দুর্নীতিতে জিপিএ ৫!

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি
লিখেছেন প্রকৃতিপ্রেমিক (তারিখ: বিষ্যুদ, ২৭/০৮/২০০৯ - ৭:৪০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ইদানিং পত্রিকা প্রায়ই পড়া হয়না। আজ প্রথম আলো পড়তে গিয়ে হঠাৎ করে একটা খবরে চোখ আটকে গেল। রাজশাহীর মেয়র নাকি রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে বদলীর হুমকি দিয়েছে। কারণ তার মেয়ের খাতা পুনঃনিরীক্ষণ করার পরেও সে জিপিএ ৫ পায়নি!!

খবরটি পড়েই নিজের এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনের কথা মনে পড়লো। পরীক্ষার পরে আমার এক বন্ধুর বাবা আরেক বন্ধুকে জিজ্ঞেস করেছিল আমরা পরীক্ষার প্রশ্ন ট্রশ্ন আগে থেকেই পেয়েছিলাম কীনা। তাঁর সন্দেহের কারণ-- আমি পরীক্ষা দিয়ে বলেছিলাম পরীক্ষা ভালো হয়েছে। হা হা হা ... পরীক্ষা দিয়ে আমি সবসময়ই বলি পরীক্ষা ভালো হয়েছে।

সে যাই হোক। দুর্নীতি দমনের কথা আমরা সবসময়ই বলি। সরকারে চোদ্দ গুষ্টি উদ্ধার করে ফেলি। নানা কমিশন তৈরী করি। কিন্তু ব্যক্তিগত পর্যায়ে দুর্নীতি না থামালে সরকার কী করবে, আর কমিশনই বা কয়জনকে ধরে হয়রানি (!) করবে?

আসুন সবাই একটু ভেবে দেখি আর হিসাব করি ব্যক্তি পর্যায়ে আমরা দৈনিক কয়টা করে দুর্নীতি করি (এবং কোনভাবে সেগুলো কমাতে পারি কী না)।

যারা পড়েননি তারা খবরটা পড়েন:

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে বদলির হুমকি মেয়রের
কারণ মেয়ে জিপিএ-৫ পায়নি

-রাজশাহী অফিস

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানকে বদলি করার হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এসএসসি পরীক্ষার উত্তরপত্র পুনরায় নিরীক্ষার পরও তাঁর মেয়ে জিপিএ-৫ না পাওয়ায় মেয়র চেয়ারম্যানকে হুমকি দেন।

বোর্ড সুত্রে জানা গেছে, এই বোর্ডের আওতায় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে দুই হাজার ৩০০ শিক্ষার্থী উত্তরপত্র পুনর্নিরীক্ষার আবেদন করে। এর মধ্যে আট শিক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। ফল পরিবর্তন হয় মোট ২৩ জনের। আবেদনকারীদের মধ্যে মেয়রের মেয়েও ছিল। সে শহরের পিএন সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৪.৫৬ পেয়েছে।

সুত্র জানায়, গত ২২ জুন নিয়ম অনুযায়ী তার পরীক্ষার উত্তরপত্র পুনর্মুল্যায়নের জন্য পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বরাবর আবেদন করা হয়। এরপর মেয়রের পক্ষ থেকে লোক পাঠিয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যানকে উত্তরপত্রটি ভালো করে দেখার জন্য বলা হয়। উত্তরপত্র পুনর্মুল্যায়নের পর দেখা যায়, বাংলায় ‘এ মাইনাস’ এবং ইংরেজি, গণিত ও রসায়নে ‘এ’ পাওয়ার কারণে সে জিপিএ-৫ পায়নি। উত্তরপত্র পুনর্মুল্যায়নেও তার গ্রেড পয়েন্টের কোনো পরিবর্তন হয়নি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক দ্বীপকেন্দ্রনাথ দাশ প্রথম আলোকে বলেন, মেয়র ১৮ আগস্ট রাত ১১টা ৪৮ মিনিটে মোবাইলে ফোন করে ‘কাজটি করে দিলেন না কেন’ বলে তাঁর সঙ্গে অশোভন কথাবার্তা বলেন। রাত ১১টা ৫৬ মিনিট পর্যন্ত মেয়র তাঁর সঙ্গে এভাবেই কথা বলেন। গত মঙ্গলবার বিকেলে দ্বিতীয় দফা ফোন করে মেয়র তাঁকে রাজশাহী থেকে বদলি করার কথা বলেন।

এ ব্যাপারে মেয়র খায়রুজ্জামানের সঙ্গে প্রথম আলোর পক্ষ থেকে মঙ্গলবার বিকেলে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো কথা বলতে চাননি। ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি বলেন, ‘হাতে কলম আছে, যা খুশি তাই লেখ।’

বিষয়টি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলামকে জানানো হয়েছে। তবে এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী কোনো মন্তব্য করেননি।


মন্তব্য

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

(দীর্ঘশ্বাস)

দুর্নীতি হ্রস্ব হোক, দীর্ঘ নয় - এমনটিই চাওয়া চোখ টিপি

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

ধন্যবান বানান ভুলটা ধরে দেয়ার জন্য। ঠিক করে দিলাম।

মন্তব্যটা ঘ্যাচাং করতে পারতাম। কিন্তু তাতে একটা দুর্নীতি হতো। সেটা না করে একটা দুর্নীতি তো কমালাম হাসি

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

ধন্যবাদটি 'দ' দিয়েই দেয়া হোক চোখ টিপি

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

রেগে টং

এগুলোই স্মৃতি হয়ে থাকবে, শিমুল। কোনদিন ভোলা যাবেনা। তাই এভাবেই থেকে যাক।

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

আমিও তা-ই ভাবি...
কোনো এক অবসরে পুরনো পোস্ট পড়তে এসব কমেন্ট চোখে পড়বে, একদিন - অনেকদিন পরে... ঃ)

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

অদ্ভুত এই দেশ! অদ্ভুত তার নেতারা!! আরও অদ্ভুত যারা এদের মেয়র নির্বাচিত করে!!!

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

মামুন হক এর ছবি

আমিও তাই ভাবছিলাম মুর্শেদ ভাই।
কে বানাইলো এরে মেয়র, এর তো মেথর হওয়ার যোগ্যতাও নাই ।

আকতার আহমেদ এর ছবি

আমরাই বানাইছি। অন্য দেশ বা গ্রহ থেকে এসে কেউ বানায় নাই!

ষষ্ঠ পাণ্ডব এর ছবি

এই মেয়র জাতীয় নেতা এ এইচ এম কামরুজ্জামানের পুত্র। ভাবতে অবাক লাগে জাতীয় নেতার পুত্ররা এমন হচ্ছেন কেন? প্রসঙ্গতঃ সোহেল তাজের কথা স্মরণ করতে পারেন।



তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।


তোমার সঞ্চয়
দিনান্তে নিশান্তে শুধু পথপ্রান্তে ফেলে যেতে হয়।

কীর্তিনাশা এর ছবি

মন খারাপ

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

দূর্নীতি দমনের কথা আমরা সবসময়ই বলি।
প্রকৃতিপ্রেমিক ভাই, চলুন দুর্নীতিকে আরো একটু হ্রস্ব করি চোখ টিপি

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

কাগজে কলমে হ্রস্ব করলে আর কী হবে প্রহরী বাস্তবে যদি এর প্রতিফলন না হয়? আচ্ছা যাও হ্রস্ব করে দিলাম।

সুহান রিজওয়ান এর ছবি

আমি একটা জিনিস বুঝতাসি না। ৪.৯৬ হইলে কথা ছিলো, পাইসে তো ৪.৫৬ - এই আবেদন করে ক্যাম্নে ?? ! ! !
---------------------------------------------------------------------------
- আমি ভালোবাসি মেঘ। যে মেঘেরা উড়ে যায় এই ওখানে- ওই সেখানে।সত্যি, কী বিস্ময়কর ওই মেঘদল !!!

শাহেনশাহ সিমন [অতিথি] এর ছবি

সকালে পড়েছিলাম এটা। আর রাতে টিভি চ্যানেলে দেখেছিলাম প্যারাসিটামল খেয়ে মরার দৃশ্য আর তার পক্ষে সাফাই, 'মানুষ তো অনেকভাবেই মরে'!

আমরা বোধহয় বোধহীন পাথর হয়ে যাচ্ছি!

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

আমার বন্ধু মান্নু একটা সিরিয়াল বানাইছে... "কারো কোনো নীতি নাই" কোন চ্যানেলে জানি চলে...
আর বাস্তব নাটকটা চলে দেশজুড়ে...
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

আর বাস্তব নাটকটা চলে দেশজুড়ে...

অছ্যুৎ বলাই এর ছবি

মেয়রের সাথে একমত। এত পরিশ্রম করে জিপিএ সিস্টেম বানানো হলো যাতে নেতানেত্রীদের ছেলেমেয়ে জনসেবা করতে করতে হাপিয়ে উঠে পড়াশুনার জন্য যে অল্প সময় পায়, তাতেই যেন অন্যদের সমান ভালো রেজাল্ট করতে পারে। এখন মেয়রের মাইয়াই যদি ৫ না পায়, তাইলে কেমনে কি? তয় একটা জিনিস শিক্ষাবোর্ডের লোকজনও কম জাউরা না।

---------
চাবি থাকনই শেষ কথা নয়; তালার হদিস রাখতে হইবো

রাফি এর ছবি

এদের আত্মসম্মানবোধ বলে কি কোন ব্যাপার নেই???
এজন্যই নেতা-নেত্রীদের ছেলেমেয়েদের দেশে পড়ালেখা করতে নাই..
দেখা যাক এর ফলো আপ নিউজ কী হয়?

---------------------------------------
আমি সব দেবতারে ছেড়ে
আমার প্রাণের কাছে চলে আসি,
বলি আমি এই হৃদয়েরে;
সে কেন জলের মতন ঘুরে ঘুরে একা কথা কয়!

---------------------------------------
আমি সব দেবতারে ছেড়ে
আমার প্রাণের কাছে চলে আসি,
বলি আমি এই হৃদয়েরে;
সে কেন জলের মতন ঘুরে ঘুরে একা কথা কয়!

তীরন্দাজ এর ছবি

বলতে খুব কষ্ট হলেও, আমাদের দেশের জন্যে এটাই স্বাভাবিকবলে ধরে নিতে হয় প্রতিবারই।
**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

সচল জাহিদ এর ছবি

কিছুই বলার নেই। দেখা যাক সরকার কি পদক্ষেপ নেয়। যদি কিছু না করে তাহলে বুঝব দেশ থেকে সবকিছুই একেবারে গেছে।

-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

আরিফ জেবতিক এর ছবি

নেতার মেয়ে যে কষ্ট করে পরীক্ষা দিয়েছে এটাই তো রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের চোদ্দ গুষ্ঠির ভাগ্য।
ভবিষ্যতে সরাসরি সার্টিফিকেট ইস্যু করে দেয়া হোক, এতো ঝামেলা করার দরকার কী ?

ওয়াইল্ড-স্কোপ এর ছবি

হো হো হো - আগে চোখ এড়িয়ে গিয়েছিলো, মজার পোস্ট. চলুক হাততালি

তানবীরা এর ছবি

বিষয়টি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলামকে জানানো হয়েছে। তবে এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে শিক্ষামন্ত্রী কোনো মন্তব্য করেননি।

অবশ্যই না। সারা বেলা হাজার কথা কইলেও এখন থাকবেন স্পীকটি নট হয়ে।

যাহা লাউ তাহাই কদু
কইয়া গেছিলো মদু
---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

যে দেশে যেমন!
----------------------------------------
শুধু শরীরে জেগে থাকে শরীরঘর
মধ্যবর্তী চরকায় খেয়ালী রোদের হাড়
http://meghpalki.blogspot.com/

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।