নিলয় দাস: চলে যাওয়া অনাবিল গিটার, গিটারের শিল্পী!

তানিম এহসান এর ছবি
লিখেছেন তানিম এহসান [অতিথি] (তারিখ: শনি, ১৩/০৮/২০১১ - ১:০৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আশির দশকের একদম শেষ দিকে আমার মামাতো ভাই যাকে আমি ভয়াবহ ভালোবেসে "মাম্মা” বলে ডাকি সেই মিঠু ভাই আমাকে প্রথম শোনান নিলয় দাসের গান। তারপর খালাতো ভাই টুটুল ভাই, মাম্মা, আমি, আমাদের ভাগনা-বেটা তমাল আর তন্ময় সহ আমরা একসাথে হলেই যখন অন্তত একটা গিটার বেজে উঠা শুরু হলো, তখন থেকেই নিলয় দার গান আমাদের গানের ভিড়ে ঠিকই জায়গা খুঁজে নিত।

বাংলাদেশের ব্যান্ড মিউজিক এই মানুষটার কাছে ঋণী, তাকে নিয়ে কেউ এখনো লেখেননি, কেউ ঘটা করে তার জন্মদিন কিংবা চলে যাওয়ার দিনটিকে §রণ করেননা, অনেকের কাছেই তার সৃষ্টির চাইতে তার দাহ নেভানোর প্রয়াসটাই বড় হয়ে দেখা দেয় - কিন্তু বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের সঠিক ইতিহাস যেদিন লেখা হবে সেখানে বিশেষ করে গিটারের ক্লাসিক্যাল শিল্পী, বাংলাদেশে একুষ্টিক গিটারের এখন পর্যন্ত শ্রেষ্ঠ কারিগর নিলয় দাসের কথা আসবেই।

আমি তাকে দেখিনি, তার সাথে আড্ডা মারিনি, যখন গিটার শেখা শুরু করি তখন কয়েকবার ভেবেছি যাবো। গিটারের কয়েকটা বেসিক কর্ড শেখার পর আর গিটার শেখা হলোনা, নিলয়-দার সাথেও আমার আর দেখা হয়ে উঠেনি। মাঝে মাঝে খোঁজখবর করতাম, বিশেষ করে ইস্কাটন গার্ডেনের আড্ডায় গেলে বন্ধু টিংকুর কাছ থেকে কিছু কিছু খবর জানা যেত। জানতে পারতাম মানুষটা ক্রমাগত নিজেকে ছাই করে মিটিয়ে নিচ্ছেন সব দাহ। তার প্রথম অ্যালবামে শিল্পীর যে ছবিটি আছে তাতে আমরা দেখতে পেয়েছিলাম নিজের মত করে একজন মানুষকে, সবসময় ক্যাপ পড়তেন মনে হয়। তার গিটার বাজানো ছিলও কিংবদন্তীর মত।

জন্মেছিলেন সেপ্টেম্বর এর ৩০ তারিখ ১৯৬১ সালে। চলে গেলেন ১১ ই জানুয়ারি ২০০৬ সালে, চিটাগাং সেন্ট্রাল পয়েন্ট ক্লিনিকে। বাবার নাম সুধীন দাস, মা নীলিমা দাস - দু’জনই সংগীত অঙ্গনে সুপরিচিত।

আমার কাছে তার প্রথম অ্যালবামটা ছিলো, এখন সিডির যুগে আমি নিলয় দাসের সিডি খুঁজে পাইনি কোথাও, জনে জনে চেয়ে বেড়িয়েছি। গুগলে গিয়ে নিলয় দাস নাম দিয়ে ক্লিক করলে খুব বেশী কিছু আসেনা। বড় অসহায় মনে হয়, কত রাম-শ্যাম-যদু-মদু-ফন্দি-ফিকির এই দেশে স্টার হয়েছে কিন্তু সত্যিকারের গুণ আর গুণীর কদর না করতে করতে আমরা অমানুষ হয়ে যাওয়ার সবরকম কায়দাকানুন শেষ করে ফেলেছি।

আজকে সচলে একটা পোষ্টে কমেন্ট করতে যেয়ে আবার মানুষটার কথা মনে পড়লো, গুগলকে কাজে লাগালাম। খুব বেশী কিছু পেলামনা প্রথমবার, এক জায়গায় দেখলাম তার মৃত্যুর পর বেশ কয়েকটা গান এক জায়গায় করে একটা লিঙ্ক দেয়া, সেখানে যেয়ে দেখলাম কিছুই নেই। নানান কি-ওয়ার্ড দিয়ে খুঁজলাম তারপর পেয়ে গেলাম তার সবগুলো গান।

কয়েকটা গান নিয়ে একটু কথা বলি।

হ্যাপি আখন্দ কে নিয়ে আজ পর্যন্ত যত গান গাওয়া হয়েছে তার মাঝে শ্রেষ্ঠ গান গেয়ে গেছেন নিলয় দাস -"হ্যাপি, তোকে মনে পড়লেই/ একটা গিটার তোলে ঝংকার/ পিয়ানোটা বেজে উঠে/ তোর সে নিপুণ হাতে/ আবার এলো যে সন্ধ্যা মনে পড়ে যায় মাঝরাতে’। তারা দু’জন বন্ধু ছিলেন। দু’জনই চলে গেছেন নীরব প্রতিবাদে।

তার গানগুলোর মাঝে সবচাইতে বেশী গাওয়া হয়েছে মনে হয় "সেই যে চলে গেলে, আর হায় এলেনা ফিরে/ কতোযে খুঁজেছি তোমায় অকারণ অশ্রুজলে” গানটা। আমরা কাজিনরা এই গানটা গেয়ে গেছি সব সময় - “এখানেতে এক উৎসব সারা রাত/ আলো করে দেয়ালে জ্বলে আছে/ সেখানেতে এক উল্লাস ভরা গান/ আবেগেরই দরোজা খুলে গেছে ...."।

আর একটা গান আমরা গাইতাম খুব, সেটি হচ্ছে "দুচোখে তোমার দেখেছি আমি/ বৃষ্টিতে ভেজা মরুভূমি’। প্রথম দুইটা লাইন প্রায়শই আমাদের মাথায় এসে খুব করে চেপে ধরতো গাইতে হবে বলে। এরকমই আরেকটা গান ছিলো "যখন দেখি দূর আকাশের ওই তারা/ তখন ভাবি একা আমি, সঙ্গী-বিহীন তুমি হারা’।

তবে নিলয়-দার গাওয়া আমার সবচাইতে পছন্দের গান হচ্ছে "যখনই নিবিড় করে পেতে চাই তোমাকে/ তখনই দুচোখ বুজি আমি/ নয়নে স্ব¡পণে দেখি শুধু তোমায়/ বিরহ বরষা মেঘেরই ছায়ায়”। রিমিক্স এর চরম আধিপত্যের এই সময়ে ফুয়াদ আল মুক্তাদির তার একটা "ফিচারিং .." এলবামে এই গানটা কাকে দিয়ে যেন গাইয়েছে। ফিচারড্ গানটা যদি শুনে থাকেন তাহলে নিচে লিঙ্কে যেয়ে অরিজিনালটা শুনুন - কি অসাধারণ, কি সংহত কম্পোজিশন সেখানে আপনার জন্য অপেক্ষায় আছে তারপর ভাবুন রিমিক্স গান দিয়ে আপনি নিজে কিংবা আপনার পরবর্তী প্রজন্মকে বড় করে যাবেন কিনা?

তার অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে, অসংখ্য মানুষ তাকে কাছ থেকে দেখেছে, অসংখ্য মানুষ তন্ময় হয়ে শুনেছে তার গান, ধরা পড়ে গেছে তার গিটারের জাদুতে - তিনি তাদের মাঝেই বেঁচে থাকবেন। এখন পর্যন্ত তার গড়া দুটো ব্যান্ডের কথা জানি আমি, একটা হচ্ছে ’দ জেনমস’ এবং অপরটি হচ্ছে ’ট্রিলজি’, তার সাথে বাজিয়েছেনা বাংলাদেশের বর্তমানের অনেক নামী গিটারবাদক। ৯০’র দশকে "ষ্টারস” নামে মিক্সড অ্যালবাম রেরিয়েছিলো দুইটা, সেখানেও তিনি গান গেয়েছিলেন। জেনেছিলাম যে আরেকটা সোলো অ্যালবামের কাজ প্রায় ৭০ ভাগ শেষ করে এনেছেন এবং সেটা বাংলালিংক বের করে দেবে কিন্তু সেই অ্যালবাম আর এলোনা। এইসব অ্যালবাম আর আসেনা, আসে গন্ধযুক্ত সব তরল পস্রবন!

বিরুদ্ধ সময়ে যাদের জন্ম হয় তারা নিজেকে ক্ষয়ে ক্ষয়ে নীরবে চলে যান, আমরা আরো বেশী করে এক বিরুদ্ধ সময়ের কাছাকাছি এসে টের পাই, যারা চলে গেছে তারা ভালো আছে, আপনিও ভালো থাকুন নিলয় দাস - আপনার গিটারের কাছে ম্লান হয়ে যাক আপনার সব না পাওয়ার দহন-দাহন!!

------- তানিম এহসান, ১১. ০৮. ২০১১ বরিশাল

ইউটিউবে খুঁজে নিলয় দার একটা সাক্ষাৎকার পেলাম, সেখানে কত যে খুঁজেছি তোমায় নিয়ে তার কথাও আছে, ভেঙে ভেঙে আছে গানটাও। সেটার লিঙ্ক দিলাম সবার আগে http://youtu.be/xbbk2uA02k8

যখনই নিবিড় করে পেতে চাই তোমাকে http://www.mybanglaspace.com/mytunes/view/song_5017/name_niloy-_-track-12/

কতোযে খুঁজেছি তোমায় http://www.mybanglaspace.com/mytunes/view/song_5008/name_niloy-_-track-01/

হ্যাপি, তোকে মনে পড়লেই http://www.mybanglaspace.com/mytunes/view/song_5013/name_niloy-_-track-07/

দুচোখে তোমার, দেখেছি আমি/ বৃষ্টিতে ভেজা মরুভূমি http://www.mybanglaspace.com/mytunes/view/song_5014/name_niloy-_-track-08/

যখন দেখি দূর আকাশের http://www.mybanglaspace.com/mytunes/view/song_5016/name_niloy-_-track-10/

হৃদয়ের যত ব্যাথা http://www.mybanglaspace.com/mytunes/view/song_5012/name_niloy-_-track-06/

সবগুলো গান পাবেন এইখানে http://www.mybanglaspace.com/mytunes/view/album_521/name_best-of-niloy/

mybanglaspace.com কে সাধুবাদ জানাই নিলয় দাসের সবগুলো গান সযতনে আমাদের জন্য রেখে দেয়ার জন্য।

ছবি: 
24/08/2007 - 2:03am

মন্তব্য

মিলু এর ছবি

শ্রদ্ধা

রাতঃস্মরণীয় এর ছবি

আমি কখোনো নিলয়দাকে চোখে দেখিনি কিন্তু তার পরও আমার গিটার শেখার জীবনে তিনিই ছিলেন আমাদের হিরো। অসাধারণ ভালো লাগে এখনও তার গানগুলো এবং তার অনবদ্য গিটারবাদন। আপনাকে ধন্যবাদ লিংকগুলোর জন্যে।

আর নিলয়দার বিনয় ছিলো অনুকরণীয়। তিনি নিজেকে কখোনেই ক্ল্যাসিক্যাল গিটারিষ্ট দাবী করতেন না। আর গিটারবাদনে দক্ষতার কথা উঠলে সবসময়েই আঙুল তুলে শেখ ইশতিয়াকের দিকে ইশারা করতেন। বলতেন যে 'র' ইন্সট্রুমেন্টে ইশতিয়াকের সমমানের কোনও গিটারিষ্ট এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশে আসেনি। সেই ইশতিয়াকও চলে গেলেন, হ্যাপী তো আগেই চলে গেছেন। শুধু এদের হরিহরআত্মা ঘনিষ্ট সার্কেলে বেঁচে আছেন একমাত্র মাকসুদ জামিল মিন্টু।

নিলয়দার মৃত্যু কিন্তু আমাদের সাবধান করে দিয়ে যায়। কেনো তা বলতে চাচ্ছিনা। তবে যে কোনও অকালমৃত্যুই অধিক বেদনাদায়ক। আমাদের অনেক কিছুই দেখে শেখা উচিত।

------------------------------------------------
প্রেমিক তুমি হবা?
(আগে) চিনতে শেখো কোনটা গাঁদা, কোনটা রক্তজবা।
(আর) ঠিক করে নাও চুম্বন না দ্রোহের কথা কবা।
তুমি প্রেমিক তবেই হবা।

তারাপ কোয়াস এর ছবি

আমার এক গিটার পাগল বন্ধুর কাছে তাঁর কথা অনেক শুনেছি, কিন্তু কখনো সামনা সামনি দেখার সৌভাগ্য হয়নি।
নিলয় দাস বেঁচে থাকবেন সব গিটারপ্রেমীদের মাঝে।

তানিম আপনাকে অনেক ধন্যবাদ বিস্থৃতপ্রায় এই শিল্পীর কথা তুলে আনার জন্য এবং বিশেষত গানগুলির লিংক এর জন্য।


love the life you live. live the life you love.

onogh এর ছবি

খুব ভাল লাগলো আপনার লেখা। নিলয়দার কাছে শেখার অনেক ইচ্ছা ছিলো, কিন্তু নানা কারনে হয়ে ওঠেনি সেই সাথে গিটারে বেসিক কর্ডের ওপরে ওঠাও হয়নি। নিলয়দা বোধকরি খুব বেশী গান রেকর্ড করেননি, কিন্তু তার অল্প কাজেই বোঝা যায় তিনি কোন মাপের শিল্পী ছিলেন।

নিলয় দাশের আত্মার শান্তি কামনা করি।
-------------------------
অনঘ

আশরাফ মাহমুদ এর ছবি

কয়েকটা গান আগে শুনেছিলাম বোধহয়। কিন্তু শিল্পীকে জানতাম না। শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ।

মারভিন এর ছবি

ধন্যবাদ এই শিল্পীকে নিয়ে লেখার জন্য। অগোচরে থেকেই চলে গেলেন আর এখনো অগোচরেই রয়ে গেলেন। ওনার গাওয়া আমার সবচেয়ে প্রিয় গান হল "এ শহর ডুবে যায়" গানটার গিটারবাদন আমার সবচেয়ে প্রিয়গুলোর মধ্যে একটি।

সুমন_তুরহান এর ছবি

নাম না জানা এমন আরো কতো গুণী শিল্পী-কবিরা নীরবে হারিয়ে যাচ্ছে, তার কোনো খবর রাখি না আমরা। নিলয়'দার নাম শুনেছি, কিন্তু গান বোধহয় শোনা হয়নি কখনো। আজ সবগুলো শুনলাম, বারবার। প্রতিবারই অসাধারণ মনে হলো।

তানিম এহসান এর ছবি

আমার প্রতি মন্তব্য করতে পারছিনা, ব্যাপক ঝামেলা হচ্ছে। সচল টিম বলেছে ঠিক হয়ে যাবে। মিলু ভাই, তারাপ কোয়াস, রাতঃ§রণীয় রাতের দিশারী, আশরাফ মাহমুদ - সবাইকে ধন্যবাদ।

ভাই, গানগুলো নিজে শুনুন, অন্যকে শুনতে দিন, গিফট দিন - এতে করেই তার প্রতি আমাদের শ্রদ্ধা প্রকাশ পাবে। পাশাপাশি এটা আমাদের দায়ীত্ব, আজকাল গান হয় খুব কম, আমাদের পেছনের সমৃদ্ধ দিনগুলিও আমরা ভুলে যেতে বসেছি। ভালো থাকবেন সবাই!

মৃত্যুময় ঈষৎ এর ছবি

ভাইয়া এখন 'প্রতি মন্তব্যে' নতুন একটি পেইজ আসছে, ওখানেই মন্তব্য করতে হবে। সংরক্ষণ শেষে আবার মূল পেইজে চলে আসছে। সমস্যাটা আরেকবার দেখবেন, এখনও আছে কি না। হাসি


_____________________
Give Her Freedom!

তানিম এহসান এর ছবি

পেইজ ঠিক আছে, ওয়ার্ড ভেরিফিকেশন চায়, এবার সপ্যাম হয়ে গেছি মন খারাপ ভালো লাগেনা। ভালো থেকো ভাইয়া! শুভেচ্ছা,

তানিম এহসান এর ছবি

ধন্যবাদ অনঘ, মারভিন এবং সুমন ভাইকে পড়ে মন্তব্য করার জন্য। আবারো বলি, গানগুলো ছড়িয়ে দিন যতদূর সম্ভব! পেছনের সোনালী দিনের কদর করতে না জানলে আসলে অর্জনগুলো ধরে রাখা যায়না! শুভেচ্ছা,

মৃত্যুময় ঈষৎ এর ছবি

অসম্ভব সুন্দর একটি পোস্টের জন্য প্রিয় তানিম ভাই আপনাকে সাধুবাদ। এমন কীর্তিমান একজন মানুষকে স্মরণ করেছেন, খুব ভালো লাগলো। এই অসামান্য মানুষগুলোকে আমাদের বাঁচিয়ে রাখতে হবে আমাদের অস্তিত্বের জন্যই। আর গানগুলোর লিংক দেওয়ার জন্য কী বলে যে ধন্যবাদ জানাবো বুঝছি না। উনি একজন নিখুঁত শুদ্ধতর শিল্পী!!! উনার গানগুলো স্বকীয় বৈশিষ্ট্যেই সমুজ্জ্বল থাকবে!!! এই শ্রমসাধ্য পোস্টটির জন্য আরেকবার ধন্যবাদ।


_____________________
Give Her Freedom!

তাসনীম এর ছবি

এক বন্ধুর প্রতিবেশি ছিলেন নিলয়দা সেই সূত্রে দেখেছি কয়েকবার।

"কত যে খুঁজেছি তোমায়" এলবামটা খুব খুব ভালো লেগেছিল। মাদকসাক্তি মুক্তির পরে এই এলবামটা বের করেছিলেন, এতে একটা গান ছিল - "আমি মুক্তি পেয়েছি - মাদকের নাগপাশ থেকে উজ্জ্বল বাতাসে..." আমাদের সমসাময়িক অনেকের যৌবনের গল্পে নিলয়দার গান স্থায়ী আসনে আছে, সংক্ষিপ্ত কিন্তু উজ্জ্বল।

গত কয়েক বছর আগে দেশে গিয়েছিলাম, দেশে পৌঁছানোর পরদিন সকালে পত্রিকায় নিলয় দাসের মৃত্যু সংবাদ এসেছিল - একদম ছোট একটা নিউজ। মনটা বিমর্ষ হয়েছিল - অভিমানীর নিরব প্রস্থান।

নিলয়দাকে মনে করিয়ে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ, গানগুলোর জন্যও ধন্যবাদ।

________________________________________
অন্ধকার শেষ হ'লে যেই স্তর জেগে ওঠে আলোর আবেগে...

The Reader এর ছবি

শ্রদ্ধা

তানিম এহসান এর ছবি

আমি কাল থেকেই গানগুলো শুনছি, বহুদিন পর খুব ভালো সময় কাটছে। শিল্পীর সার্থকতা এখানেই। বাংলাদেশ যেভাবে আবেগী, অভিমানী মানুষের জন্ম দেয় পৃথিবীর আর কোন দেশ দেয়না, আমাদের ব্যার্থতা হচ্ছে আমরা সেটাকে দূর্বলতা হিসেবে নিয়ে অভিমানী মানুষকে আরো অভিমানী করে তুলি। নিলয়দা’র মত আরো অনেকেই চলে গেছেন, আমি খুব ছোট ছিলাম, বড় ভাইদের দেখতাম জুয়েল নামের একজন শিল্পীর গান শুনতেন খুব, তিনিও অকালপ্রয়াত।

ভালো থাকবেন তাসনীম ভাই, আপনার সন্তান এবং তাদের ’নট গুড মাম্মি’র জন্য নিরন্তর মঙ্গলকামনা!

িমঠু এর ছবি

মাম্মা! নিলয়দা কে নিয়ে লেখার জন্য তোমাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ! অনেক দিন ধরে উনার গান খুজতে খুজতে আশার আলো প্রায় নিভেই গিয়েছিল। লিন্ক গুলি দেয়ার জন্যও ধন্যবাদ।

তানিম এহসান এর ছবি

মাম্মা!!! বাকুনাকুতেউতেনাকালা চোখ টিপি

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA