভীষণ পছন্দ।
তবে আপনার সাংগ্রিলা আর শেষ করলেন না !

তুলিরেখা এর ছবি

ধন্যবাদ বইখাতা। হাসি
সাংগ্রিলা তো আর লিখতে পারি না ভাই, সে আর আসে না। মন খারাপ
-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

বুকের ভিতর একটা নদী আছে। মায়াবৃত্ত টেউ আসে।
----------------------------------------
ঢাকার মৌন ঘ্রাণে বকুলফুলের নাভি
----------------------------------------
হা-তে এ-ক প্র-স্থ জো-ছ-না পা-ড়ে-র ঘ্রা-ণ

তুলিরেখা এর ছবি

ঠিকই বলেছেন।
ভালো থাকবেন।
-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।