পাঠকের কাঠগড়ায় সামরান হুদা, আমাদের শ্যাজাদি

জ্বিনের বাদশা এর ছবি
লিখেছেন জ্বিনের বাদশা (তারিখ: শনি, ২১/০২/২০০৯ - ৮:২২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

তিতাস কোন নদীর নাম নয়তিতাস কোন নদীর নাম নয়
কাঠ গড়ায় শ্যাজাদিকে ডাকবো, না সামরান হুদাকে ডাকবো, নাকি শাহজাদিকে ডাকবো (যদিও "শাহজাদী"কে দ্রুতলয়ে বললে "শ্যাজাদি"র কাছাকাছিই শোনায়), ঠিক বুঝে উঠতে পারছিনা। তাই শিরোনামে সামরান আর শ্যাজা -- দুটো নামই রইলো, সাথে শাহজাদীতো রয়ে গেলই।

কি বলার কথা, কি বলছি!

সচল শ্যাজার যাদুমন্ত্রে আচ্ছন্ন লেখার সাথে আমরা সবাই খুব ভালোভাবে পরিচিত, বিশেষ করে সচল সদস্য আর সচলের নিয়মিত পাঠকেরা। ছোট্ট একটা ঘটনা যেমন ধরুন 'সকালে আপনি ডিমভাজি, রুটি আর চা খেয়ে সুখী সুখী মনে অফিসের জন্য বেরুলেন' -- এটাকেই শয়াজা এমনভাবে তাঁর সহজ আর প্রাণবন্ত ভাষায় উপস্থাপন করে ফেলবেন যে আপনার মনে হবে "আহ! জীবনে যদি আর একবার ওরকম ডিমভাজি, রুটি আর চায়ের একটা নাশতা করা যেত!", অথচ হয়তো তা আপনি প্রতিদিনই করছেন। এখানেই লেখিকার সার্থকতা, পাঠককে কিছু অক্ষরের সাথে ভ্রমন করাতে করাতে একটা অদ্ভুত জগতে নিয়ে ছেড়ে দেন। মোটামুটি চার বছর ধরে লিখছেন তিনি, মূলতঃ অনলাইন সাহিত্য মিডিয়ায়। গুরুচন্ডা৯ পত্রিকার বুলবুলভাজায় লিখছেন বাংলাদেশ নিয়ে বিশেষ ফিচার। তবে এবারই ছাপা মিডিয়ায়, মানে বই আকারে নিজের লেখা প্রথম প্রকাশ করছেন।

বইটির নামও বেশ বাহারী, খানিকটা হলেও চমকে যেতে হয় -- "তিতাস কোন নদীর নাম নয়"।

বইটির প্রচ্ছদ এই পোস্টেও আছে, তবে ছোট সাইজের ইমেজ হিসেবে। মূল ইমেজটি তিনি তাঁর [url=http://www.sachalayatan.com/shyaja/21865এই লেখাটিতে[/url] ছবি হিসেবে জুড়ে দিয়েছেন, দেখেই বোঝা যাচ্ছে, "তিতাস একটি নদীর নাম" বইটি গল্পের বই হলেও, ধাঁচটা ভিন্ন। চমৎকার রঙে ঝলমল একটি প্রচ্ছদ, যেকারো দৃষ্টি আকর্ষণ করতে বাধ্য। এনিয়েও নিশ্চয়ই সচলরা অনেক প্রশ্ন পুষে রেখেছেন মনে, তাইনা? তো, বেশী পরিচিতি এখানেই তুলে না ধরি, পাঠকরা প্রশ্ন করে করে আরো জেনে নেবেন।

অতএব, শ্যাজাদি,কাঠগড়ায় চলে আসুন, আসন গ্রহন করুন।

/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/_/

এই সিরিজের আগের পোস্ট:
১. পাঠকের কাঠগড়ায় বিপ্লব রহমান

২. পাঠকের কাঠগড়ায় কবি সুমন সুপান্থ

২. পাঠকের কাঠগড়ায় মুজিব মেহদী


মন্তব্য

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

প্রথম প্রশ্নটা আমিই করে ফেলি:

তিতাস কোন নদীর নাম নয়, তাহলে তিতাস কিসের নাম?
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

শ্যাজা এর ছবি

লোকে ইতিমধ্যেই ব্যঙ্গ করতে শুরু করেছে, তিতাস নাকি গ্যাস কোম্পানির নাম। একটা সিনেমায় দেখানো হয়েছিলওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেনসে, তিতাসের ভবিষ্যত। তারপর অনেককাল কেটেছে, তিতাসপারের মানুষগুলো কিসসা-টিসসার মধ্যে ধরে রেখেছে নদী। বইটাও তারই এক অংশ। তাই তিতাস কোনো নদীর নামে আটকে থাকে না।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

সবজান্তা এর ছবি

হায় হায় ! তিতাস একটি গ্যাসের নাম এ'টাতো আমি রসিকতা করে বলেছিলাম, আপনি দেখি ও'টা ধরে বসে আছেন !!


অলমিতি বিস্তারেণ

শ্যাজা এর ছবি

তুই বলেছিলি বুঝি? আমার কানে এসে কথাটা খট করে ঢুকেছিল, কে বলেছে দেখিনি। ধরে-ফরে থাকার লোক আমি নই, কানে লেগেছিল, লিখে দিয়েছি।

বাকি কথা কাল হবে, গত ক'দিনের শারীরিক-মানসিক ধকলে আমার অবস্থা কেরোসিন। আজ ঘুমাইতে যাই।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

আহমেদুর রশীদ এর ছবি

নদী,সেতো শুধু নদী নয়।
নদী প্রেম,নদী ছলনা।
নদী ভাঙে ঘর।
নদী চোখে তুলে দেয় স্বপ্ন।
আমি বলি নদীর আরেক নাম নারী।

---------------------------------------------------------

আমরা যারা শিখিনি চাষবাস,ফসলের গীত
গুলালিতে পাখি হত্যা

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে
________________________________________
http://ahmedurrashid.

তানবীরা এর ছবি

টুটুল ভাইয়ের বই কবে আসবে?

তানবীরা
---------------------------------------------------------
চাই না কিছুই কিন্তু পেলে ভালো লাগে

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

শ্যাজা এর ছবি
আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

শ্যাজা'দির কাছে প্রশ্নঃ
এপার বাংলা এবং ওপার বাংলার ওয়েবভিত্তিক লেখালেখি নিয়ে আপনার মূল্যায়ন কী? মিল কিংবা অমিল কোথায়...। কিংবা অন্য কিছু...

শ্যাজা এর ছবি

শিমুল,
মিল কম, অমিল বেশি।

অত কঠিন কঠিন কথা বলাটা কী উচিত হবে? এসব কথা আপাতত: থাক। পরে হবেক্ষণ, অন্য কোন অবসরে।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

সবুজ বাঘ এর ছবি

শ্যাজার কাছে আমার প্রশ্ন বই ছাপানোর প্রথম অভিজ্ঞতাটা কেমন?
বি. দ্র. একটু ডিটেলে উত্তর দিলে ভালো হয়।

শ্যাজা এর ছবি

সবুজ বাঘ,
বইটা হাতে আসার পরে, প্রকাশের পরে সে'সব ভুলে গেছি।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

সবজান্তা এর ছবি

শ্যাজাদি'র কাছে প্রশ্নঃ

  • প্রথম বই বের হচ্ছে বাংলাদেশ থেকে, যদিও আপনি থাকেন অন্য দেশে। এ কী নেহায়েতই সময়ের সংযোগ না কী দেশের প্রতি টাণ থেকে, না কী অন্য কিছু ?

  • বইটা কী ভারতে বিক্রির কোন ব্যবস্থা রয়েছে , অর্থাৎ কোন পরিবেশক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে না কী আপনারা হাতে হাতে যে কয় কপি নিয়ে যাবে সে ক'টাই ?

  • পরবর্তী বই বের করার ইচ্ছা কোন দেশ থেকে ? কবে ? সে'টিও কি গল্প ?

  • আপনার এই বইয়ের গল্পগুলি সবই ব্লগ কিংবা অন্য কোন অনলাইন মাধ্যমে ইতিমধ্যে প্রকাশিত ?


অলমিতি বিস্তারেণ

সবজান্তা এর ছবি

আমার প্রশ্নের উত্তর দিলে না মন খারাপ


অলমিতি বিস্তারেণ

শ্যাজা এর ছবি
শ্যাজা এর ছবি

সবজান্তা,
প্রথম বই বাংলাদেশ থেকেই বের হোক এটাই ইচ্ছা ছিল তার সাথে সময়ের সংযোগটা যোগ হয়েছে। এখন না হলে পরে হতো, বেরুতো বাংলাদেশ থেকেই।

বইটা ভারতে বিক্রির কোনো ব্যবস্থা এখনো হয়নি তবে কল্লোল'দা ব্যাঙ্গালুরুতে একটা ব্যবস্থা করছেন, সেখানে কিছু বই হয়ত যাবে। কলকাতায় কী করা যায় দেখছি..

পরবর্তী বই? একটি উপন্যাস। দেখা যাক কোথা থেকে বেরোয়।

এই বইয়ের সবগুলো গল্পই বিভিন্ন ওয়েবপত্রিকায় প্রকাশিত, কিছু গল্প ব্লগেও আছে, যার মধ্যে একটি সচলায়তন সংকলন 'পূর্ণমুঠিতে' প্রকাশিত।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

বিপ্লব রহমান এর ছবি

শ্যাজাদি কই? কই? কই? মন খারাপ
---
আচ্ছা, তবু প্রশ্ন করি:

১. আপনি দীর্ঘদিন আন্তর্জালে লিখলেও বই প্রকাশ করতে এতো সময় নিলেন কেনো?

২. বইটি আন্তর্জালে লিখতে কতো সময় লেগেছে?

৩. এবার বইটা তো টুটুল ভাইয়ের তাগাদায় অনেকটা তাড়াহুড়োয় করা। তো কোনো বানান রীতিকে প্রধান্য দিচ্ছেন, বাংলা একাডেমী, না পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমী, আনন্দবাজার-রীতি, না কী আপনার নিজস্ব বানানরীতি?

৪. অন্তর্জালের লেখার সঙ্গে মূল বইটির লেখার পার্থক্যটুকু কতোখানি।...

৫. এটি তো ব্যক্তিগত কথন, দিনপঞ্জি; এর মধ্যে কল্পনা আদৌ আছে কী? না কী দিনপঞ্জির স্টাইলে লেখা একটি আত্নজৈবনিক গল্পকথা। অথাৎ, বইটিকে আমরা কোনো ক্যাটাগরিভুক্ত করবো?

৬. দুই বাংলায় এটি কতোখানি সাড়া ফেলবে?
---
আন্তরিক শুভ কামনা। ধন্যবাদ।


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

শ্যাজা এর ছবি

এই যে বিপ্লব রহমান,
হাজির হয়েছি।

১) প্রথমত: বইপ্রকাশের হ্যাপা সম্পর্কে খানিকটা ধারণা ছিল বলেই বইয়ের কথা ভাবতে চাইনি, কিন্তু আপনি মিঞা খোঁচাইয়া খোঁচাইয়া নামাইলেন!
দ্বিতীয়ত: আমার বই ছেপে বেরুলে কেউ কিনবে কিনা সেই প্রশ্নটা বইয়ের কথা ভাবলেই মাথায় চলে আসত, তাই...

২) দেড় বছর সময়কালে বিভিন্ন ওয়েব-ম্যাগে প্রকাশিত গল্প এগুলো।

৩)কোনো বানানরীতিই ফলো করা হয়নি আর নিজস্ব তো এখনও তৈরিই হয়নি! যেভাবে লেখা হয়েছিল সেভাবেই ছাপা হয়েছে।

৪) অন্তর্জালে প্রকাশিত লেখার সাথে কোনো তফাৎ নেই, লেখায় প্রায় কোনো সম্পাদনা করা হয়নি। কিছু মুদ্রণ প্রমাদ দূর করা হয়েছে আর কিছু ছাপাখানার ভুত ভর করেছে।

৫) এটি একটি নিখাদ ছোটো গল্পের সংকলন, মোটেই ব্যকতিগত কথন-দিনপঞ্জি বা দিনপঞ্জির স্টাইলে লেখা একটি আত্নজৈবনিক গল্পকথা নয়। গল্প সংকলনকে তো গল্প সংকলনের ক্যাটাগরিতেই ফেলবেন!

৬) দুই পার বাংলার মানুষের উপরে নির্ভরশীল। আমার কাজ শেষ, এখন আপনাদের হাতে।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

অমিত আহমেদ এর ছবি

বাঘা'দার প্রশ্ন ও বই প্রকাশের সিদ্ধান্ত কিভাবে নিলেন? লেখক হিসেবে নিজেকে ১০ বছর পরে কোন অবস্থানে দেখতে চান?


ওয়েবসাইট | ব্লগস্পট | ফেসবুক | ইমেইল

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

শ্যাজাদি, কোথায়?
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

শ্যাজা এর ছবি

বই প্রকাশ নিয়ে প্রচন্ড ব্যস্ত (পড়ো, ব্যতিব্যস্ত) ছিলাম ভাই, তাই হাজিরা দিতে দেরি হয়ে গেল, দু:খিত।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

ইমরুল কায়েস এর ছবি

১) বইটির নামকরণের পিছনের কারন কি ?
২) এপার বাংলায় প্রকাশ করবেন এই বিষয়টা কি মাথায় ছিল বই লেখার সময় ?
৩)বইটি লিখতে কত সময় লেগেছে ?
......................................................
পতিত হাওয়া

শ্যাজা এর ছবি

ইমরুল,
১) মতান্তর থাকলে অন্য প্রশ্ন কিন্তু নামকরণের কথা আগেই বলেছি।
২) না, সে'রকম কোনো ভাবনা চিন্তা ছিল না। বই যে আদৌ বেরোবে সেই ভাবনাটাই ছিল না আসলে।
৩) এই বইয়ের গল্পগুলো দেড় বছর সময়কালের মধ্যে লেখা

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

মুস্তাফিজ এর ছবি

আগে খেয়াল করিনি। আজ কেনার পর দেখলাম প্রচ্ছদে লেখিকার নাম নেই। এটা কি ভুল নাকি ইচ্ছাকৃত জানিনা, তবে থাকলে ভালো লাগতো।

...........................
Every Picture Tells a Story

শ্যাজা এর ছবি

ওটা ভুল মুস্তাফিজ ভাই। আগামীকাল প্রচ্ছদ ঠিক হয়ে আসবে, আমি আপনাকে খুঁজে বের করে ওটা বদলে দেব। এই ভুল-ভাল প্রচ্ছদের বই মেলায় নিয়ে যাওয়ার কথা না কিন্তু গতরাত ১২টা পর্যন্ত দৌড়েও কোন ব্যবস্থা করতে পারিনি। সকালে ঠিক করি, এই অবস্থাতেই কয়েকটা বই মেলায় নিয়ে যাব, নিয়ে যাই। আজকের দিনটির জন্যে শুধু।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

মুস্তাফিজ এর ছবি

বদলে দিতে হবেনা, আমি এটাই রাখব

...........................
Every Picture Tells a Story

শ্যাজা এর ছবি

ওটা রাখতে চান, রাখেন, ঠিকঠাক প্রচ্ছদটাও রাখেন, এতে তো প্রচ্ছদশিল্পীর কাজটা ঠিকমত দেখাই যাচ্ছে না।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

দময়ন্তী এর ছবি

আমারও কটিন কটিন পোশ্নো করার আছে৷
কোর্বো? কোর্বো?
----------------------------------------------------
"নিভন্ত এই চুল্লিতে মা
একটু আগুন দে
আরেকটু কাল বেঁচেই থাকি
বাঁচার আনন্দে৷'

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

শ্যাজা এর ছবি
অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

শ্যাজাদির কাছে প্রশ্ন:

বইটা লিখে আপনার ব্যক্তিগত সন্তুষ্টি কতখানি? যেভাবে পরিকল্পনা করেছিলেন, অথবা যেভাবে লিখতে চেয়েছিলেন, ঠিক সেভাবেই লিখতে পেরেছেন কি?

শ্যাজা এর ছবি

প্রহরী,
বইটা আরেকটু বড় হতে পারত, আরেকটু লেখার ইচ্ছে ছিল, যা হয়ে ওঠেনি। 'তিতাস কোনো নদীর নাম নয়' গল্পটি নিয়ে আরেকবার বসার ইচ্ছে ছিল, আরেকবার লেখার ইচ্ছে ছিল কিন্তু পেরে উঠিনি। অতএব ছোট্ট একটু খুঁতখুঁতুনি রয়েই গেল..

লেখার বিষয়ে বলেছি, প্রকাশ করা নিয়ে যা ভেবেছিলাম, যা যা চেয়েছিলাম, সবই হয়েছে। দেরীতে হয়েছে, ঝামেলার মধ্যে দিয়ে হয়েছে কিন্তু হয়েছে।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

তুলিরেখা এর ছবি

আগে অভিনন্দন জানিয়ে নিই। অনেক অভিনন্দন।
বই প্রকাশ হলে কেমন লাগে, আগে পরে খাটাখাটুনি কত, দৌড়াদৌড়ি কিরকম করতে লাগে সেই বিষয়ে পরে কখনো প্রশ্ন করবো। হাসি -----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

শ্যাজা এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ প্রত্যুষা।
তুমি তো সেই অনেক দিনের সাথী।
তোমার বার্তা অনেক ভেতরে, গহীনে কোথাও গিয়ে টোকা দেয়, ঢেউ ওঠে..

সাথে থাকো..

এসো বরং আজ দিকশূণ্যপুরে যাই, খানিক বসি চুপটি করে..

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

তুলিরেখা এর ছবি

হ্যাঁ। দিকশূন্যপুর। মনে আছে, সব মনে আছে।
সেইখানেই দেখা হবে, আমি রওনা দিয়েছি। হাসি

-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

সাইফুল আকবর খান এর ছবি

"তিতাস কোনো নদীর নাম নয়" কোনো বইয়ের নাম নয়। হাসি

প্রশ্নের প্রিপারেশন নাই (মানে নাই), নেই (মানে নিই)। হাসি
সংগ্রহ ক'রে (হ্যাঁ, কিনে), প'ড়ে, পরে বলবো।
অভিনন্দন এবং শুভকামনা থাকলো, শ্যাজাদি'।

০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০-০
"আমার চতুর্পাশে সবকিছু যায় আসে-
আমি শুধু তুষারিত গতিহীন ধারা!"

___________
সবকিছু নিয়ে এখন সত্যিই বেশ ত্রিধা'য় আছি

শ্যাজা এর ছবি

সাইফুল আকবর খান,
'তিতাস কোনো নদীর নাম নয়' একটি বইয়ের নাম হাসি

আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

...অনেক সময় নীরবতা
বলে দেয় অনেক কথা...

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

শ্যাজাদি, কিছু প্রশ্ন জমা পড়ে আছে
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

মুস্তাফিজ এর ছবি

বইটা নিয়েছি। মেলার সময় পড়া হয়নি সিরিয়ালের জন্য। এরপর তো অদ্ভুত অসুস্থতা, হাস্পাতালে গিয়েছিল সেই বই, সেভাবেই প্যাকেট অবস্থায় ফিরে এসেছে। বাসায় এখন অঢেল সময়। ভেবেছিলাম এইফাঁকে পড়ে নেব। আশ্চর্য, এখন একটানা পাঁচ মিনিটের বেশি কিছু করতে পারিনা, তাই পড়া হয়ে উঠলোনা এখনও।

...........................
Every Picture Tells a Story

সামরান এর ছবি

মুস্তাফিজ ভাই,
আপনি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠুন, স্বাভাবিক কাজ-কর্মে ফিরে আসুন।

আপনার অসুস্থতার খবর পেয়েছিলাম, কিন্তু সুমেরুর বইটা নিয়ে চরম মাথা খারাপ অবস্থায় থাকার জন্যে হাসপাতালের একদম কাছে থাকা সত্বেও গিয়ে দেখা করতে পারিনি। আপনি যখন হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন, ঠিক ও‌ই সময়ে আর ও‌ই হাসপাতালেই আমার খালাতো ভাইও ভর্তি ছিলেন সাত দিনের জন্যে, দেখতে যেতে পারিনি তাকেও।

ভাল থাকুন।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।