নাশতারান এর ব্লগ

০১-০১-১০

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: শুক্র, ০১/০১/২০১০ - ৩:০৮অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ইংরেজি বছরের প্রথম দিন।

খোমাখাতায় বন্ধুদের গতিবিধি জানান দিচ্ছে এটি বিশেষ একটি দিন।
প্রায় সবাই স্ব স্ব স্থিতির মধ্য দিয়ে নতুন বছরের পাইকারি শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন বন্ধুদের। অতিউৎসাহীরা দেয়ালে দেয়ালে পোস্টার সেঁটে দিচ্ছেন।

এক বন্ধু নক করে জানতে চাইলেন থার্টি ফার্স্ট উপলক্ষ্যে আমি কী করছি।

আমার তখন মেজাজ খারাপ।
সকাল থেকে সচলায়তন ডুবে আছে।
বাসার পাশে সপ্তাহব্যাপী ওয়াজ চলছ...


হঠাৎ কাব্য

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: সোম, ২৮/১২/২০০৯ - ১১:০৭পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

মাঝে মধ্যে হুড়মুড় করে কটা লাইন মাথায় চলে আসে। এর নাম হঠাৎ কাব্য। সম্পাদনা-পুনঃসম্পাদনাবিহীন আনকোরা ছড়া।

গঠনমূলক আলোচনায়
পঠনমূলক বক্তিমা
অনেক হলো, আর পারি না।
আর বাকি নেই শক্তি, মা!

এখনো কি জানতে বাকি?
সব খুনেরই এক খুনি।
বাগান-দালান পরেই বানান
কবর খুঁড়ুন এক্ষুনি।


কেউ বোঝে না …

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: মঙ্গল, ২২/১২/২০০৯ - ১২:৩৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আমি বিদ্রোহী রণক্লান্ত।
খুব ভালো হতো
কেউ অন্তত
যদি এই কথাটুকু জানত।

আমি বিপ্লব পুষি পাঁজরে।
তোমরা গাধা
জীবন বাঁধা
কুমড়ো-পটল-গাজরে।

আমি সংগ্রামী এক সৈনিক।
ঠিক কোনভাবে
দিন বদলাবে
তাই বসে ভাবি দৈনিক।

আমি চিৎকার করি সজোরে।
কন্ঠার হাড়
ভেঙে চুরমার
পড়ে না কি তা নজরে?

আমি জ্বালব আগুন যজ্ঞে।
দেবীর আশায়
দিন কেটে যায়
বুঝবে তা কোন অজ্ঞে?

আমি হবো না তবুও ক্ষান্ত।
খুব ভালো হতো


সচলাভিধানঃ সচলায়তনের সুকুমারবৃত্তি বিষয়ক একটি প্রস্তাব

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: শুক্র, ১৮/১২/২০০৯ - ৩:২৩অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

প্রায় একমাস আগের কথা। আমি আমার অসভ্য বুনো ডানা ঝাপটে সচলায়তনে সবেমাত্র উড়তে শিখছি। দীর্ঘদিনের অনভ্যস্ত কলম ঘষটে লেখা বেরুতে চায় না। মেজে ঘষে যাও বা বেরোয়, পোস্ট করতে সংকোচ হয়। কতজন কতকিছু লেখে, কতভাবে লেখে! আমি ঈর্ষাতুর চোখে চেয়ে চেয়ে দেখি।

আমার জন্য সবই নতুন। এখানকার আবহ, মেজাজ আর সর্বোপরি কিছু শব্দ।

খোমাখাতা। অনেককেই এই শব্দ ব্যবহার করতে দেখি। মানে কী? ফেইসবুক!! কার আবিষ্কা...


আমি আরো বিজয় চাই

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: বুধ, ১৬/১২/২০০৯ - ৭:৫২পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

পূর্ব দিগন্তে সূর্য উঠেছে।

আজ বিজয় দিবস। একটু আগে রাস্তা থেকে ভেসে আসা বিজয়োল্লাস শুনতে পেলাম। ব্যানার, ফেস্টুন, পতাকাশোভিত ঢাকা শহর আর লাল-সবুজে মোড়ানো ছেলেমেয়েদের দেখতে পাব ঘর থেকে বেরুলেই।

আজ বিজয়োৎসবের দিন। কিন্তু আমি আরো বিজয় চাই।

স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিগুলো আগে তাও দু'একদিনের জন্য হলেও নিজেদের নখরগুলো সযত্নে আড়াল করে রাখতো। ইদানীং এদের শ্বদন্তবিকশিত নির্লজ্জ হাসি ...


লাল-সবুজের দিন

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: মঙ্গল, ১৫/১২/২০০৯ - ২:৫৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বুয়েটের সাথে কাগজে-কলমে সম্পর্কচ্ছেদের আয়োজন চলছে। আইনী প্রক্রিয়াটি বেশ সময়সাপেক্ষ। আপাতত সাময়িক তালাকনামার আশায় সকাল-সন্ধ্যা ধর্না দিতে হচ্ছে বুয়েটাদালতে। সকাল ১০ টার দিকে হয় হল, নয়তো ব্যাংক অথবা ই এম ই। সকালের অধিবেশনের পাট চুকে যায় ১১ টার মধ্যেই। বাড়ি ফেরার তাড়া থাকেনা। চাকুরিদাতারা এখনো আমাকে খুঁজে পাননি, তাই তাদের সময় দেয়ার প্রশ্নই ওঠে না। বুয়েট, টি এস সি কিংবা ডি এম সি ...


যন্ত্রণার শবযাত্রা

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: সোম, ১৪/১২/২০০৯ - ২:১৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

এ বছরের এপ্রিলের মাঝামাঝি এক সময়ে লেখা। কবিতা বলা চলে কিনা জানিনা। একান্ত ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার তাৎক্ষণিক বহিঃপ্রকাশ, এটুকু বলতে পারি। এমন অভিজ্ঞতা দু’একটা সবারই থাকে। সে হিসেবে এর কোন বিশেষত্বও নেই হয়তো। তবুও ... ... ...

ভেবেছিলাম অনন্য ধন
তাই ধারণ করেছিলাম
কিছু যন্ত্রণার বিনিময়ে ।
হেঁয়ালী সময়ের
বোবা চোখে
রাখিনি দু’চোখ,
দেখিনি গভীরে ক্রমাগত গোপণ ক্ষয়,
অকস্মাতই
বাতাসে যখন ভ...


সে নাম

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: রবি, ০৬/১২/২০০৯ - ৪:০২অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

নীল অস্ফূট কণ্ঠে ডাকি যে নাম
অবিশ্রাম বর্ষণের বেগে
করি যাকে আলিঙ্গন
নিরুত্তর আবেগে,
অচেনা হেমন্তের পড়ন্ত বিকেলে
ঝরা পাতার শিরায় শিরায় আঁকি যে নাম
তার হেঁয়ালি উচ্চারণে
মুক্ত হল মন্ত্রিত বন,
শীতের আগমনে
ঝরা পাতার মৃত্যু হল-
ফাগুনের দস্তাবেজে লক্ষ নামের ভিড়ে
অনন্তকাল র’বে এখন বাকি সে নাম …


বাচ্চালাপ

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: শুক্র, ০৪/১২/২০০৯ - ৯:০৯অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আমার খালা মুনা। তার দু’টি ছানা। মাহরাফ, মাইশা।মাহরাফ ৯, মাইশা ৪।
বড়টি অটিস্টিক। ভীষণ পড়ুয়া। প্রতি ক্লাশে ফার্স্ট হয়। বলে, “আমি দ্রুত বালক”(first আর fast গুলায় ফেলে)। কিছু দিন অন্তর বিচিত্র সব অবসেশন তৈরি হয় তার। একবার হল এনার্জি সেভিং বাল্ব নিয়ে। দোকানে গেলেই বাল্ব কেনার বায়না ধরে। কারুর সাথে আলাপচারিতার শুরুতেই জানতে চায়, “এই, তোমাদের বাসায় কি এনার্জি সেভিং বাল্ব আছে?”।

তার অতিসম্প...


অসার আলাপ

নাশতারান এর ছবি
লিখেছেন নাশতারান (তারিখ: বুধ, ০২/১২/২০০৯ - ১০:২০অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গপ্পো না কাব্য-
পরে বসে ভাববো ।
ভাবনার কেঠো নদী
অতীব অনাব্য ।

জল নেই জলাতে
যাই কলতলাতে
চার ফোঁটা ভাগ পেতে
ঝুলি কারো গলাতে ।

বেতালের শাসনে
বসে রাজ-আসনে
তিতকুটে ক্ষীর খাই
টকে যাওয়া বাসনে ।

ভেতো জিভে তেতো স্বাদ-
ক্ষীণ দেঁতো প্রতিবাদ ।
আবাল্য বেতো মনে
বায়বীয় বুনিয়াদ ।

সিলিকন স্বর্গে
যা খুশি কর্ গে ।
পাশ ফিরে পড়ে থাক্
শীতাতপ মর্গে ।

বুনোহাঁস