আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি

সন্দেশ এর ছবি
লিখেছেন সন্দেশ (তারিখ: সোম, ২০/০২/২০১২ - ১১:২৩অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

শহীদ দিবস, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের গান।

সচল নিঘাত তিথি, কনফুসিয়াস ও হিমু গানটির প্রথমাংশ ধারণ করে আমাদের কাছে পাঠিয়েছেন।

ছয় দশক আগে মাতৃভাষার জন্যে বন্দুকের সামনে বুক পেতে দেয়া বীর মানুষগুলোর প্রতি আমাদের আভূমিনত শ্রদ্ধা জানাই। কামনা করি, তাঁদের সেই সাহস, অনমনীয় সংকল্প আমাদের সবার মাঝে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে সঞ্চারিত হোক।

যে ভাষার জন্যে আমরা রক্ত দিয়েছি, সে ভাষাকে আমরা রক্তাক্ত হতে দেখতে চাই না, দেখতে চাই না তার রক্তশূন্যতাও।

আ-মরি বাংলা ভাষা।


মন্তব্য

সচল জাহিদ এর ছবি

চলুক

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে এই ভিডিও প্রেজেন্টেশনটা বানিয়েছিলাম গত বছর। এখানে শেয়ার করছিঃ

একুশে ফেব্রুয়ারীতে আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো গানটির শুধু শুরুর কয়েকটি লাইন গাওয়া হয় ( অস্থায়ীটা)। একবার আমরা চেষ্টা করেছিলাম প্রথম অন্তরাটি গাইতে। মুল অনুষ্ঠানের ভিডিওটা নেই তবে রিহার্সেলের ভিডিওটা আছে। নিচে শেয়ার করছিঃ


এ বিশ্বকে এ শিশুর বাসযোগ্য করে যাব আমি, নবজাতকের কাছে এ আমার দৃঢ় অঙ্গীকার।
বিশ্ব পানি দিবসব্যক্তিগত ব্লগ। কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ অভ্র।

তানভীর এর ছবি

চলুক

যাযাবর এর ছবি

চলুক

রায়হান আবীর এর ছবি

আবেগে ইমোশোনালিত হইলাম। ধন্যবাদ তিথি আপু, কনফু ভাই, হিমু ভাই।

সবুজ পাহাড়ের রাজা এর ছবি

ছয় দশক আগে মাতৃভাষার জন্যে বন্দুকের সামনে বুক পেতে দেয়া বীর মানুষগুলোর প্রতি আমাদের আভূমিনত শ্রদ্ধা জানাই। কামনা করি, তাঁদের সেই সাহস, অনমনীয় সংকল্প আমাদের সবার মাঝে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে সঞ্চারিত হোক।

চলুক

সচল নিঘাত তিথি, কনফুসিয়াস ও হিমু ভাইকে ধন্যবাদ।

কাজি মামুন (অতিথি লেখক) এর ছবি

''আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙ্গানো'' পুরো ফেব্রুয়ারি মাস জুড়েই অনুরনিত হতে থাকে মনের বন্দরে; ছোটবেলায় একা একাই গাইতাম বেসুরো গলায়; এর আবেদন আজও ফুরায়নি এতটুকু; একুশের রাতে রক্তের ভিতর প্রবল আন্দোলন অনুভব করি এখনো; আমাদের অনেক কিছুই নেই; কিন্তু আমাদের একুশ আছে। আমরা বিশ্বের বুকে অতটা ধনী দেশ নই; কিন্তু সংস্কৃতিতে, ত্যাগে, সংগ্রামে আমরা ধনী। আমাদের ২৬ শে মার্চ, ১৬ই ডিসেম্বর, পহেলা বৈশাখ, একুশে ফেব্রুয়ারী আমাদের এক একটা স্বর্ণ-পালক।
তিথি, কনফুসিয়াস আর হিমু ভাইকে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি এমন অসাধারণ একটি উপহার দেয়ার জন্য একুশের রাতে। সাথে ধন্যবাদ পুরো সচল পরিবারকে!

সংবাদিকা এর ছবি

আমার একটা প্রশ্ন - বাংলা ভাষার তরে আন্দোলনের জন্য স্মরনীয় দিনটি আমরা পালন করি ইউরোপীয় গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার ২১ শে ফেব্রুয়ারী ১৯৫২ অনুযায়ী , বাংলা বঙ্গাব্দ ৮ ই ফাল্গুন ১৩৫৯ অনুযায়ী নয় এর কারন কি ????????

প্রৌঢ় ভাবনা এর ছবি

চমৎকার একটি কাজ !

তাপস শর্মা এর ছবি

ভাষাকে সালাম।

তানভীর এর ছবি

চলুক

শ্রদ্ধা

চরম উদাস এর ছবি

চলুক

তানিম এহসান এর ছবি

প্রবাসে বসে যে গাঢ় মমতায় বর্ণমালার এই গানটা গাওয়া হলো, সেই আবেগকে শ্রদ্ধা।

যে ভাষার জন্যে আমরা রক্ত দিয়েছি, সে ভাষাকে আমরা রক্তাক্ত হতে দেখতে চাই না, দেখতে চাই না তার রক্তশূন্যতাও ...... সহমত।

রণদীপম বসু এর ছবি

অভিনন্দন !

-------------------------------------------
‘চিন্তারাজিকে লুকিয়ে রাখার মধ্যে কোন মাহাত্ম্য নেই।’

যাযাবর এর ছবি

শ্রদ্ধা

রু (অতিথি)  এর ছবি

শুনতে পারলাম না। 'প্লে' বোতামে চাপ দিলেই 'লোডিং এড' বলে বসায় রাখে। তবে এমন উদ্যোগকে যারা নিয়েছেন তাদের প্রতি প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

হিমু এর ছবি

এখন আবার চেষ্টা করে দেখুন। ধন্যবাদ।

রু (অতিথি)  এর ছবি

আপনাকেও ধন্যবাদ।

তারেক অণু এর ছবি

বাংলা ভাষার সেরা গান। সেই সাথে আমাদের চেতনার ধারক, বাহক।

পরিবর্তনশীল এর ছবি

চলুক

মাহমুদ.জেনেভা এর ছবি

এক কথায় অসাধারণ!

নিটোল এর ছবি

হাততালি

_________________
[খোমাখাতা]

ধূসর জলছবি এর ছবি

এই গানটা ছোটবেলা থেকেই আমার সবচেয়ে প্রিয় গান। গানটা শুনলে মন খারাপ হয় কিন্তু সেই মন খারাপ হওয়াটাও ভাল লাগার। চলুক খুব ভাল লাগল। ধন্যবাদ তিথি, হিমু, কনফুসিয়াস কে ।

প্রদীপ্তময় সাহা এর ছবি

গুরু গুরু

অনেক অনেক ধন্যবাদ ।

সৃষ্টিছাড়া  এর ছবি

তিথি, হিমু, কনফুসিয়াস কে অনেক ধন্যবাদ! গানটা শুনলে কেমন যেন তীব্র একটা অনুভূতি হয়, ঠিক বোঝানো যাবেনা! এত দাম দিয়ে কি কেউ ভাষা আর দেশ পেয়েছে?

ঝরাপাতা এর ছবি

অসাধারণ‌ লাগলো।


বিকিয়ে যাওয়া মানুষ তুমি, আসল মানুষ চিনে নাও
আসল মানুষ ধরবে সে হাত, যদি হাত বাড়িয়ে দাও।

মরুদ্যান এর ছবি

চমৎকার!

সাত্যকি. এর ছবি

খুব সুন্দর। খুব খুব সুন্দর।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।