অক্টোবর ২০১৮

ওডিন এর ছবি
লিখেছেন ওডিন (তারিখ: বুধ, ৩১/১০/২০১৮ - ১:৩১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ঘ.
নিজের মধ্যে কাদায় আটকে পড়া ট্রায়াসিক যুগের স্টেগোসোরাসের মত একটা নির্লিপ্ততা এসে গেছে। প্রাগৈতিহাসিক আলকাতরায় খুব ধীরে ধীরে তলিয়ে যেতে যেতে চারপাশে শুধু নিজের বিলুপ্তি দেখে যাই।

গ.
...

Shadows are fallin' and I've been here all day
It's too hot to sleep and time is runnin' away
Feel like my soul has turned into steel
I've still got the scars that the sun didn't heal
There's not even room enough to be anywhere
It's not dark yet
But it's gettin' there.

Well, my sense of humanity has gone down the drain
Behind every beautiful thing there's been some kind of pain
She wrote me a letter and she wrote it so kind
She put down in writin' what was in her mind
I just don't see why I should even care
It's not dark yet
But it's gettin' there.

খ.
মোহাম্মদপুর এলাকায়, পংগু হাসপাতালের আশেপাশে কিছু বস্তিটাইপ ঘর আছে। সেই ঘরগুলোর সামনে একটা সাইনবোর্ড থাকে, পতাকাদণ্ডে জাতীয় পতাকা থাকে। সেখানে কিছু বোকা লোক বাস করেন। ঐ বোকা লোকগুলো সাড়ে চার দশক আগে নিজের জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধে গিয়েছিলেন। তারপর এখনো বোকামীর ফল ভোগ করছেন। কারো এক বা একাধিক অঙ্গ নেই। কারো গায়ে লেগে থাকা গুলি বা স্প্লিন্টার আর বের করা যায়নি। কেউ কেউ পঙ্গু হয়ে গেছেন। ঐ বস্তিটাইপ ঘরগুলোতে ঠাঁই হয়নি এমন আরও হাজার হাজার বোকা লোক সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে আছেন।

তারেকরা ঐ বোকা লোকগুলোর পরিণতি দেখেও কিছুই শেখেনি। সুতরাং তাদেরকে দেড়খানা অকেজো হাত আর শ্রোণিচক্রে আটকে থাকা একটা গুলি নিয়েই বেচে থাকতে হবে।

ক.


মন্তব্য

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি

ঘ।
আমার ধারণায় একটা জাতি তখনই ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছায় যখন তার সাধারণ জনগণ সব অন্যায় বিনা প্রতিবাদে মেনে নিতে থাকে, আর সেইসাথে যখন তার প্রাজ্ঞ-সচেতন লোকেরা দুর্বৃত্তদের সমর্থনে হয় চুপ থাকে অথবা অ্যাপোলজিস্টের ভূমিকায় নামে।

গ।
অদ্ভুত আঁধার এক এসেছে এ-পৃথিবীতে আজ,
যারা অন্ধ সবচেয়ে বেশি আজ চোখে দ্যাখে তারা;
যাদের হৃদয়ে কোনো প্রেম নেই - প্রীতি নেই - করুণার আলোড়ন নেই
পৃথিবী অচল আজ তাদের সুপরামর্শ ছাড়া।
যাদের গভীর আস্থা আছে আজো মানুষের প্রতি
এখনো যাদের কাছে স্বাভাবিক ব'লে মনে হয়
মহত্‍‌ সত্য বা রীতি, কিংবা শিল্প অথবা সাধনা
শকুন ও শেয়ালের খাদ্য আজ তাদের হৃদয়।

খ।
ঐ বোকা লোকগুলোর সাথে ছিলেন এমন আরও অনেক অনেক বোকা লোক ছিলেন যাদের ওই বস্তিগুলোতেও ঠাঁই হয়নি অথবা এই পৃথিবীতেই ঠাঁই হয়নি। ইতিহাস বলে, অকৃতজ্ঞ, কুলাঙ্গারদের ঘি-ননীতে ডোবানোর জন্য বোকা লোকেরা বার বার ব্যবহৃত হয়।

আমরা বরং এই কথা ভেবে আনন্দিত হই যে, তারেকদের কেউ কেউ এখনো বেঁচেবর্তে আছে - কেউ 'দেড়খানা অকেজো হাত আর শ্রোণিচক্রে আটকে থাকা একটা গুলি নিয়ে', কেউ অকেজো আঙুল আর প্রতি মুহূর্তে ত্রাসে ডুবে থেকে, কেউ সব সম্পদ-অর্জন-পরিবার-দেশ হারিয়ে নিরাশ্রয় হয়ে; তবু তাদের অবস্থা কয়েকজন বাবু, অভি, নীল, বিজয়, দীপনদের মতো হয়নি।

ক।
সাড়ে চার দশকের বেশি আগে, অথবা প্রায় তিন দশক আগে হাড়ের গভীরে বেকায়দা জায়গায় ধাতবখণ্ড আটকে গিয়েছিল এমন মানুষকে দেখেছি ঐ স্মৃতিচিহ্নকে সাথে নিয়ে অন্তর্জলি যাত্রায় গেছেন। এটা মনুষ্যদেহে মনুষ্যেতরর থাবার চিহ্ন। তথাকথিত সভ্যতার ইতিহাসে এটা সব সময় ছিল।


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

অবনীল এর ছবি

___________________________________
ঈশ্বরের মত, ভবঘুরে স্বপ্নগুলো।

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

আমি মাঝে মাঝে ভাবি, আমি এরকম একটা দেশের জন্য সব দিয়ে নিঃস্ব হয়ে গিয়ে যদি এরকম অবহেলা পেতাম, তাহলে হয়তো খুনটুন করে ফাঁসিতে চড়ে যেতাম!

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA