Warning: Creating default object from empty value in i18ntaxonomy_term_page() (line 34 of /var/www/sachalayatan/s6/sites/all/modules/i18n/i18ntaxonomy/i18ntaxonomy.pages.inc).

রেখাচিত্র

মুখোশ উন্মোচন

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: মঙ্গল, ০৭/০৫/২০১৯ - ১:৪৩অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


জার্সিকাণ্ড

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: বুধ, ০১/০৫/২০১৯ - ২:০৭অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

- আঁকারটুন


জ্যাকসন পোলক আর ফ্র্যাকটাল ইম্প্রেশনিজম

অবনীল এর ছবি
লিখেছেন অবনীল (তারিখ: বুধ, ২০/০২/২০১৯ - ১০:১০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

মনে করুন আপনি একজন চিত্রশিল্পী। যেমন তেমন শিল্পী না, চিত্রাঙ্কনের জটিল সব প্রক্রিয়া আপনার নখদর্পনে। যেকোন লোকের চেহারা বা যেকোন জিনিস হুবহু এঁকে ফেলা আপনার কাছে কোন ব্যাপারই না। রং, আলো-ছায়ার ব্যবহার, দর্শানুপাত, গঠনপ্রকৃতি, মাধ্যম এসব আপনি গুলে খেয়েছেন। যে যেটাই আপনার কাছে এঁকে দেবার আবদার করুক না কেন, আপনি এঁকে ফেলতে পারেন। এখন ভাবুন আপনি এমন একটা ছবি আকতে চান যাতে কোন "কিছু"-র উপস্থিতি থাকবে না। ধরা যাক, আপনার উদ্দেশ্য দর্শকের কাছে আপনি আপনার গতিপ্রকৃতি, আপনার চলাফেরা, স্থানপরিবর্তনের যে গতিধারা তা তুলে ধরতে চান। কিন্তু কোন ধরনের গতিশীল কিছু বা স্থানান্তর বিষয়ক কোন ঘটনা চিত্রায়িত না করেই আপনি তা করতে চান। কোন কিছু থাকা মানেই কিন্তু সেটা আপনার উদ্দেশ্যের ভুল ব্যাখ্যা হয়ে হবে। কারণ তাতে কোন ঘটনা বা বস্তুর সাপেক্ষে সেই গতিধারার বর্ণনা দেওয়া হচ্ছে। যেটাকে আপনি উপস্থাপনের মূল বিষয় করতে যাচ্ছেন তা হয়ে যাচ্ছে আরেক বিষয়ের উপর নির্ভরশীল। আপনি শুধুমাত্র সেই গতিপ্রকৃতিকেই চিত্রবন্দি করতে চান। কিভাবে করবেন?

small
ছবিঃ লুসিফার । সময়কালঃ ১৯৪৭।


লুঙ্গি তুলে

সুজন চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন সুজন চৌধুরী (তারিখ: বুধ, ০৩/০১/২০১৮ - ২:২৩পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:


ল‍্যাঙ্গু পরীক্ষা !


আমাদের একটা ঋত্বিক ছিল !

সুজন চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন সুজন চৌধুরী (তারিখ: শনি, ০৪/১১/২০১৭ - ১১:৫৭পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

ছবিটা লিখতে গিয়ে মনের কথাগুলো রেখার সাথে মিশে গেল। এভাবেই রইলো কথাগুলো,এভাবেই থাক।


অন্ধকারের উৎস-হতে উৎসারিত আলো

সুজন চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন সুজন চৌধুরী (তারিখ: সোম, ০৮/০৫/২০১৭ - ১১:২৩অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

তাঁর বিপুল ছন্দে ছন্দে
মোরা যাই চলে আনন্দে,
তিনি যেমনি বাজান ভেরী মোদের তেমনি নাচের ভঙ্গি ॥
যাঁর নানা রঙের রঙ্গ মোরা তাঁরি রসের রঙ্গী ॥
----বুড়োটা আর বুড়ো হয় নারে!


নভেরার সন্ধানে : ১- শৈশব দর্শন

কর্ণজয় এর ছবি
লিখেছেন কর্ণজয় (তারিখ: সোম, ০৭/১১/২০১৬ - ১১:৫৯অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

একজনের শৈশবকে বোঝা গেলে, মানুষটির মনের ভেতর বাহির ধরা যায়। কেননা বলা হয়ে থাকে, মানুষ মৃত্যু পর্যন্ত শৈশবকে বহন করে চলে। তাই নভেরাকে আমরা বুঝতে গেলে, তার শৈশবের ছবি সম্পর্কে একটা ধারণা থাকা প্রয়োজন। নভেরা আহমেদকে নিয়ে আলোচনার এটি একটি সীমাবদ্ধতা, আমরা তার কাছ থেকে কোন কথা শুনিনি। অন্যদের কাছ থেকে তার সম্পর্কে যতটুকু পাওয়া যায় তা খুবই খন্ডিত এবং সীমাবদ্ধ ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতাজাত ধারণা প্রসূত। সমস্ত কিছ


রাজশাহীর রিক্সার ছবি

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: শনি, ২৩/০১/২০১৬ - ১২:০১পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

রিক্সার ছবি নিয়ে আমার উৎসাহ অনেক দিনের। ডিজিটাল অটোম্যাটিক ক্যামেরার সহজলভ্যতার আগের দিন গুলোর জন্য আমার আফশোস হয় কেন আমার ক্যামেরা ছিলনা আর সেই পুরনো রিক্সার ছবি গুলো তুলে রাখতে পারিনি। কিন্তু সেটা পুষিয়ে নিতেই যেদিন থেকে একটা ডিজিটাল অটোম্যাটিক ক্যামেরা পেয়েছি সেদিন থেকেই রিক্সার পেছনের টিন শিটটায় আঁকা ছবি গুলো ক্যামেরা বন্দী করতে শুরু করে দিই। ছবি গুলো আদৌ কোন নান্দনিক সূত্রে পড়ে কিনা জানিনা,


“ঘাসকলি খুব গোপনে ফোটায় ছোট ছোট সাদা ফুল...”

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: বুধ, ০৬/০১/২০১৬ - ৭:২৬পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

[justify]বাংলার বাউল দর্শনের দু’টি খুব শক্তির জায়গা আছে- একটি সহজ জীবনযাপন প্রণালী অন্যটি যুথবদ্ধতা। খেয়াল করবেন, বাউল সাধুগুরুগণ খুব সহজসরল জীবনযাপনে অভ্যস্ত। আখড়া বাড়িতে সাধুসঙ্গ হয় যৌথ মিথস্ক্রিয়ার ভিত্তিতে। সেখানে কে আশরাফ আর কে আতরাফ, কে সাদা আর কে কালো, কে নারী কে পুরুষ সেটার ফারাক হয় না। মোটকথা মানুষে মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত মিলনে বাউলদের বহমান জীবন কখনো জীর্ন হয়ে পরে না। বরং এক বিশাল অখণ্ডতার


একজন HYOHAKUSHA

স্যাম এর ছবি
লিখেছেন স্যাম (তারিখ: বিষ্যুদ, ১৯/১১/২০১৫ - ১:৫৫পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

তার লেখার শুধু শিরোনামের শব্দগুলো যোগ করলেও আমার সব লেখার মোট শব্দের চাইতে বেশি হবে।