আমি তোমাদের ই লোক...

অতিথি লেখক এর ছবি
লিখেছেন অতিথি লেখক (তারিখ: বুধ, ১৩/০১/২০১০ - ৬:৩৭অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

বাবা খুব পাগলা কিসিমের লোক ছিলেন। খালি বই পড়তেন, টুকটাক লেখালেখি ও করতেন। তার ছাত্র ছাড়া ও অনেক তরুণ প্রতিদিন আসতো আমাদের বাসায়। কেউ সাহিত্যকর্মী, কেউ বামপন্থী আন্দোলন করে... আমি যখন ক্লাস ফাইভ বা সিক্স এ তখন একটা পাগলা ছেলে আসতে শুরু করলো যে পাগলামিতে অন্যদের চে কয়েক কাঠি এগিয়ে...গলা ফাটিয়ে কথা বলে, হাহা করে হেসে সবকিছু উড়িয়ে দেয় এমন ই উদ্ধত আর বেপরোয়া। একবার রোজার সময় খুব ঝামেলা হয়ে গেলো যখন ওই ছেলে এসে 'ভাবী খাবার দেন' বলে হাঁক দিলো। মা যে খুব একটা ধার্মিক ছিলো তা নয়, তবে রোজার মাসে কোনো নাস্তিক কে আহ্লাদ করে খাওয়নোর কথা ভাবতে পারতোনা। রোজার মাসে বাচ্চারা খুব অবহেলার শিকার হয়। দায়সারা ভাবে তাদের দুপুরের খাবারের ব্যবস্থা করা হয়। আমাদের সেই দায়সারা লাঞ্চে ওই পাগল ছেলে ভাগ বসালো। খাওয়ার টেবিলে সে ননস্টপ বকর বকর করে গেলো। আমার ছোট্ট মাথায় তার একটা কথা গেঁথে গিয়েছিলো- 'চল্লিশতম জন্মদিনে সবার সুইসাইড করা উচিত, চল্লিশের পর বেঁচে থাকার কোনো মানে হয়না'। অনেকদিন পর্যন্ত আমি এটা বিশ্বাস করতাম! সে ছিলো আমাদের পাগলা চাচু।
আমরা বড় হই, পড়ালেখার ব্যস্ততা বাড়ে। ওই পাগল ছেলের সাথে যোগাযোগ কমে যায়।
নিজে ২৫ পেরোবার পর আমার মাঝে মাঝে মনে হতো ওই ছেলেটা বেঁচে বর্তে আছেতো। সেতো এতোদিনে চল্লিশ পেরিয়েছে...
সচলে এসে দেখলাম সে ভীষণভাবে বেঁচে আছে। তবে সম্প্রতি সুইসাইড করেছে...
কথাটা গোলমেলে লাগছে? আমি বলতে চাইছিলাম সে বেঁচে আছে কিন্তু বিয়ে করেছে কিছুদিন আগে। (আমি সবই সচল মারফত অবগত হয়েছি!)

আমাদের পাগলা চাচুকে আপনারা আদর করে ডাকেন 'লীলেন্দা'।


মন্তব্য

রেশনুভা এর ছবি

লীলেন'দার আরো একটা নাম পাওয়া গেল তাহলে। এর পরে কে?

সাফি এর ছবি

আপনার এই সিরিজের আইডিয়াটা দারুন। তবে সুমন ভাইকে নিয়ে লেখা পর্বটার পর থেকেই একটু ভয় ভয় লাগে, এই বুঝি দিলো আজ গোমর ফাঁস করে হাসি

হিমু এর ছবি
সাফি এর ছবি

ইয়ে মানে এ জীবনে কতভাবে কতজনের মন ছুঁয়ে গেছি, তার কি আর ইয়ত্তা আছে?

হিমু এর ছবি
সুহান রিজওয়ান এর ছবি

হুম, সিরিজটার দুটো পর্ব পড়লাম। ভালো... কিন্তু একটা সিরিয়াল দিলে মনে হয় ভালো হয়। পড়তে সুবিধা হয় একটু ...

_________________________________________

সেরিওজা

_________________________________________

সেরিওজার গল্প

দুর্দান্ত এর ছবি

গোড়া থেকেই চমক ডরাই। তাই এই শিরোনামের ব্লগ খুলেই আগে শেষের লাইন পড়লাম।

তারপরেউ ....

"ওহ্‌ চমক লাআগিইলোওরেএ-
লিলেন্দা চল্লিশোর্ধ শুইন্না,
মোর ট্যারা দুই নয়নে চমক লাআগিইলোওরেএ"

মাহবুব লীলেন এর ছবি

কিডারে?
এইডা কোন ভাতিজা(জি)?
নাম নাই ক্যা?

০২

২০১২'র ১২ অক্টোবর সকাল আটটা পঁয়তাল্লিশ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করো ভাতিজা/জি
ওই দিনে আমার চল্লিশা হবে

আর বর্তমানটা একটা পূর্ব প্রস্তুতি

হিমু এর ছবি
ধুসর গোধূলি এর ছবি

২০১২'র ১২ অক্টোবর সকাল আটটা পঁয়তাল্লিশ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করো ভাতিজা/জি
ওই দিনে আমার চল্লিশা হবে
এতো আগে হিসাব ঠিক করলেন ক্যামনে লীলেঞ্চাচু? গজ-ফিতা দিয়া মাপ-জোখ করে আগাচ্ছেন মনে হৈতেছে! চোখ টিপি
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

মাহবুব লীলেন এর ছবি

তিন বছরের মধ্যে স্বাধীন এবং সিঙ্গেল হবার নিশ্চয়তা পেয়েই তো বৌ ম্যাডাম রাজি হলেন আমার ভরণপোষণের দায়িত্ব নিতে
(এই যুগে কি আর কেউ লাইফ গ্যারান্টি দেয়?)

অতিথি লেখক এর ছবি

ছিহ্‌ লিলেন্দা, ছোট বাচ্চাদের খাবারে ভাগ বসানো বিবেকবহির্ভুত কাজ।

---- মনজুর এলাহী ----

শাহেনশাহ সিমন এর ছবি

লীলেন কাগু'র গফটা ভালু পাইলাম দেঁতো হাসি
_________________
ঝাউবনে লুকোনো যায় না

_________________
ঝাউবনে লুকোনো যায় না

অতিথি লেখক এর ছবি

লেখিকা দেখি সচলের 'কুন্ডলী' নামায় দিলেন যে,...

---নীল ভূত।

তানবীরা এর ছবি

হুমম, এই তাহলে গপ্পো।

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

তুলিরেখা এর ছবি

সচলের এই শক্তিমান লেখক লীলেন ? তার এইসব চমৎকার গল্প?
আরো দেবেন, লেখাটা চমৎকার!
-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

-----------------------------------------------
কোন্‌ দূর নক্ষত্রের চোখের বিস্ময়
তাহার মানুষ-চোখে ছবি দেখে
একা জেগে রয় -

নাহিদ এর ছবি

সবাইকে ধন্যবাদ।
@লীলেন, আপনি আমাকে ভুলে যাবার কথা, বাবাকে মনে করতে পারবেন হয়তো-'কালাম আজাদ'।

মাহবুব লীলেন এর ছবি

মনে করতে পারবো না মানে?
সুমি শুচি শাওন
তিনজনের মধ্যে নাহিদ কার নাম?

পান্থ রহমান রেজা এর ছবি

লীলেন চাচ্চু ... লীলেন চাচ্চু ... তুমি রোজা রাখো না! তুমি পচা!!!

আমি দিব্যচোখে আরো কয়জনের নাম দেখতে পাইতেছি, যারা পরের পর্বে আসতেছে!
..................................................................

আমি অতো তাড়াতাড়ি কোথাও যেতে চাই না;
আমার জীবন যা চায় সেখানে হেঁটে হেঁটে পৌঁছুবার সময় আছে,
পৌঁছে অনেকক্ষণ ব'সে অপেক্ষা করার সময় আছে।

অতিথি লেখক এর ছবি

বাহ বাহ.. ব্যাপক মজার কাহিনী।
তয়, পোস্টগুলায় ধারাবাহিকতার জন্য ক্রমিক নং লাগাইলে মনে হয় ভালো হয়।

- মুক্ত বয়ান।

জুয়েইরিযাহ মউ এর ছবি

এরপর কে চিন্তিত
সিরিজটা বেশ চলুক

------------------------------------------------------
জানতে হলে পথেই এসো, গৃহী হয়ে কে কবে কি পেয়েছে বলো....


-----------------------------------------------------------------------------------------------------

" ছেলেবেলা থেকেই আমি নিজেকে শুধু নষ্ট হতে দিয়েছি, ভেসে যেতে দিয়েছি, উড়িয়ে-পুড়িয়ে দিতে চেয়েছি নিজেকে। দ্বিধা আর শঙ্কা, এই নিয়েই আমি এক বিতিকিচ্ছিরি

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।
Image CAPTCHA