কয়েক টুকরো বাবাইকথা

সেলিনা তুলি এর ছবি
লিখেছেন সেলিনা তুলি (তারিখ: মঙ্গল, ২৫/০৯/২০০৭ - ২:২৬অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

কি অবাক করা কথা বলে বাবাই। সকাল ৯টা বাজতেই ও শুরু করে দেয়,“মা তুমি আইজ অফিসও যাইবায়নি।” আমি পাল্টা প্রশ্ন করি ,তুমি কও যাবো কি না । উত্তর না দিয়ে ও পাল্টা আক্রমন করে বলে “মা,আমি তোমারে জিকাইছি তু....মি যাইবায়নি...”, (জিজ্ঞেস করছি তুমি যাবে কীনা)

সুটকেস বের করলেই বলবে,মা তুমি নানা বাসাত যাইতায়নি ?

আজ (২৯ আগষ্ট) সকাল বেলা আমরা সবাই নাস্তার টেবিলে, ওর দাদা নিশিকে কোন কারনে বকা দিচ্ছেন,কেউ কিছু বলছে না ,ও বলছে দাদা ,দাদা ও দাদা , উনি বললেন,জি-ও বলল ইতা বালা অইছে না। কয়েকবার বলল এরকম একটা কথা যে,উনার এটা করা ঠিক হচ্ছেনা। কি -জিজ্ঞেস করলে কথা ঘুরিয়ে অন্য কথা বলে । শেষে ওর চাচা জোর করে ধরলেন,বল বাবা কি ঠিক না? ও বলে,“ আমার নিনি আপারে চিল্লাইছো কেনে। ” আমরা সবাই হাসতে হাসতে শেষ। বুদ্ধি করে কথা বলা শিখে গেছে আমার সোনা বাবাই।

কি আকুতি মেশানো চোখে মুখটা বাড়িয়ে দেয় সোনা বাবাই আদর করার জন্য...

(এগুলো আসলে মানোত্তীর্ন নয়। অবিন্যাস্ত মানবিক কথামালা। আজ এক লাইন তো পরশু আরেক লাইন। অধারাবাহিক অনুভূতিমালা...)


মন্তব্য

এস এম মাহবুব মুর্শেদ এর ছবি

আপনার সোনা বাবাইকে আদর। কত বয়স হলো?

====
চিত্ত থাকুক সমুন্নত, উচ্চ থাকুক শির

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

সন্তানের সাথে আবার নতুন করে শিশুকাল পার করে মা-বাবারা।
একবার তো গেছে না বুঝে। এবার খানিকটা বুদ্ধির চোখে।

(মান নিয়ে ভারাক্রান্ত হওয়ার কিছু নেই। ব্লগ হলো নিজের যেমন ইচ্ছা লেখার পাতা। নিজের জন্য নিজের লিখে রাখা। আর পৃথিবীতে মান বেঁধে দেয়ার কেউ নেই। পাঠক আছে তার নিজের পছন্দ নিয়ে। চাইলে পড়তে পারে, নাও পারে। লিখে যান নিশ্চিন্তে। আমার তো পড়তে ভীষণ ভালো লাগলো। ঠিক এইকথাগুলো আমি তো আগে কোথাও পড়িনি। সুতরাং অসুবিধা কোথায়?)
-----------------------------------------------
সচল থাকুন ---- সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

সেলিনা তুলি এর ছবি

ধন্যবাদ আপনাকে। ওর বয়স এখন আড়াই বছর। @ এস এম মুর্শেদ।

শোহেইল ভাই একেবারে ঠিক বলেছেন। ব্লগ নিয়ে আপনার বলা কথাটা উৎসাহ দেয়। তবু বলে নিলাম। সবাইতো আর আপনার মতো সহনশীল মন নিয়ে পড়তে বসবেননা।

মাশীদ এর ছবি

ঠিক। বসের কথায় আমিও শান্তি পেয়েছি। এখানের ভারী ভারী লেখার ভীড়ে প্রায়ই ভয় ধরে যায় কি লিখব আর সেটা কে কিভাবে নেবে ভেবে। কিন্তু আসলেই তো, ব্লগ হচ্ছে নিজের ভাবনা লেখার জায়গা আর যার ইচ্ছা সে পড়ুক আর যার ইচ্ছা সে না পড়ুক। আপনার এই অবিন্যস্ত মানবিক কথামালার পাঠক হিসেবে অনেকের মাঝে আমাকেও পাবেন। আমার দাবী, এটাকে অধারাবাহিক আর রাখবেন না।

সৌরভের কমেন্টের পরে একটা কমেন্ট করেছি এটার আগে। বাবাইকে আবারো আমার থেকে অনেক অনেক আদর।


ভাল আছি, ভাল থেকো।


ভাল আছি, ভাল থেকো।

হিমু এর ছবি
সেলিনা তুলি এর ছবি

হাত বন্ধ করে কি-বোর্ড চাপার কোন তরিকাকি আছে হিমু ভাই?

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

এরকম বাবাইকথাগুলোই মজা লাগে ,,,
আরো কে যেন 'বাবাই' শব্দটা ব্যবহার করেছিলেন? হাসি

চলুক বাবাইকথা

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

সেলিনা তুলি এর ছবি

ধন্যবাদ জ্বিনের বাদশা।

আর কে বাবাই বলে এইটা নাহয় আপনার জন্য একটা ধাঁ ধাঁ... দেখি উত্তরটা বের করতে পারেন কীনা...

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

ওরেব্বাবা ,,,এতদিন আমি লোককে ধাঁধা জিজ্ঞেস করে বেড়াতাম ,,,আর আজ কিনা চোখ টিপি

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

আরিফ জেবতিক এর ছবি

লিখে রাখো,তাইলে আর পিচ্চি বড়ো হলে আলাদা করে ছোটবেলার লেখা চাইতে হবে না আমার।

সেলিনা তুলি এর ছবি

এই মজা থেকে আর কতদিন দুরে থাকবেন আরিফ ভাই?

আরিফ জেবতিক এর ছবি

আপাতত:আগের মজাই শেষ হলো না...

আনোয়ার সাদাত শিমুল এর ছবি

স্বাগতম, সেলিনা তুলি!

মজা লাগছে, ব্লগের ধাঁধার ওস্তাদ জ্বিনের বাদশা আপনার মন্তব্যে ধরা খেলো হাসি

সেলিনা তুলি এর ছবি

ধন্যবাদ শিমূল।
আপনার আমন্ত্রনের জোরেই আজ আমি এখানে।

অরূপ এর ছবি

এগুলো আসলে মানোত্তীর্ন নয়। অবিন্যাস্ত মানবিক কথামালা

এই ধারনাটা ভুল। এই ভুল ভেঙ্গে বের হতে হবে..
এই কমিউনিটিটা গড়েই উঠেছে এই জাতীয় লেখা থেকে।
তুলি আপার কাছে আরো পোস্ট আব্দার করা হল..

পুনশ্চ: বাবাই এর একটা ছবি দিলে ভালো হতো..
-------------------------------------
রামছাগলের সামনে, খচ্চরের পেছনে আর নির্বোধের ধারেকাছে না থাকাই শ্রেয়!

সেলিনা তুলি এর ছবি

ধন্যবাদ অরুপদা।
ছবি দেওয়ার সিস্টেমটা আয়ত্বে আসেনি । তবু চেষ্টা করছি।

সৌরভ এর ছবি

হুমম।
আমার কাছে বাবাইর একটা ছবি আছে।

বাবার সাথে, বাবাই একটা সাদা টি-শার্ট গায়ে, সম্ভবত বুকে লেখা "Sailor Kid", আর বাবার পিঠে একটা ব্যাগ।
আর পিছনে আপনাদের সাদা বাড়িটা।

আমি এই ছবিটা অনেকবার দেখেছি। কী সুন্দর লাগে বাচ্চাটাকে!
বাবাই র জন্যে সৌরভ আংকেলের ভালবাসা।



আমি ও আমার স্বপ্নেরা লুকোচুরি খেলি


আবার লিখবো হয়তো কোন দিন

মাশীদ এর ছবি

হ্যাঁ, ঐ ছবিটা খুব কিউট। ঠিক যেন পপাই দ্য সেইলারম্যানের জায়গায় বাবাই দ্য সেইলারকিড।

এত্ত মায়া মায়া পিচ্চিটা! এত্ত কিছু বুঝতে শিখে গেছে এখনি! কী মজা!! আমার তরফ থেকে ওকে একটা খুব জোরে জাপটে ধরে hug করে দিয়েন, তুলি আপা/ভাবী! জ্বিনের বাদশা ভাইয়ের ধাঁধাটা মনে পড়ে গেল ভাবী বলতেই চোখ টিপি । হি হি হি!


ভাল আছি, ভাল থেকো।


ভাল আছি, ভাল থেকো।

জিফরান খালেদ এর ছবি

মাশীদাপু, আমি তো ঘটনা কিছুই বুঝতেসিনা।

বাবাই মিয়ার সাথে তুলি আপা আর বাদশা মিয়ার কি উত্তরাধিকারের সম্পর্ক নাকি? তুলি আপারটা বুঝলাম। কিন্তু, জ্বীন সাহেবেরটা...

নতুন হওয়ার এই এক ঝামেলা, কিসুই ধরতে পারি না...

আর, আমিও ঐ ছবিটা দেখতে চাই, সৌরভদা।

জ্বিনের বাদশা এর ছবি

হুমমম ,,, নতুন হলে যে বুঝতে সমস্যা হয় সেটা বোঝা যাচ্ছে ,,,
বাবাইর আঙ্কল জ্বিনের বাদশা একটু ধাঁধাবাজ কিনা ,,, ধাঁধার আদলে বৌদিকে স্বাগতম জানাতে গিয়ে ছোটখাট একটা ধরা খেয়েছে আর কি হাসি

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

========================
যার ঘড়ি সে তৈয়ার করে,ঘড়ির ভিতর লুকাইছে

সেলিনা তুলি এর ছবি

সৌরভ ও মাশীদ আপনাদের কথা শুনে ভাল লাগছে। আমার বাবাইটাকে আপনারা এত এত ভালবাসেন... মন ভাল হয়ে যায় এমনটা দেখলে।

জ্বীনের বাদশা, মজা লাগছে পুরা ব্যপারটায়। জিফরানের উত্তরটা আমি দেবনা...

বিপ্লব রহমান এর ছবি

হায় শৈশব! আমার চুরি হওয়া আশ্চর্য সোনালী শৈশব, ক্রিম ক্র্যাকার বিস্কুটের গন্ধমাখা দিন!

বাবাই সোনাকে অনেক আদর।


একটা ঘাড় ভাঙা ঘোড়া, উঠে দাঁড়ালো
একটা পাখ ভাঙা পাখি, উড়াল দিলো...

সেলিনা তুলি এর ছবি

শৈশব সব সময়ই মধুর।
ধন্যবাদ আপনাকে।

তিথীডোর এর ছবি

"বাবাই" শব্দটা চোখে পড়তেই খটকা লাগলো, বুঝতে দেরি হয়নি আপনিই তুলিআপু .. মর্মাহত বাউলগৃহিনী!
বাবাইর জন্যে অনেক আদর!
--------------------------------------------------
"আমি তো থাকবোই, শুধু মাঝে মাঝে পাতা থাকবে সাদা/
এই ইচ্ছেমৃত্যু আমি জেনেছি তিথির মতো..."
*সমরেন্দ্র সেনগুপ্ত

________________________________________
"আষাঢ় সজলঘন আঁধারে, ভাবে বসি দুরাশার ধেয়ানে--
আমি কেন তিথিডোরে বাঁধা রে, ফাগুনেরে মোর পাশে কে আনে"

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।