কেন নয়ন আপনি ভেসে যায়

আহির ভৈরব এর ছবি
লিখেছেন আহির ভৈরব [অতিথি] (তারিখ: মঙ্গল, ২৯/০৯/২০০৯ - ৭:০১অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

স্যুটকেসটা বেশ বড় ছিল। যতদিন বিছানার নিচের জায়গাটা জুড়ে ছিল বোঝা যায়নি। এখন শূন্যতার মাপে বোঝা যাচ্ছে, শূন্যতাটি বিরাট। বিষন্ন লাগছে হঠাৎ।

অথচ এমন তো লাগার কথা ছিল না! বহুদিন ধরেই একই বাড়িতে থেকেও সম্পূর্ণ আলাদা ছিলাম আমরা। হাসি থেমে গিয়েছিলো অনেক আগেই, ইদানিং বন্ধ হয়েছিলো কথাও। এর কিন্তু কোনো নির্দিষ্ট কারন নেই, কোনো নির্দিষ্ট ঘটনার কথা বলতে পারি না যেখান থেকে এ দূরত্বের সৃষ্টি। সময়ই বোধ করি ঠেলে দিয়েছে দুদিকে দুজনকে। প্রথম প্রথম কাজের চাপে বাধ্য হয়ে দূরে থাকা। তারপর বাড়ির টান যত কমতে থাকলো, কাজও বেড়েই চল্লো সে অনুপাতে, দুজনেরই। বাড়ি ফিরতে ফিরতে অনেক রাত, তারপর ঘুম। সময় কোথায় অন্য কিছুর? একদিন প্রয়োজনের বাইরের সব কথা যেন ফুরিয়ে গেল।

তারপর অফিস পার্টিতে একদিন সুন্দরী সহকর্মীটি যখন একটু বেশীই ঘনিষ্ঠ হলো নাচের মঞ্চে, কই খারাপ লাগলো না তো? নিজেই বেশ অবাক হলাম। আমি দেখতে খারাপ নই, বরাবেরর ভালো ছাত্র, তার ওপর ভালো ফুটবলার ছিলাম এককালে, কাজেই কোনো মেয়ের কাছ থেকে এধরনের মনোযোগ আমার জন্য নতুন কিছু না। যা নতুন তা হলো এই খারাপ না লাগার উপলব্ধিটি। আমাদের প্রায় দশ বছরের সম্পর্কে অন্য কোনো মেয়ের দিকে দুবার তাকাই নি কখনও। আমার সমস্ত মনজুড়ে যে ছিলো তার সাথে - অন্তত আমার কাছে - তুলনা হতো না আর কারোও। তাই অন্য সবাই ছিলো অবান্তর। সে মোহও তবে আস্তে আস্তে ভাঙতে শুরু করেছে! অবাক তো হবারই কথা।

সেদিন যখন ও বল্লো "চাকরীটা নিয়েই নিলাম শেষ পর্যন্ত", প্রথম বুঝতে পারিনি কী বলছে। তারপর খেয়াল হলো, তাইতো, কী একটা চাকরীর কথা তো বলেছিলো ক'দিন আগে। বেশ বড়সড় পদ তবে...তবে তা ৩,০০০ মাইল দূরের কোনো দেশে, ভিন্ন মহাদেশে। যাক্ সিদ্ধান্তটা তাহলে ওর কাছ থেকেই এলো। মনে মনে বেশ আস্বস্ত হলাম। ইচ্ছা করে ওকে কখনও কষ্ট দিয়েছি বলে মনে পড়ে না। বিচ্ছেদের প্রশ্নটা তাই আমার পক্ষ থেকে তুলে ওকে দুঃখ দেয়ার ঝুঁকি নিতে বাঁধছিলো। হঠাৎ যেন আসন্ন মুক্তির স্বাদ পেলাম। তিলে তিলে, অতি যত্নে যে নীড় আমরা গড়েছিলাম তা আমাদের অজান্তেই ধীরে ধীরে একটি ইটের খাঁচায় পরিণত হয়েছে, আমাদেরই দোষে কিংবা অবহেলায়, নিদেনপক্ষে অমনোযোগে। তা'বলে নিজেদের কবর নিজেই খুড়ব এই দমবন্ধ সম্পর্কের সমাধিতে? সেটা কী আরো একটা - আরো বিরাট একটা - ভুল হবে না?

তারপরের দিনগুলি কেটে গেল দ্রুতই। ওকে নামিয়ে দিয়ে এলাম এয়ারপোর্টে আমি নিজেই, সেই স্যুটকেস সমেত, কাজে যাবার পথে। বাড়ি ফিরে এসে একটু যে একা লাগেনি তা না, কিন্তু একা তো আমি বহুদিন ধরেই।

আজকে ওর চলে যাবার পর প্রথম ছুটির দিন। অনেকদিন পর কফিটেবিলের ওপর কোনো লংকাকান্ড ছাড়াই জুতা তুলে টেলিভিশন দেখা গেল কিছুক্ষণ। তারপর এককাপ চা নিয়ে লিখতে বসেই খাটের নিচের শূন্যতায় চোখ পড়লো, মনে পড়ে গেল এত কথা! কিন্তু হঠাৎ কেন চোখ ভিজে আসে? দুটো প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের অনেক ভেবে চিন্তে নেয়া সিধান্তের ফল এ বিচ্ছেদ - চকিতে, রাগের মাথায়, তিক্ততায় ভরা তো এ সিদ্ধান্ত নয়! এই তো একমাত্র পথ ছিলো আমাদের সামনে?এই তো আমরা চেয়েছিলাম? এই কি আমরা চেয়েছিলাম? তবে হঠাৎ মাথাচাড়া দেয়া এ কষ্ট কোথা থেকে আসে? আহা, বিরাট শূন্যতা রেখে যাওয়া স্যুটকেসটা যে বড় ভারী, ও বইবে কেমন করে সে ভার? একা?

প্রিয় মডুদের প্রতি: গানটি গায়িকার অনুমতিক্রমে যোগ করছি লেখার সাথে। গানটির কপিরাইট আমার নিজের তাই আইনী ঝামেলামুক্ত। অনেক ধন্যবাদ।


মন্তব্য

স্নিগ্ধা এর ছবি

গান কোথায়? কোন লিঙ্ক তো দেখলাম না! বোধহয় আবার দিতে হবে সেটা।

আহির ভৈরব এর ছবি

পড়বার জন্য ধন্যবাদ স্নিগ্ধা আপু। গানের ব্যাপারটা বুঝলাম না, গত চারদিন ধরে চারবার পোস্ট করার চেষ্টা করলাম তাও লাভ হলো না। কি করি বলেন তো?

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

স্নিগ্ধা এর ছবি

মডু, মডু ! ওই মডুদের কাছে 'আকুল আবেদন' করেন ......

হিমু এর ছবি
মূলত পাঠক এর ছবি

সুন্দর লাগলো। এমন ছোটো পরিসরেও এমন আমেজ সৃষ্টি করা সোজা কর্ম নয়। আপনার পরের লেখার প্রতীক্ষায় রইলাম।

কী গান দিয়েছিলেন?

আহির ভৈরব এর ছবি

মুলোদা, অনেক ধন্যবাদ। গানটাই "কেন নয়ন আপনি ভেসে যায়", তাসের দেশ নাটকের গান। সেই শুনেই লেখাটা মাথায় এসেছিলো।
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

আহির ভৈরব এর ছবি

ধন্যবাদ হিমুভাই কিন্তু এমবেড কেমন করে করতে হয় জানিনা যে! আমি বরং ই-স্নিপ্সের লিংকটা এখানে দিয়ে দেই।

http://www.esnips.com/doc/846606d5-cd6c-4c69-aa9f-69aaa18c2863/Keno-Nayan-Apni-Bheshe

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

হিমু এর ছবি

লিঙ্কে ক্লিক করলে ইস্নিপ্স হাইকোর্ট দেখায়।

Broken Link
The link you clicked on is not complete.
If you clicked a link within an e-mail message, please verify that the link was not broken in the middle.
If it is broken, copy and paste the entire link into your browser.
You will be redirected to the eSnips home in a few seconds...



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

আহির ভৈরব এর ছবি

ঝামেলার জন্য খুবই দু:খিত ভাই। আমাকেও একই কথা বলছে লগ-আউট করে লিংক-এ ক্লিক করলে। না, এই কম্পুকানা জীবন আর রাখবো না। এর চেয়ে যমুনায় ঝাপ দেয়া ভালো।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

আহির ভৈরব এর ছবি

এইবার দেখছি কাজ করছে। যদি কারো আর একটুখানি ধৌর্য অবশিষ্ট থেকে থাকে তাহলে আশা করছি এই লিংক চেপে গান শুনতে পারবেন।

http://www.esnips.com/doc/1a61832a-70aa-401d-a12b-bd1c4e4b150f/Keno-Nayan-Apni-Bheshe

আর কোনো সদয় মডু যদি আমার দেয়া আগের অকেজো লিংকটা মুছে দেন তবে খুবই ভালো হয়।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

বইখাতা এর ছবি

ভালো লাগলো।

আহির ভৈরব এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ বইখাতা, পড়ার জন্য, মন্তব্যের জন্য।
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

জুয়েইরিযাহ মউ এর ছবি

আহা, বিরাট শূন্যতা রেখে যাওয়া স্যুটকেসটা যে বড় ভারী, ও বইবে কেমন করে সে ভার? একা?

ভালো লাগলো লেখাটি।

আহির ভৈরব এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ মউ। শেষ দুটো লাইন নিয়ে একটু অনিশ্চয়তায় ভুগছিলাম, ভালো লেগেছে জেনে খুব ভালো লাগলো।
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

শাহেনশাহ সিমন এর ছবি

মনের এক কোণে ঘাই মারলো লেখাটা। চলুক

_________________
ঝাউবনে লুকোনো যায় না

আহির ভৈরব এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ সিমন,পড়ার জন্য, মন্তব্যের জন্য এবং বুড়া আঙ্গুলের জন্য। লেখাটা মনে একটুখানি জায়গা পেয়েছে সেটা জানাবার জন্য আরেকটা ধন্যবাদ ভাই।
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

আহারে মন খারাপ
____________________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ !

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

আহির ভৈরব এর ছবি

সেইতো! মন খারাপ
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

মৃত্তিকা এর ছবি

ভালো লাগলো গল্প।

আহির ভৈরব এর ছবি

পড়া এবং মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ মৃত্তিকা।
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

শুরুটাই দূর্দান্ত... ভালো লাগলো পুরোটাই
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

আহির ভৈরব এর ছবি

নজরুল ভাই অনেক অনেক ধন্যবাদ। আমার কাছেও মনে হলো শুরুটা মোটমোটি হলেও মাঝখানে কোথায় যেন হারিয়ে ফেললাম লেখাটাকে। যা ভেবেছিলাম ঠিক সেভাবে লিখতে পারলাম না! আপসোস মন খারাপ
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

_প্রজাপতি এর ছবি

গল্পটা পড়ে মন বিষন্ন হয়ে গেল, গানটা পরে শুনবো ।
---------------------------------------------------------
ছিন্ন পাতার সাজাই তরণী, একা একা করি খেলা ...

ছিন্ন পাতার সাজাই তরণী, একা একা করি খেলা ...

আহির ভৈরব এর ছবি

আমার বিষন্নতার খানিকটা ভাগ নিলেন বলে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই। গানটা কেমন লাগলো পরে জানাবেন কিন্তু ভাই।
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

অতিথি লেখক এর ছবি

আমরা মাঝে মাঝে প্রয়োজনের কাছে হেরে যাই, আমাদের আবেগ মাঝে মাঝে হেরে যায় বাস্তবতার কাছে। আমি অবশ্য দ্বিমতপোষণ করি, আমার কাছে মনে হয় আমরা নিজেরা অবহেলা করে, খামখেয়ালী করে, বয়স্ততার মুখশে নিজেদের সাজানো স্বপ্নটা ধ্বংস করতেই ভালবাসি। বালুচরে বাধা খেলাঘর যেমন মনের আনন্দে বানাই, আবার ঢেউয়ের তরে ভেসে যেতে দেখে আনন্দ পাই ঠিক তেমন।
অনেক সুন্দর একটা লেখার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

দলছুট।

=============বন্ধু হব যদি হাত বাড়াও।

আহির ভৈরব এর ছবি

অসংখ্য ধন্যবাদ আপনার মন্তব্যের জন্য।

আপনার সাথে একমত - অবহেলায়, খামখেয়ালী করে অথবা নিছক স্বার্থপরতার বশে অনেক স্বপ্ন আমরা নিজেরাই ভেঙে যেতে দেই। তবে বাস্তবতার প্রবল শক্তিকেও বোধ হয় ছোটো করে দেখা যায় না।

ভালো থাকবেন।
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

মধ্যসমুদ্রের কোলে এর ছবি

কোন একটা ছায়াছবির কথা মনে পড়ে। চমৎকার লেখা।
আরেকটু আয়েস করে লেখাটির দৈর্ঘ্য বেড়ে গেলে মন্দ হতো না।

আহির ভৈরব এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ ভাই, পড়া এবং মন্তব্যের জন্য। কথা ফুরিয়ে গেল যে, দৈর্ঘ্য আর কেমন করে বাড়াই!
-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

-----------------------------------------------------
আর কিছু না চাই
যেন আকাশখানা পাই
আর পালিয়ে যাবার মাঠ।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।