নীল নির্জনে

তুলিরেখা এর ছবি
লিখেছেন তুলিরেখা (তারিখ: সোম, ২৪/০৬/২০১৩ - ১০:৪০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

একাকী নদীটির ধারা আলোর সীমা ছাড়িয়ে সন্ধ্যার দিকে চলে গেছে চুপচাপ। গভীর, নীল, নির্জন স্রোত। আধা ঘুম, আধো জাগা সেই ধারা বয়ে চলেছে নিজেরই নীলাভ সবুজ স্বপ্নের ভিতর দিয়ে।

সেই স্বপ্নের আকাশ ভরে ওঠে রাশি রাশি তীরে, মাঠ ভরে ওঠে ধনুকে। শয়ে শয়ে হাজারে হাজারে তীর ছুটে আসছে অবিরল। গাঢ় লোহিতবর্ণে ভরে যাচ্ছে অতীত, বর্তমান, ভবিষ্যৎ। হঠাৎ ঘূর্ণীঝড় আসে দস্যুর মত, উথাল পাথাল চরাচর। মড় মড় করে ভেঙে পড়ে বনস্পতিরা। পাখিদের বাসাগুলো খেলনার মতন ভেঙে পড়েছে, মরে গেছে ছানাগুলো, ভেঙে গেছে ডিমগুলো।

ঝড় থেমে আকাশ পরিষ্কার হয় আবার, একটা দুটো করে দেখা দিতে থাকে তারা, ভেলভেটের মতন রাত্রিনীল আকাশে। কে যেন কী খুঁজছে আলো জ্বেলে, কে যেন আজও তৃষার্ত হয়ে আছে ভালোবাসার ঝর্ণার জন্য। কবে সে খুঁজে পাবে সেই ঝর্ণা?

কালিন্দীর কালো স্রোতোধারা
পার হয়ে বিকালের বাধা
সন্ধ্যার দিকে যেতে যেতে
নিরলে ঘুমিয়ে পড়ে আধা।

আকাশে ধনুক আর তীর
পলাতক ছায়াদের ভীড়
ঝড় এসে ভেঙে রেখে গেছে
কবোষ্ণ কবুতর নীড়।

আকাশ তবুও খোঁজে কাশ
নদীতীরে গুহাচিত্রিনী-
তৃষার্ত সাত বীণাতারে
জেগে ওঠে সুর-আলাপনী।

পথিক তারারা জাগে গানে,
যেতে হবে দূর বহুদূর,
নীহারিকা ডানা মেলা পাখি
পাখায় লুকানো কোহিনূর।

*******


মন্তব্য

অতিথি লেখক এর ছবি

চলুক
ইসরাত

তুলিরেখা এর ছবি

আপনারে অসংখ্য -ধইন্যাপাতা-

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

মাহবুব মুহাম্মদ এর ছবি

গদ্যের সাথে পদ্যের ভালোবাসা, কোথাও যেন একটুখানি তাল কেটে গেছে।
তবু ভালো লেগেছে ।

তুলিরেখা এর ছবি

কঠোর গদ্যপাহাড় আর কোমল কবিতা নদী --- বড়ই ভিন্নপ্রকৃতি। তবু মাঝে মাঝে এরাও মিলে যায়।
পড়ার জন্য ও মন্তব্যের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনারে অসংখ্য -ধইন্যাপাতা-

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

আশালতা এর ছবি

বাহ্‌! হাসি

----------------
স্বপ্ন হোক শক্তি

তুলিরেখা এর ছবি

আপনারে অসংখ্য -ধইন্যাপাতা-

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।