হাজার টাকার মামলা

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি
লিখেছেন সুলতানা পারভীন শিমুল (তারিখ: শুক্র, ২৩/১১/২০১২ - ৩:২৬অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

সেদিন স্কুলে ছিলো অ্যাডমিশন টেস্ট। বছরের শেষ বেলায়, তবুও স্টুডেন্ট এর কমতি ছিলো না। এটার রেজাল্ট যখনই দেয়া হোক না কেন, যেদিন পরীক্ষা নেয়া হয়, সাথে সাথেই খাতা দেখা, টেবুলেশন আর মেরিট লিস্ট করে ফেলা হয়। কাজেই বাসায় ফিরতে ফিরতে সন্ধ্যা।
গোসল-খাওয়া সেরে মোবাইল হাতে নিয়ে দেখি তিনটা মেসেজ। তারমধ্যে একটা ফ্লেক্সিলোড। অবাক হলাম। আমি লোড করতে দেইনি তো। টাকার পরিমাণ দেখে টাশকি খেলাম। এক হাজার!

এর আগে একবারই মোবাইলে একসাথে এতোগুলো টাকা পেয়েছিলাম। সেটা ছিলো বাজিতে জিতে যাওয়ার টাকা। জিতে যাওয়ার আনন্দ আর উত্তেজনায় হাঁদারাম আমি বুঝিনি তখন। পরে বুঝতে পেরেছিলাম, ওটা আসলে বাজি ছিলো না। কারণ বাজিতে হেরে যাওয়া তার ধাতেই কখনো ছিলো না। হয়তো আমাকে তার কিছু দিতে ইচ্ছে করেছিলো। কিন্তু কাউকে কিছূ দেয়াটা তার কাছে আবার ন্যাকা ন্যাকা ব্যাপার লাগে। তাই জন্মদিনের আশেপাশের একটা দিনে বাজি ধরে ইচ্ছে করে সেটাতে হেরে গিয়েছিলো সে।

কিন্তু এবারেরটা! নির্ঘাত কেউ ভুল করে পাঠিয়েছে! মনের চোখে দেখে নিলাম ব্যাগে অতো টাকা আছে কিনা। বেশ আগে একজনের ফ্লেক্সি আমার ফোনে চলে এসেছিলো। দশ টাকার। সেই ভদ্রলোক সাথে সাথে ফোন করেছিলেন। বেকায়দা সময় আর অবস্থানে থাকার কারণে টাকাটা পাঠাতে পরের দিন লাগবে জানালাম। কিন্তু সময়টা অনেক লম্বা মনে হওয়ায় বেশ কয়েকবার ফোন করে করে প্রায় অর্ধেক পরিমাণ টাকা তিনি আমার পেছনেই খরচ করে ফেলেছিলেন।

অপেক্ষা করতে থাকি। কিন্তু অপেক্ষার প্রহর শেষ হয় না। কেউ ফোন করে না। কিন্তু করা উচিত। আমাকে এভাবে টাকা পাঠানোর কেউ নেই। একে তো ভয়াবহ রকমের অসামাজিক। বাবা-মা ছাড়া তেমন কাউকেই নিয়মিত ফোন করা হয় না। বাপ-মা ছাড়া যাদের যোগাযোগ এই অধমের সাথে এখনো আছে, সেটা কেবল তাদের অসীম ধৈর্য্য আর সহ্যক্ষমতার কারণেই আছে। আর দুইয়ে তো দরিদ্র ইস্কুল মাষ্টার আমি। দুইশোর বেশি টাকা একসাথে লোড করা হয়ে ওঠে না। কাজেই আমার ফোনে ব্যালান্স সবসময় পঞ্চাশ থেকে তিনশোর মধ্যে ওঠানামা করে। সেই ফোনে হাজার টাকা একটু ভারি লাগে। হঠাৎ কি মনে হলো। যদিও সম্ভাবনার কথা ভাবিনি, তবুও শেয়ার করা এবং যদি লাইগা যায় - এই দুই জিনিস একসাথে মিশিয়ে একজনকে মেসেজ পাঠালাম। সে কি আমাকে ফোনে টাকা পাঠিয়েছে? সে বেজায় অবাক হলো। কিন্তু হ্যাঁ-না কিছুই বললো না। আমি আবারো সরলভাবেই জানতে চাই, পাঠায়নি তাহলে? এই প্রশ্নে কবি নীরব হয়ে গেলো। এইবার সত্যি সত্যি আমার একটু একটু সন্দেহ হতে থাকে। না-ই যদি পাঠিয়ে থাকে, প্রশ্নের উত্তরে “না” বলে না কেন?
লম্বা সময় চুপ থাকার পরে সে আমাকে জিজ্ঞেস করে
: ভালো করে ভেবে দেখেছেন, আর কেউ টাকাটা পাঠাতে পারে কি না।
: জ্বি। ওরকম কেউ নাই।
: কতো টাকা পাঠিয়েছি বলে দায়ী করছেন আমাকে?
: এক হাজার।

কবি এবার আবারো ডুব। এবার আরো লম্বা ডুব। কি যন্ত্রণা! এইসব কথার মানে কী বুঝবো? মহাকাজে ব্যস্ত থাকায় ফোনের খোঁজ নেয়ার সময় পাইনি। মাঝরাতে খেয়াল করলাম, একখান মেসেজ। সন্ধ্যায় পাঠানো। “এইমাত্র আপনাকে ফোনে একহাজার টাকা পাঠিয়ে এলাম। অভিযোগ যখন করবেনই, হালাল উপায়েই অভিযুক্ত হই।“ ডোবায় পড়ে ছিলাম। সেখান থেকে এবার অথৈ সাগরে পড়লাম। ব্যালান্স চেক করে দেখি, দুই হাজার একশো আটান্ন টাকা মাত্র। কার কাছে গিয়া জিগাই, সে এমন করলো ক্যান...? অ্যামন তপ্ত হইয়া টেকা পাঠানোর কী দরকার আছিলো তার...। আমার মন খারাপ হয়। ভীষণ।

বন্ধুত্বে টাকাপয়সার লেনদেন যে খারাপ ব্যাপার, সেটা আমার বুঝে ওঠার আগেই বুঝে ফেললো আমার ফোন। অপ্রত্যাশিত আর অন্যায় এই লোড ফোনটা নিতেই পারলো না। অল্প সল্প সমস্যা হচ্ছিলো, এবার সে পুরাই নষ্ট হয়ে গেলো।
নতুন একটা ফোন কিনতেই হলো শেষমেষ...
টেকাপয়সা আসলেই খুউপ খ্রাপ জিনিস!


মন্তব্য

অনিন্দিতা চৌধুরী এর ছবি

আহারে, আমাকে কেউ এরকম পাঠায় না মন খারাপ যা ও ভুল করে মাঝে মাঝে পাঠায় তার জন্য আবার ফোন করে আদায় করে নেয়। তবে মানুষ যে কত কিসিমের হয়! একবার বোধ হয় ৫০ টাকা কেউ ভুলে পাঠিয়েছে। যথারীতি ফোন করে অনুরোধ করলো তাকে ফেরত পাঠাতে । আমিও সাথে সাথে পাঠিয়ে দিলাম। এরপর ই শুরু হলো যন্ত্রণা। ভদ্রলোক (!)বার বার ফোন দিয়ে জানাতে লাগলেন যে উনি পাননি। অথচ আমি ভাল করে নিশ্চিত হয়েই পাঠিয়েছিলাম। মতলবটা পরে বুঝেছি। টাকা পাঠানো টা আসলে একটা অজুহাত ছিল। বুঝলাম , মানুষের উপকার করাটা ভীষণ বিপদের ব্যাপার হাসি

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আপনি তো আমাকে এইরকম মতলবে টাকা পাঠানোর সুযোগটাও দিতে পারতেন! মন খারাপ

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অনিন্দিতা চৌধুরী এর ছবি

মন খারাপ মন খারাপ

তারানা_শব্দ এর ছবি

দারুণ লাগলো!!! হাহাহা!! আগামী ৩ মাস আর ফ্লেক্সি করা লাগবে না হাততালি

কষ্ট সহজ,
বুকের ভেতর কষ্ট পোষা, সহজ না ...
স্পর্শ সহজ,
হৃদয় দিয়ে হৃদয় ছোঁয়া, সহজ না ...
দুঃখ সহজ, হত্যা সহজ, জীবন সহজ ...
শুদ্ধতম জীবনযাপন, সহজ না ...

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

হ, তারানা বেগম, সেইটাই! ইয়ে, মানে...

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অতিথি লেখক এর ছবি

বেশ চমৎকার অভিজ্ঞতা। রহস্য থেকে গেল।
_ মাহবুব আলী

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

মন খারাপ

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

স্যাম এর ছবি

দেঁতো হাসি

অতিথি লেখক এর ছবি

শ্যাম চাচা এই রকম দেতো হাসি দিলেন কেনু? তবে কি শ্যাম চাচা-ই দায়ী? - কাজী

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

তবে কি... চিন্তিত চোখ টিপি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

তারেক অণু এর ছবি
সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আমার সাধের মোবাইলটা গেলো।
আর আপনে বত্রিশ দাঁত বাইর কইরা হাসতেসেন! রেগে টং

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অতিথি লেখক এর ছবি

বাহ! খুব সুন্দর করে বললেন তো আপনার গল্পটা।

- ছাইপাশ

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

থ্যাংকিউ। হাসি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

যাযাবর ব্যাকপ্যাকার এর ছবি

ফোনের পাশাপাশি টাকাটা আছে, নাকি সেটা গেছে গিয়ে?

আমাকে কেউ ভুল করেও পাঠায় না গো দিদিমণি! সব সময়ে ভুলটা আমারই হয়! তাও আবার জিপি-র কেরদানি আছে, গত বছর হাজার টাকা নিজের ফোনে পাঠাতে গিয়ে নিজেরই নাম্বার ভুল করে অন্যখানে পাঠাবার পরে জিপি জানালো বেঁচে গেছি নাকি একটুর জন্যে, প্রি-পেইড নম্বরে পাঠালে আর রক্ষে ছিলো না তাদের সিস্টেমে, পোস্ট-পেইডে গেছে, তাই নাকি উপায় আছে! তা সেই উপায়ের পেছনে মেলা দৌড়াদৌড়ি করে (ওর থেকে হাজার টাকার লসও ভালো ছিলো!), ফেরত পেয়েছিলাম বটে!

কিন্তু এই বছরই তিনশ'টা টাকা পুরাই পানিতে গেছে। যাই হোক, এরপরে আপনাকে কেউ বেশি টাকা ভুলে-চুকে পাঠায়ে দিলে আপনি না হয় সেটা হালালাইজ করতে আমাকে আবার রি-ডাইরেক্ট করে দিয়েন। গরীব মানুষ, তার উপরে বেশি কথা বলি ইদানীং ফোনেও! মন খারাপ

___________________
ঘুমের মাঝে স্বপ্ন দেখি না,
স্বপ্নরাই সব জাগিয়ে রাখে।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

হাহাহা
এইসব ভুল তোমাকে বেশ মানিয়ে যায়, যাযাবর। দেঁতো হাসি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

যাযাবর ব্যাকপ্যাকার এর ছবি

তা আর বলতে! মন খারাপ

___________________
ঘুমের মাঝে স্বপ্ন দেখি না,
স্বপ্নরাই সব জাগিয়ে রাখে।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

দেঁতো হাসি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

সত্যপীর এর ছবি

কি চমত্কার সমস্যা!

..................................................................
#banShibir

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

সমস্যা আদতে সমস্যাই, পীরসাহেব।
সমস্যা ভালু না।

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

সত্যপীর এর ছবি

উঁহু এরাম মধুর সমিস্যা ঠিকাছে।

..................................................................
#banShibir

বন্দনা এর ছবি

চলুক

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আচ্ছা। হাসি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

জুন এর ছবি

অপেক্ষা করুন। সামনেই তো বাৎসরিক পরীক্ষা। কোনও ছাত্রের কাছ থেকে ফোন আসল বলে। আমি শিক্ষা বোর্ডের কন্ট্রোলারদের শুদ্ধ দেখেছি এরকম ফ্লেক্সি পেতে। তবে বেশিরভাগ সময় অবশ্য হিতে বিপরীতই হয়। হাসি

যদি ভাব কিনছ আমায় ভুল ভেবেছ...

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

এই ধরনের কথা আমিও শুনেছি। তবে এইরকম সন্দেহ একবারো হয়নি।
এরকম যেন এইক্ষেত্রে না ঘটে। আমাদের বাচ্চারা এখনো বাচ্চাই থাক।

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

সুমাদ্রী এর ছবি

মন খারাপ '' কেউ কোনদিন আমারে তো ফ্লেক্সি করল না, ফ্লেক্সি করল না '' মন খারাপ

অন্ধকার এসে বিশ্বচরাচর ঢেকে দেওয়ার পরেই
আমি দেখতে পাই একটি দুটি তিনটি তারা জ্বলছে আকাশে।।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আহারে! দেঁতো হাসি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অতিথি লেখক এর ছবি

তেত্রিশ বছর কাটল, কেউ ফ্লেক্সি করল না মন খারাপ

''নিন্দুক''

ক্রেসিডা এর ছবি

''নিন্দুক''

দেঁতো হাসি

__________________________
বুক পকেটে খুচরো পয়সার মতো কিছু গোলাপের পাঁপড়ি;

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আর কয়টা দিন সবুর করেন, নিন্দুক। কেউ না কেউ রসুন তো বুনেছেই। চোখ টিপি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

বন্দনা এর ছবি

বেশ মজারতো শিমুলাপু, এইবার চুটায়ে কথা বলেন।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

সেইটাই তো পারি না রে ভাই।
বহুদিন হলো, মোবাইলে পাঁচ-সাত মিনিটের বেশি কথা বলতেই পারি না। ইচ্ছাও করে না। ইয়ে, মানে...

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অরফিয়াস এর ছবি

এই মাসে বেশ কয়েকবার বাংলালিঙ্ক থেকে সপ্তাহখানেকের জন্য ৫ টাকা করে ব্যালেন্স ধার করে কাজ চালাতে হয়েছে, আপনি বরং মুক্ত হস্তে আপনার বিপুল ব্যালেন্স দান করার ব্যবস্থা করুন, আমি লাইনে আছি।

----------------------------------------------------------------------------------------------

"একদিন ভোর হবেই"

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

মুক্ত হস্তে দান কইরা অলরেডি ফাডায়ালাইসি, ভাইজান। চোখ টিপি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

ফাহিম হাসান এর ছবি

টেকাপয়সা আসলেই খুউপ খ্রাপ জিনিস!

- সহমত

কী মোবাইল কিনলেন?

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

হ।
এই প্রথম স্যামসাং কিনলাম। গ্যালাক্সি পকেট।
আই অ্যাম লাভিং ইট! দেঁতো হাসি
প্রবলেম একটাই লাগে, হাঁটতে হাঁটতে বা মোবাইলের দিকে না তাকিয়ে মেসেজ লিখতারি না এইটাতে। মন খারাপ

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

রংতুলি এর ছবি

দুনিয়াটা রহস্যময়!! ঘটনার পর ফোনটাও অকেজো হয়ে গেলো বলছেন, আমি তো কেমন মহাজাগতিক রহস্যের গন্ধ পাচ্ছি.. চিন্তিত

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

মহাজাগতিক!
মাইচ্চে! চিন্তিত

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

নিলয় নন্দী এর ছবি

আমি পেয়েছিলাম একবার দশ টাকা।
তারপর ফোনের পর ফোন।
লাইফটা একেবারে হেল করে দিল !

টেকাপয়সা খুউপ খ্রাপ জিনিস!

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

হাহাহা
মাত্র দশ টাকায় নরক-দর্শন।
মন্দ না তো, নিলয়'দা। চোখ টিপি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

রণদীপম বসু এর ছবি

আহারে ! মানুষ কত দিক থাইকা কত কিছু পায়---!!

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

খাইছে

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

নীড় সন্ধানী এর ছবি

বলতে ভুলে গেছিলাম মোবাইলে কেমনে টেকাপয়সা লেনদেন হয় টেষ্ট করার জন্য টাকাটা আসলে আমিই পাঠাইছিলাম দেঁতো হাসি
কিন্তু ফেরত চাহিয়া এসেমেস দিতে ভুলে গেছি। এবার ফেরত দ্যান ০১৭৪০৩৬৫..... খাইছে

‍‌-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.--.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.
সকল লোকের মাঝে বসে, আমার নিজের মুদ্রাদোষে
আমি একা হতেছি আলাদা? আমার চোখেই শুধু ধাঁধা?

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আমি তো ভাবসিলাম সম্প্রদান কারক! মন খারাপ

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

দময়ন্তী এর ছবি

বাঃ দারুণ তো। কি মজা হাসি

আমার একবার এয়ারটেল পোস্টপেইড কানেকশানে হঠাৎ ১০০০০ টাকা কেউ পাঠিয়ে ফেলেছিল। মনে হয় অনলাইন পেমেন্ট করতে গিয়ে এক আধটা ডিজিট ভুল করে আমার নাম্বারে করে ফেলেছিল। কাস্টমার কেয়ারে ফোন করলাম, ওরা বলে যার ভুল হয়েছে তিনি নিজে যোগাযোগ না করলে কিচ্ছু করা যাবে না। পরে দিন ১৫ বাদে সে টাকা আবার অ্যাকাউন্ট থেকে বেরিয়ে যায়। 'ভাগ্যিস!

-----------------------------------------------------
"চিলেকোঠার দরজা ভাঙা, পাল্লা উধাও
রোদ ঢুকেছে চোরের মত, গঞ্জনা দাও'

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

লাকি ইউ!
মনের ওপর লোড পড়লো না, এর থেকে ভালো আর কী হইতারে!

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

তাপস শর্মা এর ছবি

প্রথম দিকে পড়তে পড়তে মনে মনে বলছিলাম - এহ, দেখছ নি, দিদিমণির কি ভাগ্যি, ইয়াক্ষোদা ... অ্যাঁ

হে হে হে শেষে আইসা যখন মুবাইল্ডা নষ্ট হৈল সাথে সাথে কৈলজাডা ঠান্ডা হইয়া গেলো শয়তানী হাসি

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

ঠাডা পড়বো কইলাম! রেগে টং

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

সাফিনাজ আরজু  এর ছবি

দেঁতো হাসি

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

মন খারাপ

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

সুহান রিজওয়ান এর ছবি

আপনাকে এফএনএফ করে ফেলতে হবে দেখি হাসি

_________________________________________

সেরিওজার গল্প

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

উক্কে! দেঁতো হাসি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অতিথি লেখক এর ছবি

আগের মোবাইলটা মনেহয় জিন্দেগীতেও একসাথে দুইহাজার টাকা দেখেনাই, তাই এই লোড নিতে না পারে লোডশেডিং করে ফেলেছে। ব্যাপার না। এই সুযোগে নতুন মোবাইল তো কেনা হলো।

লেখা সুস্বাদু হয়েছে। আশা করা যায় আপনার আরেকটি লেখার জন্য এই মোবাইলের নষ্ট হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবেনা। চোখ টিপি

ফারাসাত

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

জ্বি।
গরীব মানুষের মোবাইল, বুঝতেইসেন! মন খারাপ

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অতিথি লেখক এর ছবি

আপ্নে গরীব?? অ্যাঁ তাহলে তো আমি কাঙ্গাল। জিন্দেগীতে ৫০০ টাকার বেশী ব্যালেন্স আমার মোবাইল দ্যাখেনাই। ওঁয়া ওঁয়া

ফারাসাত

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

থাক, কাইন্দেন না।
দেইখেন, একদিন আমরাও...
আর আমাদের মোবাইলরাও...

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

জোহরা ফেরদৌসী এর ছবি

ট্যাকা পয়সা আসলেই খুব খ্রাপ জিনিষ

দশ কথার এক কথা ।

__________________________________________
জয় হোক মানবতার ।। জয় হোক জাগ্রত জনতার

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

দীর্ঘশ্বাস!

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

সাফিনাজ আরজু  এর ছবি

নতুন একদা গ্যালাক্সি মোবাইল হইছে হাততালি
ভালো তো আপু, নতুন কিছু আসল জীবনে।

আমি একবার ৬০০ টাকা পাইছিলাম হুট করে।
আফসুস,১০০০ আর পাওয়া হলনা মন খারাপ

ট্যাকা পয়সা আসলেই খুব খ্রাপ জিনিষ- এইডা হইছে একদম মনের কথা!

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

পুরোনো জিনিসের মায়া ভয়ংকর! মন খারাপ

ইশ!
আর চারশোর জন্য হলো না! মন খারাপ
মন খারাপের কিছু নাই, নেক্সট টাইম এনশাল্লাহ... চোখ টিপি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

কী কপাল! দেঁতো হাসি

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

সেটাই প্রহরী সেটাই...

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

Rifat  এর ছবি

ওরে, আমি আবার কলব্যাক করি কোন দুক্ষে

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA