জব্দফা মুশতারকে ডাস্টবিনে ফেলতে হলে

হিমু এর ছবি
লিখেছেন হিমু (তারিখ: রবি, ১৮/০৪/২০১০ - ৩:৩৫অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ব্যক্তিগত টুকিটাকি আর অফিসের কাজে মাঝে মাঝেই আপনাকে বাংলা লিখতে হয় "বিজয়" সমর্থিত পদ্ধতিতে।

কিন্তু সফটওয়্যারটি দুর্মূল্য। তাছাড়া এটি উইন্ডোজ সেভেনেও নাকি কাজ করে না বলে কয়েকজন ব্যবহারকারী জানিয়েছেন।

সর্বোপরি বিজয় প্রোগ্রামটি চালু করার সময় একটি ভয়ঙ্কর হুলিয়া মনিটরে ভেসে ওঠে, যা আপনার রক্তচাপ বৃদ্ধি করে এবং হৃদযন্ত্রের ওপর নানা ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। আপনি এই চেহারা আর দেখতে চান না।

তাছাড়া আপনি আমার মতোই দরিদ্র মানুষ। আপনি হাজার হাজার টাকা খরচ করে এই সফটওয়্যারটি কিনতে অপারগ।

আপনি এখন কী করবেন?

আপনার জন্যে সমাধান হচ্ছে, আপনি এখান থেকে বিনামূল্যে অভ্র-কীবোর্ড নামের সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে নিন।

অভ্র দিয়ে আপনি ইউনিকোডে লিখতে পারবেন। বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় ইউনিকোড লেআউট আছে সেখানে, একটু খতিয়ে দেখলেই অভ্যস্ত হয়ে যাবেন এতে।

আর বিজয়ে কনভার্ট করে নিতে পারবেন এই অনলাইন কনভার্টারটির মাধ্যমে।

তাই বিজয় সফটওয়্যারটি কিনে অর্থব্যয় করার কোনো প্রয়োজন নেই আপনার।

লিখে যান দুর্বার গতিতে।


মন্তব্য

সংসপ্তক এর ছবি

আমি সত্যি সত্যি ই একটু জানতে চাচ্ছি, ব্লগে বিজয় এর কি আদৌ কোন ব্যবহার আছে? একজন ও কি আছে বিজয় ব্যবহার করে? করলে কেন করে?
.........
আমাদের দূর্বলতা, ভীরুতা কলুষ আর লজ্জা
সমস্ত দিয়েছে ঢেকে একখণ্ড বস্ত্র মানবিক;
আসাদের শার্ট আজ আমাদের প্রাণের পতাকা

.........
আমাদের দুর্বলতা, ভীরুতা কলুষ আর লজ্জা
সমস্ত দিয়েছে ঢেকে একখণ্ড বস্ত্র মানবিক;
আসাদের শার্ট আজ আমাদের প্রাণের পতাকা

হিমু এর ছবি

ব্লগের বাইরে বিশাল প্রকাশনা জগতে বিজয়ের অনেক বিস্তৃত ব্যবহার আছে। ভালো ফন্টের অভাবে আর ইউনিকোড নিয়ে অনভ্যাসের কারণে প্রকাশনার সাথে জড়িত যাঁরা, তাঁদের কাছে বিজয়ই সব। তবে বিজয় ব্যবস্থার দুর্বল দিকটা হচ্ছে, বিজয় ব্যবস্থায় কাজ করতে গেলে বিজয় সফটওয়্যার না থাকলেও চলে।

কাগু তার ওয়েবসাইটে দাবি করেছেন, বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় বাংলা সফটওয়্যার নাকি বিজয়। জনপ্রিয়তা আর উপযোগিতা এক পাল্লায় মাপা যায় না। প্রকাশনা শিল্পে ম্যাক মেশিন অনেক উপযোগী, কিন্তু দেশে ম্যাক মেশিন জনপ্রিয় নয়। কাগু যখন সরাসরি জনপ্রিয় দাবি করছেন, এই দাবির ভিত্তি বোঝার জন্যে আমি একটা পোল দিয়েছি। অংশগ্রহণ করলে বাধিত হবো।



বুকে BOOK রেখে বন্ধু চলো আজ যাবো বরাহশিকারে মোরা ধার ধার ধার দিও বল্লমে ♪♫

সংসপ্তক এর ছবি

ভুটাইতে গেলাম......

.........
আমাদের দুর্বলতা, ভীরুতা কলুষ আর লজ্জা
সমস্ত দিয়েছে ঢেকে একখণ্ড বস্ত্র মানবিক;
আসাদের শার্ট আজ আমাদের প্রাণের পতাকা

ধ্রুব বর্ণন এর ছবি

জব্দফা মুশতারের পিজয়ের কফিনে শেষ পেরেকটা পড়বে ম্যাকভিত্তিক মুক্ত বিনামূল্য ইউনিকোড বাংলা সফটওয়্যার যেদিন আসবে। মেহদী এদিকে একটু আলোকপাত যদি করতেন ভালো হত।

অভ্রনীল এর ছবি

শুধু তাই না, যারা উইন্ডোজ ব্যবহার না করে উবুন্টু বা লিনাক্সমিন্ট ব্যবহার করেন, তাদের জন্যও রয়েছে অভ্রের আলাদা ভার্সন। যেখানে বিজয়ের কোন উবুন্টু ভার্সন নেই।

কথাটাকে ঘুরিয়ে অন্যভাবে বলি, যারা পাইরেসিকে ঘৃণা করেন, চুরি করে উইন্ডোজ ব্যবহার করতে চাননা, কিন্তু ফনেটিক বাংলায় লেখার জন্য বাধ্য হয়ে চুরি করে উইন্ডোজ ব্যবহার করতে হয়, তারা এখন খুব সহজেই উবুন্টু কিংবা লিনাক্স-মিন্টে অভ্র দিয়ে বাংলা লিখতে পারবেন।
_______________

::: উবুন্টু ও মিন্টকে ছড়িয়ে দিন সবার মাঝে! :::

অতিথি লেখক এর ছবি

অভ্রের পাশে আমরা কৃতজ্ঞ ব্যাবহারকারীরা সবসময় আছি এবং থাকব। হিমু ভাই কে ধন্যবাদ পোস্টটির জন্য।

মাহবুব লীলেন এর ছবি

পুরো সমর্থন
নতুন ব্যবহারকারীদের জন্য খুবই কার্যকর গাইড

তবে শিরোনামটা বোধহয় বদলানো দরকার
না হলে পুরো পোস্টটাই মনে হবে শ্লেষের ধারাবাহিকতা
কারণ শিরোনামটা পোস্টের বিষয়কে সেভাবে ধারণ করে না

পল্লব এর ছবি

সহমত। এইটা "আমজনতা"র জন্য একটা গাইডের মত। গাইডের জন্য শিরোনামটা একটু আক্রমণাত্মক। বিজয় ব্যবহারকারীদের অনেকেই অভ্র সম্পর্কে তেমন জানে না, এবং তারা জব্বার কাগুর বিশাল ভক্ত। তারা এই শিরোনাম দেখে পোস্টটা রিজেক্ট করতে পারে।

পোস্টের মধ্যে আগের পোস্টগুলার একটা লিঙ্ক দিয়ে দিলেও মনে হয় ভাল হয়।

শেয়ার করলাম খোমাখাতায়।

==========================
আবার তোরা মানুষ হ!

স্পর্শ এর ছবি

কাজের পোস্ট। চলুক


ইচ্ছার আগুনে জ্বলছি...


ইচ্ছার আগুনে জ্বলছি...

লীন এর ছবি

সংক্ষেপে এতোকিছু বলে দেবার জন্য হিমুভাইকে ধন্যবাদ!
______________________________________
লিনলিপি

নীড় সন্ধানী এর ছবি

‍‌যারা এখনো অভ্রে লেখেনি তাদের জন্য দরকারী পোষ্ট।
শিরোনামটা সহজ ও বোধগম্য করে দেন।

-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-
সেই সুদুরের সীমানাটা যদি উল্টে দেখা যেত!

‍‌-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.--.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.
সকল লোকের মাঝে বসে, আমার নিজের মুদ্রাদোষে
আমি একা হতেছি আলাদা? আমার চোখেই শুধু ধাঁধা?

হাসিব জামান এর ছবি

বিজয় সফটওয়্যারটি কিনে অর্থব্যয় করার কোনো প্রয়োজন দেখি না।
আর অভ্রের ব্যাপারে শুধু এতটূকু বলি, অভ্রের পরিচয় না পেলে বাংলা টাইপিং আমাকে দিয়ে কোনদিন হত না।
-----------------------------------------
ব্যস্ততা আমাকে দেয় না অবসর ...

দ্রোহী এর ছবি

স্টার্টআপে জব্বর আলী কাগুর ছবি দেখি না বহুবছর হয়ে গ্যালো!

ওডিন এর ছবি

আফসুস- এই নূরানী চেহারা আমি কখনোই দেখলাম না। ভাবতেছি বিজয় টরেন্ট করমু নাকি?? শয়তানী হাসি
______________________________________
যুদ্ধ শেষ হয়নি, যুদ্ধ শেষ হয় না

সাইফ তাহসিন এর ছবি

দুঃখজনক ভাবে কোন মানুষ এই দুর্গন্ধী বিজয় শেয়ার করে না নেটে। তাই টরেন্টে পাইবা না এই *** **

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

সাইফ তাহসিন এর ছবি

শিরোনামে লাইক মারলাম, লেখাটা খোমাখাতায় ঝুলাইলাম, মোজবরে দেখতে চাই না কোন কম্পিউটারে। আইটিতে বিশেষ অজ্ঞ এই লোক নিপাত যাক, বাংলা লিখতে অভ্রের কোন বিকল্প নাই, এইটা বুঝতে বুদ্ধি লাগে না। যারা এখনো বিজয়ে লটকায় আছেন, আসেন, অভ্র লোডান, তাহলে বুঝতে পারবেন, বাংলা লিখতে গিয়ে এতদিন কিভাবে মোজবের হাতে নির্যাতিত হয়েছেন
=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

=================================
বাংলাদেশই আমার ভূ-স্বর্গ, জননী জন্মভূমিশ্চ স্বর্গাদপি গরিয়সী

ওডিন এর ছবি

মোজব! হাহাহাহাহা! গুরু বুঝতে একটু সময় লাগলো বলে লজ্জাবোধ করতেছি- আসলে পাইরেসী ছাড়া আর কিছু মাথায় নাই তো!

আমি তো কাকুরে কয়েকটা মেইল কর্লাম কিন্তু তার সাড়াশব্দ নাই- তবে আমার এক বন্ধু তার রিপ্লাই পায়া ধন্য হইছে। সে তারে ইংরাজিতে লেখছে আমরা নাকি তাকে 'আনফেয়ারলি' গালাগালি করতেছি! আমি কইলাম **রে ক' গাইলের আর কি হুনছে- আমগো ঢাকাইয়াগো সাধু ভাষার আদরমাখা মহব্বতে চুবানো ডাক-গুলা হুনলে মুর্দা ভি উইঠা খাড়ায় যাইব!

**- মানে অবুঝ নাদান শিশু!
______________________________________
যুদ্ধ শেষ হয়নি, যুদ্ধ শেষ হয় না

ওডিন এর ছবি

ওঁয়া ওঁয়া ওঁয়া ওঁয়া অর্থ লিখে দেবার পরেও এত সুন্দর রুচিশীল ভদ্র গালিটাকে সেন্সর কর্লো কোন পাষন্ড মডু? বেনিআসহকলা নিপাত যাক!
শয়তানী হাসি

______________________________________
যুদ্ধ শেষ হয়নি, যুদ্ধ শেষ হয় না

অতিথি লেখক এর ছবি

প্রায় ১০ বছর আগে জুব্বার কাগু বিটিভিতে একটা অনুষ্ঠান করতো, যেখানে স্টার্ট মেন্যু থেকে কিভাবে paint বের করে আঁকা যায়, MSWord বের করে লেখা যায় এসব শেখানো হতো।

এখন আমার সন্দেহ হচ্ছে কাগুর দৌড় ঐ পর্যন্তই!

চপল

সুমন চৌধুরী এর ছবি

ডাস্টবীনে সিডিটা ফালাইয়া দিলাম। দেশ থিকা আনছিলাম। নতুন কম্পুতে লাগাইতেই একবস্তা ভাইরাস। তারপর আর ভুলেও সিডি ড্রাইভে ঢুকাইনাই। বিজয় লে-আউটও শিখছিলাম সামু থিকা। সুতরাং জব্বার সাহেবের কালান্তক সেই কপিরাইটেড সিডিটার, আমার বাংলা টাইপিং শেখার ব্যাপারে একেবারেই কোন ভুমিকা নাই।



অজ্ঞাতবাস

শিশিরকণা এর ছবি

আপনিও সিডিতে ভাইরাস পেয়েছেন। আমিও। তাহলে আমার সিডিটা সিংগেল কেস না। জব্বার চাচা এতদিন ধরে মানুষের কাছে ভাইরাস অয়ালা সফটওয়ার বেচতেছেন। উনার এই অপরাধের আগে বিচার করতে হবে। আমি ভাইরাস পাবার পর মেইল করে জানিয়েছিলাম। উনি খুব ফালতু গোছের কিছু একটা উত্তর দিয়েছিলেন, এন্টি ভাইরাস চালাও বা এরকম কিছু।

চলেন , উনার কাছে টাকা ফেরত চাই। সব গুলি ভাইরাস অয়ালা সিডির দাম ফেরত দিতে হবে।জনগনের ডিজিটাল ক্ষতি করার জন্য উনাকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

শরতশিশির এর ছবি

আমার কেসও একইরকম। আমি ইউটি-অস্টিনে বাংলা পড়িয়েছি কিন্তু কখনওই ব্যবহার করতে পারি নি 'বিজয়' ভাইরাসের চোটে। যেই ভার্সন ছিলো, সেটা ফেলে দিতে হয় ইউনি'র আপত্তিতে। আর, আইইউবিতে-ও বিজয় ব্যবহার করা যেতো না - পিসি স্টার্ট-আপ হতে অনেক সময় নিতো, ভাইরাস দিয়ে অনেক ফাইল করাপটেড হয়ে যেতো, আর টাইপ করতে আমার একটা সিম্পল কবিতা লাগতো প্রায় এক ঘন্টা (সেটাও আরেকজনের কাছ থেকে বহুত কষ্টে শেখা, এবং সব টাইপিং আমরা ছেলেটাকে দিয়েই করাতাম দরকার হলে)। এরপর আমরা হাতে লেখেই পরীক্ষার প্রশ্ন আর হ্যান্ডনোট তৈরী করতাম। অথচ এইসব জায়গায় এখন 'অভ্র' অনায়াসে ব্যবহার করা হয়!

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
আমি দেখতে চাই না বন্ধু তুমি
কতখানি হিন্দু আর কতখানি মুসলমান
আমি দেখতে চাই তুমি কতখানি মানুষ।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
আমি দেখতে চাই না বন্ধু তুমি
কতখানি হিন্দু আর কতখানি মুসলমান
আমি দেখতে চাই তুমি কতখানি মানুষ।

অনুপম ত্রিবেদি এর ছবি

১৯৯৭ সালে কম্পুতে হাতে-খড়ি হবার পর 'বিজয়' ব্যাবহার করা শিখেছিলাম। কিন্তু সুমন চট্টোপাধ্যায়-এর জাতিস্মর গানটা টাইপ করতে গিয়ে যখন দেখলাম প্রায় ঘন্টা কভার হয়ে গেলো তখন থেকে মহান আল্লাহ'র নামে এই জিনিশ বাদ দিয়ে দিলাম। আর তার প্রায় ১০ বছর পর যখন 'অভ্র' পেলাম, খালি বাংলা-ই লিখতাম। আহা কি মজা, কি মজা।

'মেহদী'র কাছে কৃতজ্ঞ - এই জটিল মাল তৈরি করার জন্য আর আমাকে ফোনে-ফোনে অভ্র শেখানোর জন্য ...

===============================================
রাজাকার ইস্যুতে
'মানবতা' মুছে ফেলো
টয়লেট টিস্যুতে
(আকতার আহমেদ)

==========================================================
ফ্লিকারফেসবুক500 PX

রায়হান আবীর এর ছবি

শিরোনামসহ পুরা পোস্টটাই কামের হাসি

রাগিব এর ছবি

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- হে হে হে
এই রকম কেইস দুইটা গেলো রাগিব ভাই। দুইজনই হেব্বি "মানি" লুক, তবে অতি অবশ্যই নিজের জবানীতে! দেঁতো হাসি
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

সাবিহ ওমর এর ছবি

আপনারা কোন দুনিয়ায় আছেন? বাংলাদেশের ৯৯% কম্পুস্বাক্ষর মানুষ বিজয় ব্যবহার করে...তথ্যসূত্রঃ বিবিসি খাইছে

শরতশিশির এর ছবি

সাবিহ, অনেক ধন্যবাদ তোমাকে! বিবিসি'র দু'জনকে বলে দিয়েছি মেহদীর সাক্ষাৎকার নেবার জন্যে, এখন দেখা যাক ওরা কী করে।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
আমি দেখতে চাই না বন্ধু তুমি
কতখানি হিন্দু আর কতখানি মুসলমান
আমি দেখতে চাই তুমি কতখানি মানুষ।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
আমি দেখতে চাই না বন্ধু তুমি
কতখানি হিন্দু আর কতখানি মুসলমান
আমি দেখতে চাই তুমি কতখানি মানুষ।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- সুজন্দার পোস্টের এক জায়গায় দেখলাম ভদ্রলোক আংরেজীতে ইমেইলে বাতচিত চালাচ্ছেন একজনের সাথে। দেখে বড়ই করুণা হচ্ছিলো, বেচারা বাংলায় ইমেইল লিখতে পারছেন না! লিখলেই অভ্র'র একাউন্টে গিয়ে সেই সফলতা যুক্ত হয়ে যাবে। তার স্বরচিত বিজয় কোবতেখানি দিয়ে সেটা অবশ্য করা যাচ্ছে না!

আংরেজীতে লিখছেন বলে আমি তেমন কিছু মনে করছি না যদিও! তবে তার আংরেজীর ব্যবহার দেখে মনে হচ্ছিলো বোধ'য় বানান করে করে তিনি আংরেজী বাক্য রচনা করছিলেন! মানুষের ব্যর্থতাকে ছোট করে দেখার কোনো অবকাশ নেই কখনোই, কিন্তু যে লোকটা হাততালি দিয়ে বাঘ মেরে ফেলতে সক্ষম, যে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় কম্পু বিশেষজ্ঞ বলে নিজের পরিচয় দিতে স্বচ্ছন্দ বোধ করেন, যিনি আরও কী কী কেরদান বলে নিজেকে দাবী করেন, তার এরকম খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলা আংরেজী জ্ঞান দেখলে ভালো লাগে? তাকে দেখেই বোধকরি বিকম পাশ ছাগুরামেরা সাহস পায় আজকাল যত্রতত্র ম্যাৎকার করতে!

বেশিদিন না, আর বছর কয়েকের মধ্যেই কাগুর স্থান হবে জাদুঘরে, তার বিজয় সমেত।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

মূলত পাঠক এর ছবি

বাংলায় লিখলেও এই বিষয়ে বিস্তারিত জানি না। সচলায়তনে লিখি ফোনেটিক ব্যবহার করে, এই বিজয় ও অভ্র বিষয়ক স্পেসে তার অবস্থান কোথায়?

হিমু এর ছবি

মূলোদা, ফোনেটিক একটা লেআউট। এই লেআউটটা অভ্র সফটওয়্যারটিতে রয়েছে। তবে সচলের ফোনেটিকের সাথে অভ্রের ফোনেটিকের সামান্য পার্থক্য সম্ভবত আছে।

বিজয় একটা আসকি সফটওয়্যার। সেটি বাংলাদেশে প্রচলিত কয়েকটি কীবোর্ড লেআউট নিয়ে যাত্রা শুরু করেছিলো, মুনীর, বিজয় ইত্যাদি। ওতে ফোনেটিক লেআউট নেই।



বুকে BOOK রেখে বন্ধু চলো আজ যাবো বরাহশিকারে মোরা ধার ধার ধার দিও বল্লমে ♪♫

নিঃসঙ্গ গ্রহচারী [অতিথি] এর ছবি

ভাইয়া, প্রভাত কী-বোর্ড সম্বন্ধে কী কিছু জানেন ?
অনেকদিন ধরে এটা দিয়ে লিখছি... এই কী-বোর্ডটা মনে হয় খুবই অজনপ্রিয়। কোথাও কোন আলোচনাও দেখলাম না...

রানা মেহের এর ছবি

সর্বোপরি বিজয় প্রোগ্রামটি চালু করার সময় একটি ভয়ঙ্কর হুলিয়া মনিটরে ভেসে ওঠে, যা আপনার রক্তচাপ বৃদ্ধি করে এবং হৃদযন্ত্রের ওপর নানা ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।

হাহাহাহাহাহাহাহা
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

অতিথি লেখক এর ছবি

আমি অভ্র ব্যবহার করছি অনেকদিন। আমার পরিচিত যারা বাংলা লেখে তারাও অভ্রই ব্যবহার করে। যারা লিখতে আগ্রহী তাদেরও অভ্র ব্যবহার করতে বলি। একটু আস্তে লেখা হয় হয়ত, কিন্তু ফোনেটিকেই লিখি, বিজয় ইত্যাদি লে-আউটের জটিলতায় যাই না।
আমরা যে ম্যাগাজিনটা চালাই তার লেখকলেখিকাদেরও অভ্রতেই লিখতে উৎসাহিত করি। অনেকেই বলেছেন, আপনাদের পরামর্শে অভ্র ব্যবহার করে দেখছি এখন খুবই সোজা।
মেহদী ভাইকে ধন্যবাদের ভাষা নেই। একটাই দুঃখ, আমাদের পত্রিকার তরফ থেকে অভ্রর বিষয়ে তাঁকে একটা ইন্টারভিউ দিতে অনুরোধ করেছিলাম, জবাব মেলেনি। অন্য পোস্টে আপনাদের মন্তব্য থেকে মনে হচ্ছে তিনি প্রচারবিমুখ বলে ইন্টারভিউ দিতে চান না। তবু শরতশিশিরের মন্তব্য পড়ে মনে হল এখনও আশা আছে। আপনারা একবার অনুরোধ করে দেখুন না। কাগুর হামবড়াইয়ের বিরুদ্ধে মুখ খোলা তো দরকার!

কৌস্তুভ

আনিস মাহমুদ এর ছবি

দাদার আমল থেকে বাংলা ব্যবহার করি বলে বিজয় লেআউটটা মুখস্থ হয়ে গেছে। মুড ভালো থাকলে ইংরেজির মতোই দ্রুত আমি বাংলা লিখতে পারি। কয়েকদিন ধরে একটু অস্বস্তিতে ছিলাম কাগুর লেআউট ব্যবহার করছি বলে, যদিও ল্যাপটপ থেকে বিজয় ফেলে দিয়েছি অনেক অনেক আগে। এখন বুঝলাম, আর বুঝে স্বস্তি পেলাম যে, ইউনিবিজয় আর বিজয় এক না।

.......................................................................................
Simply joking around...

.......................................................................................
Simply joking around...

অতিথি লেখক এর ছবি

অভ্রনীল লিখেছেন:
যারা উইন্ডোজ ব্যবহার না করে উবুন্টু বা লিনাক্সমিন্ট ব্যবহার করেন, তাদের জন্যও রয়েছে অভ্রের আলাদা ভার্সন। যেখানে বিজয়ের কোন উবুন্টু ভার্সন নেই।

অভ্রের উবুন্তু ভার্সন আছে জেনে খুব ভাল লাগল।
আন্তরিক ধন্যবাদ অভ্রকে সর্বত্র বাংলাকে ছড়িয়ে দেবার কাজটা সহজ করে দেবার জন্যে!
আরো ধন্যবাদ আপনাদের সকলকে যারা অভ্র নিয়ে এত কিছু লিখছেন, অনেক নতুন বিষয়ে জানা হল এ ক'দিনে। হাসি

যাযাবর ব্যাকপ্যাকার
_________________________
ঘুমের মাঝে স্বপ্ন দেখি না,
স্বপ্নরাই সব জাগিয়ে রাখে।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA