হঠাৎ উথলে ওঠা পাকিপ্রেম

ধ্রুব আলম এর ছবি
লিখেছেন ধ্রুব আলম [অতিথি] (তারিখ: বুধ, ০৪/০৩/২০১৫ - ১২:২৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

কদিন আগেই মনে হয় গেলো ডাকবাবা আফ্রিদির জন্মদিন। আর তার সাথে চলছে এখন বিশ্বকাপ, মাঝে মাঝেই হয়ে যায় পাকি শুয়োরের বাচ্চাদের খেলা। এই খেলায় তাদের মাঠের যা পারফর্মেন্স থাকে, তার থেকে ভাল পারফর্মেন্স দেখায় পরদিন এদেশের মিডিয়া, বিশেষ করে মইত্যা আলুর উটপোদ শুভ্র। এর সাথে হঠাৎ করে শুরু হয়েছে করপোরেট হাউজগুলোর পাকি ডান্ডু চোষন। পাকিপ্রেম এরা আর ধরে রাখতে না পেরে উগরে দিচ্ছে এক্কেবারে।

ছবি -১ (বিকাশ)

পাকিরা জিতলে বাঙ্গালিকে অভিনন্দন দিতে হবে কেন আমার বোধগম্য হলো না।

ছবি-২ (বাংলালিংক)

ডাক্রিদিকে শুভ জন্মদিন আমাদের কেন বলতে হবে? কি ঠেকা পড়সে আমাদের?

ছবি-৩ (বেলিসিমো)

এই অফার পাইক্কাদের ম্যাচে অফ রাখলে চলে না?

ছবি-৪ (রবি)

আর কোন কোন খেলোয়াড়ের জন্যে এত দরদ উথলায় পড়ে জানতে মুঞ্চায়।

এছাড়াও ইস্টার্ন ব্যাঙ্ক তাদের প্রতিটা শাখা এক এক দেশের জার্সি-পতাকা দিয়ে সাজিয়েছে, পাকিরাও বাদ যায়নি। সবাইকে এক পাল্লায় মেপে নিরপেক্ষতা ফলানোর এত দরকার কি ছিলো, আমি বুঝি নাই।

(শুধুমাত্র গালির জন্যে পোস্টটি ১৮ প্লাস করে দিলাম)


মন্তব্য

সাফওয়াত এর ছবি

সব চুতমারানি চুদির ভাই, পাকি বীর্য লেহনকারী বাংলাস্তানী কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানকে মারখোরের শিশ্ন লেহন করার অধিকার প্রদান করার জোর দাবী জানাচ্ছি। পাকিস্তানী মারখোরের শিশ্ন তাদের পায়ুপথে প্রবেশের সুযোগ করে দেওয়া হোক (১৮ প্লাস লেখা, আশা করি আমার কমেন্ট মডারেটর প্যানেল উৎরে যাবে)

ইয়াসির আরাফাত এর ছবি

অনেক দিন আগে মূলোদা দলছুটের লেখায় "স্তম্ভন" শব্দটির প্রয়োগ ঘটিয়েছিলেন। আজকে সেটার মর্মার্থ বুঝলাম, আরও বুঝলাম তার আসলে কেমন অনুভূতি হয়েছিলো।

আমি স্তম্ভিত।

পাকিপ্রেম এখন গ্যালারী থেকে বেড্রুম পর্যন্ত চলে এসেছে। এই প্রেমের উপযুক্ত জায়গা অন্ত্রে, অতঃপর নর্দমায়।

বমি এসে গেলো!!!!!!!

অতিথি লেখক এর ছবি

যাত্রীরা হুশিয়ার, চলিতেছে পাকিস্থান প্রেমের জয়জয়কার!!!!বাস্ট্রার্ড এর বাচ্চারা এখন পাকিস্থানী প্রেমে মজেছেন ।

---------------
রাধাকান্ত

মাসরুফ হোসেন এর ছবি

ঠগ বাছতে গাঁ উজাড় হয়ে যাবে বলে মনে হচ্ছে ধ্রুব ভাই মন খারাপ

মেঘলা মানুষ এর ছবি

কর্পোরেটরা কেন এরকম বিজ্ঞাপন দেয়?
-এদেশে অনেক আফ্রদি ভক্ত আছে, তাদের জন্য।

তারপরও, কর্পোরেটদের এরকম কাজ দায়িত্বহীনতার পর্যায়ে পড়বে। কেউ কেউ সিগারেট খেতে পছন্দ করে বলে কি ফোনের সিমকার্ডের সাথে বিড়ির ‌প্যাকেট বেঁধে দেয়াটা জায়েজ হয়ে যাবে?

এরকম একটা নারীবিদ্বেষী পাকির জন্য বিজ্ঞাপন দিতে, দেখতে লজ্জা করা উচিত বাঙালির।
বাঙালি অদ্ভুত, আমাদের পাকিপ্রেম আরও অদ্ভুত।

বিবমিষা ‌উদ্রেককারী বিজ্ঞাপন রেগে টং

[রবির বিজ্ঞাপনটা কি রবি'র ফেসবুক ফ্যানক্লাবের করা?]

ইয়ামেন এর ছবি

৩-০ ওডিআইতে, ১-০ টি২০ তে। আব ইয়ে পারজ কা ক্যা হগা, কালিয়া?? দেঁতো হাসি

--------------------------------------------------------------------------------------------------------------------

সব বেদনা মুছে যাক স্থিরতায়
হৃদয় ভরে যাক অস্তিত্বের আনন্দে...

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA