কলমসুনা শুভাশিস ব্যানার্জি'র তেলেসমাতি

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি
লিখেছেন অনার্য সঙ্গীত (তারিখ: সোম, ০২/০৪/২০১২ - ১:১৮পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

মার্চের আটাশ তারিখে লেখা জাফর ইকবাল স্যারের একটা লেখা পড়লাম সাংবাদিক শুভাশিস ব্যানার্জি, তার সাংবাদিকতা এবং তার সোনার বাংলা ডেইলি নিউজ ২৪ ডট কম বিষয়ে! আহা! মনটা যে কেমন হয়ে গেল! চোখ ভিজে উঠল! শুভাশিস ব্যানার্জীর পরিচয় দেই, তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেলের ছাত্র ছিলেন। অন্তত জাফর ইকবাল স্যার তা-ই বললেন। মেধাবী মেডিকেলের ছাত্র হিসেবে জাফর ইকবাল স্যার শুভাশিস ব্যানার্জির প্রতি দূর্বল হয়ে পড়েন! এই দূর্বলতাকে কেউ অন্যভাবে নেবেন না! একটি মেডিকেল কলেজ যদি মেধাবী হয় তাহলে সেটির ছাত্রদের প্রতি মানুষের দূর্বলতা স্বাভাবিক! আমার তো ভাবতেই খানিকটা দূর্বল লাগছে!

আজকাল সাংবাদিকতায় লেগেছে আধুনিকতার ছোঁয়া! কিন্তু শুভাশিস ব্যানার্জি এর ব্যতিক্রম! সময়ের স্রোত যেদিকে, তিনি তার উল্টোদিকে চলছেন! এই অবস্থায় একটি পত্রিকা চালানো তো সহজ কথা নয়! কিন্তু সেই কঠিন কাজটিই তিনি শুরু করেছেন। তিনি একটি ওয়েব পত্রিকার সম্পাদক হয়ে বসেছেন। জাফর ইকবাল স্যার মাসখানেক আগে তাঁর একজন ছাত্রের কাছে জানতে পেরেছেন, শুভাশিস ব্যানার্জি একটি ওয়েব পত্রিকার কাজ শুরু করেছেন। সেটির নাম এসবিডি নিউজ২৪.কম। এই ঘটনা বর্ণনা করা যায়, স্যার বাসায় টিভিতে টক শো দেখছিলেন। ওনার বয়স বেড়েছে, তাই তিনি সংবাদ দেখেন না। টক শো দেখেন। তাতে তাঁর মুখটাও টক টক হয়ে যায়! আচার খাওয়া লাগে না! এরকম এক টকশো দেখার ফাঁকে তাঁর এক ছাত্র হন্তদন্ত হয়ে দৌড়তে দৌড়তে এসে স্যারকে জানান, শুভাশিস ব্যানার্জি একটি ওয়েব পত্রিকা শুরু করেছেন!


ছবি: কলমসুনা ব্যানার্জি

শুভাশিস ব্যানার্জি চাটুকারিতার মধ্যে নেই! চাকরি বাঁচানোর জন্য নাপা খাওয়ার মধ্যেও নেই! মিথ্যা বলা এবং চামচামি করা তাকে দিয়ে হবে না! শুভাশিসের পরিচয় জাফর ইকবাল স্যার পেয়েছেন ছেলেটির ক্ষুরধার লেখার মাধ্যমে! শুভাশিসের লেখা দিয়ে স্যার প্রায়শই সেইভ করেন। পত্রপত্রিকায় তার যে পরিমান লেখা ছাপা হয়েছে, যে তার লেখনীর জোরে সে একজন সাহসী কলমসুনা হিসেবে নিজের স্থান করে নিয়েছেন কালের গর্ভে! চারপাশে যখন পাষণ্ড মানুষ চোখে পড়ে তখন স্যার শুভাশিসের কথা ভাবেন। শুভাশিস ব্যানার্জির উজ্জ্বল মায়াবী চোখ দুটির কথা স্যারের মনে পড়ে! অথচ এই শুভাশিস অবজ্ঞা ছাড়া জীবনে কিছু পায়নি! সেইজন্য দেশের সর্বোচ্চ শিক্ষা ডিগ্রীটি অর্জন করেও তার চাকরি জোটেনি কোথাও! মিডিয়া কর্ণধারেরা সবসময় ভয়ে থেকেছে শুভাশিস কখন কার পাতলুন খুলে দেন!

সবচে মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে কিছুদিন আগে। শুভাশিস ব্যানার্জি'র নতুন সংবাদপত্র খোলার সংবাদ পেয়ে জাফর ইকবাল স্যার তাকে ফোন করেছিলেন। আপনাদেরকে বলা হয়নি, যাঁদের সঙ্গে ফোনে কথা বলতে জাফর ইকবাল স্যারের ভালো লাগে শুভাশিস ব্যানার্জি তাদের একজন! সেদিন স্যার ফোন করার পর শুভাশিস বললেন, ফেসবুকের কোনো এক মহিলা কবি কিভাবে তাকে অপমান করেছে সেই কথা! শুভাশিস সেই ফেসবুকীয় মহিলা কবির কবিতা একবার ছেপেছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয়বার কবিতা চাওয়ার সময় সেই মহিলা কবি জানতে পেরেছেন যে শুভাশিসের বয়স তার চাইতে কম! সেই অপরাধে শুভাশিসকে তিনি রীতিমত অপমান করেছেন! অথচ সেই কবির কবিতা পড়ে জাফর ইকবাল স্যার নিজেও কিছু বুঝতে পারেন নি! বুঝতে পারেন নি বলেই, স্যারও ফেসবুক থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছেন। তাঁর মনে হয় শুভাশিসও নিজেকে গুটিয়ে নেবেন। কারণ শুভাশিস অভিমানী আর একরোখা! তার আছে রাগ দুঃখ আনন্দ অভিমান আর স্বপ্ন! স্বপ্ন দেখাকে নিশ্চয়ই আপনারা কারো দোষ বলবেন না!

জাফর ইকবাল স্যার শুভাশিসকে এগিয়ে যেতে বলেছেন। বলেছেন, যাই হোক তিনি তার পাশে আছেন! শুভাশিস আছেন বলেই জাফর ইকবাল স্যার স্বপ্ন দেখতে পারেন। কল্পবিজ্ঞান লিখতে পারেন।

প্রসঙ্গত: এটি কোনো কল্পবিজ্ঞান নয়। এটি বাস্তব। অভিমানী আর একরোখা উজ্জ্বল মায়াবী চোখের শুভাশিস ব্যানার্জিকে নিয়ে জাফর ইকবাল স্যারের লেখাটি পড়তে পারেন এখানে: http://sbdnews24.com/news/2941 । তবে এখানে ছোট্ট একটি সমস্যা হয়েছে, জাফর ইকবাল স্যার নিজে বলেছেন তিনি এই লেখাটি লেখেন নি। কিন্তু জাফর ইকবাল স্যার যা-ই বলুন, এরকম নামী সংবাদিকের সন্তান সাহসী কলমসুনা মায়ের পাশে থাকতে গিয়ে ডাক্তারি পড়া অসমাপ্ত রেখে দেশের সর্বোচ্চ শিক্ষা ডিগ্রী অর্জনকরা উজ্জ্বল মায়াবী দুটি চোখের অধিকারী একরোখা আর অভিমানী শুভাশিস ব্যানার্জি বিষয়ে এই কথাগুলো তো আর মিথ্যে হতে পারেনা!

সংযোজন: মূল লিঙ্কে/ওয়েবে লেখাটি আর পাওয়া যাবে না। এটি মুছে ফেলা হয়েছে। আগ্রহী পাঠকের জন্য লেখাটি এখানে ছবি আকারে দিয়ে দেয়া হলো। ছবিটি বড় করলে লেখা পড়া যাবে।
A fake writing of Zafar Iqbal sir posted by Shubhashish Banerji at SBD News24.com


মন্তব্য

হাসিব এর ছবি

চোরে চোরে জালিয়াতে জালিয়াতে ভরিয়া গেল দেশ।

জি.এম.তানিম এর ছবি

বুখে আয় বাভুল! কোলাকুলি

-----------------------------------------------------------------
কাচের জগে, বালতি-মগে, চায়ের কাপে ছাই,
অন্ধকারে ভূতের কোরাস, “মুন্ডু কেটে খাই” ।

সত্যপীর এর ছবি

অনার্যদা করসেন কি? উনি অলরেডি অভিমানী ও একরোখা, এই লিখা দেখলে উনি আরো অভিমান করবেননা? উনার আছে রাগ দুঃখ আনন্দ অভিমান আর স্বপ্ন! পাঁচ পাঁচটা জিনিষ যার একটাও আমাদের নাই। আসুন তাকে সম্মান জানাই।

মডুমামা এই পুস্ট ব্যান করুন, নাহলে প্রয়াত আজম খানের অপ্রকাশিত আর্টিকেল এসবিডিনিউজে ছাপা হবে যে তিনি "অভিমানী, তুমি কোথায় হারিয়ে গেছ" গানটি গেয়েছিলেন এই শুভাশিসকে লক্ষ্য করেই।

..................................................................
#Banshibir.

স্যাম এর ছবি

চলুক

তোফায়েল মিয়াজী এর ছবি

লেখা পড়লে স্পষ্টই বুজা যায় এটা জাফর ইকবালের লেখা নয়।

হিমু এর ছবি

মু.জা.ই. চোখ বন্ধ করে কোনো এক শুভাশিস ব্যানার্জির মায়াবী উজ্জ্বল দুটি চোখের কথা ভাবছেন, এই ব্যাপারটা এমনই সুররিয়্যাল যে পাঠককে স্তব্ধ হয়ে যেতে হয়। ঐ লেখার লিঙ্ক আবার অনেকে জাফর ইকবালের ভেবে শেয়ারও করেছেন নিন্দাবাদসহ। বেচারা জাফর ইকবাল, ছাগুরা তাকে গালি দেয় আর পোগোতিশীলরা তার নাম চুরি করে স্বমেহন করে।

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

"মায়াবী চোখ এবং গোলাপী জামা রহস্য" ঝাকানাকা কী বলেন?

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

চিলতে রোদ এর ছবি

"ছাগুরা তাকে গালি দেয় আর পোগোতিশীলরা তার নাম চুরি করে স্বমেহন করে।"

চলুক

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

এই সেই এসবিডি নিউজের ফেইসবুক পেইজ: https://www.facebook.com/pages/Sbdnews24/317410344960704

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

সৌরভ কবীর  এর ছবি

গড়াগড়ি দিয়া হাসি

আকতার আহমেদ এর ছবি

এসবিডি নিউজের ফেইসবুক পেইজে লেখাটা শেয়ার দিলাম।

তারেক অণু এর ছবি

পুরাই মুখফোঁড় হয়েছে গুল্লি
দে ভরে মামুর বুটাকে----

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

ওই পাতায় ছবিঘরে রিট ভাইয়ের সাথেও এনার (?) ছবি দেখলাম। নিশ্চয়ই বিখ্যাত চিন্তিত

হাসিব এর ছবি

এইরকম অন্তত হাজার খানেক লোক দৈনিক বইমেলাতে রিটনদার সাথে দাড়ায়া ছবি তোলে। রিটনদার ভাগ্য ভালো কলমসুনাদা উনার বরাতে কোন আর্টিকেল হাজির করেন নাই।

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

যাক তাহলে উনি কলমসুনাই। রিটনদা এ যাত্রা রক্ষা পেয়েছেন কিন্তু ভবিষ্যতে পাবেন তার নিশ্চয়তা তো নাই।
এরকম জালিয়াতি এই ইন্টারনেটের যুগে যে/যারা করে তারা কাঠবলদদের মধ্যে আরো বেশী কাঠবলদ।

সচল জাহিদ এর ছবি

রতইন্যা তুমি লুক খ্রাপ। এভাবে হাটে হাড়ি ভেঙে দিলে? দিক্কার !!


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

হাসিব এর ছবি

এটা হাটে হাড়ি ভাঙ্গা না, সুপারমার্কেটে কন্টেইনার খোলার মতো বিষয় হয়েছে।

চরম উদাস এর ছবি

এইভাবে সম্মানী লোকের প্যান্টের চেন ধরে টানাটানির তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে গেলুম। রবীন্দ্র সঙ্গীত কি রবীন্দ্রনাথ ছাড়া আর কেউ লিখতে পারেন না নাকি? একইভাবে জাফর ইকবালের কলাম লেখার জন্য কি জাফর ইকবাল হওয়া জরুরী নাকি?

স্যাম এর ছবি

হাহাহহাহাহাহহা

রানা মেহের এর ছবি

রতন
এখানে তো লাল টকটকে শার্ট পরা ভাইয়ের লেখার অংশই বেশি পড়লাম।
একটু এই গুণধর ভাইয়ের ঠিকুজি বের করা যায়না?
তিনি আসলে কে? কী করেন?

-----------------------------------
আমার মাঝে এক মানবীর ধবল বসবাস
আমার সাথেই সেই মানবীর তুমুল সহবাস

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

ঠিকুজি! কী বলো! ওনার ঠিকুজি উনি সম্ভব সব উপায়ে বিলিয়ে বেড়ান বলে জানতে পারলাম! ওনার মাহাত্ম্য বর্ণনাতীত!

১. ওনার বাবা সুনীল ব্যানার্জি সাংবাদিক ছিলেন। লোকটা ভালো ছিলেন বলেই জানি। ছেলেটি জালিয়াত হয়েছে!
২. উনি এসবিডি নিউজের সম্পাদক!
৩. 'বাংলারিপোর্ট' হয় ওনার শ্যালকের নইলে ওনার নিজের। ওইখানে তার বেশ সুনাম হয়!
৪. মারাত্মক সাংবাদিকতার ফলে তার প্রাণনাশের চেষ্টা করেছে কিছু 'আততীয়' (আত্মীয় বানান ভুল হয়েছে বোধকরি!)! মটরসাইকেলে এসে ওই 'আততীয়'রা তাকে কিল চড় লাথি ঘুষি মেরে পালিয়ে যায়! ফার্মগেটের হাসপাতালে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন নি! বলেছেন, আঘাত পাত্তা দেয়ার মতো কিছু নয়। তবে সবচে বড় কথা হল, 'আততীয়'রা তাকে বলেছেন, তার করা 'রিপোর্ট'ই তার মৃত্যুর কারণ হবে! ফোনেও একদিন একজন তার মারাত্মক সব রিপোর্টের ব্যপারে সতর্ক করে দিয়ে মৃত্যুর প্রস্তুতি নিতে বলেছে। উনি মৃত্যুর প্রস্তুতি হিসেবে সেই খবর ফোনে পুলিশের কোন কর্তাকে বলেছেন। কিন্তু পুলিশ কোনো ব্যাবস্থা নেয় নাই! ওঁয়া ওঁয়া
৫. ওনার পৈত্রিক নিবাস সাতক্ষীরায় ওঁয়া ওঁয়া
৬. ওনার রিপোর্ট পড়ার দুর্ভাগ্য আমার হয়নি। কিন্তু একটি রিপোর্টের চুম্বক অংশে দেখলাম সুন্দরবনের শত্রুদের "আটককারীরা" উৎকোচ দিয়ে পার পেয়ে গেছে! এবং লোনা পানির জন্য ম্যানগ্রোভ বন ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে! কস্কি মমিন!
৭. ওনার পূর্ণ নাম শুভাশিস ব্যানার্জি শুভ।
৮. সামুতে বিজ্ঞাপন ব্লগিং করেন।
৯. আর কী চাও? বিবাহিত কিনা জিজ্ঞাসা করতাম, কিন্তু তুমি তো ওইকাজ সেরে ফেলেছ! আবার বিয়ে করতে চাইলে জানাও. খোঁজ নিচ্ছি!

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

অমিত এর ছবি

"লোনা পানির জন্য ম্যানগ্রোভ বন ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে!"

আমি আজকে আর কিছু পড়ব না। এই একটা লাইন পড়েই আমার খুব দূর্বল লাগছে।

কল্যাণ এর ছবি

আত্মীয় না গুরু, ওইটা মনে হয় আততায়ী।

আটঃ সামুতে এক ভদ্রলোক মশারি বেচতে ছিলো গত বছর, ইনি কি তিনি নাকি ইয়ে, মানে...

_______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

প্রদীপ্তময় সাহা এর ছবি

আমার তো ভাবতেই খানিকটা দূর্বল লাগছে!

গড়াগড়ি দিয়া হাসি

তানজিরুল আজিম এর ছবি

নিজের মাথার চুল ছেড়ার ইমো কি?

প্রদীপ্তময় সাহা এর ছবি

হাসতে হাসতে পেট ফাটা ভাই।
তবে আপনি কথাটা কিন্তু মন্দ বলেননি।
ওরকম একটা ইমো দরকার।

রুদ্রপলাশ  এর ছবি

যে যাই বলুন আমি কিন্তু ঐ কলমসুনার আশেপাশেই থাকবো !!! খাইছে

নিলয় নন্দী এর ছবি

শুভাশিসের সুনাম আছে। সৎ এবং মেধাবী সাংবাদিক হিসেবে সে নাম করেছে। আন্তর্জাতিক পুরস্কারও পেয়েছে।

এই শুভাশিস কি পেয়েছে জীবনে? অপমান আর অবজ্ঞা ছাড়া তার প্রাপ্তির খাতায় আর কিছু আছে কি না,আমি জানি না।

অ্যাঁ

ত্রিমাত্রিক কবি এর ছবি

লেখাটা পইড়া আমি খুবই কনফিউজড হয়ে গেছিলাম। বুঝতেছিলাম না যে জাফর ইকবাল স্যার হঠাৎ করে এরকম ভক্তিতে গদগদ লেখা কেন লিখলেন। যাক শান্তি পাইলাম।

_ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _ _
একজীবনের অপূর্ণ সাধ মেটাতে চাই
আরেক জীবন, চতুর্দিকের সর্বব্যাপী জীবন্ত সুখ
সবকিছুতে আমার একটা হিস্যা তো চাই

দ্রোহী এর ছবি

আমি চরম উদাসের সাথে একমত। মুহম্মদ জাফর ইকবালের কলাম কি জাফর ইকবাল একাই লিখতে পারেন নাকি? চোখ টিপি

বাউলিয়ানা এর ছবি

হা হা হা...

এই লেখার জন্যওতো আমরা "জাফর ইকবাল জবাব দাও, দিতে হবে" বলে জেরবার হইতে পারি।

নীড় সন্ধানী এর ছবি

যাক, কলমসুনার কাছ থেকে একটা ভাল আইডিয়া পাওয়া গেল। আজকাল আইডিয়াও বেশ জালিয়াতি হয় তাই প্রকাশ্যে বলা গেল না চোখ টিপি

‍‌-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.--.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.-.
সকল লোকের মাঝে বসে, আমার নিজের মুদ্রাদোষে
আমি একা হতেছি আলাদা? আমার চোখেই শুধু ধাঁধা?

প্রখর-রোদ্দুর এর ছবি

জাফর ইকবাল এখন আর তার একার নন, সকলের। যদি জাফর ইকবাল লিখতে পারে তবে সেই লেখা যেমন পাঠকের আর পাঠক কিছু লিখলেও সেই লেখাও তবে জাফর ইকবাল এর। যেমন ছাগলের দাড়ি আছে আর তাই যার দাড়ি আছে সেও তাই জাতীয় যুক্তিবিদ্যা কপচালেই তো চলে।

হাহাহাহা - মুহম্মদ জাফর ইকবালের কলাম কি জাফর ইকবাল একাই লিখতে পারেন নাকি?

আজকের দিনটা দারুন। যে লেখাতেই যাচ্ছি চরম হাসির উদ্রেক না হয়ে বেরুতে পারছিনা।

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি

ধিক্কার জানানোর ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না। জাফর ইকবাল স্যারের নামে প্রকাশিত লেখাটা পড়ে খুবই অবাক হয়েছিলাম। সাথে সাথে আবার পড়ি এবং তখনই মনে হয় এটা অবশ্যই একটা জাল লেখা।

যে লোকটা এই জাল লেখাটা প্রকাশ করলো, তার সামান্য লজ্জাবোধও নেই দেখে বিস্মিত হলাম। জাফর স্যারের একটা জাল লেখা প্রকাশ করলেই তার পত্রিকা খানিক জনপ্রিয়তা/হিট পেত। কিন্তু সে কী করলো? সেই লেখায় নিজেকে হিরো বানালো। এ ধরনের মানুষদের নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে পশ্চাতদেশে লাথির একটা ইমো খুবই প্রয়োজন।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

আপনি এভাবে লিখতে পারলেন!!!
আমার ভীষণ রাগ হচ্ছে। এখন আমি চোখ বন্ধ করে শুভাশিস ব্যানার্জির মায়াবী উজ্জ্বল দুটি চোখের কথা ভাববো।

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

অনার্য সঙ্গীত এর ছবি

ওনার গোলাপী জামা এবং মায়াবী চোখ বলে দেয়, বালিকাদের প্রতি ওনার কোনো দূর্বলতা নেই চোখ টিপি

______________________
নিজের ভেতর কোথায় সে তীব্র মানুষ!
অক্ষর যাপন

আনোয়ার এর ছবি

হো হো হো

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

কষ্ট! চোখ টিপি

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

নিয়াজ মোর্শেদ চৌধুরী এর ছবি
নিটোল এর ছবি

হা হা হা। পুরাই ক্লাসিক। হো হো হো

_________________
[খোমাখাতা]

আবুল এর ছবি

হাসটে হাসটে হালুয়া টাইট! হো হো হো

আশালতা এর ছবি

এত গুনের আকর আর তার সাথে আপনি এমন কল্লেন ! চউক্ষে পানি আসতেছে !

----------------
স্বপ্ন হোক শক্তি

মাহ্‌মুদ এর ছবি

পোস্ট সরিয়ে ফেলা হয়েছে। ফেবু তে ঐ পেজ এ গিয়ে খবরটির লিঙ্ক এ প্রতিবাদ করে মন্তব্য করায় এবং আরও অনেকে এই লিখার লিঙ্ক ঐ খানে শেয়ার করার পর কিছুক্ষণ আগে অইসব কিছুই সরিয়ে ফেলেছে। আমার মনে হয় মু জা ই স্যার এর নাম না দিয়ে প্রয়াত চিত্র নায়ক জাফর ইকবাল এর নামে কলাম ছাপালে আর এই কেলেঙ্কারী টা হত না। চিন্তিত

হিমু এর ছবি

এই এসবিডি তো একটা সিরিকাস ছাগুবরের কাগজ দেক্তেছি। এক কাষ্ঠুভুদাই কী লিখেছে দেখুন।

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

অনার্যরে
আমি আগেও বলছি এখনো বলি
মানী লুকের মান রাখতে শিখ রে নাদান
শুনাশিস ভাইরে নিয়া এইরম কতা কইস না
উনি অভিমানাহত হবেন
এই আমি বলে দিলুম

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

কুমার এর ছবি

আমারো খুব দুবলো লাগছে।

দুষ্ট বালিকা এর ছবি

সুন্দরবনের খবরটা পড়ে আমার মাথা ঘুরাচ্ছে! খুব দুব্বল লাগছে! আমাদের কী হবে রতন্দা? অ্যাঁ

খাইছে

মনমেজাজ খারাপ ছিলো নিমেষেই উধাও!

হো হো হো স্যার খানিকক্ষণ আগেও জিজ্ঞেস করছিলেন এই লোক আর কিছু লিখেছে নাকি তার নামে! হো হো হো তোমার লেখার লিঙ্কটা দিয়ে দেই কী বলো! খাইছে

**************************************************
“মসজিদ ভাঙলে আল্লার কিছু যায় আসে না, মন্দির ভাঙলে ভগবানের কিছু যায়-আসে না; যায়-আসে শুধু ধর্মান্ধদের। ওরাই মসজিদ ভাঙে, মন্দির ভাঙে।

মসজিদ তোলা আর ভাঙার নাম রাজনীতি, মন্দির ভাঙা আর তোলার নাম রাজনীতি।

কল্যাণ এর ছবি

দলছুট ভাই এর অভাব পুষিয়ে দেয়ার জন্যে এই শুভ ভায়ার আগমন গড়াগড়ি দিয়া হাসি । তাছাড়া ধরেন দেশের আনাচে কানাচে অলি গলি কুনা কাঞ্চি সব লাখ লাখ জাফর ইকবালে ভরায়া দেওয়ার মহান প্রচেষ্টা এই সম্পাদক মশয় একাই নিছে মনয়।

_______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

তারানা_শব্দ এর ছবি

শুভাশিসের পরিচয় জাফর ইকবাল স্যার পেয়েছেন ছেলেটির ক্ষুরধার লেখার মাধ্যমে! শুভাশিসের লেখা দিয়ে স্যার প্রায়শই সেইভ করেন।

গড়াগড়ি দিয়া হাসি

"মান্ধাতারই আমল থেকে চলে আসছে এমনি রকম-
তোমারি কি এমন ভাগ্য বাঁচিয়ে যাবে সকল জখম!
মনেরে আজ কহ যে,
ভালো মন্দ যাহাই আসুক-
সত্যেরে লও সহজে।"

ভাগশেষ শূণ্য এর ছবি

পুরাই হারায়ে গেলাম খাইছে

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।