লাইভ ব্লগিং: মুম্বাইয়ে উগ্রবাদীদের আক্রমন

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি
লিখেছেন এস এম মাহবুব মুর্শেদ (তারিখ: শুক্র, ২৮/১১/২০০৮ - ৯:৫৭পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

auto

মুম্বাইয়ের উগ্রবাদী আক্রমন নিয়ে লাইভ ব্লগিং শুরু করুন। যারা ভারতে আছেন বা বিষয়টির উপর চোখ রাখছেন, আপনার খবর মন্তব্যে ঘরে জানিয়ে যান। আমি প্রথমে একটা টাইম লাইন দিয়ে শুরু করি।

- রাত ৯:২০ বুধবার - ছাত্রাপাতি রেল স্টেশনে গোলাগুলি শুরু হয়।

- এক ঘন্টার মধ্যে আরো চার জায়গায় গোলাগুলি শুরু হয় - নারিমান হাউজ, আল্ট্রা অর্থডক্স জিউদের চারন; লিওপল্ড রেস্টুরেন্ট; ওবেরয় হোটেল; তাজ মহল এবং টাওয়ার হোটেল।

- রাত ১০:৫০ বুধবার - টাইমস অফ ইন্ডিয়া অফিসের সামনে গোলাগুলি শুরু হয়। পরপরই বোম্বে মিউনিসিপল কর্পোরেশন, কামা হাসাপাতাল এবং জিটি হাসপাতাল গোলাগুলি শুরু হয়।

- মাঝরাতের পরপরই আক্রমন শুরু হয় বিধান সভায়।

- ভোর ৩:০০ বৃহস্পতিবার - তাজ হোটেলে বিরাট অগ্নিকান্ড ঘটতে দেখা যায়। এক ঘন্টার মধ্যে হোটেল খালি করতে দেখা যায়।

- সকাল ৯:১৫ বৃহস্পতিবার - ইন্ডিয়া সিকিউরিটি ফোর্সেস তাজমহল হোটেল এবং ওবেরয় হোটেলের দখল নেবার চেষ্টা করে।

- সকাল ১০:০০ বৃহস্পতিবার - তাজ হোটেলের রুমে রুমে সার্চ শুরু হয়। এক ঘন্টার মধ্যে ওবেরয় হোটেল থেকে মানুষ বের করে আনতে দেখা যায় এবং নারিমান হাউজ ঘেরাও করা হয়।

এসোসিয়েটেড প্রেস থেকে

http://news.bbc.co.uk/1/hi/world/south_asia/7753639.stm

ভারতের প্রতি সমবেদনা রইল।

শুরু করুন লাইভ ব্লগিং তাহলে।

auto

auto

আরো ছবি: http://www.ft.com/cms/s/0/d6f8c2fc-bc61-11dd-9efc-0000779fd18c.html


মন্তব্য

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

প্রথম জীবিত ব্যক্তি:

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

আল জাজিরার রিপোর্ট

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

দিগন্ত এর ছবি

কম্যান্ডোদের নামানো হল। এটা এখন থেকে ঘন্টা দুয়েক আগের কথা। নরিম্যান হাউসে এক ইহুদী ধর্মগুরু ও তার স্ত্রী জিম্মি আছেন। ওবেরয়তে জিম্মি আছেন অনেক জাপানী, আমেরিকান ও ব্রিটিশ হাই-প্রোফাইল ব্যক্তিত্ব। যারা বেঁচে বেরিয়ে গেছেন তাদের মধ্যে ব্রিটিশ এমপি সাজ্জাদ করিম ছাড়াও ফরাসী নিউক্লিয়ার পদার্থবিজ্ঞানী। মারা গেছেন গ্রীক কোটিপতি ইয়ট কোম্পানীর মালিক।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

দারুন ফুটেজ এটা!

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

দিগন্ত এর ছবি

এক প্রত্যক্ষদর্শীর বিবরণ।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দিগন্ত এর ছবি

হোটেল থেকে অনেক লোককে উদ্ধার করা হয়েছে - এরা ঘরে আটকা পড়ে ছিল। সবার আগে উদ্ধার করা হয়েছে এক তিন-চার মাসের বাচ্চাকে - তাকে নিয়ে হাসপাতালে যাওয়া হয়েছে। সবাইকে উদ্ধার না করে কম্যান্ডো অপারেশন চালানো হবে না। অন্যদিকে নরিম্যান হাউসে গুলিগোলা চলছে। হোটেলে আটকা পড়া সবাই জানালা থেকে দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা চালাচ্ছে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

টেররিস্টগুলা এখন কোথায় অবস্থান নিয়েছে? হোটেলের লোকদের কি ছেড়ে দিচ্ছে নাকি?কয়টা ধরা পড়লো?
আপডেট দিয়েন
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

দিগন্ত এর ছবি

শোনা গেছে যে হোস্টেজদের মেরে ফেলা হয়েছে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

সবাইকে?!!!!!!!!!!!!!!!!!!!
এদের অবস্থান সম্পর্কে কি পুলিশ/অন্যান্যবাহিনী নিশ্চিত হতে পেরেছে?
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

দিগন্ত এর ছবি

না, এখনও কিছুই নিশ্চিত নয়। তবে ওবেরয় হোটেলে রেস্টুরান্টে লাশের পর লাশ পড়ে আছে বলে কম্যান্ডো দাবী করছে। এখনও তিন জায়গাতেই যুদ্ধ চলেছে। স্টক মার্কেট খুলেছে ... হোটেলের স্টক পড়ছে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

আরিফ জেবতিক এর ছবি

ভালো উদ্যোগ মুর্শেদ । এই পোস্টটি আসলেই খুব ভালো উদ্যোগ ।

রণদীপম বসু এর ছবি

একেই কি নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলে !?

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

দিগন্ত এর ছবি

নতুন দুজায়গায় আবার গুলি চলছে - মুম্বই ছত্রপতি টার্মিনেসে আর জিটি হাসপাতালে। যারা পালিয়ে গিয়েছিল কাল, তারা ...


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দিগন্ত এর ছবি

এখন শোনা গেল এটা গুজব। দুঃখিত ...


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দিগন্ত এর ছবি

টাইমস অব ইন্ডিয়ার ফুড ক্রিটিক সাবিনা সাইকিয়া মনে হয় মারা গেছেন। উনি তাজ-এ আটকা পড়ে ছিলেন ও বিছানার তলায় লুকিয়ে স্বামীর সাথে এস-এম-এস এ যোগাযোগ রাখছিলেন। তার কাছ থেকে আসা শেষ এস-এম-এস - "ওরা এখন আমার বাথরুমে এসে গেছে।"

এরপরে আর মোবাইলটার সাথে যোগাযোগ করা যায় নি। মজার কথা, এর তিন ঘন্টা পরে মোবাইলটা রায়গড়ে (মুম্বই থেকে কিছুটা দূরে সমুদ্রতট) আছে বলে সিগন্যাল পাওয়া গেছে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

বলেন কি? তারমানে সন্ত্রাসীরা মোবাইল নিয়ে হোটেল থেকে বেরও হয়েছে?ভয়াবহ ব্যাপার!!!
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

মোবাইল সহ মেয়েটাকে ধরে নিয়ে যায়নি তো?

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

শুনছি... স্তম্ভিত বাকহারা...
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

তীরন্দাজ এর ছবি

নিন্দা জানাই এ ধরণের বর্বরতার বিরুদ্ধে।

বিভিন্ন মিডিয়া ভারতীয় নিরাপত্তা বিহিনীর যে অযোগ্যতার খবর শুনি, তাতে অবাক লাগে, হতাশা হয়। আমার মনে হয়, এরকম চলতে থাকলে এই যুদ্ধ সঙক্রামক ব্যধির মতো ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আরেকটা বড় ধরনের রায়ট লেগে যেতে পারে। সুযোগের অপেক্ষায় ওত পেতে আছে তো অনেকেই।

**********************************
কৌনিক দুরত্ব মাপে পৌরাণিক ঘোড়া!

**********************************
যাহা বলিব, সত্য বলিব

দিগন্ত এর ছবি

মনে হয় না দেশে এর খুব একটা প্রতিক্রিয়া হবে। দেশ অভ্যস্ত হয়ে গেছে এসব ঘটনা নিয়ে। আরো দুতিন দিনে দেখবেন সব স্বাভাবিক।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দিগন্ত এর ছবি

ওবেরয় আর তাজ, উভয়ের সব জঙ্গী মৃত। অপারেশন শেষ। এখন বাকি নরিম্যান হাউস। ৪ জন হোস্টেজকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে অপারেশন-প্রধান দাবী জানালেন।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

কমান্ডো এ্যাটাক হইছে তাহলে তাজ আর ওবেরয়তে?

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

দিগন্ত এর ছবি

মজার কথা কম্যান্ডো এট্যাক চলছে ওই দুজায়গায় গত প্রায় ১০-১২ ঘন্টা ধরে। আবার এখন শুনছি তাজ-এ এখনও চলছে এনকাউন্টার।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

মাই গড! ... হোটেল এরিয়ার আশপাশের মানুষগুলো কিভাবে আছে ভাবছি! ... দুনিয়ার এই অবস্থা কেন?
========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

১০-১২ ঘন্টা এনকাউন্টার করার মত রসদ পেল কোথায়?

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

দিগন্ত এর ছবি

আমি একজনের ছবি দিয়েছি। দেখুন, মৃত জঙ্গীদের থেকে জানা যায় ওদের সাথে ম্যাগাজিন, গ্রেনেড আর শুকনো ফল (আখরোট আর কাজু) আছে। একজনের কাছে দশ ম্যাগাজিনের কাছাকাছি গুলি আর অনেকটা আখরোট ছিল।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

অনিন্দিতা চৌধুরী এর ছবি

এত মর্মান্তিক ঘটনা ভাবা যায় না।
মুম্বাইয়ের সিকিউরিটি সিষ্টেম বা গোয়েন্দাদের কর্মকান্ড কি ধরণের বুঝতে পারলোম না। এত বড় ঘটনা ঘটতে পারে এটা কি তারা ঘুনাক্ষরে ও টের পেল না?
এঘটনা সম্পর্কে ডিটেলস কেউ লিখবেন কি?
একজায়গায় পেলে পড়তে সুবিধা হত।
হতাহত সবাই ও তাদের পরিবারের জন্য সমবেদনা
তীব্র ঘৃণা এই জঙ্গীবাদকে!

দিগন্ত এর ছবি

আমি চেষ্টা করব কাল একটা সামগ্রিক লেখা দিতে এর ওপর। আপনি আপাতত উইকিতে দেখতে পারেন।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দিগন্ত এর ছবি

এক জঙ্গীর সাথে কথোপকথন ইন্ডিয়া টিভির প্রতিবেদকের। কথোপকথনের টেক্সট


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

শিট্! কমপ্লিটটি ব্রেইন ওয়াশড!!

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

আলমগীর এর ছবি

আমার কাছে প্রোপাগান্ডা মনে হল।
এ ধরনের পরিস্থিতিতে কেউ ফোনে হাসবে?
বিপদের মধ্যেও অনেকে ব্যবসা করে নিচ্ছে।
সময়ে সব জানা যাবে আশা করি।

দিগন্ত এর ছবি

হাসিটা কোনো ব্যাপার না। মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা হচ্ছে সেও হাসছে সেটাও দেখলাম কদিন আগে ইন্দোনেশিয়ার বালি বম্বিং এর এক জঙ্গীকে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

আলমগীর এর ছবি

ব্রাদার জঙ্গীরা হাসছে না, যে সাক্ষাৎকার নিচ্ছে সে হাসছে।
আমি তাই বুঝলাম। সেজন্য এমন মন্তব্য করলাম।

দিগন্ত এর ছবি

আহা, আপনি বুঝতে পারেননি ওটা। এটা কোনো এক ব্যক্তির টিভি থেকে রেকর্ড করে ইউটিউবে তোলা। সেটা ওই ব্যক্তির হাসি। সাক্ষাৎকার নেওয়ার লোকের হাসি নয়।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

[‌size=20]Chronology: Major terror attacks in India since 2003[/‌size]

New Delhi: At least 80 people were killed in a series of attacks apparently aimed at tourists in India’s financial capital Mumbai on Wednesday.

Following is a chronology of some of the major attacks in India in the past five years:

13 March, 2003: A bomb attack on a commuter train in Mumbai kills 11 people.

25 Aug, 2003: Two car bombs kill about 60 in Mumbai.

15 Aug, 2004: A bomb explodes in the northeastern state of Assam, killing 16 people, mostly schoolchildren, and wounding dozens.

29 Oct, 2005: Sixty-six people are killed when three blasts rip through markets in New Delhi.

7 March, 2006: At least 15 people are killed and 60 wounded in three blasts in the pilgrimage city of Varanasi.

11 July, 2006: More than 180 people are killed in seven bomb explosions at railway stations and on trains in Mumbai that are blamed on Islamist militants.

8 Sept, 2006: At least 32 people are killed in a series of explosions, including one near a mosque, in Malegaon town, 260 kms, northeast of Mumbai.

19 Feb, 2007: Two bombs explode aboard a train heading from India to Pakistan; at least 66 passengers, most of them Pakistanis, burn to death.

18 May, 2007: A bomb explodes during Friday prayers at a historic mosque in the southern city of Hyderabad, killing 11 worshippers. Police later shoot dead five people in clashes with hundreds of enraged Muslims who protest against the attack.

25 Aug, 2007: Three coordinated explosions at an amusement park and a street stall in Hyderabad kill at least 40 people.

13 May, 2008: Seven bombs rip through the crowded streets of the city of Jaipur, killing at least 63 people in markets and outside Hindu temples.

25 July: Eight small bombs hit the IT city of Bangalore, killing at least one woman and wounding at least 15.

26 July: At least 16 small bombs explode in Ahmedabad, Gujarat, killing 45 people and wounding 161. A little-known group called the “Indian Mujahideen” claims responsibility for the attack and the May 13 attack in Jaipur.

13 Sept: At least five bombs explode in crowded markets and streets in the heart of New Delhi, killing at least 18 people and injuring scores more. The Indian Mujahideen again claim responsibility.

26 Nov: At least 80 people were killed in a series of attacks apparently aimed at tourists in India’s financial capital Mumbai on Wednesday. Police said at least 250 people had been wounded.

http://www.livemint.com/2008/11/27085028/Chronology-Major-terror-attac.html থেকে
====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

বজলুর রহমান এর ছবি

মগজ ধোলাই তো বটেই। সেটা প্রায় টটলজী। জটিল প্রশ্ন হলো এর পেছনে আসলে কারা। এত সহজে তরুণ মানসকে প্রভাবান্বিত করার টেকনোলজী কাদের নখদর্পনে? ওসামা কি মার্কিন সহযোদ্ধা ছিল না কমিউনিস্টদের বিরুদ্ধে? ৯/১১ তে তিন ডজন বাংলাদেশী মারা গিয়েছিল, ইস্রাইয়েলি মরেছিল মাত্র একজন, যদিও সেই ফিনানশ্যাল ভবনে ইস্রায়েলিদের বেশী থাকাটাই স্বাভাবিক ছিল। কাই স্কোয়ার টেস্ট কেউ করে দেখে নি। মুম্বাইয়ে ন্যারিম্যান ভবনে কতজন ইস্রায়েলি মারা গেছে?

দিগন্ত এর ছবি

নরিম্যান ভবনে সব (পাঁচ) ইসরায়েলিই মারা গেছে। ৯/১১ মৃতদের লিস্ট থেকে ৬ জন বাংলাদেশী আর ৫ জন ইসরায়েলি পেলাম। তবে ইহুদী ভিক্টিমদের লিস্ট অনেক লম্বা।

সন্দেহজনক ভাবে কম হল ভারতীয় (১ জন) আর চিনা (৫জন), এদের আরো বেশী ভিকটিম হবার কথা ছিল ডিস্ট্রিবিউশন মেনে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

বজলুর রহমান এর ছবি

৯/১১ সংক্রান্ত দিগন্তের পরিসংখ্যান অফিশ্যাল ভাষ্য, এবং টেকনিকালী সঠিক। আমি আসল ঘটনার পরপরই ৫০ জন নিখোঁজ বাংলাদেশীর সংখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে আন্দাজ করেছিলাম ২৫-৩৫ জন বাংলাদেশী নিহত হতে পারে। অনেকে এখনো দাবী করে যে অবৈধ বাংলদেশী (যারা ক্লিনার জাতীয় কাজ করত) এ তালিকায় জায়গা পায় নি - কারণ ক্ষতিপূরণের ব্যাপার ছিল, এবং তাদের আমদানীকারকরা জটিলতায় যেতে চায় নি।
ইস্রায়েলী ৫ জনের মধ্যে সম্ভবত সেখানে কর্মরত ছিল মাত্র একজন। বাকীরা তিন প্লেনে।
আমার মন্তব্য শুধু চোখ কান খোলা রাখার একটা আহবান মাত্র। বাংলাভাই শ্রেণীর মানুষের বুদ্ধি সম্পর্কে আমার কোন শ্রদ্ধাবোধ নেই। আমি নিশ্চিত একটা বড় খেলাতে এই সব মূর্খ নির্বোধের মত শরীক হয়ে নিরীহ লোক মারছে এবং শেষ তক প্রাণ হারাচ্ছে।

আলমগীর এর ছবি

সবশেষ কী অবস্থা?
সব জিম্মি কি মুক্ত হয়েছে? কোন সাইটেই সঠিক খবর পেলাম না। কোনটা আগের কোনটা পরের সেটাও মিলাতে পারছি না।

দিগন্ত এর ছবি

ওবেরয় থেকে সব জিম্মিই আহত অবস্থায় উদ্ধার হয়েছে। ছ'জন মারা গেছে কিন্তু তারা জিম্মি ছিল না আগেই গুলিতে মারা গেছিল তা জানা যাচ্ছেনা।
তাজ এ লড়াই চলছে। এইমাত্র জঙ্গী/কম্যান্ডোর গুলি জানালা দিয়ে বেরিয়ে তিন সাংবাদিক/ফটোগ্রাফার আহত। জিম্মি আছে দুজন - এরকমই খবর।
নরিম্যানে ইহুদী র‌্যাবাই এখনও জিম্মি।

সবশেষ ১৫৫ জন মৃত।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

নন্দিনী  এর ছবি

আমি বিবিসির খবর থেকে সব জানছি প্রথমদিন থেকেই...মাথাটা আউলা হইয়া গেছে...জংগীদের প্রতি আমার তীব্র ঘৃণা জানিয়ে গেলাম , আর সমবেদনা ভিক্টিমদের প্রতি

নন্দিনী

দিগন্ত এর ছবি

নরিম্যান হাউসের চার জংগী মৃত, এখন বাকি তাজ।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দিগন্ত এর ছবি

পাঁচ ইসরায়েলি জিম্মিকেই হত্যা করা হয়েছে নরিম্যান হাউসে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দময়ন্তী এর ছবি

মুম্বাইতে কেবল নেটওয়ার্ক ব্লক করে দেওয়া হয়েছে ৷ অসম্ভব গুজব ছড়ানো রুখতে কেবল ব্লক করা হয়েছে৷

তাজ'এ গেস্টদের ব্যাগেজ চেক হয় না (বোধহয় ভারতের কোন হোটেলেই হয় না)৷ সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ২ জন গেস্ট সেজে তাজে আসে স্যুটকেস বোঝাই গ্রেনেড আর গুলি নিয়ে৷ এরা কিছুদিন ধরে ছিল ৷ আর দুজন জঙ্গী ২ মাস আগে তাজে এমপ্লয়ী হিসাবে জয়েন করেছিল৷

তাজে এরা এমনকি একটি কন্ট্রোলরুমও বানিয়ে ফেলেছিল৷ একজন পালাতে গিয়ে মোবাইল ফেলে যায়৷ সেখানে তারপরেও ২ ঘন্টা ধরে করাচী থেকে ফোন এসেছে৷

সকালে ছত্রপতি শিবাজী স্টেশনে গুলিচালনার খবর রটে গেছিল, কিন্তু সেটি গুজব৷

পরে আবার৷

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

রানা মেহের এর ছবি

Oh Goodness!!
কী বলবো
বুঝতে পারছিনা
-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

এই মুহূর্তের খবর: (সূত্র: হেডলাইনস টুডে, ডিশনেটওয়ার্ক থেকে)

১. আবু ইসমাইলের (ধৃত সন্ত্রাসী) স্বীকারোক্তি মোতাবেক সন্ত্রাসীরা গত ৪ দিন তাজ হোটেলে অবস্থান করেছে।
২. হোটেলের রুমে গুলী ওবিস্ফোরক জড়ো করেছে
৩. তাজ থেকে ২০ কেজির বেশী আরডিএক্স উদ্ধার
৫. ওবেরয় থেকে ৫০ টির বেশী গ্রেনেড উদ্ধার
৬. উপসাগরীয় একটি দেশ থেকে মাদারশীপ এসেছে
৭. মোট সন্ত্রাসীর সংখ্যা ১৫এর বেশী নয়।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

৪৭ ঘন্টা পর নারিম্যান মুক্ত হলো। কিছুক্ষণ পরেই ওটাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হবে। নারিম্যানের ২ সন্ত্রাসী নিহত। @১০:৪৫ EST

তুলিরেখা এর ছবি

খুব খারাপ লাগছে, অসহায় লাগছে।
একটা বাচ্চার ছবি, জামায় রক্ত!
আমরা কি মানুষ? নাকি জম্বি?
----------------------------------------------
কোন দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

ধ্রুব হাসান এর ছবি

কিছুই বলার নেই......গোটা দুনিয়াতে যেন রক্তের হোলি খেলা বসেছে! নিজেকে মানুষ বলে ভাবা অনেক আগেই ছেড়ে দিয়েছি; তবুও এসব দেখলে মনে হয় না জন্মালেই বোধহয় ভালো হতো!

হিংস্র প্রানীরাও কেবলমাত্র ক্ষুদার তাড়নায় হত্যা করে; কিন্তু আমাদের ছোটখাট পাকস্থলীর কি পরিমাণ ক্ষুদা যে এতো এতো রক্তপাত ঘটাতে হয়! কিছুই ঠিকঠাক বুঝলাম না আজো!

...................................................................
...................................................................

মাহবুব লীলেন এর ছবি

মন্তব্য খুঁজে পাচ্ছি না
পোস্টটা পড়ছি কিছুক্ষণ পরে পরে

রণদীপম বসু এর ছবি

একদিন পৃথিবীর নিকৃষ্টতম গালিটার নাম হবে 'মানুষ' !

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

বিপ্রতীপ এর ছবি

সহমত...
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
খুঁজে যাই শেকড়ের সন্ধান...

সংসারে এক সন্ন্যাসী এর ছবি

ছবি আর ভিডিওগুলো দেখে মনে পড়লো জন লেননের এই ভিডিওটির কথা। কতোবার চোখ দিয়ে পানি পড়েছে এটি দেখে! মানুষ এতো হিংস্র কেন!

ডাউনলোড লিংকও দিচ্ছি। কোয়ালিটি খারাপ না। সাইজ - ২৫ মেগাবাইট।

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
একলা পথে চলা আমার করবো রমণীয়...

~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
টাকা দিয়ে যা কেনা যায় না, তার পেছনেই সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করতে হয় কেনু, কেনু, কেনু? চিন্তিত

অতিথি লেখক এর ছবি

এ পর্যন্ত কানাডার একজনের মৃতু্যর খবর পা্ওয়া গেল। ঘটনার একজন প্রত্যেক্ষ্য দর্শী কোন রকম পালিয়ে এসেছে। তবে এখন্ও কতজন কানাডিয়ান এতে আক্রান্ত হয়েছে তা এখন্ও সঠিক ভাবে জানা যায়নি। কানাডার ইন্ডিয়ান কমূ্যনিটরি সবাই হতবাক ।
হামোম প্রমোদ

রেজওয়ান এর ছবি

টুইটারে মিনিটে কয়েকশ মেসেজ লাইভ আপডেট হচ্ছে

এখানে গ্লোবাল ভয়েসেসের কাভারেজ

এটা খুবই মর্মস্পর্শী

"My powers of empathy, my ability to reach into another's heart, cannot penetrate the blank stares of those who would murder innocents with such serene satisfaction." - Barack Obama, US president elect

রেজওয়ান এর ছবি

রয়টারের সাম্প্রতিক ফটো

boston.com big picture

টুইটার আপডেট:

abhi2point0: (Hopefully dead) terrorists in Nariman House, left booby traps under bodies - Aaj Tak news reporting that three bombs just detonated

punefast: Mumbai bound passengers postpone journey, seek refund

toriblaseCNN: ** CNN India: What we know...piecing together the attack ~ http://www.cnn.com/2008/WORLD/asiapcf/11/28/mumbai.investigation/index.html

Pakistannews: Empathy, Grief in Pakistan at Mumbai Mayhem: KARACHI, Nov 29 (IPS) - The terrorist attacks unleashed.. http://tinyurl.com/5jbsjl

BreakingNewsOn: New explosions and heavy gunfire can be heard from the Taj Mahal Palace Hotel in Mumbai where up to 4 terrorists are still inside.

পৃথিবী কথা বলছে আপনি কি শুনছেন?

তানবীরা এর ছবি

কোনদিকে হাটছে সভ্যতা শেষ পর্যন্ত?

তানবীরা
---------------------------------------------------------
চাই না কিছুই কিন্তু পেলে ভালো লাগে

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

দিগন্ত এর ছবি

ধৃত একমাত্র জঙ্গী আজমাল আমির কাসব এর বক্তব্য
কিছু পয়েন্ট হল -
১) এদের ট্রেনার বুঝিয়েছিল অপারেশন সেরে এরা বৃহস্পতিবারে দেশে ফিরতে পারবে। সেইমত ফেরার রাস্তাও জিপিএস এ রেকর্ডেড ছিল। উৎসাহ এসেছিল হয়ত কান্দাহার হাইজ্যাক থেকে।
২) ফরিদকোটের বাসিন্দা এই কাসব-ই হল হেমন্ত কার্করের হত্যাকারী।
৩) কয়েক আস আগে প্রথম মুম্বই আসে স্টুডেন্ট সেজে বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতে শুরু করে।
৪) ভারতীয় নয়, সাদা চামড়ার ব্যক্তিদের মারাই মূল উদ্দেশ্য ছিল এদের।

কম্যান্ডোদের বক্তব্য তারা বাকি তিন জনকে জ্যান্ত ধরার চেষ্টা চালাচ্ছে। হোস্টেজ আরও থাকতে পারে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

দিগন্ত এর ছবি

মনে করা হচ্ছে লড়াই শেষ। তাজে আগুন নেভানো হচ্ছে। একজন কম্যান্ডোকে জানালা থেকে ফেলা হল, তাকে নিয়ে হাসপাতালে যাওয়া হল। আগে আরো একজন কম্যান্ডো মারা গেছে।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

বিপ্রতীপ এর ছবি

মুম্বাই পুলিশ প্রধানও এমন কথাই বললেন...যুদ্ধ শেষ...
তবে জানালা দিয়ে যে পড়েছে সে তো সন্ত্রাসী, কমান্ডো নয়... এখানে ভিডিও ...আরেকটা ভিডিও এখানে
~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~~
খুঁজে যাই শেকড়ের সন্ধান...

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

হেডলাইনস টুডে বলছে তাজ মুক্ত। ৫৯ ঘন্টার ব্যাটল ইজ ওভার।

দিগন্ত এর ছবি

যখন এটা ডিক্লেয়ার করা হচ্ছিল তখন আরো একজন গ্রেনেড ছুঁড়ছিল বাইরে। তাকে কোনোভাবে মেরে ফেলেছে ... নাহলে বেশ কিছু লোকে মরত। এই ঘটনার পরে কর্তারা আবার বলছেন অপারেশন জারি আছে। মোট ছ'জন জঙ্গী মারা গেছে এখনও। একজন কম্যান্ডো নিজেই একরকম সুইসাইড আক্রমণ করে কয়েকজন জঙ্গীকে মেরে ফেলেছেন।

এখানেও হোস্টেজরা সবাই মৃত।


হাতি ঘোড়া গেল তল, মশা বলে কত জল।


পথের দেবতা প্রসন্ন হাসিয়া বলেন, মূর্খ বালক, পথ তো আমার শেষ হয়নি তোমাদের গ্রামের বাঁশের বনে । পথ আমার চলে গেছে সামনে, সামনে, শুধুই সামনে...।

অভিজিৎ এর ছবি

এখানে আমার একটা প্রতিক্রিয়া দিলাম



পান্ডুলিপি পোড়ে না। -- বুলগাকভ (মাস্টার এন্ড মার্গেরিটা)


পান্ডুলিপি পোড়ে না। -- বুলগাকভ (মাস্টার এন্ড মার্গেরিটা)

অতিথি লেখক এর ছবি

এই উদ্যোগটা বেশ ভালো হয়েছে। নতুনত্ব আছে বেশ।

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

দিগন্ত, প্রকৃতিপ্রেমিক, রেজওয়ান সহ সবাইকে ধন্যবাদ। আমি নিজে থ্যাঙ্কস গিভিংয়ের বন্ধে ঘরের বাইরে থাকায় নিয়মিতভাবে অংশগ্রহন করতে পারিনি। যেহেতু বিষয়টার আপাতভাবে যবনিকাপাত হয়েছে তাই এটাকে ননস্টিকি করে দিলাম।

এই ঘটনাটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আপনাদের বিশ্লেষণমূলক পোস্টের অপেক্ষায় থাকলাম।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

এই মাত্র সিএনএন থেকে জানাল একজন বাংলাদেশী ইন্ডিয়ার ভিতর থেকে সাহায্য করেছিল।

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।