নিকোবিনা আচার আর গরুর মাংস

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি
লিখেছেন প্রকৃতিপ্রেমিক (তারিখ: বিষ্যুদ, ১১/০৬/২০০৯ - ১১:৩৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

প্রবাসে দেশের অনেককিছু চিনেছি, জেনেছি, স্বাদ গ্রহণ করেছি যা দেশে থাকতে হয়ে ওঠেনি। বিদেশে না এলে হয়তো এসব কোনদিনই জানা হতোনা। এখন যেমন মানুষের মবিলিটি বেড়েছে বহুগুনে, ছেলেপেলেরা কত সহজেই আজ সিলেট তো কাল চট্টগ্রাম, তো পরশু সুন্দরবন যাচ্ছে-- আজ থেকে ৫/৬ বছর আগেও ব্যাপারটা এত সহজাত ছিলনা। সিলেটের কথা অনেক শুনেছি, কোনদিন যাওয়া হয়নি। অবশ্য সিলেটের সাতকড়া আর নিকোবিনা আচারের কথা দেশে থাকতে কখনো শোনা হয়নি।

জহুরুল ভাইয়ের বাড়িতে প্রথম সাতকড়ার কথা শুনি। সিলেটের খাবারের খুবই প্রিয় এবং কমন একটা উপাদান এই সাতকড়া। জিনিসটা আসলে যে কী তা আজো জানিনা- শুধু এটুকু জানি কমলা লেবুর মত একটা জিনিস। সত্যিকথা বলতে কি সাতকড়া দিয়ে গরুর মাংসের আমি কোনো বিশেষ স্বাদ পাইনি।

ইদানিং বাসায় প্রায়ই খাওয়া হয়না। যখন হয় তখন তিনটা পাউরুটি-স্লাইস, মেয়নেজ আর চিকেনের ব'লোনিয়া (Chicken Bologna) দিয়ে বানানো স্যান্ডউইচ। সাথে ই্ংলিশ শশা আর হাইঞ্জ এর কেচাপ (দেশে যেটাকে সবাই টমাটো সস বলি)।

যাহোক, ইদানিং আলসেমিটা বেশি মাত্রায় বেড়েছে। মাঝখানে কয়দিন আলজেরিয়ার খেজুর, রাফলস-এর চিপস আর রেডিমেড সালাদ দিয়ে লাঞ্চ সারতাম। ভাতের সাথে খেজুর খাচ্ছি শুনে আমার কয়েক বন্ধু একাধিকবার দাওয়াত দিয়ে খাইয়েছে। এখন তাদের বাসায় খেতেও লজ্জা লাগে। আজ দুপুরে ভাত রাঁধলাম। গতকাল কষানো গরুর মাংসে লাউ মিশিয়ে তরকারি রেঁধেছি। তার আগের দিনের রান্না করা দ্বিস্তর বিশিষ্ট ডাল দিয়ে খাবো সেই আশায়। দ্বিস্তর বলছি কারণ ডাল আর পানি আলাদা হয়ে গেছে।

যাহোক, যেটা বলা হয়নি সেটা হলো গরুর মাংসের সাথে সিলেটের আরেক জিনিস, নিকোবিনা আচার এর কম্বিনেশনটা আমার খুবই ভালো লাগে। আজ সেভাবেই লাঞ্চ সেরে পেট ভারি করে এই ব্লগ লিখলাম। নিচে তার ছবি। উল্লেখ্য যে, ছবিতে দৃশ্যমান থালাটা আমার খুবই প্রিয়।

ভাত, গরু, আর নিকোবিনা আচার দিয়ে লাঞ্চ


মন্তব্য

কিংকর্তব্যবিমূঢ় এর ছবি

চিকেন বোলনিয়া তো ব্যাপক অখাদ্য একটা জিনিস, ওর চেয়ে টুনামাছও ভালো ...

নিকোবিনাটা কি জিনিস? আর ভাতের সাইডে যা দেখা যাচ্ছে সেটাই কি আলজেরিয়ান খেজুর? ভাতের সাথে এইটা খাওয়ার মাহাত্ম্য কি? দেঁতো হাসি
................................................................................................
খাদে নামতে আজ ভয় করে, নেই যে কেউ আর হাতটাকে ধরা ...

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

ভাতের সাথে খেজুরের মাহাত্ম আমিও জানিনা। খেতে খেতে অভ্যাস হয়ে গেছে, তাই ভাল্লাগে। টুনামাছ নিয়ে আমার অনুভূতি আপনার বোলোনিয়ার মতই, গন্ধটাই অসহনীয় লাগে। অথচ প্রথম প্রথম এতো ভালো লাগতো! সময়ের সাথে স্বাদের অনুভূতির পরিবর্তন ঘটছে।

নিকোবিনা হলো আচার কোম্পানীর নাম। কিচেনারে এটা পাওয়া যাবেনা কারণ ওখানে বাংলাদশী দোকান নেই (এখন হয়েছে কি-না জানিনা)। কিসকিতে খুঁজে দেখতে পারো, পাইতেও পারো। তবে না পাওয়ার সম্ভাবনা বেশী। নিকোবিনার নানা ধরনের আচার আছে। মেড ইন সিলেট। টরন্টোর লোকজন অনেক সস্তায় কেনে। এখানে ৩.৫ ডলার করে। টরন্টোতে মনে হয় ২ডলার।

শামীম রুনা এর ছবি

নিকোবিনার সাতকড়ার আচার দিয়ে ভুনা খিচুড়ীও কিন্তু বেশ লাগে।
থালার ছবিটা চমৎকার, খেতে নিশ্চয় ভালো হয়েছে।

_________________________________________________________
খাতার দিকে তাকিয়ে দেখি,এক পৃথিবী লিখবো বলে-একটা পাতাও শেষ করিনি।

_________________________________________________________
খাতার দিকে তাকিয়ে দেখি,এক পৃথিবী লিখবো বলে-একটা পাতাও শেষ করিনি। ( জয় গোস্মামী)

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

আর ভালো, খাওয়ার সময় লবণ যোগ করে নিতে হয়েছে আরকি।

তানবীরা এর ছবি

পিপিদা কি মশলা কম খান? গরুর মাংস এতো টলটলা কেন? থালাতো মর্ডান। ঠিকাছে।
সাতকড়া ডিপফ্রিজে দেখেছি দোকানের, সিলেইট্টা গুলা খাইতেই জানে না , জানে শুধু ঝগড়া করতে ঃ)।

---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

টলটলা তো চাইনি, হয়ে গেলে কী আর করার আছে মন খারাপ সিলেট নিয়ে এটা কী বললেন, যুদ্ধ লেগে যেতে পারে তো দেঁতো হাসি

তানবীরা এর ছবি

সেইজন্যইতো কইলাম।

এইটা যদি লাঞ্চ হয় তো ডিনার কি? তাও আপনে খাওয়া দাওয়ার কষ্ট কন ??? ঃ)
---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

তরকারি শেষ না হওয়া পর্যন্ত চলতেই থাকবে। তারপর আবার খেজুর আর চিপসের উপর ভরসা।

হাসান মোরশেদ এর ছবি

তাতাবিবি হুশিয়ার, উত্তর সাগর পাড়ি দিয়ে ওলন্দাজ দেশে গিয়ে ঝগড়া করে আসবো, বুঝবেন তখন সিলটীদের নিয়ে কথা বলার মজা দেঁতো হাসি
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

আহমেদুর রশীদ এর ছবি

এইটা ঠিক, সিলেইট্টা গুলা খালি খাওয়াইতেই পারে। সেই হিসাবে বাকীগুলা পারে খাইতে।

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে
________________________________________
http://ahmedurrashid.

রানা মেহের এর ছবি

নিশ্চয়ই টুটুল ভাইয়ের জন্য রয়েছে উত্তম জাঝা!
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- প্রমাণ ছাড়া কোনো জাঝা ফাজায় কাম হবে না। দেন দেখি টুটুল ভাইয়ের শালির ঠায় ঠিকানা, জিজ্ঞেস করে দেখি সরেজমিন!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

জেবতিক রাজিব হক এর ছবি

টুটুল ভাই মহান।

তানবীরা এর ছবি

যেই সিলেইট্যার জন্য এই মন্তব্য করলাম সে দেখি নিশ্চুপ। অন্যরা তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ বাধাইলো ঃ)
---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

সুমন চৌধুরী এর ছবি

সাতকড়া আমারো মজা লাগে নাই। এক বন্ধু খুব শখ কইরা সাতকড়া দিয়া হাঁসের মাংস খাওয়াইছিল। খাইয়া লাগছে ধুনফুন। কিন্তু সেই কথা তো আর কওয়া যায় না। সিলেটি হৈলে হয়তো মজা লাগতো।



অজ্ঞাতবাস

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

আরে বদ্দা যে, ধন্য হলাম।

বিপ্রতীপ এর ছবি

খাইতাম চাই দেঁতো হাসি

সিলেটী হয়েও সাতকরা কোনদিন খেয়েছি বলে মনে পড়ে না ... আমাদের বাসায় সাতকরা আনা হতো না মন খারাপ
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
ব্যাক্তিগত ব্লগ | আমার ছবিঘর

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

তুমি তো বিপ্রতীপ কোণ, উল্লাটাই তো হবে। হেঃ হেঃ হেঃ। তোমার সিলেটত্ব বাতিল হয়েছে, দেখছ?

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

ভালো কথা মনে করছেন... কালকে শুক্রবার... সাপ্তাহিক রান্ধা দিবস... প্রতি শুক্রবারে আমি একটা স্পেশাল আইটেম রান্ধি। কালকে কী রাঁধবো ভাবতেছি।
তবে গরু না। এমাসে ব্যাপক গরু খাওয়া হইছে... মাছ রানবো... ছবি দিবোনে...
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

তানবীরা এর ছবি

নুপূর মাইয়াতো হেভভী লাকী।

---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

নজু ভাই, ঢাকায় কি সাতকড়া পাওয়া যায়? হাতকড়া পাওয়া যায় সেটা জানি। একদিন জর্মন দেশ থেকে একজন ফোন করে বলে উত্তরা থেকে ড়্যাব-৪-এর কমান্ডার বলছি। শুনেই হেসে ফেললাম। ভাবলাম নজু ভাইয়ের তো আমার নাম্বার জানার কথা নয়। যাহোক, রান্নার ছবি দিয়েন।

হিমু এর ছবি

সাতকড়ার তরকারি বিস্বাদ, কিন্তু আচারটা স্বর্গীয়। নিকোবিনার আচার এমনকি ঢাকাতেও মেলে না, মৌলভিবাজার পেরোলেই দুষ্প্রাপ্য। নিকোবিনার আরেকটি দুর্ধর্ষ প্রোডাক্ট হচ্ছে নাগা মরিচের আচার।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

রানা মেহের এর ছবি

যেসকল পাষন্ড পামর
সাতকড়া - সাতকড়ার তরকারীকে বিস্বাদ বলে
তাদের যেন সপ্তনরক হাবিয়া দোযখেও জায়গা না হয়
তারা যেন........... রেগে টং

সাতকড়া একটা বেহেশতি জিনিস।
একে পানির সাথে মিশিয়ে খেলেও বিরাট ভালো লাগবে লাগবে

তবে একে রান্না মাইক্রোপিজা গরম করে খাওয়া নয়।
এই শিল্প 'বেঙ্গলি'রা জানেনা দেঁতো হাসি

বিপ্রতীপের সিলেটের নাগরিকত্ব বাতিল করা হলো মন খারাপ
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

হিমু এর ছবি

রানা, দুঃখের সাথে আপনার ভুল ভাঙাই। সাতকড়া দিয়ে রান্নার শিল্প সিলটিরাও জানে না দেঁতো হাসি । ইন ফ্যাক্ট, কেউই জানে না। উহা শিবের অসাধ্য। কপাল ভালো আচার করা যায়, নাহলে সাতকড়াকে আইপিসহ ব্যান করার আন্দোলন শুরু হইত। বেহেস্তে গিয়া দেখেন, সাতকড়ার সালম না, আচারই খাইতে পাইবেন।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

রানা মেহের এর ছবি

অত্যন্ত আনন্দ (এবং রাগ, আপাতত চাপা দিয়ে রাখছি) নিয়ে জানাচ্ছি হিমু
সাতকড়া রান্না করতে হলে যেই মেধার দরকার
ইহা পরম করুনাময় অসীম দয়ালু পাকপরওয়ারদেগার সবার মধ্যে (আইমিন পিপিহিমুতাতা) দেন নাই।
রংবেরংয়ের মশলা ঢাললেই সাতকরার মতো পূণ্যবস্তু রান্না হয়না।

স্বয়ং শিব সাতকড়া খেলে পার্বতীর নাম সার্বতী রাখতেন

সালম কী?
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

হিমু এর ছবি

শিব সাতকড়ার তরকারি একবার মুখে দিলে সাতকড়াকে মদনভস্ম করতেন, পার্বতীকেও চুলটানা দিতেন (বইলেন না পার্বতীও বেঙ্গলি ছিল, নাম শুনেই বোঝা যায় তিনি পর্বতসঙ্কুল সিলেট অঞ্চলের কন্যা ছিলেন)। আচার খেয়েছিলেন দেখে ফলটা টিকে গেলো।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

হাসান মোরশেদ এর ছবি

পার্বতী বিবির গ্রীবাপিঠ ও বামজঙ্ঘা কিন্তু সিলেটেই পতিত হয়েছিলো হাসি
আর মহাভারতের রচয়িতা ব্যাসদেবের দাদীজান ও সিলটি ফুরি

সাতকড়ার মজা যারা পেলোনা তারা জানলোনা যে কি মহার্ঘ বঞ্চিত হলো
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

রানা মেহের এর ছবি

শিব সাতকড়ার তরকারি মুখে দিলে
স্বর্গের ফল আজ অমৃত না হয়ে সাতকড়া হতো

রাধা একবার সাতকড়া খেলে পাখি হয়ে
সাতকড়া কোথা সাতকড়া কোথা বলে ওড়াওড়ি করতেন

সাতকড়া আলু দিয়ে রান্না করে ত্রিভুজ খাবার বস্তু নয় রে পাগল
ইহা রান্নার তরিকা আছে
কোন পার্বতী সার্বতীকে জিগ্গেস করুন। জানতে পারবেন
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- হিমু তুই সর। দাওয়াত লই। কথার প্যাচে বুঝা যাচ্ছে ইহ জগতে কেবল একজনই সাতকড়া দিয়ে কড়কড়া রান্না করার কেরামতি প্রাপ্ত হইছে। তা মহামতি রানা এই সাতকড়া দিয়া রাইন্ধা খাওয়াইবেন কবে? ইমানে কই, এই জিনিষ আমি চিনি না, আপনের হাতের রান্না খাইয়াই চেনার আশা ব্যক্ত করলাম।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

রানা মেহের এর ছবি

ইয়ে মানে ধুগো ..... হয়েছে কী
সবাইকেতো কাজ শেয়ার করতে হয়
তাই শেয়ারিংয়ের অংশ হিসেবে খাওয়ার কাজটা আমি করি
রান্নাবান্না আপামণিদের ডিপার্টমেন্ট দেঁতো হাসি

আরে দাওয়াত কোন ব্যাপার?
তানিয়া আপু আছে না?
এরকম অন্নপূর্না থাকতে দাওয়াতের চিন্তা কী?
(সেদিন আমাকে রেস্টুরেন্টে খাইয়েছে। ব্যাপক ভালো মেয়ে )
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

হিমু এর ছবি

কারে কী কস? রানা পিৎজা খাইয়াই বাইচ্চা আছে। লগে একটু সাতকড়ার আচার লইয়া খায়। সাতকড়া দিয়া তরকারি রান্নার সাহস ওর থাকলে তো! এইটা রান্নার একটা তরিকা আছে না? যে কেউ পারে??

তাই না, রানা দেঁতো হাসি ?

সাতকড়া বা সাতকরার প্রকৃত নাম হাতকরা, সিলটিরা যা বলেন। শাস্ত্রে আছে, হাতকরার সংস্কৃত নাম হততরকারিকা, অর্থাৎ কি না যা প্রয়োগে তরকারি হত হয়। এরপরও রানা তর্কারি নিয়ে তর্ক করেই যাবে।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

রানা মেহের এর ছবি

একদম ভুল একদম ভুল একদম ভুল
রানা পিটজা খেয়ে বেঁচে নেই। পট নুডলস খেয়ে বেঁচে আছে
(পিটসা গরম করা আরো বেশী ঝামেলা) দেঁতো হাসি

আচ্ছা রান্নার মূল উড্দেশ্য কি? খাওয়া তো?
সেই মূল কাজটাই কত কষ্ট করে করি আমি
তারপরও পাবলিক রান্নার মতো একটা প্রক্রিয়াকেই বাহবা দেয়।
পৃথিবীতে ভালো মানুষের কোন দাম নেই মন খারাপ

হিমুর উচিত একটা সংস্কৃত টোলে ভর্তি হওয়া।
কোথায় কী সব পড়ে কী সব বকে।

সাতকড়ার মূল সংস্কৃত নাম সাদতরকারিকা
যা দিলে তরকারি স্বাদ হয়।
হাতকড়া আন্চলিক নাম

সাতকড়া খাও
বুদ্ধি বাড়াও
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

হিমু এর ছবি

শ্রীহট্ট সংস্কৃত কলেজের গ্রন্থাগারে কিছু প্রাচীন দেবনাগরী ভূর্জপত্র পুঁথি ঘাঁটাঘাঁটি করে তারপর আসেন চোখ টিপি



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

রানা মেহের এর ছবি

আমারতো লাগবেনা হে মুঢ়
আপনার লাগলে বলবেন, ব্যবস্থা করে দেবো চোখ টিপি
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

হিমু এর ছবি

একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ ঠুকলাম!

কোন চাইনিজকে ধইরা সাতকড়ার তরকারি আর আচার খাওয়ান। চাইনিজরা হেন জিনিস নাই যে খায় না। আবার তারা সিলটিও না, বেঙ্গলিও না। চিঙ্কু যদি বলে সাতকড়ার আচার থেকে তরকারি ভালো, মেনে নিবো!



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

সাইফ এর ছবি

চিঙ্কু যদি বলে সাতকড়ার আচার থেকে তরকারি ভালো, মেনে নিবো!

গড়াগড়ি দিয়া হাসি

চিন্কুরা তো নিজের "ইয়ে" খাইয়াও বলিবে, আহা কি স্বাদ !!!

আহমেদুর রশীদ এর ছবি

ননসিলেটিদের সাতকড়া খাওনের গল্প শুনবেন?
- একবার এক বিশিষ্ট জনরে একহালি সাতকড়া গিফট দিছিলাম। জিনিসটার নামধাম বইলাই দিছি। কয়েকদিন পর উনার সাথে দেখা। একথা-সেকথার পর বললেন-ভাই ঐদিন যে জিনিসগুলা দিছিলেন,খাইতেতো পারি নাই। এক্কেরে তিতা আছিলো।দোকানদার আপ্নেরে ঠকা দিছে।আমি জিগাইলাম, কেমনে খাইছিলেন? ভদ্রলোক জবাব দিলেন- কেন্ ,ছিলে কমলার মতো করে।

তো জনাব হিমু সাহেব, আপনি যদি কমলার মতো করে সাতকড়া খেতে চান,তাইলে আসলেই সিলেটিরা পারেনা।

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে
________________________________________
http://ahmedurrashid.

হাসান মোরশেদ এর ছবি

টুটুল ভাই, হিমুর ঠিকুজি জানেনা।
হিমু কিন্তু অর্ধ-সিলেটী হাসি
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

হিমু এর ছবি
আহমেদুর রশীদ এর ছবি

ইয়াল্লা। ইতো দেখি কুটুম লাগইন।
অখন বুঝছি রঙোর ইশারা কুনবায়দি গেছে।
অসুবিধা নাই.....আমরা আছি নানি!! খবরদার বইনরে খুটা দিবায়না।

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে

---------------------------------------------------------

ঘাস তুমি ঘাসের মতো থাকো মাটি ছুঁয়ে
যে দেখার সে নতজানু হয়ে ছুঁবে তোমার আঙুল
অবরুদ্ধ মাঠ থেকে তুমি লাফিয়ে নেমোনা প্লিজ পাথরের পথে
________________________________________
http://ahmedurrashid.

তুলিরেখা এর ছবি

ইয়ে, শিব কি রান্নাবান্না জানতেন? ওনার সিদ্ধিও তো ঘুঁটে দিতো নন্দীভৃঙ্গী! রেঁধে দিতেন দুর্গা। পূজার চারদিন ভদ্রলোক খুব কষ্টে চিঁড়াভিজিয়ে খেতেন আর শ্বশুরবাড়ীর চোদ্দগুষ্ঠি উদ্ধার করতেন মনে মনে। হাসি
তবে ভীম রানতে জানতেন।
-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

রেঁধে পাঠান... খাবো... পিইলিইজজ...

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- পিপিদা, আপনের প্লেটটা অতিশয় পছন্দ হইছে। আমি দেশে থাকতে একবার মাটির সানকীতে খাওয়া ধরছিলাম। সবাই খায় এক রকম প্লেটে, আর আমি একা খাই মাটির বাসনে। নিদারুণ মজা! হাসি

আপনার কষ্ট দেখে আমারও কষ্ট হচ্ছেরে ভাই। দিবো নাকি অতি সহজ কিছু রেসিপি (মহামান্য ধুগো আবিষ্কৃত) পোস্ট করে? খাদকায়তনের আওতায় তো আমার কিছু পোস্ট দেনা হয়ে আছে!
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

মহামান্য ধুগো,
আপনি অতিসত্বর কিছু রেসিপি ছাড়ুন। টেলিফোনে বউয়ের কাছ থেকে নেয়া রেসিপি ফোন রাখিবামাত্র ভুলিয়া যাই। কাগজে কলমে লেখা কিছু থাকিলে সুবিধাই হইবে।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- আপনারে অতি দরকারী আর জরুরী একটা বুদ্ধি দেই। রান্না করার সময় ভুলেও কখনো কোনো মহিলার দেয়া রেসিপি ফলো করবেন না। এমন কিছু 'কী ওয়ার্ড' শুনেবন, মাথা আউলাইয়া যাবে সেই শব্দের মর্ম বাইর করতে! আর জগতের কোনো ডিকশনারীতেও সেসব শব্দের মানে পাইবেন না। আমার মা বহুত ট্রাই করছে আমারে দিয়া। একদিন পুরা ব্রিফিং দেয়ার পরে কয়, আমি ফোন ধর্ছি, তুই ক কী কী করতাছোস। এক প্রযায়ে ক্ষেইপা গিয়া কয়, আমি কি তোরে এমনে করতে কইছিলাম। আমি দাঁত কেলায়া হাইসা কই, কী-ওয়ার্ড ভুইলা গেছি তো! দেঁতো হাসি
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

তথাস্ত। কী-ওয়ার্ডের ব্যাপারটা একদম ঠিক।

হাসান মোরশেদ এর ছবি

দুনিয়াটা আসলেই বিরাট এক ভেলকি।
একুশ শতকের প্রথম দশকে লোকজন নিকোবিনা নিয়ে ও আন্তর্জাতিক আলোচনা চালায় , অথচ বিশ শতকের অষ্টম দশকের প্রথমার্ধে যখন আমাদের পাড়ায় এই আচারের ফ্যাক্টরী বসে তখন কি কেউ ভেবেছিল দুনিয়াটা যে ভেলকি সেটা এইভাবে ও প্রমানিত হতে পারে।
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

আমিও ভাবিনি এই পোস্টে এত কমেন্ট পড়বে। দুনিয়াটা আসলেই এক ভেলকি। তবে আচারটা আসলেই সুপার।

হিমু এর ছবি

আমার জন্যে এ আচার সুনামগঞ্জ থেকে আসে হাসি । আর সিলেট অঞ্চলের দিকে কেউ গেলেই আমরা সবসময় নিকোবিনার আচার আনতে বলে দিই।

নিকোবিনা কোম্পানির উচিত আমাদের সৌজন্য সংখ্যা পাঠানো। কমসেকম শ'তিনেক নতুন কাস্টোমার তৈরি হয়েছে, ঈমানে কইতাছি!



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

সপ্তাহান্তে টরন্টো যাচ্ছি সে খবর শুনে বঙ্গদেশ থেকে বউ খবর পাঠিয়েছে বেশ কয়েক রকমের নিকোবিনা যেন কিনে নিয়ে আসি। হাসি

তুলিরেখা এর ছবি

আরে উচ্চতাপে আরো ফোটান না কেন ঝোলটা? তাইলেই তো জল উড়ে গিয়ে ঘন হয়! খেতে ভালো হয়।
-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

তাতে লাউটা গলে যাবে না আবার?

তুলিরেখা এর ছবি

লাউয়ের টুকরাগুলি তুলে রাখুন নাহয়। ঝোল ঘন করার ফাঁকিবাজি পদ্ধতি হলো সেদ্ধ আলু যোগ করে আলুগুলো হাতা দিয়ে ঘেঁটে দেওয়া। হাসি -----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- তাইলে এক কাজ করে পিপিদা। আগে জাল ফেলে লাউ গুলাকে ছেঁকে তুলে ফেলেন। তারপর ইয়া... হেইয়ো বলে তুলিরেখার নাম নিয়ে জাল দিতে থাকেন। হাসি
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

হো হো হো

রাগিব এর ছবি

নিকোবিনার বরই-এর আচার ভয়াবহ মজা।

সিলেটি সচলেরা, পারলে এই কোম্পানির মালিককে আমার অশেষ ধন্যবাদ জানাবেন।

----------------
গণক মিস্তিরি
ভুট্টা ক্ষেত, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | কুহুকুহু

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

তুলিরেখা এর ছবি

আর ডালেজলে আলাদা হলো কেন? ডালে কাঁটা দেন না? যারে কয় ফোর্সড মিক্সিং? ফোড়ন দিয়েছেন নাকি তাও দেন নাই?
-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

ধুসর গোধূলি এর ছবি

-

ডালে কাঁটা দেন না
এই যে পিপিদা দেখেন। কেমন বলছিলাম? দেখেন শুরু হইছে 'কী ওয়ার্ডে'র আনাগোণা! দেঁতো হাসি
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

তুলিরেখা এর ছবি

সেন্ট্রিফিউজ বললে তো লাফিয়েঝাঁপিয়ে উঠবেন। হাসি
-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

রাগিব এর ছবি

"বাগাড়" দেয়ার কথা বলবেন না?

(বাগাড় নাকি বাঙালি স্পেশালিটি, কোথায় যেন পড়লাম)।

----------------
গণক মিস্তিরি
ভুট্টা ক্ষেত, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | কুহুকুহু

----------------
গণক মিস্তিরি
জাদুনগর, আম্রিকা
ওয়েবসাইট | শিক্ষক.কম | যন্ত্রগণক.কম

তুলিরেখা এর ছবি

স্বাদের কতটা তফাৎ যে হয়ে যায় এইসব ফাইন পয়েন্টে, সাধে কি আর ফোড়ন বাগাড় এসব মহিলারা আবিষ্কার করেছিলেন? জিরা ফোড়ন দিলেন, তেজপাতা দিলেন, আকাশপাতাল তফাৎ হয়ে গেল। হাসি
-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

তাইতো দেখি চিন্তিত

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

একদিন মিক্সার দিয়ে এই কাজ করে নাকে খত দিয়েছি। সেদিন কাচা মরিচ, রসুন আর পেঁয়ার সব একাকার হয়ে গিয়েছিল। আজও মিক্স করার আগেই পেঁয়াজ-মরিচ দিয়ে ফেলেছিলাম, তাই মিক্স করা হয়নি।

তুলিরেখা এর ছবি

যেকোনো ভালো আচারই অমৃতস্বাদ। আপনারা চিরকালের মতন মহিলাদের ধন্যবাদ জানান। আচার হলো মহিলাদের আবিষ্কার। ভালো ভালো সব খাবারই অবশ্য মহিলাদের আবিষ্কার। হাসি
-----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

হিমু এর ছবি

নাহ, মেজাজটাই খারাপ করে দিলেন। কচিসংসদীয় ফর্দে পয়েন্ট তুললাম, পদ্মমধু বোসকে অবশ্যই আচার বানাতে জানতে হবে!



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

নাহ, আপনার জন্য কিছু রেসিপি আর কিচেন টিপস দেওয়া ফরজ হয়ে গেলো চোখ টিপি
প্লেটটা সেইরকম চলুক
অনেকের কথাতেই বুঝা গেলো সাতকড়া রান্নার একটা বিশেষ তরিকা আছে, কথা হইলো, তরিকাটা কি? নাকি পেটেন্ট করা? চোখ টিপি
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

মোরশেদ ভাই বলছে তরিকা প্রকাশ করবেন। আমরা দু'হাত তুলে দোয়া করি।

হাসান মোরশেদ এর ছবি

সাতকড়াগ্রহী সচলগন সপ্তাহখানেক অপেক্ষা করলে সচিত্র রেসিপি হাজির হইলে ও হইতে পারে চোখ টিপি
-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

-------------------------------------
জীবনযাপনে আজ যতো ক্লান্তি থাক,
বেঁচে থাকা শ্লাঘনীয় তবু ।।

জেবতিক রাজিব হক এর ছবি

সবরে দিয়া সবতা অয় না। হাতকরা রান্দাও সবে ফারে না।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আপনার প্লেটটা জটিল পছন্দ হইছে, পিপিদা।
প্রথমে ভাবছিলাম, কলাপাতা বোধহয়। চোখ টিপি
সিলেটে গিয়ে সিলটিদের হাতে রান্না করা গরুর মাংস দিয়া সাতকড়া খাইছি। অমৃত মনে হয় নাই যদিও, তয় জিনিসটা খারাপ না। হাসি

...........................

সংশোধনহীন স্বপ্ন দেখার স্বপ্ন দেখি একদিন

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অনিন্দিতা চৌধুরী এর ছবি

আহারে সাতকরা!
আমার ও ধারণা সাতকরার মজা যারা বুঝে না তারা খাওয়ার মজাও বুঝে না।
তবে যারা প্রথম বার খাবেন তারা একবারে প্রথমেই হয়ত মজা পাবেন না। এর জন্য ২/৩ বার খেতে হবে। তারপর আর সাতকরা ছাড়া কোন কথা নেই।
সিলেটের বাইরের অনেকের এই সাতকরা প্রীতি দেখেছি।

মুশফিকা মুমু এর ছবি

নিকোবিনার নাম এই প্রথম শুনলাম আর সাতকড়ার নাম শুনেছি কিন্তু খাইনি। ছবির প্লেট টা আমারো খুব পছন্দ হয়েছে হাসি

------------------------------
পুষ্পবনে পুষ্প নাহি আছে অন্তরে ‍‍

হাতখরা এর ছবি

নিকোবিনার মালিকর নাতি সচল'র বিশিষ্টজন!!!

হাতখরা লইয়া উল্টাপাল্টা মাতে যেতায় ইতার লাগি এখটা ছিলখ আছে,
-
''হিয়ালর গেছে আঙগুরফল টেঙগা''

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

নিকোবিনার নাম আমিও শুনিনি আগে। সাতকড়া'র নাম শুনসি, কখনো খাইনি। মহামান্যা রানা মেহের যদি রেঁধে খাওয়ায়, তাহলে হয়ত... চোখ টিপি

প্লেটটা আসলেই সুন্দর। কেমন কলার পাতার মতো লাগতেছে। হাসি

শামীম এর ছবি

খাওয়ার কষ্ট বড় কষ্ট ... ... বহুদিন দুই বেলা নুডুলস আর একবেলা পাউরুটি+আন্ডাভাজি খেয়ে কাটিয়েছি। এমন করতে করতে একসময় জাপানি ভার্সিটির ক্যান্টিন ... থুক্কু ক্যাফেটেরিয়ার খাবারের ভক্ত হয়ে গিয়েছিলাম ..... বিশেষ করে মিসো সুপ আর মাছের একটা আইটেম -- জাপানি খাবার ভালা পাই।

সাতকড়া দিয়ে রান্না করা গরুর মাংস খেয়েছিলাম ... ... খারাপ লাগে নি ... ... অবশ্য শাশুড়ির হাতের রান্না এম্নিতেই ভালো লাগে।

প্লেটটা দেখে মনে হল ... হবে না ... এ যে প্রকৃতি প্রেমিক!
________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

________________________________
সমস্যা জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ; পালিয়ে লাভ নাই।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

প্লেটটা দেখে মনে হল ... হবে না ... এ যে প্রকৃতি প্রেমিক!
শুধু আপনিই ব্যাপারটা বুঝলেন।

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

আমি জীবনেও সাতকড়া খাই নাই... বহুবছর আগে একবার চোখে দেখছিলাম খালি।
এতো এতো সিলেটী পরিচিত সচল... যারা নানান আগডুম বাগডুম ঘোড়াডুম দিয়া এই পোস্ট ভরায়া ফেললেন... তারা একবার দাওয়াত করে খাওয়াইলেই পারেন...

নাহয় তাগো পক্ষ লইয়া আমরাও কথা কইতাম...

ক্যান খাওয়ায় না? নাকি ওটা যে অতিশয় খ্রাপ সেটা আমরা বুঝে যাবো বলে চোখ টিপি
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি

আমার উপরের দিকে (মানে মা-বাবা, শ্বশুর-শ্বাশুড়ি), সমান-সমান দিকে (মানে বউ, বোনের জামাই, ভাইয়ের বউ) কেউই সিলেটের না। নিচের দিকের কথা বললাম না, কারণ ওগুলোতো তাদের উপরের দিক থেকে এসেছে। আমি এবং আমার বউ এ'কথা জোর দিয়ে বলতে পারি সাতকড়া দিয়ে রান্না করা গরুর মাংস অসাধারণ। তবে কোরবানীর ঝুরা মাংসের কাছে দুনিয়ার সব মাংস বাঁদী-গোলাম। সাতকড়া দিয়ে রান্না করা মাছ-মুরগী-নিরামিষ খাইনি তাই তার স্বাদ বলতে পারব না।



তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

সাতকরার অপমান প্রতিরোধ কমিটি ( যাচাইয়ের ধার ধারি না ) এর ছবি

পোস্ট পড়ে যারা হা হুতাশ করছেন যে এই বেহেশতী ফলের আচার খাওয়া হলো না , সেই জনগন এই বেহেশতী ফলের আচার দুনিয়াতেই উপভোগ করতে সিলেটী মেগাস্টোর নন্দন এ খোঁজ নিতে পারেন।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

দেঁতো হাসি

...........................

সংশোধনহীন স্বপ্ন দেখার স্বপ্ন দেখি একদিন

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

আপনার পরিচিতি পড়েই মজা লাগছে।

স্বপ্নাহত এর ছবি

বুঝলাম যে সাতকড়া নামক একটা বস্তু দুনিয়ায় আছে। এবং কমেন্টের ধরণ এবং পরিসর দেখে মালুম হয় তাহা হাতকড়ার চেয়ে কম ভয়াবহ কিছু নয় মন খারাপ

---------------------------------

তবে যে ভারি ল্যাজ উঁচিয়ে পুটুস্‌ পাটুস্‌ চাও?!

---------------------------------

বাঁইচ্যা আছি

কৌতুহলী এর ছবি

মরা পোস্ট জাগাইলাম হাসি

সবাই সাতকরা নিয়ে এত কথা বললেন, কিন্তু সাতকরার আসল তরকারী--টক ঝোল--এর কথা কেউ বললেননা। সিলেটিরা অনেকেই শেষ পাতে ডালের বদলে একটা পাতলা, টক ঝোল খান, সেটা সাতকরা আর মাছের কাঁটাকুটা দিয়ে তৈরী হয়। সেইটাই সাতকরার আসল ব্যাবহার হাসি

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- শক্ত মুরগা আনছি বাজার থিকা। নিকোবিনার আচার নাই, কী জানি একটা রসুনের আচার আছে। ঐটা দিয়া "মুরগি গার্লিকাতি" রান্ধুম এখন।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

ওয়াইল্ড-স্কোপ [অতিথি] এর ছবি

এইটা ট্রাই মারতে পারেন

তুলিরেখা এর ছবি

করলেন? খেলেন? গার্লিকাতি?
-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।