দ্য লাস্ট বেবি-ট্যাক্সি রাইড

কাকুল কায়েশ এর ছবি
লিখেছেন কাকুল কায়েশ [অতিথি] (তারিখ: শুক্র, ০৫/০৩/২০১০ - ৯:২৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

৩১শে ডিসেম্বর, ২০০১। তারিখটা বিসিএস পরিক্ষার্থীদের জানা থাকা অত্যাবশ্যক, কেননা এই তারিখের পর ঢাকা শহরে আর কখনোই কোন বেবি-ট্যাক্সি চলাচল করে নাই!
এই রাতেরই একটা গল্প বলব আজকে।

থারটি ফার্স্ট নাইট! আমাদের মত পোলাপানদের জন্য অত্যন্ত আনন্দের একটি রাত। বরাবরের মতন এবারো আমরা ৪০০৭, শেরে-বাংলা হলে সেরকম একটা পার্টির আয়োজন করেছি। গান-বাজনা ও পানাহার উভয়েরই উত্তম বন্দোবস্ত করা হয়েছে! অনেক গন্যমান্য এক্স-বুয়েটিয়ান, নন-বুয়েটিয়ান ভাইরাও আমন্ত্রিত হয়েছেন।
মাসের শেষ দেখে পকেটের অবস্থা একটু খারাপ হলেও যার যা আছে সর্বস্ব চাঁদা দিয়ে একটা ফাটাফাটি প্রোগ্রাম করার জন্য আমরা প্রস্তুত!

আমি অন্যতম প্রধান উদ্যোক্তা হলেও আছি একটু দোটানা পরিস্থিতিতে! কেননা দুইদিন আগে একজন আমাকে দু’টা টিকেট দিয়েছে সোনারগাঁও হোটেলের – মাইলস এর কনসার্ট প্লাস ডিনার!

সিদ্ধান্ত নেয়াটা একটু কঠিন হচ্ছিল। ৪০০৭ এর পার্টি তো কোনভাবেই মিস করা যাবে না, আবার সোনারগাঁয় মাইলস, সাথে আলট্রা-মডার্ন মেয়েদের উন্মাতাল নৃত্য মিস করাটাও ঠিক বুদ্ধিমানের মত কাজ হবেনা!

দুদিন-দুরাত চিন্তা করে শেষমেষ ঠিক করলাম, প্রথমে সোনারগাঁতেই যাই, পরে গভীর রাতে হলের পার্টিতে আসা যাবে।

কিন্তু কে যাবে আমার সাথে? এমন কাউকেই নিতে হবে যে কিনা বেশ সহজেই মেয়েদের আকৃষ্ট করতে পারবে! বিপুটাকেই আমার মনে ধরল! (বিপু হচ্ছে আমার একমাত্র ছোট ভাই!)

রাত দশটার দিকে আমরা স্যুট-টাই পরে রেডি হচ্ছি, আম্মা জিজ্ঞেস করল, ‘কই যাচ্ছিস তোরা এত মাঞ্জা মেরে?’
‘আমরা সোনারগাঁতে যাচ্ছি কনসার্ট দেখতে, সাথে ডিনার!’

বিসমিল্লাহ বলে ও মায়ের দোয়া নিয়ে রওনা দিলাম!

একথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, আমার জীবনে এই প্রথম সোনারগাঁর ভিতরে যাচ্ছি, বিপুরও মনে হয় তাই!

আমাদের পকেটের অবস্থা বেশ শোচনীয়, কারন সব টাকা পয়সাই গেছে ৪০০৭ এর পার্টির চাঁদা দিতে গিয়ে!
তাই স্যুট-টাই পরে থাকলেও রিকশাই আমাদের একমাত্র অবলম্বন!

হোটেলের কাছাকাছি গিয়ে রিকশা ছেড়ে দিয়ে হেঁটে গেলাম মেইন গেটের দিকে।
বেশ লম্বা লাইন। প্রায় ৩০-৩৫ মিনিট পর ভিতরে ঢুকলাম আমরা।

দুই ভাই ইতিমধ্যেই একে অন্যের দিকে চোখ টেপাটেপি শুরু করে দিয়েছি!
একসাথে একগাদা মিনিস্কার্ট দেখার সৌভাগ্য এর আগে কখনো হয়েছে বলে মনে পড়ছে না!

যাই হোক, যেখানে কনসার্ট হবে ওখানে যেয়ে দেখলাম, কনসার্ট শুরু হতে এখনো বেশ দেরি, মাইলস-এর শিল্পীরা তখনো এসে পৌঁছায়নি।

বিপুকে বললাম, ‘চল, আগে ডিনারটা সাইরা ফেলি’।
বিপু তখন চরম টাংকি মারায় ব্যস্ত! অবশ্য খাওয়ার কথা শুনে সায় দিল।

আমরা ডিনার হল খুঁজতে বের হলাম! যাওয়ার আগে অবশ্য দুই-তিনটাকে টার্গেট করে রাখলাম,
'‘ওই কালো মিনিস্কার্ট, ঠিক আছে? সাথের জিন্সওয়ালীও খারাপ না – ইনশাল্লাহ সাইজ কইরা ফালামু দুই ভাইয়ে মিলা!’'

একটু এদিক ওদিক ঘুরার পর একটা ডিনার-রুম পেয়ে গেলাম!

বুফে!!!
আমরা টেবিলে বসার পর ওয়েটার আসলো। বেশ মার্জিত চেহারার একটু বয়স্ক টাইপের ওয়েটার।
কোক, পানির অর্ডার নিয়ে খুব বিনয়ের সাথে বলল, ‘আপনারা শুরু করতে পারেন, স্যার!’

খাবারের ডিশের বহর দেখে তো আমরা খুশীতে ডগমগ! কি নাই ওখানে? এততো এততো সুস্বাদু খাবার একসাথে দেখে দু’ভাইয়ের হাসি একান-ওকান! আমরা আফসোস করলাম, ‘ইশশ্, আগে জানলে বাসা থেকে গোটাবিশেক বুকডন মেরে আসা যেত!’

অ্যাপেটাইজারগুলা একটু কম কম-ই খেলাম, কিন্তু যখন মেইন কোর্স শুরু করলাম, দু’ভাই রীতিমতো ঝাঁপিয়ে পড়লাম! গরু, মুরগী, খাসী, চিংড়ির যতরকমের ডিশ আছে, সবগুলা সমানে সাঁটাতে লাগলাম দুজনে!
একটু পর পর খালি নিচ্ছি আর সেধাচ্ছি, নিচ্ছি আর সেধাচ্ছি! সাথে কোকের পর কোক অর্ডার তো আছেই!
একটা ডিশ আবার দেখলাম ‘স্যামন’ মাছ! আহ-হা, নস্টালজিক - কলেজলাইফের সেই ‘দ্য লাঞ্চেন'!!
জীবনে প্রথমবারের মত স্যামন মাছের স্বাদ নিতেও দেরি করলামনা।

মেইন কোর্স শেষ হবার পর আমি রণে ক্ষান্ত দিলাম! কিন্তু বিপু মিষ্টি খুব পছন্দ করে, ও ডেজার্টগুলাও গিলতে লাগলো সমানে! আমি শুধু একটা ফিরনির বাটি নিয়ে আস্তে আস্তে খেতে লাগলাম।

এতক্ষন চরম উত্তেজনার মধ্যে আর কোন দিকে তাকানোর অবকাশ পাই নাই। ফিরনিটা খেতে খেতে আশেপাশে তাকাচ্ছি, চট করে একটা ছোটখাট সন্দেহ ঝিলিক দিয়ে উঠল আমার মাথায়!
তাই বিপুকে বললাম, ‘‘বিপু, তাড়াতাড়ি শেষ কর্! ওদিকে আবার কনসার্ট শুরু হয়ে যেতে পারে!’’

বিপু ডেজার্ট শেষ করল। আমি ঘাড় ঘুরিয়ে পিছে তাকিয়ে দেখলাম যে ওয়েটারটাও নাই!
‘‘চল্ তাইলে’’ বলে সামনের দিকে হাঁটা ধরলাম!

যেদিক দিয়ে আমরা ঢুকেছিলাম, তার ঠিক উলটো দিক দিয়ে হলরুম থেকে বের হচ্ছি!
প্রায় পৌঁছে গেছি দরজার কাছে, এসময় ওয়েটার ব্যাটা দৌড়ে এসে বলল, ‘‘স্যার, আপনাদের বিলটা টেবিলে দিচ্ছি, ওখানেই পে করেন’’!

ঘটনা যা বুঝার তা অনেকটুকুই আমি বুঝে গেছি ততক্ষনে!
তারপরও বেশ আভিজাত্যের সাথে ঘুরে দাঁড়িয়ে বললাম, ‘‘ওহ, দ্যাটস গুড! ও.কে., আমরা টেবিলে যেয়ে বসছি!’’

আবার আগের জায়গায় গিয়ে বসলাম!
বিপু একটু অবাক হয়েই আমাকে জিজ্ঞেস করলো, ‘‘কি রে, কিসের বিল?’’
ওকে আশ্বস্ত করলাম, ‘‘ওই কোক-পানির বিল হবে হয়তো’’!

বিপুকে তো আশ্বস্ত করলাম, কিন্তু আমাকে কে আশ্বস্ত করে?

যে সন্দেহটা ফিরনি খাওয়ার সময় আমার মাথায় এসেছিল, সেটাই কিনা সত্যি হয়ে যায়!
তখনি খেয়াল করেছিলাম যে, এই হলরুমটাতে যারা খাচ্ছে সবাই বেশ বয়স্ক লোকজন, বেশ হোমড়া-চোমড়া, কিছু আবার বিদেশী, সবাই আমাদের মতই স্যুট-টাই পরা, কিন্তু আমাদের বয়সী একটা পোলাপানও নাই!!

যাই হোক, পাঁচ মিনিট পর ওয়েটার আমার সামনে বিল রেখে চলে গেল।

বিল দেখে তো আমার জাস্ট অজ্ঞান হওয়ার দশা!
আমার ফ্যাকাশে চেহারা দেখে বিপুও এবার কিছুটা আঁচ করতে পারল!
ও ফিসফিসিয়ে জিজ্ঞেস করল, ‘‘কি হইসে রে?’’

আমি তখন কথা বলার মত অবস্থায় নাই!

একটুপর খানিকটা ধাতস্থ হয়ে মিনমিনে গলায় বিপুকে উলটা জিজ্ঞেস করলাম, ‘‘তোর কাছে কয় টাকা আছে?’’
ও বলল চার-পাঁচশোর মত হবে হয়ত।
আর আমার পকেটে সব মিলিয়ে মনে হয় দুশো টাকা আছে!

মাথায় হাত দিয়ে বসে থাকলাম কিছুক্ষন।
দিব্যদৃষ্টিতে পরিষ্কার দেখতে পাচ্ছি, ব্যাটারা আমাদের দু’ভাইয়ের সাধের কোট-প্যান্ট-টাই খুলে রাখছে!

এছাড়া তো দেওয়ার মত কিছু নাইও আমাদের!

(আগামী পর্বে সমাপ্য)


মন্তব্য

তমিজউদদীন লোদী এর ছবি

ভালো লাগলো প্রথম অংশটি।
আগামী পর্বের অপেক্ষায় থাকলাম।

তমিজ উদদীন লোদী

কাকুল কায়েশ এর ছবি

আপনার ভাল লাগল জেনে বেশ খুশী হয়েছি। হাসি অসংখ্য ধন্যবাদ।

====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

সচল জাহিদ এর ছবি

কায়েশ, ঐ দিনো পিঙ্কু ভাইয়ের সাথে ৪০০৭ নিয়ে কথা হচ্ছিল।শুনলাম ঐ রুম নাকি বন্ধ কইরা দিছে !!

----------------------------------------------------------------------------
এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি
নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

কাকুল কায়েশ এর ছবি

আর বইলো না বস্, ঘটনা সত্যি। এক-দেড় মাস আগের ঘটনা, প্রভোস্ট এসে রুম সিল করে দিসে।
৪০০৭ এর দরজায় কি লেখা থাকে জান? 'BET UR SOUL B4 ENTERING D ROOM'!! এইরুম সিল হবে না তো কি? আমি চিন্তা করতেসিলাম, প্রভোস্ট ব্যাটা রুমে ঢুকার আগে এই ডায়লগ দেইখা ভয় পায় নাই নাকি??? চিন্তিত

আজ না হোক কাল, ইয়ে তো হোনা হি থা! তবে দুঃখ পাইছি অনেক। এরপরের বার ঢাকায় যেয়ে কয়েকটা থার্স্টডে নাইট ৪০০৭ এ কাটাতে পারবনা, এ চিন্তায় মন অনেক খারাপ! মন খারাপ

যাই হোক, পিংকু ভাই কে আমার সালাম/নমস্কার জানাইয়ো। উনি অ্যালবার্টাতে কি মনে করে এসছে?

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

সচল জাহিদ এর ছবি

পিঙ্কু ভাই এখন এডমন্টনে স্থায়ী। চাকরী, ইউ অফ এ তে পার্ট-টাইম পিএইচডি সেই সাথে বাড়িও কিনছে এইখানে।

----------------------------------------------------------------------------
এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি
নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

তাসনীম এর ছবি

লেখায় মজা পেলাম।

৪০০৭ সিল হওয়ার কারনটা কি আসলে?

+++++++++++++++++++++++++++++++++++++
মাঝে মাঝে তব দেখা পাই, চিরদিন কেন পাই না?

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

কাকুল কায়েশ এর ছবি

আপনি মজা পেয়েছেন শুনে খুব ভাল লাগল। ধন্যবাদ তাসনীম ভাই লেখাটি পড়ার জন্য।

৪০০৭ সিল হওয়ার ব্যাপারটা নিয়ে খুব বেশী কারো সাথে আলোচনা করি না, কেননা এই পরিনতির পিছনে আমি ও আমাদের আরো কয়েকজন দায় এড়াতে পারবনা। এ নিয়ে কথা বলতে ইচ্ছা করে না, কিন্তু তারপরও আপনাকে শুধু দুটা শব্দ বলি......পোকার ও ব্লাকজ্যাক।

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

রাগিব এর ছবি

কোন ব্যাচের আপনি? ২০০১ সালের কাহিনী দেখে জিজ্ঞেস করতে ইচ্ছা হচ্ছে।

--

তবে প্রশ্ন একটাই, কনসার্টে কি খাবার দাবারের ব্যবস্থা ছিলো? নইলে আপনারা কেনো ধরে নিলেন, "ডিনার রুম" এ ফ্রি খাওয়া যাবে? অথবা যদি ফ্রি না ভাবেন, তাহলে কেনো দাম না জেনেই বুফেতে ঢুকে গেলেন? এই ব্যাপারটা পরিষ্কার হলো না।

----------------
গণক মিস্তিরি
মায়ানগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | টুইটার

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

কাকুল কায়েশ এর ছবি

আপনাকে ধন্যবাদ কৌতুহলটা প্রকাশের জন্য!

কনসার্টটা যে অডিটরিয়ামে হওয়ার কথা, সেখানে আমি কোন খাবারদাবারের আয়োজন দেখি নাই। এই কনসার্টের ডিনারটা যে কোন ডিনার-রুমে হয়েছে (আদৌ হয়েছে কিনা), সে ব্যাপারে আমার আসলে কোন ধারনাই নাই।

আমি গল্পে উল্লেখ করেছি,

মাইলস এর কনসার্ট প্লাস ডিনার

তাই ফ্রি খাওয়া যাবে, এ ব্যপারে মোটামুটি নিশ্চিত ছিলাম। হাসি সে কারনেই তো এই ঝামেলা!! আলোচ্য ডিনার-রুমে ঢুকবার সময় আসলে কেউ আমাদের টিকেট চেক করে নাই, চেক করলে হয়তো বেঁচে যেতাম। মন খারাপ

ও আচ্ছা, আমি হচ্ছি ইন্টার ৯৬, কিন্তু বুয়েটে ৯৭। পানি সম্পদ প্রকৌশল।
আমার কোন এক বন্ধুর মাধ্যমে আপনার সাথে পরিচয় হয়েছিল সে ব্যাপারে নিশ্চিত (অনেক আগে সম্ভবত)! কিন্তু পুরোপুরি মনে করতে পারছি না। আপনি কোন কলেজ-স্কুল জানতে পারি?
যাই হোক, নতুনভাবে পরিচিত হয়ে বেশ খুশী হলাম। কারন, আপনার উইকিযুদ্ধ ইতিমধ্যেই আমাকে যথেষ্ট নাড়া দিয়েছে। আপনার সাথে আছি।

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

রাগিব এর ছবি

আচ্ছা, ঐ বাক্যটা ভালো করে পড়িনি দেখতে পাচ্ছি। হাসি

আমি চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল/ চট্টগ্রাম কলেজ।

শেরে বাংলার সাউথ ব্লকে আমি যেতাম, শাররুখের রুমে। চার তলাতেই কি? মনে নাই এখন আর।

এই ঘটনার মতোই ঘটনা ঘটেছিলো ইউকসু নির্বাচনের সময়ে, আমার বন্ধু আউলার ভিপি হবার পর আল রাজ্জাকসে সেলিব্রেট করতে গিয়ে ... হেঁটে বুয়েটে ফেরত আসতে হয়েছিলো আমাদের সেবার।

----------------
গণক মিস্তিরি
মায়ানগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | টুইটার

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

কাকুল কায়েশ এর ছবি

হাহাহাহা......ভরপেট খাওয়ার পর রাজ্জাক থেকে হেঁটে আসাটা সুখকর অভিজ্ঞতা নয় বলাই বাহুল্য। সত্যি দুঃখিত দেঁতো হাসি দেঁতো হাসি

ও, শেরেবাংলার নর্থ ব্লক হচ্ছে হাজার ব্লক...মানে ৪০০৭, ৩০০১ ইত্যাদি। শাররুখদের রুম ছিল সম্ভবত ৪০০ বা ৩০০ ব্লকে (সাউথ ব্লক)। শাররুখের সাথে সেরকম পরিচয় না থাকলেও সেঁজুতি একসময় আমার ভাল বন্ধু ছিল। অবশ্য অনেক অনেক দিন কোন যোগাযোগ নাই।

আমি ঢাকার ছেলে, কিন্তু আপনাদের চট্টগ্রামের মানুষদের খুব ভাল পাই। ঢাকার বন্ধুদের বাদ দিলে আমার অন্যান্য ঘনিষ্ঠ বন্ধু-বান্ধবের (সিনিয়র-জুনিয়রসহ) মধ্যে চট্টগ্রামের ছেলেপেলেরাই বেশী। কিভাবে যেন এদের সাথেই আমার অন্তরঙ্গতা বেশী হয়ে যায়। হাসি

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

অতিথি লেখক এর ছবি

টিকেটে ছিল কনসার্ট + ডিনার

থার্টি ফার্স্ট নাইটে ছাত্রী হলেও সেইরকম মজা হতো হাসি

-----------------------------------
শান্ত নদী

কাকুল কায়েশ এর ছবি

ধন্যবাদ শান্ত নদী।
আপনাদের মজা করার গল্পগুলো কিন্তু শুনতে ইচ্ছে হচ্ছে। বলে ফেলেন সময় করে......

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

অতিথি লেখক এর ছবি

আবার সোনারগাঁয় মাইলস, সাথে আলট্রা-মডার্ন মেয়েদের উন্মাতাল নৃত্য মিস করাটাও ঠিক বুদ্ধিমানের মত কাজ হবেনা!

একসাথে একগাদা মিনিস্কার্ট দেখার সৌভাগ্য এর আগে কখনো হয়েছে বলে মনে পড়ছে না!

আমরা ডিনার হল খুঁজতে বের হলাম! যাওয়ার আগে অবশ্য দুই-তিনটাকে টার্গেট করে রাখলাম,
'‘ওই কালো মিনিস্কার্ট, ঠিক আছে? সাথের জিন্সওয়ালীও খারাপ না – ইনশাল্লাহ সাইজ কইরা ফালামু দুই ভাইয়ে মিলা!’'

মানলাম, ইউনিভার্সিটি লাইফের গল্প, বয়স যখন আরও কম ছিল আপনার। তারপরও, এগুলো কি টাইপের লেখা?

- শরতশিশির -

কাকুল কায়েশ এর ছবি

তখনকার অনুভূতি অনেকটা সেরকম ছিল বলেই এভাবে লিখেছি।
যাই হোক, ভাষার লাগাম আরেকটু টেনে ধরা উচিত ছিল। ইনশাল্লাহ ভবিষ্যতে চেষ্টা করব।

শরতশিশির, আপনাকে অনেক ধন্যবাদ মন্তব্যটির জন্য।

=======================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

অতিথি লেখক এর ছবি

কাকুল ভাইয়ের ভাষাটা এখানে 'ক্রুড' হয়ে গেছে ঠিকই, কিন্তু সেই সময়ের দুষ্টু যুবকদের দুষ্টু ভাষা বাস্তবানুগ ভাবে কোট করতে গিয়ে যেহেতু ব্যবহার করেছেন তাই তেমন দোষ দেওয়া যাচ্ছে না।

কিন্তু কাকুল ভাইকে কষে মাইনাস, এমন গল্পে মাঝপথে ঘ্যাঁচ করে ব্রেক টেনে দেওয়ার জন্য। ভাগ্যে তারা দেবার অধিকার নেই, নইলে হাতে একতারা ধরিয়ে দিতাম। শয়তানী হাসি

কৌস্তুভ

কাকুল কায়েশ এর ছবি

ধন্যবাদ কৌস্তুভ, আপনার চমৎকার মন্তব্যে খুব খুশী হয়েছি। হাসি
আপনার দুষ্টুমিও বেশ ভাল লাগল। দেঁতো হাসি

====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

অতিথি লেখক এর ছবি

লাখো পাঠককে উত্তেজনার সাগরে ভাসিয়ে, সমাপ্তির পথে ছুটে চলেছেন কা. কা. (কাকুল কায়েশ)। সকল বাধা কাটিয়ে ডিবক্সের সামনে এসে... কিন্তু একি?! তিনি ফ্রিজ হয়ে গেলেন কেন?
তাড়াতাড়ি পরের পর্ব দ্যান।

---- মনজুর এলাহী ----

কাকুল কায়েশ এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ আপনার চমৎকার মন্তব্যটির জন্য। পরের পর্ব শীঘ্রই আসিতেছে! দেঁতো হাসি

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

নাশতারান এর ছবি

এর পরের ঘটনা শুনতে ভয় পাচ্ছি। খাইছে

_____________________

আমরা মানুষ, তোমরা মানুষ
তফাত শুধু শিরদাঁড়ায়।

কাকুল কায়েশ এর ছবি

হাসি হাসি হাসি

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

বোহেমিয়ান এর ছবি

ভাইয়া আপনি তো অনেক সিনিয়র! আমি ০৫ ব্যাচ ।
হলে থাকি না অবশ্য মন খারাপ
শেরে বাংলার ৪০০৭ ! হুমম!

পরের পর্বের অপেক্ষায় ।
__________________________
হৃদয় আমার সুকান্তময়
আচরণে নাজরুলিক !
নাম বলি বোহেমিয়ান
অদ্ভুতুড়ে ভাবগতিক !

_________________________________________
ওরে! কত কথা বলে রে!

কাকুল কায়েশ এর ছবি

ধন্যবাদ বোহেমিয়ান।

শেরে বাংলার ৪০০৭ ! হুমম!

চিন্তিত চিন্তিত চিন্তিত কোন স্মৃতি???

=====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

অমিত এর ছবি

হাসি
কাকুল মানে কি ?

সুহান রিজওয়ান এর ছবি

আমিও ঠিক এই প্রশ্নটাই করতে যাচ্ছিলাম। দেঁতো হাসি

আর কা-কা বস, আপনি দেখা যায় আমার হলের লোক। লেখা ভাল্লাগছে, এবং লাগাম টেনে ধরার কিছু আছে বলেও মনে হয়নি- যথেষ্ট মানানসই বলেই মনে হয়েছে...

_________________________________________

সেরিওজা

কাকুল কায়েশ এর ছবি

হাহাহাহা......কাকুল?? হাসি হাসি হাসি
স্কুল লেভেলে আমার খুব ঘনিষ্ঠ কিছু বন্ধু আমাকে এই নাম দিয়েছিল। তখন থেকেই ওরা আমাকে এই নামে ডাকে।

এরপর তো কত সমুদ্রের জল কত দিকে গেল, বিভিন্ন বন্ধুমহলে বিভিন্ন নামে পরিচিত হলাম, যেমন - ম্যাগনেট, ঠেইলা ঠেইলা আলকাতরা, লুইস আরো কত কি?
এসবের মধ্যে কাকুলটাই আমার বেশী প্রিয়। এখনো যখন হঠাৎ কেউ কাকুল বলে ডাক দেয়, মনের মধ্যে কেমন যেন একটা শিহরণ বয়ে যায়।

কাকুল শব্দের আভিধানিক অর্থটা একটু লজ্জাজনক, আমি বলতে চাচ্ছিনা দেঁতো হাসি (অর্থ বের করা যদিও এক মিনিটের ব্যাপার)। কিন্তু বুঝতেই পারছেন আমার কাছে শব্দটাই মূখ্য, অর্থটা গৌন।

====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

অছ্যুৎ বলাই এর ছবি

এমন গল্প কেউ এখানে ব্রেক দেয়! আপনার দয়ামায়া নাই।

---------
চাবি থাকনই শেষ কথা নয়; তালার হদিস রাখতে হইবো

কাকুল কায়েশ এর ছবি

বলাইদা, আমার ব্রেক দেওয়ার একটুও ইচ্ছা ছিলনা, কিন্তু কেন যেন মনে হচ্ছিল বেশ বড় হয়ে যাচ্ছে। পাঠকবন্ধুদের ধৈর্য থাকবে কিনা এ ব্যাপারে সন্দিহান ছিলাম। চিন্তিত
আপনার ভাল লেগেছে শুনে বেশ খুশী হলাম। হাসি

======================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

জুলিয়ান সিদ্দিকী এর ছবি

গল্পের খাতিরে ভাষাটা খানিক দলছুট হইলে মন্দতো না!

পরের পর্বে...

.
___________________________________________
ভাগ্যিস, আমার মনের ব্যাপারগুলো কেউ দেখতে পায় না!

___________________________
লাইগ্যা থাকিস, ছাড়িস না!

কাকুল কায়েশ এর ছবি

আপনার মন্তব্যে সাহস পাচ্ছি। অসংখ্য ধন্যবাদ, ভাই!

====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

কাকুল কায়েশ এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ ধূগোদা হাসি

====================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

এটাই বোধহয় আপনার প্রথম লেখা পড়লাম। খুব ভালো লেগেছে। মজা করে লিখেছেন অনেক। তবে এমন এক জায়গায় নিয়ে শেষ করে দিলেন, পরের পর্বের অপেক্ষায় আছি তো হাসি

কাকুল কায়েশ এর ছবি

ধন্যবাদ প্রহরী ভাই আপনার সুন্দর মন্তব্যের কারনে। আমি খুবই দুঃখিত যে এই জায়গায় এসে শেষ করার জন্য; আসলে ভয় হচ্ছিল, এত বড় দেখে হয়ত অনেক পাঠকবন্ধুরাই পড়বেনা বা তাদের পড়ার ধৈর্য থাকবেনা।
যাই হোক, আমি যত জলদি সম্ভব সমাপ্তি পর্বটা দিচ্ছি।

===================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

==========================
একটাই কমতি ছিল তাজমহলে,
......তোমার ছবিটি লাগিয়ে দিলাম!

নিঃসঙ্গ গ্রহচারী [অতিথি] এর ছবি

আরে এই জায়গায় কেউ থামে ?

দারুণ লিখেছেন।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।