জীবন থেকে নেয়া -১

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শুক্র, ২৫/০৫/২০১২ - ৬:২৪অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

নাম: জাভেদ হোসেন

আগের ব্লগ: ক্যারিকেচার করিবার ইচ্ছা - কিচিন্ঘা

এই কার্টুন এর শুরু ২০০৯ সালে। amadergaan.com ফোরাম এর এক সদস্যা sazia প্রাত্যহিক জীবনের মজার ঘটনা বিষয়ক একটা post এ তার আর তার মায়ের মধ্যেকার এই কথোপকথন তুলে দ্যায়। খুব মজা পেয়েছিলাম পড়ে বলাই বাহুল্য। সাজিয়া'র কাছ থেকে অনুমতি চেয়ে নেই, একটা কার্টুন স্ট্রিপ বানানোর। সাজিয়া সানন্দে সম্মতি দিয়েছিল। ক্যারেক্টার গুলি ২০০৯ এ design করা।কিন্তু স্ট্রিপ শেষ করলাম আজ, (হায় রে!)

যা হোক, বুঝতেই প, পুরো পুরি জীবন থেকে নেয়া এই কার্টুন হাসি

সাজিয়া শুধু ক্যারেক্টার গুলো দেখেছিল, পুরো স্ট্রিপ দেখাতে পারি নাই তখন। আর amadergaan.com এ যাওয়াও হয় না। আশা করি সাজিয়া ভালো আছে, সুস্থ আছে। তাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। একদিন হয়ত এটা পৌছে যাবে তার কাছে কোনো ভাবে - দুনিয়া গোল এবং ইন্টারনেট এর কারণে এখন আগের চেয়েও ছোট।


মন্তব্য

হিমু এর ছবি

ছোটো পেঁয়াজ যে কী বিরক্তিকর, সেটা যারা নিজে পেঁয়াজ কেটে রান্না করে তারাই বোঝে রে ভাইডি! ছোটো পেঁয়াজের খোসাগুলিও আবুলগাম দিয়ে লাগানো বলে মনে হয়, খুঁটে খুঁটে ছাল ছাড়াতে হয়, প্রচুর সময় খেয়ে ফেলে। বিজ্ঞানীদের উচিত জিপার লাগানো খোসাসহ পেঁয়াজ আবিষ্কার করা, যেটার জিপার ধরে টান দিলে আপনাআপনি কুচিগুলো বের হয়ে আসবে।

তারেক অণু এর ছবি
সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

হো হো হো

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

তদানিন্তন পাঁঠা এর ছবি

আমার বউ-ও আমারে গালি দেয়। কিন্তু কী করুম? বড় পেঁয়াজ যে সব ভারতের। দেশীগুলো ছোটই হয়। মন খারাপ

তিথীডোর এর ছবি

বিজ্ঞানীদের উচিত জিপার লাগানো খোসাসহ পেঁয়াজ আবিষ্কার করা, যেটার জিপার ধরে টান দিলে আপনাআপনি কুচিগুলো বের হয়ে আসবে।

হো হো হো

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

রুমঝুম ১ এর ছবি

২/৩ বছর আগে আমার বরকে আমি একই ডা‌য়লগ দিয়েছিলাম খাইছে

মরুদ্যান এর ছবি

চরম আঁকার হাত আপনার!!! হাততালি

ক্রেসিডা এর ছবি

সাজিয়া কে চিনতাম, আমাদেরগান খেকেই। জাষ্ট ফোরাম পোষ্টর হিসেবেই। উনি ওখানকার মডারেটর ও ছিলেন। যাকগে, দারুন আঁকেন আপনি।

__________________________
বুক পকেটে খুচরো পয়সার মতো কিছু গোলাপের পাঁপড়ি;

সত্যপীর এর ছবি

দূর্দান্ত আঁকা! হাততালি

..................................................................
#Banshibir.

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

মজার।

"আমাকে বিষ দেয় না কেন লোকটা?" ছবিতে মহিলাকে দেখতে কেমন যেন লাগছে। এ ছাড়া বাকিগুলো দারুণ লাগলো! চলুক

কিছু বানান ভুল আছে। ঠিক করে নিয়েন পরে। যেমন,
পেয়াজ > পেঁয়াজ।
কি > কী।
কথা।তোর > কথা। তোর
বেশী > বেশি।
গেলনা > গেল না।
এভাবে(এ-কার)ই বাঝা > এভাবেই বোঝা
পেয়াজ এর > পেঁয়াজের

অতিথি লেখক এর ছবি

ভুল ধরিয়ে দেবার জন্য ধন্যবাদ।

অতিথি লেখক এর ছবি

উপরে হিমু যে মন্তব্য করেছেন সেটাই আমার ও কথা । ছোট পিয়াজ নিয়ে রান্তে বসেন বুঝবেন
কত গমে কত আটা হাসি

আঁকা এবং লেখা ভালো লেগেছে ।

চরম উদাস এর ছবি

ছোট পেঁয়াজ আর রসুন ছিলা যে কি যন্ত্রণার সেটা জানি খাইছে । জটিল লাগলো কমিক স্ট্রিপ। কিছু টেকনিক্যাল ডিটেলস কি দেয়া যায় এই আঁকা আঁকি বিষয়ে? মাথার মধ্যে নানা কমিক আইডিয়া ঘুরে। আঁকতে পারিনা বলে ঠেকে আছি মন খারাপ

অতিথি লেখক এর ছবি

কি রকম technical details চান, জানাবেন। চাইলে e-mail করতে পারেন, hossain.zaved gmail -এ. স্ট্রিপ এর চরিত্র গুলো সব হাতে আঁকা, পরে স্ক্যান করে ফটোশপ CS-২ তে রং করা। এই রং করার পদ্ধতির একটা নাম আছে, যাকে বলে cell shading, অনেক টিউটোরিয়াল পাবেন এর উপরে, গুগলে খুঁজলেই. www.deviantart.com এ এরকম অসংখ্য টিউটোরিয়াল আছে. আর যদি আইডিয়া মাথা ব্যথার কারণ হয়ে যায়, তাইলে আমি তো আছি আঁকার খাতা হাতে।

- জাভেদ হোসেন

চরম উদাস এর ছবি

আরে, এতো দেখি মেঘ না চাইতেই জল (থুক্কু পানি, জল হারাম শব্দ) দেঁতো হাসি । খাড়ান একটু পড়াশোনা করে নেই, তাপ্পর আপনার সাথে যোগাযোগ করতেছি। আমার প্রোফাইলে আমার ফেবু আইডি আছে। যোগ করে ফেইলেন।

অকুতোভয় বিপ্লবী এর ছবি

সচলে আঁকিয়ের সংখ্যা কম নয়, আর কমিক স্ট্রিপ আঁকিয়েদের সংখ্যাও বাড়ছে দিনকে দিন, কাউকে ধরে সন্ধি পাকিয়ে ফেলুন; লেখা আপনার, আঁকা আঁকিয়ের হাসি
জাভেদ তো রয়েছেনই হাসি

চরম উদাস এর ছবি

হ, আপনেও তো আরেক বস আঁকিয়ে। ধরতেছি আপনেরেও।

অকুতোভয় বিপ্লবী এর ছবি

এইসব বলে না খাইছে
আমি আঁকতে পারি না, জাভেদদের মতো কারও ধারেকাছে তো নয়ই হাসি

ধুসর গোধূলি এর ছবি

কমিশনার চ.উদাস লিখেছেন:
মাথার মধ্যে নানা কমিক আইডিয়া ঘুরে। আঁকতে পারিনা বলে ঠেকে আছি

আরে, আপনের এই সমস্যা, সেইটা আগে কইবেন না কমিশনার? পাবলো পিকাসোর পরে কার আঁকিবুকি নিয়া দুনিয়াতে মাতম পড়লো বইলা! জ্বী জনাব, সেই আদম এই অধম। খাড়ান, একটা মডেল দেখাই আমার আঁকিবুকি খাতার।

সুজন্দা দ্য গ্রেট

এখন প্রশ্ন হইলো, আমার এই চিত্রাঙ্কনের মডেল কে বুঝছেন? বুঝেন নাই। এতো দামী চিত্রকর্মের মর্ম তো এতো সহজে সবাই বুঝতে পারবে না। পাবলো পিকাসোর অনেক আঁকিবুকিও সবাই বুঝে না। কিন্তু তাই বলে আমাকে পাবলো পিকাসোর সাথে গুলিয়ে ফেলবেন না কিন্তু। আমি ওঁর চেয়ে ঢের ভালো আঁকি!

যাইহোক, জবাবটা আমিই দেই। এইটা হইলেন আমাগো সুজন্দা। বিশ্বাস না হইলে মেম্বররে জিগান।

এখন কন, কী কমিক আপনেরে এঁকে দেওয়া লাগবে। কোনো ব্যাপারই না, স্রেফ দুই আঙুলের মকদ্দমা।

চরম উদাস এর ছবি

আরে , জটিল হইছে হো হো হো । আপনাকেই খুজতেছে বাংলাদেশ এবং আমি।

অকুতোভয় বিপ্লবী এর ছবি

জাভেদ, আপনার আঁকা ভাল লেগেছে খুব, মুগ্ধ হচ্ছি দিন দিন হাসি
চালিয়ে যান হাসি

সচল জাহিদ এর ছবি

চলুক


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

দারুণ

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

আব্দুর রহমান এর ছবি

ছোট পেঁয়াজ কিনলে পয়সা বাঁচে, কাটাকাটির ঝামেলায় কম কাটা হয়। আর আমাদের এদিকে ছোটগুলার দাম কম, ১০ পাউণ্ড আড়াই ডলার আর বড়টা তিন ডলার।

আর ছোটগুলার ঝাঁজ বেশি।

------------------------------------------------------------------
এই জীবনে ভুল না করাই সবচেয়ে বড় ভুল

অমি_বন্যা এর ছবি

চলুক

আশরাফুল কবীর এর ছবি

অনেক সুন্দর, ভালো থাকুন বাঘের বাচ্চা

তদানিন্তন পাঁঠা এর ছবি

চমৎকার হচ্ছে জাভেদ ভাই। চলুক।

সজল এর ছবি

মজারতো!

---
মানুষ তার স্বপ্নের সমান বড়

অতিথি লেখক এর ছবি

দেঁতো হাসি

"পেঁয়াজ ছোট
ভালোবাসতো?
পেঁয়াজ বড়
ভালোবাসার- খামারও বড়" দেঁতো হাসি

কড়িকাঠুরে

পথিক পরাণ এর ছবি

চমৎকার আকার হাত আপনার-- আরও মজার মজার আঁকিবুকি দেখতে চাই--

-----------------
পথেই আমার পথ হারিয়ে
চালচুলোহীন ছন্নছাড়া ঘুরছি ভীষণ---

দুষ্ট বালিকা এর ছবি

ছোট মরিচে, থুক্কু পেয়াঁজে ঝাঁজ বেশী! দেঁতো হাসি

**************************************************
“মসজিদ ভাঙলে আল্লার কিছু যায় আসে না, মন্দির ভাঙলে ভগবানের কিছু যায়-আসে না; যায়-আসে শুধু ধর্মান্ধদের। ওরাই মসজিদ ভাঙে, মন্দির ভাঙে।

মসজিদ তোলা আর ভাঙার নাম রাজনীতি, মন্দির ভাঙা আর তোলার নাম রাজনীতি।

মন মাঝি এর ছবি

চলুক

****************************************

রিয়েল ডেমোন এর ছবি

ছোট পেঁয়াজ কাটা আসলেই ঝামেলা। আমার চাকু দিয়ে পেঁয়াজ কাটতে হয়। ছোট পেঁয়াজ আসলেই বিষ রেগে টং

ইঁদুর এর ছবি

জাভেদ ভাই ব্যাক গ্রাউন্ডের কাজ মজা লাগছে! কালারে তো ভাই আপনিও আমাদের লাইনে চলে আসলেন! খাইছে

অতিথি লেখক এর ছবি

আসিফ, পুরা রেনডারিং করতে খবর হয়ে যাবে। সাত-সাত খানা ফ্রেম! আর আমি এমনিতেই খুব স্লো। দুই বছর লেগেছে এটুকু করতে। আরও বছর খানেক অপেক্ষা করলে ছোট পেয়াঁজ দুনিয়া থেকে উঠে যেতে পারে। হিমু ভাই already প্রস্তাব দিয়েছেন zipper ওলা পেয়াঁজ এর জন্য।

শাব্দিক এর ছবি

আরও বছর খানেক অপেক্ষা করলে ছোট পেয়াঁজ দুনিয়া থেকে উঠে যেতে পারে।

গড়াগড়ি দিয়া হাসি

সৌরভ কবীর  এর ছবি

উত্তম জাঝা! চলুক

শাব্দিক এর ছবি

গুল্লি পপকর্ন লইয়া গ্যালারীতে বইলাম

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

মজা পাইলাম। দেঁতো হাসি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

তিথীডোর এর ছবি

গুল্লি

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

ত্রিমাত্রিক কবি এর ছবি

চরম তো!

_ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _
একজীবনের অপূর্ণ সাধ মেটাতে চাই
আরেক জীবন, চতুর্দিকের সর্বব্যাপী জীবন্ত সুখ
সবকিছুতে আমার একটা হিস্যা তো চাই

বন্দনা এর ছবি

ব্যাপক হয়ছে। এই পেয়াজ নিয়া আমার একটা ইতিহাস আছে মায়ের সাথে। আমার মা এই পেয়াজি খাবেন এবং কিনবেন। কিন্তু আমাকে এই পেয়াজ কাটলে দিলেই আমার মেজাজ টং হয়ে যেতো, দুনিয়ায় কি আর পেয়াজ নাই, ছোট পেয়াজ খেতে হবে কেন, এগুলারে বড় হবার সুযোগ না দিয়ে এখনি কেন ক্ষেত থেকে তুলে এনে বাজারে বিক্রি করছে, এই জন্যি আমাদের কোন উন্নতি হয়না, আর ইন্ডিয়ান পেয়াজ দেখো কত্ত বড়, একটা কাটলেই কতগুলা হয়। আমার মা বলতেন, ছোট হলে ও আমাদের দেশী পেয়াজে যে স্বাদ হয় অন্য পেয়াজে সেটা হয়না, ভালো রান্না খেতে চাও তো ভাল করে পেয়াজ কুচি কর।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।