ছবিব্লগ যেতে যেতে পথে-মহেশখালী,কক্সবাজার : রেনেসাঁ

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: রবি, ০৪/১০/২০০৯ - ১০:৪৫অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

আগের ছবি

সেমিনার শেষ করেই নরওয়ে অসলো বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের আমার চার শিক্ষক বললো মহেশখালী যাবে। ওকে, রওয়ানা হলাম পরের দিন সকালে। তিনদিন এসি রুমে সেমিনার করে বুঝেনাই আমার দেশের গরমের কি অবস্থা। রিক্সা এক কিলোমিটার যেতে না যেতেই প্রফেসর থোরে খুঁজতে থাকে সানস্ক্রিন। এ ব্যাগ সে ব্যাগ কোথাও নেই সানস্ক্রিন। বোঝাতে চেষ্টা করলাম পানির ওপরে একটু ঠান্ডা আছে খুব কষ্ট হবেনা। কিন্তু সে কথাই নাহি কর্ণপাত, আর যাবেনা সে। অনেক খোঁজাখুজির পর সানস্ক্রিন বের হল তার পকেট থেকেই। বোঝেন গরমে সাদা চামড়ার .....।
কক্সবাজার থেকে মহেশখালী গতিনৌকার (স্পীডবোট) ভাড়া ৭৮০ টাকা। সময় লাগে মাত্র ১৫ থেকে ১৬ মিনিট। পুরো মহেশখালী ঘোরার চুক্তিতে রিক্সা পাওয়া যায়। তীব্র রোদে ১১০ কেজি ওজনের রবার্টকে টানতে রিক্সাওয়ালাদের.....
IMG_3098
বাম থেকে প্রফেসর রবার্ট, প্রফেসর থোরে, প্রফেসর আন্দ্রে (কোলে আমার পুত্র)প্রফেসর রুনে।

মহেশখালী বৌদ্ধ মন্দির
IMG_3112

IMG_3116

IMG_3117

IMG_3134

IMG_3136

IMG_3126

লবণ ক্ষেত, রবার্ট ও আমার পুত্র অমিয় রেনেসাঁ
IMG_3151
রবার্ট ছাড়া অন্য নরওয়েজিনরা জীবনে প্রথমবার খেল ডাব
IMG_3153
পাহাড়ের ওপরে আদিনাথ মন্দির
IMG_3156
আদিনাথ মন্দিরে উঠার চিকন সিঁড়ি
IMG_3175

ঘুরতে ঘুরতে ক্লান্ত পুত্র আর রিক্সা থেকে নামবে না
IMG_3177

রেনেসাঁ


মন্তব্য

মুস্তাফিজ এর ছবি

সেই কবে গেছিলাম। মহেশখালী বৌদ্ধ মন্দিরে তখন রঙ ছিলোনা, এখন দেখতে সুন্দর লাগে।

...........................
Every Picture Tells a Story

রেনেসাঁ [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ মুস্তাফিজ। শীতে গেলে বোধহয় আরও বেশী মজা পাবেন। কক্সবাজারও রাতে একটু নিরাপদ মনে হল।

হিমু এর ছবি

আরো ভালো ছবির প্রত্যাশা ছিলো মনে। ছবিগুলি নিতান্তই সাদামাটা হয়েছে।



হাঁটুপানির জলদস্যু আলো দিয়ে লিখি

রেনেসাঁ [অতিথি] এর ছবি

আগামীতে প্রত্যাশা পূরণ করার চেষ্টা করবো।

সুহান রিজওয়ান এর ছবি

বুদ্ধের মূর্তির পেছনের পটটা যে রকম দেখেছিলাম ছোটকালে , সেরকম নেই দেখছি...
তবে বাইরের অংশ মনে হয় পরিবর্তন হয়নি খুব একটা।

---------------------------------------------------------------------------

মধ্যরাতের কী-বোর্ড চালক

রেনেসাঁ [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ সুহান। সময়ের সাথে কিছু পরিবর্তন হবেই।

অতিথি লেখক এর ছবি

কত দিন পর এই জেটি দেখার সুযোগ হলো। ছবিগুলো শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ
আপনার ছেলেটা খুব কিউট আদর থাকলো ওর জন্য।
আপনাকে শুভেচ্ছা

"হামিদা আখতার"

রেনেসাঁ [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ হামিদা আখতার। আপনার আদর পৌঁছে দিলাম।
অনেক শুভ কামনা আপনার জন্য। ভালো থাকবেন।

অবাঞ্ছিত এর ছবি

চলুক
__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

__________________________
ঈশ্বর সরে দাঁড়াও।
উপাসনার অতিক্রান্ত লগ্নে
তোমার লাল স্বর্গের মেঘেরা
আজ শুকনো নীল...

রেনেসাঁ [অতিথি] এর ছবি

অবাঞ্ছিত আপনাকে ধন্যবাদ।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

একেবারে গতানুগতিক হলো যে ভায়া... লেখাটা বড় করলে মনে হয় কিছুটা উন্নত হতে পারে।

রেনেসাঁ [অতিথি] এর ছবি

অতিথি লেখক তাই লেখা বড় করবার কোন সুযোগ নেই। আগামীতে পুষিয়ে দিতে চেষ্টা করব। ভালো থাকবেন।

রণদীপম বসু এর ছবি

ছবিব্লগে অভিনন্দন।
ছবিতে মহেশখালী-কক্সবাজার ঠিকভাবে আসে নাই কিন্তু। তবে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। আগামীতে আশা করছি আমাদেরকে প্রকৃতির আরো কাছাকাছি নিয়ে যাবেন। সে আশায় রইলাম।

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

অতিথি লেখক এর ছবি

দাদা, আপনাকে দেখেই ছবিব্লগে আমি অনুপ্রানিত হয়েছি। আসলে আমার মুল সফর ছিল কক্সবাজার। সেটার ছবি পরে দেব। এইগুলো ফাও আর কি...

আশা করি এইভাবেই একদিন পুরো দেশটাকে তুলে ধরব।

রেনেসাঁ

সচল জাহিদ এর ছবি

কক্সবাজার থেকে মহেশখালী গতিনৌকার (স্পীডবোট) ভাড়া ৭৮০ টাকা

স্পীডবোটের বাংলাকরণ টা বেখাপ্পা লাগছে। কিছুটা সফটওয়ার এর বাংলা কোমল সম্ভার আর হার্ডওয়ারের বাংলা কঠিন সম্ভারের মত।

ছবিগুলোর আরো বর্ণনা দিলে যারা কখনো মহেশখালি যাননি তাদের জন্য শুবিধে হত।
----------------------------------------------------------------------------
zahidripon এট gmail ডট কম


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

রেনেসাঁ [অতিথি] এর ছবি

ধন্যবাদ সচল জাহিদ।
রসিকতা করেই স্পীডবোট এর বাংলা গতিনৌকা করেছি।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।