অরূপের কাছে

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি
লিখেছেন লুৎফর রহমান রিটন (তারিখ: বিষ্যুদ, ০৭/০৫/২০০৯ - ১:১৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

মুহম্মদ জুবায়েরের প্রবল প্ররোচনায় প্রথম সচলায়তনে আসার পর প্রথমেই আমার চোখ কেড়ে নিয়েছিলো এর অপরূপ ব্যানারটি। চোখকাড়া অসাধারণ দৃষ্টিনন্দন ব্যানারটি করে দিয়েছেন কোন সে কারিগর? ছবি রঙ লোগো লেটারিং কম্পোজিশন সব মিলিয়ে এক কথায় অপরূপ সেই ব্যানারটির নির্মাতার খোঁজ নিতে গিয়ে জানলাম নাম তাঁর অরূপ। অরূপ নামের অপরূপ ব্যানারের শিল্পীটি আমার ব্যক্তিগত পছন্দের তালিকায় চলে এলেন। প্রায়ই বদলে যায় সচলায়তনের ব্যানার আর একেকটা ব্যানার বদলের সঙ্গে সঙ্গে আমার মুগ্ধতাও বৃদ্ধি পেতে থাকে। অরূপের করা ব্যানারগুলোয় স্নিগ্ধতার পাশাপাশি প্রয়োজনে যুক্ত হতো কখনো দ্রোহ কখনো মমতা আবার কখনো কখনো তারুণ্যের প্রবল উচ্ছ্বাস।

আচ্ছা, লেখাটায় অরূপের করা ব্যানারগুলোর কথা বলতে গিয়ে আমি পাস্ট টেন্স ব্যবহার করছি কেনো আগাগোড়া? অরূপ কি সহসা আমার মতো নগণ্য একজনের মুগ্ধতা বাড়াতে এগিয়ে আসবে না?


মন্তব্য

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

কী বুঝাতে চাইছেন ঠিক মত না বুঝলেও এখনকার ব্যানারগুলা দেখছেন? একেবারে যাকে বলে লিকুইড ব্যানার, মনে হয় রং এখনই গড়িয়ে পড়বে হাসি

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

ঠিক।

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

নজরুল ইসলাম এর ছবি

সহমত জানাইলাম... সচলের পুরান কিছু ব্যানার অনেক জোশ ছিলো। তার সবই অরূপের করা জানি। মাঝে মাঝে সেগুলার পুনরাবৃত্তি চাই।
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

আমিও চাই।

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

এনকিদু এর ছবি

ইদানিং মুস্তাফিজ প্রায়ই নতুন নতুন ব্যানার দিচ্ছেন । মুস্তাফিজ ভাইয়ের ব্যানার গুলোর একটা বৈশিষ্ট্য হল অনেক রঙের সমাহার । আর অরূপ ভাইয়ের গুলোর মধ্যে একটা সোচ্চার পোস্টার ভাব থাকত । দুটাই ভাল লাগে ।


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

হুম।

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

অবাঞ্ছিত এর ছবি

ঘটনা বুঝলাম না। উনিও কি গোস্যা করসেন ? আপনার ছবিখানা সবার সামনে ফাঁস করে দেয়ায় মাইর টাইর দিসেন নাকি আবার?

খালি ব্যানার দিলেই হবে না.. আমার উনার কাছে আপনার ঐ ছবির মতন আরো ছবিও চাই..
__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

মাইর এখনো দেই নাই তবে মনে হয় দিতে হবে। তাতে আবার ম্যালা খরচ। কানাডা থেকে মালয়েশিয়ার রিটার্ণ টিকিট কিনতে সবচে সস্তা কোন এয়ারলাইন্স?

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

অবাঞ্ছিত এর ছবি

কোনো ধারনা নাই স্যার। তয় "পনিটেইল এয়ার" সবচেয়ে সস্তা হইবার কথা। দেঁতো হাসি

(অনেকদিন আপনার নতুন ছড়া পড়ি না। নগন্য পাঠকের চাহিদা শীঘ্রই মিটাইবেন আশা রাখি)
__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

[quote]"পনিটেইল এয়ার" সবচেয়ে সস্তা হইবার কথা।

হাহ্‌হাহ্‌হাহ্‌...এই এয়ারলাইন্সের কথা তো ভুলেই গিয়েছিলাম!

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

আলমগীর এর ছবি

নিশ্চয়ই আসবে!

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

কিন্তু আসতে হবে জরুরী ভিত্তিতে।
একটা নতুন ব্যানার চাই ওর কাছে। কেনো?
ব্যাখ্যা করছি একটু পরে।

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

অপেক্ষা করে আছি...

নীল [অতিথি] এর ছবি

-সহমত

লুৎফুল আরেফীন এর ছবি

রিটন ভাই,
(ঠিকঠাক বুঝে থাকলে) আপনারা বড় মানুষেরা কেমনে জানি সাধারন কথার মোড়কে ভারী কথাগুলো বলে ফেলেন অবলীলায়।
সবকিছু সদা সর্বদা ঠিকঠাক থাকে না, কিন্তু থাকলে যে কি ভালো লাগে!
___________________________
বাংলাদেশ আমার বাংলাদেশ

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

ভারী কথার মোড়কে এবার আমার সাধারণ কথাটি বলে ফেলি--
আগামীকাল পঁচিশে বইশাখ (অইকার ক্যাম্নে দেয়?) কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন। আমি একটা ছড়া পোস্ট করতে চাই। কিন্তু অরূপের করা নতুন ব্যানার ছাড়া তো সেটা করা যাচ্ছে না!

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

ইশতিয়াক রউফ এর ছবি

অইকার ক্যাম্নে দেয়?

অভ্র ব্যবহার করলে ঐ-কার লিখতে OI লিখুন। kOI = কৈ।

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- রিটন ভাই, অরূপ অবশ্যই আসবে। আমরা জীবনের খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা সময়ে একই শিক্ষকের শিক্ষা গ্রহণ করেছি, একই ক্যান্টিনে খেয়েছি, একই দালানে বসে পরীক্ষা দিয়েছি, একই ল্যাব ব্যবহার করেছি, হয়তোবা কখনো সিঁড়ি দিয়ে নামতে গিয়ে একে অন্যের সঙ্গে ধাক্কাও খেয়েছি বিস্তর। সেই পূ্র্ব পরিচয় (বা অপরিচয়) ব্যতিরেকেই, এই ভার্চুয়াল পৃথিবীতেই আমি ব্যক্তিগতভাবে অরূপকে যতোটুকু জেনেছি, চিনেছি, সে একটু রগচটা, কিন্তু মাথামোটা সে কিছুতেই না। গুণীর কদরে সে মোটেও অবহেলা করার মতো না। বন্ধুতাকে সে কখনো অস্বীকার করার মতো ব্যক্তিত্ব না। ঘাড়ের রগ একটা ত্যাড়া তার, সেটা তো আমাদের বুঝি সবারই। এই ত্যাড়া রগ আর রগচটা স্বভাবের কারণে মাথায় যা আসে হুটহাট বলে ফেলে। কিন্তু তার ভেতরটা আপনি দেখেছেন। তার করা একটা ব্যানারই আপনাকে সেটা দেখিয়েছে। সে যে নির্বান্ধব কথা ব্যবহার করেছে সম্প্রতি, তার প্রতিকার অবশ্যই ছিলো। সেটা নিয়ে কথা বলার জন্য আপনি ছিলেন অগ্রজ হিসেবে, আমরা ছিলাম বন্ধু হিসেবে। আগেই বলেছি, অরূপ মাথামোটা না। সে যে অশালীন কথা বলেছে এটা তাকে বুঝানো যেতো। কিন্তু তার জন্য যে পথ বেছে নেয়া হয়েছে সেটা কোনো ভাবেই একজন প্রকৃত শুভাকাঙ্খীর পথ নয়। সেই পথ থেকে উঠে আসা মন্তব্যরাশি ঘটিত ঘটনার চেয়েও বহুলাংশে অপমানজনক, অরূপের জন্যও এবং তার যে শুভাকাঙ্খী বন্ধু পথটি বেছে নিলেন তাঁর জন্যও। পুরো ব্যাপারটিই অন্য পথে, খুবই সুন্দর করে সমাধান করা যেতো! তাহলে হয়তো আপনাকে আপনার আশার কথাগুলো পাস্ট টেন্স-এ লিখতে হতো না এখনি।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

ধুসর গোধূলি, আপনাদের বন্ধুত্বের সম্পর্কটা যে মোটেও ঠুনকো নয় তা আমি জানি। আর সচলায়তনের প্রতি আপনাদের প্রত্যেকের ভালোবাসা আর দায়টাও আমার কাছে পরিস্কার।

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

জিজ্ঞাসু এর ছবি

মন্তব্যরাশি আমি পড়েছি। অন্যপক্ষ প্রকৃত ঘটনা না বুঝে মন্তব্য করলে এমন মন্তব্যই হয়। এ জন্যই ঘটনার চেয়ে মন্তব্য করা উচিত হিসেব করে। যাই হোক, অন্যপক্ষের মন্তব্যে আমার কিছু যায় আসে না। কারণ একটা কথা আমি বিশ্বাস করি ঘরের লোকেই আমাকে সবচেয়ে বেশি অপমান করতে পারে - যা বাইরের লোকে পারে না। বন্ধুত্ব জিনিসটা অনেক বড় ও গভীর, সেটা বোঝে কয় জনা!!

___________________
সহজ কথা যায়না বলা সহজে

কীর্তিনাশা এর ছবি

অরূপ ভাই'র কাছ থেকে অনেক দিন ছবি পোস্টও পাই না।

ব্যানারের পাশাপাশি ছবি পোস্টের দাবি জানিয়ে গেলাম হাসি

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

তীরন্দাজ এর ছবি

অরূপ কি বলেছেন, চলে যাবেন! এমন কথা তো শুনিনি? সলায়তনকে সৃষ্টি করেছেন নিজে, তাকে কি ছাড়া যায়? সৃষ্টি যে করে, সে কখনও ছাড়তে পারে না।

আমার ছবছরের ছেলের সাথে একদিন তর্ক হচ্ছিল। এক পর্যায়ে কান্না শুরু করলো ও। আমিও রেগে গিয়েছিলাম। এক সময় রেগে বল্লাম, তুমি আমার ছেলেই না!

এ আমার দিকে তাকালো একবার। তক্ষুনি কান্না ভুলে হাসা শুরু করলো ও। বললো,

এটা ঠিক বলো নি বাবা, যতো কিছুই বলো না কেনো, ছেলে আমি তোমারই। এর থেকে মুক্তি তোমার নেই!

-- তেমনি সচলায়তন থেকে অরূপের মুক্তিও হতে পারে না।

**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

চলে যাবার কথা আসছে কেন?
অরূপ চলে যাবেন এমন কথা আমিও কিন্তু বলি নি!

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

ঠিক বলেছেন।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির
এই একাউন্টটি কোন মডারেটরের নয়। এই একাউন্ট থেকে মডারেশন করা হয়না, কিংবা এই একাউন্টের কর্মকান্ডের দায়ভার সচলায়তন নেবে না।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

তক্ষুনি কান্না ভুলে হাসা শুরু করলো ও।
আপনার ছেলের সেন্স অব হিউমার তো সাংঘাতিক। আপনার চেয়ে বড় তীরন্দাজ হবে, সন্দেহ নেই তাতে।

মামুন হক এর ছবি

এই লেখাটা পড়তে পড়তেই মনে হয় ব্যানারটা বদলে যেতে দেখলাম।
দুর্দান্ত হয়েছে!!!
এমন গুনী ব্যানারওয়ালাকে জানাই হাজার সালাম!

নজরুল ইসলাম এর ছবি

আজকের ব্যানারটা আসলেই সুন্দর হইছে
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

সৌরভ (জীবনের প্রথম কমেন্ট অফিস থিকা) এর ছবি

অরুপ ভাইরে ছাড়তেসে কে? মারি পিডি তক্তা বানানো হবি।

পলাশ দত্ত এর ছবি

চলে যাবার কথা আসছে কেন?

==========================
পৃথিবীর তাবৎ গ্রাম আজ বসন্তের মতো ক্ষীণায়ু

==========================
পৃথিবীর তাবৎ গ্রাম আজ বসন্তের মতো ক্ষীণায়ু

অনিকেত এর ছবি

চমৎকার ব্যানার হয়েছে, অরূপ!!

বিপ্লব রহমান এর ছবি

এখন সোনার দর কতো? অরূপ দার ২৫ শে বৈশাখের ব্যানারটা সোনা দিয়ে বাধিয়ে রাখতে মন চায়! উত্তম জাঝা!


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

লুৎফর রহমান রিটন এর ছবি

বান্ধাও।
লাগে ট্যাকা ভাগে দিমু, না লাগলে একলাই দিমু.........

হাবু বেশ বড়সড়,গাবুটা তো পিচ্চি
হেরে গিয়ে হাবু বলে--উৎসাহ দিচ্ছি!

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA