আজব সব জীবগুলি-১

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শনি, ২৯/১০/২০১১ - ১১:৫৯অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আর্চার ফিস (Archerfish) খুব মজার (!) একটি মাছ। মজার বলতে খেতে মজা সেটা অবশ্য বলিনি খাইছে , এর খাদ্য সংগ্রহ করা পদ্ধতিটির কথা বুঝিয়েছি!! ধরাযাক একটা জলজ উদ্ভিদের উপর একটা পোকা বসে আছে। এই মাছটি আস্তে আস্তে গিয়ে মুখ দিয়ে 'পুচুৎ' করে পানি ছুড়ে মারে। পোকাটির গায়ে লেগে ওটা পানিতে পরলেই এরা খপ করে মুখে ঢুকিয়ে খেয়ে নেয়।

আর্চার ফিসের বৈজ্ঞানিক নাম Toxotes jaculatrix। দেখা যায় পোকার দিকে পানি ছোড়ার সময় এদের লক্ষ্য প্রায় নির্ভুল থাকে, এমনকি ২-৩ মিটার উচুতে বসে থাকা পোকাকেও এরা লক্ষ্যভেদ করতে পারে।

১৭৬৫ সালে প্রথম এই মাছটির সন্ধান পাওয়া যায় বাটাভিয়ায় (বর্তমান জাকার্তা)। একজন ওলন্দাজ রাজা এই মাছটিকে এরকম অদ্ভুত প্রক্রিয়ায় খাদ্য সংগ্রহ করতে দেখে ফেলেন। কিন্তু সেই সময়ে তার কথার কেউ পাত্তাই দেয়নি। অনেক কষ্টে এরকম একটি মাছ ধরে তিনি লন্ডনের রয়েল সোসাইটিতে তিনি পাঠান। সেই সময় জাকার্তা থেকে লন্ডনে জাহাজে করে পৌছাতে তিন-চার মাস সময় লাগতো।
অনেক কষ্টে জাহাজ হতে বহু হাত ঘুরে যে মাছটি রয়েল সোসাইটিতে পৌছালো সেটি আসল 'আর্চার ফিস' ছিলোনা। মন খারাপ সেটি ছিলো বাটারফ্লাই ফিস।
রয়েল সোসাইটির জীববিজ্ঞানিরা অনেক চেষ্টা-চরিত্র করেও সেটিকে দিয়ে পোকা শিকার করাতে পারলেননা।

যাইহোক আবার একটি মাছ ধরে রয়েল সোসাইটিতে পাঠানো হলো।এবার মাছ ঠিকই ছিলো, কিন্তু সেটি জীবিত অবস্থায় পৌছালো না! ওঁয়া ওঁয়া

অনেক পরে ১৯০২ সালের দিকে কয়েকজন রাশিয়ান জীববিজ্ঞানী এই মাছটিকে আবিষ্কার করেন।

এরপর জীববিজ্ঞানীদের মধ্যে প্রশ্ন জাগলো এই মাছটি কিভাবে এতটা নির্ভুল ভাবে লক্ষভেদ করে?

উত্তর খুব সোজা, মাছটি পানি প্রতিসরনে বিভ্রান্ত হয়না। জীনবাহিত অভিজ্ঞতায় মাছটি ঠিকই পানি ছোঁড়ার আগমূহুর্তে সে পানির উপরিতলের সাথে এমনভাবে অবস্থান নেয় যেন পানি পিচকিরিটা ঠিক-ঠাক লম্বভাবে ছুটে যায়!!
এতটুকু মাছ, কি চমৎকার বুদ্ধি!!!

(চলবে)
frdayeen

পাদটীকা


মন্তব্য

সুমন চৌধুরী এর ছবি

বিজ্ঞান বিষয়ক পোস্ট পড়ার জন‌্য মুখিয়ে থাকি। আপনার এই পোস্টটার সাইজটা কিন্তু আমার সেই আগ্রহকে তেমন সন্মান দেখালো না। জীববিজ্ঞান নিয়ে ফাটিয়ে লিখুন। তবে আরেকটু ডিটেলস দিয়ে আরেকটু বড় বড় পোস্ট দিন।

frdayeen এর ছবি

আসলে ছোটবেলায় বিভিন্ন পত্র-পত্রিকার পাতায় বিভিন্নগ পশু-পাখি বা উদ্ভিদ-ফুল ইত্যাদির যে খবরগুলি প্রকাশ পেতো সেগুলো সংগ্রহ করা আমার শখ ছিল।
সেসময় বেশ কিছু বই সংগ্রহ করেছিলাম। সেখান থেকেই এই পোস্টটা লিখার কথা মাথায় আসল। হাসি

তারেক অণু এর ছবি

প্রথমবারের মত আর্চার ফিস বা তীরন্দাজ মাছ দেখে যে কি ভাল লেগেছিল! আরো বড় আকারে লিখতে থাকুন জীব জগতের বিস্ময়গুলো নিয়ে।

রিসালাত বারী এর ছবি

হ, এ আর বিচিত্র কি যে আপনি এই মাছও দেখছেন খাইছে

কালো কাক এর ছবি

আপ্নে এখন থেকে যেটা দেখেন নাই সেটা বলবেন খাইছে

কল্যাণF এর ছবি

ফট করে শেষ হয়ে গেলো?

frdayeen এর ছবি

ধন্যবাদ। চেস্টা করবো পরেরবার একটু বেশি তথ্য দেবার।

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

চলুক। বড় আর আরো বিস্তারিত লেখা পড়তে ভালো লাগে বেশি।

এক জায়গায় একমত নই, ডাঙার পোকা শিকারের ক্ষমতাটি এই মাছের একটি অনন্য দক্ষতা। মাছের বুদ্ধিমত্তা নয়। হাসি

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

frdayeen এর ছবি

ধন্যবাদ হাসি

বন্দনা কবীর এর ছবি

আগ্রহ নিয়ে পড়তে শুরু করলাম। মন দিয়ে বাধ্য ছাত্রির মত পড়া-লেখা করবো কথা দিলুম হাসি

ইয়ে লেখকের নামের উচ্চারণটা একটু বাংলায় লিখে দেওয়া যায় না?

frdayeen এর ছবি

নামের আসল বাংলা উচ্চারন 'দায়ীন'। সচলায়তনে রেজিস্টার করার সময় একটু বিভ্রান্ত হয়েগেছিলাম বলে সদস্য পরিচয়ের নামে একটু ভেজাল হয়ে গেছে ইয়ে, মানে... এই আরকি। অসুবিধা কি, চলুক নাহয়! হাসি

রু (অতিথি) এর ছবি

দারুণ!! এই মাছের কথা আগে জানতাম না। যতটুকু লিখেছেন খুব সুন্দর, গুছানো লেখা। কিন্তু খুব চটজলদি শেষ হয়ে গেল। আপনার আরও লেখা পাবো আশা করি।

frdayeen এর ছবি

ধন্যবাদ। হাসি

আশালতা এর ছবি

ভালো লাগলো। হাসি

----------------
স্বপ্ন হোক শক্তি

frdayeen এর ছবি

হাসি

frdayeen এর ছবি

ধন্যবাদ চেস্টা করবো। হাসি

নিটোল. এর ছবি

নিঃশ্বাস ফেলতে না ফেলতেই শেষ! আরেকটু বড়ো করে লিখুন। বিজ্ঞান নিয়ে হাতি পোস্ট চাই।

frdayeen এর ছবি

ধন্যবাদ চেস্টা করবো। হাসি

রুমঝুম ১ এর ছবি

চলুক

frdayeen এর ছবি

হাসি

রাব্বানী এর ছবি

এই মাছ সমন্ধে জানতাম না, ধন্যবাদ লেখার জন্য।আরচার ফিশের শিকার ধরার ভিডিও http://www.youtube.com/watch?v=fhBZ40jIo4Q

frdayeen এর ছবি

আমিও একটা ভিডিও লিংক দিবো ভাবছিলাম। আপনাকে ধন্যবাদ। চলুক

শাব্দিক এর ছবি

খুব ভাল লাগল লেখা পড়ে। চলুক, আগ্রহ নিয়ে পড়ব।

ত্রিমাত্রিক কবি এর ছবি

লেখা ভাল লেগেছে। তবে আরও ডিটেইলস হতে পারত। আর এই ধরণের লেখায় দেঁতো হাসি বা খাইছে ইমোটিকন্সের কোন প্রয়োজন নেই বোধহয়, এগুলো লেখার গুরুত্বকে কিছুটা হলেও হালকা করে। পরের পর্বগুলি দিতে থাকুন। সাথে থাকব।

_ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _
একজীবনের অপূর্ণ সাধ মেটাতে চাই
আরেক জীবন, চতুর্দিকের সর্বব্যাপী জীবন্ত সুখ
সবকিছুতে আমার একটা হিস্যা তো চাই

ব্যাঙের ছাতা এর ছবি

এতো অল্পে লেখাটা শেষ হয়ে গেল !

guesr_writer rajkonya এর ছবি

তীরের মত পানি ছুঁড়ে শিকার করে বলেই এই মাছের এমন নাম। শুধু আর্চার মাছ কেন, আরো অনেক প্রাণীই কিন্তু প্রতিসরণে বিভ্রান্ত হয় না। মাছরাঙ্গার ক্যালকুলেশন দেখে আমি নিজেও হতবাক হয়ে যাই। নিজে বসে আছে গাছের উপরে। পানির নিচে মাছগুলো চলছে। কত বেগে, কত গভীরে, গেলে ঠিক ঠিক মাছটাকে শিকার করা যাবে, আপনি আমার চেয়ে ওরা খুব ভাল জানে। আর কী টাইমিং রে বাপ! এর মধ্যে পানির প্রতিসরণ তো রইলই।

মর্ম এর ছবি

লেখা ভাল লাগল। আরো লিখুন। বড় করে লিখুন, অজানা কিছু জানতে আসলেই ভাল লাগে।

সচলে আপনাকে স্বাগতম!

~~~~~~~~~~~~~~~~
আমার লেখা কইবে কথা যখন আমি থাকবোনা...

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

আরো জম্পেশ করে লেখেন... দারুণ লাগলো এইটা

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

সাফি এর ছবি

আরেকটু কলেবরে বাড়ুক, ভাল লাগ্সে লেখা

বন্দনা এর ছবি

বাহ বেশ মজার তো।।ঃ)

ইস্কান্দর বরকন্দাজ এর ছবি

হাততালি

..................................................................
আমি ছুঁয়ে দিতে চাই সেই বৃষ্টিভেজা সুর...

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।