শুধুই কি হতাশা? শুরু হোক ঘুরে দাড়ানোর দিন

রেজওয়ান এর ছবি
লিখেছেন রেজওয়ান (তারিখ: বিষ্যুদ, ২৭/০৩/২০০৮ - ২:৪৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

স্বাধীনতা দিবস আসলেই আমরা বিভিন্ন ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখি। প্রচারমাধ্যমে ফুটেজ, বিবিধ ক্রোড়পত্র, আমাদের বিচ্ছিন্ন আবেগ, সুবিধাবাদীদের দেশ দরদী বনে যাওয়া, বিশ্বাসঘাতকদের অস্বীকার এবং রাসেলের কথায় মুক্তিযুদ্ধের হলিউডাইজেশন

আমরা মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কে সবই জানছি, শুনছি ভাসা ভাসা ভাবে। বিভিন্ন সরকারের আমলে বিভিন্ন ভাবে মুক্তিযুদ্ধকে উপস্থাপন করা হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ দলিলপত্র ছাপা হয়েছে কিন্তু তা অনেক খন্ডের বলে হয়ত বর্তমান প্রজন্ম পড়বে না। বাংলায়ই রয়েছে এত কটা বই। পড়বে কে?

এজন্যে দরকার একটি বিশেষ লাইব্রেরী বা আর্কাইভ যেখানে সব দলিলপত্র, বই, পেপার কাটিং, তথ্যাদি জমা থাকবে এবং ইচ্ছা মত তথ্য বের করা যাবে।

এই কাজটি অনলাইনে করলে ভাল। সার্চ ইন্জিনের মাধ্যমে কাঙ্খিত তথ্য সহজেই খুঁজে পাওয়া যায়। কিন্তু এটি করবে কে?

মুক্তিযুদ্ধ এতো এক বিশাল ব্যাপার। এতো কারো একার পক্ষে সম্ভব নয়। কিন্তু এই অসম্ভবেরই সুযোগ নেয় কিছু অসাধূ লোক। তারা মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে বেসাতী করে, রাজনৈতিক ফায়দা লোটে। মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে এখন সরকারী চাকুরীর কোটা বেসাতী। ইতিহাস বিকৃত করে এ ওর নাম রওশন করার বেসাতী।

আমি এত বড় ভূমিকা দিলাম একটি ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানানোর জন্যে। যদিও সচল নীতি রয়েছে যে কারো নিজস্ব ক্যাম্পেইন করা যাবে না তবুও আমি এটি জানাচ্ছি কারন আমি এটিতে সম্পৃক্ত হলেও এর বিষয়বস্তু সার্বজনীন। এবং একে সামনে নিয়ে যাওয়াটা আপনাদের উপরই বর্তায়।

হ্যা আমি বলছি বাংলাদেশ গণহত্যা আর্কাইভ সম্পর্কে। এটির উদ্যোগে রয়েছে বাংলাদেশী কিছু ব্লগার যারা মূলত ইংরেজীতে ব্লগিং করে। গত ডিসেম্বর থেকে আমি এর কাজে হাত দেই। এটি আসলে মৌলিক রচনা নয় কারন ইতিহাস রচনা করার জিনিষ নয়। এটি লিপিবদ্ধ করার জিনিষ। আমার কাজটি এটিই ছিল বিভিন্ন দলিলপত্রাদি, পেপারকাটিং, ভিডিও, অডিও, ইতিহাস, প্রত্যক্ষদর্শীর বিবরণ, মুক্তিযদ্ধ নিয়ে বিভিন্ন লেখা, বিতর্ক ইত্যাদি নানাকিছু লিপিবদ্ধ করা। এটি শুরু মাত্র এবং এটি আরও সমৃদ্ধ হতেই থাকবে।

এর জন্য অবশ্যই ধন্যবাদ এইসব বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংস্থাকে যারা এতদিন ধরে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন মুক্তিযুদ্ধের তথ্যাবলী অনলাইনে সবার কাছে পৌছানোর জন্যে। তাদের এই সাইট গুলো হয়ত কেউ আগে দেখেনি। এখন এই আর্কাইভ থেকে সহজেই সেসব সাইটে চলে যেতে পারা যাবে। আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় রয়েছে যে যে কোন সাইট তৈরি করা সহজ, কিন্তু মেইনটেইন করা কঠিন। অরুপের করা একটি সাইট ছিল যা বহু আগে দেখে মুগ্ধ হয়েছিলাম। কিন্তু এখন ওটি ওয়েব আর্কাইভ থেকেও পাওয়া যায় না। আমার এই আর্কাইভে কাজ করার সময় এটিও মনে হয়েছে এইসব সাইটের কন্টেন্ট রক্ষা করাও আমাদের কর্তব্য।

আপনাদের আর বিরক্ত করব না। তবে অনুরোধ করব বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও গণহত্যা সম্পর্কে কোন তথ্য জানতে চাইলে এই আর্কাইভটি খুঁজে দেখতে। আর যদি মনে হয় আরও তথ্য ওখানে যোগ করা দরকার তাহলে অবশ্যই লিন্কটি দিয়ে দেবেন।


মন্তব্য

সংসারে এক সন্ন্যাসী এর ছবি

সাইটটায় ঘুরতে শুরু করে আবেগে আমার কান্না পেয়ে গেল। তবে বুকে বল পেলাম, বিশ্বাস পেলাম: আমাদের স্বাধীনতার ইতিহাস হারিয়ে যাবে না।

সাইটটার সাথে জড়িত সকলকে আমার প্রাণঢালা অভিনন্দন আর কৃতজ্ঞতা।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
টাকা দিয়ে যা কেনা যায় না, তার পেছনেই সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হয় কেনু, কেনু, কেনু? চিন্তিত

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

বুকমার্ক করে রাখলাম
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

মুহম্মদ জুবায়ের এর ছবি

ধন্যবাদ এই খোঁজখবরগুলি দেওয়ার জন্যে।

-----------------------------------------------
ছি ছি এত্তা জঞ্জাল!

কনফুসিয়াস এর ছবি

রেজওয়ান ভাই,
অসাধারণ একটা উদ্যোগ।
তবে আশংকা হয়। এরকম একটা উদ্যোগ যেন মাঝপথে থেমে না যায় কোন কারণে- শুভকামনা রইলো।
-----------------------------------
... করি বাংলায় চিৎকার ...

-----------------------------------
বই,আর্ট, নানা কিছু এবং বইদ্বীপ

শেখ জলিল এর ছবি

উত্তম প্রস্তাব, ভালো উদ্যোগ। বুকমার্ক করে রাখলাম।

যতবার তাকে পাই মৃত্যুর শীতল ঢেউ এসে থামে বুকে
আমার জীবন নিয়ে সে থাকে আনন্দ ও স্পর্শের সুখে!

হিমু এর ছবি
দ্রোহী এর ছবি

কি কাকতালীয় ব্যাপার! গতকাল ২৬ শে মার্চ রাতে কয়েকজন ভারতীয় বন্ধুকে একাত্তরের গণহত্যার ছবি দেখাতে গিয়ে কিভাবে যেন এই ওয়েবপেজে চলে গিয়েছিলাম!

রেজওয়ান ভাই, আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এই অসাধারণ সাইটটিকে সবার সামনে তুলে ধরার জন্য।


কি মাঝি? ডরাইলা?

বিপ্লব রহমান এর ছবি

শুধুই কী হতাশা? শুরু হোক ঘুরে দাঁড়ানোর দিন!

স্যালুট @ রেজওয়ান।


আমাদের চিন্তাই আমাদের আগামী: গৌতম বুদ্ধ


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।