ছবিব্লগ: ল্যাভেন্ডার খামারে পর্যটন

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি
লিখেছেন শোহেইল মতাহির চৌধুরী (তারিখ: বিষ্যুদ, ২০/০৮/২০০৯ - ৩:০০পূর্বাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

গরমের সময় গায়ে পাউডার দেয়ার চলটা এখন নিশ্চই উঠে গেছে। ঘামাচি রোধে প্রিকলি হিট পাউডারের বিজ্ঞাপন কি দেখা যায় টিভিতে? সাইদাবাদী হুজুরের মেন্থল দেয়া ঠান্ডা পাউডার, যা কিনা থাইল্যান্ডের হুলা হুলা নামের পাউডারের হুবহু নকল ছিল, তার বিজ্ঞাপনে এরশাদ সরকারের ১২ জন মন্ত্রী মডেল হয়েছিলেন। পৃথিবীর যেকোনো দেশের জন্য নিশ্চই এটা একটা রেকর্ড।

সে যাক ল্যাভেন্ডার শব্দ বা ল্যাভেন্ডারের গন্ধের সাথে আমার পরিচয় গায়ে মাখা পাউডার দিয়েই। বাংলাদেশে ল্যাভেন্ডারের চাষ হতে দেখিনি। খুব ছোটবেলার স্মৃতিতে যে পাউডারের টিনের লম্বা কৌটা চোখে ভাসে তার রং ছিল হালকা বেগুনি আর গায়ে ছিল ছোট ছোট ফুল আঁকা। ছোটবেলার প্রভাব কেন জানি মনে হতো স্বপ্নের ফুল বোধহয় বেগুনিই হবে। তবে স্মৃতিতে কিছুটা গন্ডগোল হতে পারে। হতে পারে ড্রিমফ্লাওয়ার নামে পন্ডস যে ট্যালকাম পাউডার তখন বানাতো তাতে ল্যাভেন্ডারের গন্ধ ছিলই না। বরং ইয়ার্ডলি কোম্পানির ল্যাভেন্ডার গণ্ধের পাউডারের সাথে আমার মনে ছবি যুক্ত হয়ে আছে ড্রিমফ্লাওয়ারের কৌটার।

ফ্লিকারে আমার এক কন্ট্যাক্ট মাশরুম এ্যান্ড গ্যাজেটের এক ছবিতে দেখি হঠাৎ ল্যাভেন্ডারের এক খামারের ছবি। বেগুনি বেগুনি ফুলের সারি দিগন্তে গিয়ে বেঁকে গেছে। আহা চোখ জুড়ায় সে দৃশ্যে। ছবির বাড়তি তথ্য ঘেঁটে দেখলাম জায়গাটা লন্ডন থেকে খুব দূরে নয়। ঘন্টা খানেকের দূরত্বে লুটনের কাছাকাছি হিচিনে। কয়েকজন বন্ধুকে কম্পিউটারে ছবি দেখিয়ে যথেস্ট উদ্দীপ্ত করতে পারলাম না। সুতরাং আমাদের পরিবারই বেড়িয়ে পড়লাম একদিন।

কৃষিজমিই ছিল খামারটি। এখনও দুই পাশে গমের চাষ হয়। তবে বিশাল এক জায়গা জুড়ে গ্রীষ্মে চাষ করা হয় ল্যাভেন্ডার। চাষের পাশাপাশি পর্যটন থেকেও পয়সা আসে খামারির। জনপ্রতি তিন পাউন্ড প্রবেশমূল্য। বিনিময়ে পাওয়া যায় ফেরতযোগ্য একটা কেঁচি আর ছো্ট্ট একটা পলিথিনের ব্যাগ। আপনার চাহিদামত ল্যাভেন্ডার কেটে নিয়ে যেতে পারেন। বিকাল পাঁচটায় ছোট্ট দোকানটা বন্ধ হয়ে যায় যাতে ল্যাভেন্ডার থেকে তৈরি প্রসাধন সামগ্রী পাওয়া যায়। সে বিষয়ে আমাদের আগ্রহ ছিল না। আমাদের সমস্ত আগ্রহ ছিল খামারটির প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করার দিকে।

খামারে ঢুকতেই ল্যাভেন্ডারের মৃদু গন্ধে ফুসফুস ভরে উঠলো। আর খামারে ঢুকে চোখ ভরে দেখতে লাগলাম অপূর্ব দৃশ্যটি। ছবিতে সবতো আর ধরা যায় না। ভেবেছিলাম এইচডিআর করবো। কিন্তু সময়ের স্বল্পতা, ট্রাইপড বের করার হাঙ্গামা, শ্রেয়া-শ্রেষ্ঠার বিরক্তিমাখা কান্না ইত্যাদি মিলিয়ে আর সেসব জটিল পদ্ধতিতে যাওয়া হলো না।

ছবি: ল্যাভেন্ডারের সারি
Parallel Perfume Plantings

ল্যাভেন্ডারের বেগুনি সারি খামারের এ মাথা থেকে ও মাথা চলে গেছে। তবে ঋতু শেষ তাই সবুজ শাখাকান্ডটির রং মূল বেগুনিকে এখন কিছুটা ভিন্ন টোন এনে দিয়েছে। ল্যাভেন্ডারের ক্ষেতের দুইপাশে গমের ক্ষেত। সোনালী রংয়ের গম পেকে নুয়ে আছে গাছগুলোর শীষ। একপাশে ল্যাভেন্ডার কেটে নেয়ার পর সবুজ সারি।

ছবি: ডগা কেটে নিয়ে যাওয়া ল্যাভেন্ডারের সারি
DSC_0756D

একসময় মনে হলো পাকা গমের ক্ষেতও আমি দেখিনি কখনও। দাঁড়ালাম গিয়ে ক্ষেতের মাঝখানে।

ছবি: পাকা গমের ক্ষেত
DSC_0760CD

যুক্তরাজ্যের সূর্য। এই রোদেলা এই মেঘলা। যেই আকাশটা মেঘলা হয়ে এলো দেখি ক্যামেরার চোখে ল্যাভেন্ডারের সারিকে একটু ভিন্ন রংয়ের লাগছে।

ছবি: আবার ল্যাভেন্ডারের সারি
DSC_0740

ল্যাভেন্ডারের ক্ষেতে প্রজাপতিই ঘুরার কথা। কিন্তু দেখে মনে হলো মথ। শরীরটা এমন বিশ্রী কেন? ম্যাক্রো লেন্স ছাড়া এসবের ছবি তুলে কোনো তৃপ্তি নাই। তবু টিপলাম কয়েকবার শাটার।

ছবি: একি প্রজাপতি না মথ? মথেরও তো এমন রঙিন পাখা হয়, হয় না?
DSC_0691CD

খামারে ঘোড়াও আছে। কিন্তু কাঁটাতারের অনেক ভেতরে। ভেবেছিলাম আকাশ বা ল্যাভেন্ডার ক্ষেতের বিপরীতে ঘোড়ার দারুণ ছবি উঠবে। কিন্তু কিসের কী? সেই কম্পোজিশনে ঘোড়াকে পেতে হলে ঝুঁকি নিতে হবে অনধিকার প্রবেশ আর পেছনের পায়ের লাত্থির।

ছবি: ঘোড়া কি সারাদিন ঘাসই খায়? কি বিরক্তিকর জীবন!
DSC_0695

ল্যান্ডস্কেপ তুলতে লোকে ওয়াইড এ্যাংগেল লেন্স ব্যবহার করে। আমার তো শখের ক্যামেরাবাজ দশা এখনো কাটেনি। তাই ক্যামেরার সাথে পাওয়া কিট লেন্সই ভরসা। তথাকথিত ১৮ মিমি (আসলে ফুলফ্রেম ক্যামেরার বিবেচনায় ২৭ মিমি) তে লেন্স আটকেই ছবি তুলছিলাম। তখন মনে হলো কিছু কিছু ল্যান্ডস্কেপের ছবি দেখি জুম করে তোলা। তাতে দৃশ্যগুলোর গভীরতা হারিয়ে যায়। কিন্তু দৃশ্যের স্তরগুলো মিলে একটা বিমূর্ত বিমূর্ত ছবি পাওয়া যায়। ল্যাভেন্ডারের বেগুনি রং, গমের সোনালী-হলুদ আর আকাশের নীল মিলে একটা সেরকম ছবি তোলা আশায় ক্লিক করলাম। কিন্তু আকাশের নীলচে ভাব তখন একটু ফ্যাকাশে আর মেঘগুলোও নিরুদ্দেশ।

ছবি: ল্যাভেন্ডার, গম আর আকাশ
DSC_0704DP

জন্ম হওয়ার পর থেকে শ্রেয়া-শ্রেষ্ঠা ঘুরাঘুরি কম করে নাই। আর ছবিই তোলা হয়েছে তাদের অনেক। এই ছবিটা ল্যাভেন্ডার ক্ষেতে তাদের রিকশায়। রোদে পুড়ে তারা চেঁচাচ্ছিল তারস্বরে। অনেকটা সে কারণেই শান্তিমত ছবি তোলা যাচ্ছিল না। অথচ যখন তাদের ছবি তুলতে গেলাম দেখি দুজনই একেবারে চুপ। দুই পা হ্যান্ডেলে তুলে দিয়ে অলস ভঙিতে তাকিয়ে আছে ক্যামেরার দিকে।

ছবি: ল্যাভেন্ডারের ক্ষেতে শ্রেয়া-শ্রেষ্ঠা
DSC_0719P

আশপাশের লোকজনও এই খামারে বেড়াতে আসে। তবে সম্ভবত: পর্যটনের সময় শেষ হয়ে গেলে এবং কোনো প্রবেশ মূল্য না দিয়ে। ল্যাভেন্ডার ক্ষেতের পাশ দিয়ে একটা রাস্তা আছে। সেখানে দেখলাম অনেকে সাইকেল চড়ে যাচ্ছে বা কোউ কেউ নিয়ে এসেছে পোষা কুকুরকে।

ছবি: দিগন্ত ছোঁয়া মেঠো পথ
DSC_0710

খামারিদের দেয়া কেঁচি দিয়ে কিছু ল্যাভেন্ডারের ডগা কেটে ব্যাগ ভরলাম। কিন্তু মনে হলো এর কোনো দরকার ছিল না। শুধু দৃশ্য দেখাটাই যথেষ্ট ছিল। মনে মনে এই ভাবতে ভাবতে খামারটা ছেড়ে আসলাম যে যশোহরে রজনীগন্ধা বা গ্ল্যাডিওলাসের খামারে হয়তো একসময় এরকম প্রবেশমূল্য নিয়ে পর্যটনের ব্যবস্থা করবে সেখানকার কৃষকেরা। ফুল বিক্রির পাশাপাশি হয়তো পর্যটন থেকেও কিছু পয়সা আসবে কৃষকের হাতে।


মন্তব্য

সচল জাহিদ এর ছবি

বস ছবি গুলান দেখা যাচ্ছেনা, বলছেঃ

This photo is private.
Oops! You don't have permission to view this photo.
Here's a link back to your home page.

আপনি এম্বেডেড করে দেন।

-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

হুমম, ধন্যবাদ। দিলাম।
এখন দেখেন।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

সচল জাহিদ এর ছবি

জায়গাটা আসলেই চমৎকার আর সেই সাথে ছবিগুলোও।

-----------------------------------------------------------------------------
আমি বৃষ্টি চাই অবিরত মেঘ, তবুও সমূদ্র ছোবনা
মরুর আকাশে রোদ হব শুধু ছায়া হবনা ।।


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

সৈয়দ নজরুল ইসলাম দেলগীর এর ছবি

লেখা পড়ার অবস্থায় এখন নাই... ছবি দেখতে এই ব্লগে ঢুকলাম... দূর্দান্ত... অনেক সুন্দর সব ছবি... শুধু মথের ছবিটায় মনে হয় কন্ট্রাস্ট একটু বেশি হয়া গেছে... রঙের মজাটা ঠিকমতো পাইলাম না খালি এই একটা ছবিতে... বাকীগুলা জোশ...
______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

______________________________________
পথই আমার পথের আড়াল

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

তা ঠিক শুধু ভিন্ন কিছুর ছবি দেয়ার জন্যই এই মথের ছবিটা দিলাম। ফোকাসই মনে হয় ঠিকমত হয় নাই। আমার আবার চশমা নাই কিনা। ঝাপসা লাগে।

সুন্দরবন যে ঘুরলেন, ছবি ছাড়া পোস্ট তো হবে না। ছবি দেন।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

মৃত্তিকা এর ছবি

দুর্দান্ত হয়েছে ছবিগুলো! মাথা ঘুরিয়ে গেলো প্রথম চারটি ছবি দেখে! ফুলের খামারে যাবার ইচ্ছা বহুদিনের, দেখি কবে নসিব হয়!

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

নসিবে হলে আমাদের একটা পোস্ট দিয়া জানাইয়েন।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

ধুসর গোধূলি এর ছবি

- এতো সুন্দর দেখতে কেমন জানি লাগে!
শুধু একারণেই টিউলিপের বাগান দেখা হয়ে উঠলো না এখনও। যদি কোনো দিন সুযোগ ও সুজন হয়, তাহলে অবশ্যই দেখা হবে প্রকৃতির এই সুন্দরগুলো।
___________
চাপা মারা চলিবে
কিন্তু চাপায় মারা বিপজ্জনক

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

এতো শর্ত? তাইলে হইছে!
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

নাহার মনিকা  [অতিথি] এর ছবি

শ্রেয়া শ্রেষ্ঠা তো ল্যাভেন্ডার ফুলগুলোকে ম্রিয়মান করে দিলো! দারুণ লাগছে তাদেরকে।

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

শিশুদের প্রতি আপনার পক্ষপাত তো মারাত্মক।
আপনাকেই বোধহয় আর্শীবাদ করা যায় শতপুত্রবতী হও বলে।
না থাক। কবিতা/গল্প লেখারও তো সময় দরকার!
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

প্রকৃতিপ্রেমিক এর ছবি

খুবই সুন্দর ছবিগুলো। এর থেকে বেশী কিছু বলতে পারছিনা, সময় সংকটে ভুগছি।

শাহেনশাহ সিমন [অতিথি] এর ছবি

ফটোগুলো অসাধারন!!!!

আর শ্রেয়া-শ্রেষ্ঠার বিবরনের পর ছবি দেখে বেশ হাসি পেলাম। সব শিশু এমনই মনকাড়া।

মামুন হক এর ছবি

ঘামাচি রোধে প্রিকলি হিট পাউডারের বিজ্ঞাপন কি দেখা যায় টিভিতে? সাইদাবাদী হুজুরের মেন্থল দেয়া ঠান্ডা পাউডার, যা কিনা থাইল্যান্ডের হুলা হুলা নামের পাউডারের হুবহু নকল ছিল, তার বিজ্ঞাপনে এরশাদ সরকারের ১২ জন মন্ত্রী মডেল হয়েছিলেন। পৃথিবীর যেকোনো দেশের জন্য নিশ্চই এটা একটা রেকর্ড।

--বস কী কথা মনে করিয়ে দিলেন, হাসতে হাসতে বিষম খাইলাম।
ছবি দেখে মন উদাস হলো।

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

এরশাদ আমলে যে কতরকম ক্যারিকেচার হইতো। সর্বদাই বিনোদন!
লিখতে গিয়েই মনে পড়লো। মগজের ভেতর কত যে তথ্য থাকে!
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

স্বপ্নহারা এর ছবি

জটিল লাগলো ছবিগুলান...আমিও যাইতাম চাই...মন খারাপ

-------------------------------------------------------------
স্বপ্ন দিয়ে জীবন গড়া, কেড়ে নিলে যাব মারা!

-------------------------------------------------------------
জীবন অর্থহীন, শোন হে অর্বাচীন...

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

সময় এই বছরের মত শেষ। অগাস্টের শেষদিকে তারা কেটে ফেলে ল্যাভেন্ডার। আবার মে-জুন থেকে শুরু হয় পর্যটন।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

মূলত পাঠক এর ছবি

দুর্ধর্ষ সব ছবি, পার্সপেক্টিভের চমৎকার প্রয়োগ, মুগ্ধ না হয়ে উপায় নেই!

উদ্ভ্রান্ত পথিক এর ছবি

সিরাম!!!
খুব সুন্দর হয়েছে হাসি

---------------------
আমার ফ্লিকার

কীর্তিনাশা এর ছবি

অসাধারণ ছবি।

শ্রেয়া শ্রেষ্ঠাকে অনেক আদর....

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

সুলতানা পারভীন শিমুল এর ছবি

এক মাথা থেকে আরেক মাথার শেষ দেখা যাচ্ছে না, অ্যাত্তো বি-শা-ল। অ্যাঁ
দুর্দান্ত লাগছে দেখতে।
আপনার মেয়েরা ঠিকঠিক জানে ক্যামেরার সামনে কিভাবে পোজ দিতে হয়। হাসি

...........................

সংশোধনহীন স্বপ্ন দেখার স্বপ্ন দেখি একদিন

...........................

একটি নিমেষ ধরতে চেয়ে আমার এমন কাঙালপনা

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

হুমমম। ওরা মোটামুটি জটিল সব আবেগেরই প্রকাশ দেখাতে পারে। রাগ-অভিমান-ঠা্ট্টা পর্যন্ত বুঝে। শিশুরা যে এতটাই বুদ্ধি রাখে নিজের সন্তানের আগে খেয়াল করা হয়নি।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

দুর্দান্ত এর ছবি

অসাধারন ছবি। শ্রেয়া শ্রষ্ঠাকে বেশ লক্ষী মনে হল।
---
বাড়ির সামনে একঝোপ ল্যভেন্ডার সেই এপ্রিল থেকে তার মৃদু সৌরভ ছড়িয়ে ব্যস্ত রেখেছে আমাদের গ্রামের মৌমাছির দলকে। এখানে ল্যভেন্ডার মধুর দাম দেখলে রক্তচাপ বেড়ে যায়।
---
সংগে করে আনা ল্যভেন্ডারগুলো এখনো আছে? ওগুলো দিয়ে কিন্তু জম্পেশ আইস্ক্রিম হয়। এখানে দেখুন। ক্রেম অংলেজ বাননোর ঝামেলায় যেতে না চাইলে M&S এর তৈরী কাস্টার্ডে ল্যভেন্ডার যোগ করলেও কাছাকাছি ফল পাওয়া যায়।

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

ভালো আইডিয়া দিয়েছেন।
আইসক্রিম বা কাস্টার্ডে ল্যাভেন্ডার যোগ করে দেখি কেমন লাগে!
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

মুস্তাফিজ এর ছবি

অসাধারণ বললে কম বলা হবে।
প্রথম ছবিটা্তেই টাশকী হেলাম

...........................
Every Picture Tells a Story

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

আপনি তো প্রশংসার জন্য বাংলায় নতুন বিশেষণ চালু করতে যাচ্ছেন মনে হচ্ছে।
তবে প্রশংসা দিয়ে থামাতে পারবেন না।
আমার আপাতত: লক্ষ্য প্রকৃতিপ্রেমিক হওয়া।
তারপর মুস্তাফিজ হবো।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

হাসিব এর ছবি

জিনিসটার নাম আছিলো জ্যোতি হিমেল পাউডার । সাইদাবাদি হুজুরের স্বপ্নে পাওয়া ফর্মুলায় প্রস্তুত ।
মন্ত্রী ছাড়াও ছিলো জিনাত রহমান । তিনি তখন লেজেহোমোর দয়ায় ব্যাপক ফর্মে ।

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

হাসিব তো দেখি রীতিমত এনসাইক্লোপেডিয়া অব এরশাদ রিজাইম।
নামটা মনে ছিল না।
আমি অবশ্য হুলা হুলা আইস (বা কুল) পাউডারটা বাসায় কাউকে কাউকে ব্যবহার করতে দেখেছি। সেজন্য ঐ নামটা মনে আছে। কৌটার ডিজাইন মনে আছে - সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডের সামনে খেজুর গাছ দিয়ে সি-বিচের মত একটা গ্রাফিকস্ ।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

মুস্তাফিজ এর ছবি

জ্যোতি হিমেল পাউডার

কমেন্টস এ পাঁচ তারা

...........................
Every Picture Tells a Story

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

ঠিক বলছেন পাঁচ তারা।
হাসিব কনফার্ম কিনছিলো এই জিনিস।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

মৃদুল আহমেদ এর ছবি

গম ক্ষেতের দৃশ্যটায় বাংলাদেশের ধানক্ষেতের দৃশ্য মনে পড়ে গেল।
আহ! শরৎকালের শেষদিকে ধানক্ষেতের সামনে অপার দিগন্তের দিকে মুখ করে দাঁড়িয়ে থাকা... যন্ত্রণাদায়ক স্মৃতি!
ছবি সুন্দর হয়েছে। হাসি
--------------------------------------------------------
বুদ্ধিমানেরা তর্ক করে, প্রতিভাবানেরা এগিয়ে যায়...

--------------------------------------------------------------------------------------------
বললুম, 'আমার মনের সব কপাট খোলা ভোজরাজজী। আমি হাঁচি-টিকটিকি-ভূত-প্রেত-দত্যি-দানো-বেদবেদান্ত-আইনস্টাইন-ফাইনস্টাইন সব মানি!'

অতন্দ্র প্রহরী এর ছবি

অসাধারণ ছবি! বিশেষ করে প্রথমটা। খুবই ভালো লাগল। বড় হয়ে যা যা হতে চাই, সেই তালিকায় আপনিও উঠে গেলেন হাসি

শ্রেয়া-শ্রেষ্ঠার জন্য রইল অনেক আদর। হাসি

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

টার্গেট উঁচা করেন।
কয়দিন পর পর খালে বড় হইতে ভালো লাগবে না।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

তানবীরা এর ছবি

ল্যাভেন্ডার দেখতে আসবোওওওওওও। ভাইজান, সীজন কি এই সময় ?
---------------------------------------------------------
রাত্রে যদি সূর্যশোকে ঝরে অশ্রুধারা
সূর্য নাহি ফেরে শুধু ব্যর্থ হয় তারা

*******************************************
পদে পদে ভুলভ্রান্তি অথচ জীবন তারচেয়ে বড় ঢের ঢের বড়

শোহেইল মতাহির চৌধুরী এর ছবি

হুমম, সিজন এই শেষ হচ্ছে বা হয়ে গেল।
-----------------------------------------------
সচল থাকুন... ...সচল রাখুন

-----------------------------------------------
মানুষ যদি উভলিঙ্গ প্রাণী হতো, তবে তার কবিতা লেখবার দরকার হতো না

আশা এর ছবি

অনেক অনেক্কক্ক সুন্দর সুন্দর ছবি । অসাধারণ ! সবছেয়ে সুন্দর ছবি হলো স্রেয়া স্রেশঠার ছবি !

এনকিদু এর ছবি

পুলাপাইনের ছবিটা সবার সেরা হইছে । এই কথা আমি কইবার চাইছিলাম, আমার আগেই আশা কইয়া দিল !

ঐ প্রানীটা মথ । দেখেন না, কেমন ভোটকা শরীর তাতে আবার লোম আছে ।
মথ আর প্রজাপতি আলাদা করার সহজ উপায় হল, মথ বসে ডানা ছড়িয়ে আর প্রজাপতি বসে ডানা গুটিয়ে ।


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...


অনেক দূরে যাব
যেখানে আকাশ লাল, মাটিটা ধূসর নীল ...

দুর্দান্ত এর ছবি

তাই নাকি? আমি তো শুঞ্ছিলাম মথ নিশাচর।

কল্যাণ এর ছবি

চলুক

______________
আমার নামের মধ্যে ১৩

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।